বাংলাদেশ ০৫:২৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

ভালুকায় এতিম শিশুদের জমি জুরপূর্বক জবরদখলের অভিযোগ

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৪:৩৪:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ মার্চ ২০২২
  • ১৬৯০ বার পড়া হয়েছে

ভালুকায় এতিম শিশুদের জমি জুরপূর্বক জবরদখলের অভিযোগ

ভালুকা প্রতিনিধিঃ- 
ময়মনসিংহের ভালুকায় এতিম শিশুদের জমি জুরপূর্বক জবর দখলের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রাজৈ ইউনিয়নের বীর পারুলদিয়া এলাকায়। সড়েজমিন ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বীর পারুলদিয়া গ্রামের মৃত ইব্রাহীম মীর ১৯৬৪ সালে বীর পারুলদিয়া মৌজার সাবেক দাগ ০৩ হাল-৬৯ নং দাগ হইতে ১০.৫০ শতক জমি ক্রয় করেন। পরে তিনি সেখান থেকে মৌখিক চুক্তিতে জনৈক আবুল হুসেনের কাছে ২.৫০ শতক জমি বিক্রয় করেন। (যা অদ্যাবধি সাব কবলা দলিল মুলে রেজিস্ট্রি হয়নি) বাকী ৮ শতক জমি তার চার ছেলে ভুগ দখল করে আসছিলো। কিন্তু তাদের মধ্যে দুই ভাই ছোট ছোট শিশু রেখে মৃত্যু বরন করেন। তাদের রেখে যাওয়া এতিম শিশুদের অধিকার ঐ জমিটি জবর দখলের পায়তারা করে আসছে একটি চক্র। বিআরএস মাঠ জরিপের ৪২নং খতিয়ানে ৮ শতক জমি মৃত ইব্রাহীম মীরের নামে লিপিবদ্ধ হয়।
পরবর্তিতে আবুল হোসেন প্রতিবেশি মৃত আব্দুল জব্বার খানের ছেলে জালাল উদ্দিন খানের কাছে তার ক্রয়কৃত ২.৫০ শতক জমি বিক্রি করে চলে যান। কিন্তু কিছুদিন যাবৎ জালাল উদ্দিন খান ও তার দুই ছেলে জাহাঙ্গির খান এবং আলমগীর খান বাকী ৮ শতক জমিতে মাটি ভরাটসহ টিনের বেড়া দিয়ে জবর দখলের পায়তারা করে আসছে। এঘটনায় মৃত ইব্রাহীম মীরের বড় ছেলে ছোবহান মীর বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সাব ইন্সপেক্টর করিম বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছি এবং কাজ বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছি এবং দুই পক্ষকেই কাগজ নিয়ে থানায় আসতে বলেছি।
কাগজ দেখে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ছোবহান মীর বলেন, আমার বাবা আবুল হোসেনের কাছে ২.৫০ শতক জমি বিক্রি করেছিলো পরে হোসেন জালালের কাছে বিক্রি করে দেয় কিন্তু এখন তারা ১০.৫০ শতক জমি জবর দখলের চেষ্টা করছে। এদিকে অভিযোক্ত জালাল উদ্দিন খান বলেন আমরা জমিটি মৌখিক ভাবে ক্রয় করেছিলাম কাগজ করিনি। ছোবহান মীরের চাচাত ভাই বিদ্যুৎ মীরের প্ররোচনাতে সোবহান মীর উদ্দশ্য প্রনোদিত ভাবে এখানে গন্ডগোল সৃষ্টির চেষ্টা করছে। আমরা বিদ্যুৎ মিরের  বিরুদ্ধে নির্বাচন করায় সে প্রতিহিংসা বসত এগুলা করছে।
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

ভালুকায় এতিম শিশুদের জমি জুরপূর্বক জবরদখলের অভিযোগ

আপডেট সময় ০৪:৩৪:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ মার্চ ২০২২
ভালুকা প্রতিনিধিঃ- 
ময়মনসিংহের ভালুকায় এতিম শিশুদের জমি জুরপূর্বক জবর দখলের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রাজৈ ইউনিয়নের বীর পারুলদিয়া এলাকায়। সড়েজমিন ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বীর পারুলদিয়া গ্রামের মৃত ইব্রাহীম মীর ১৯৬৪ সালে বীর পারুলদিয়া মৌজার সাবেক দাগ ০৩ হাল-৬৯ নং দাগ হইতে ১০.৫০ শতক জমি ক্রয় করেন। পরে তিনি সেখান থেকে মৌখিক চুক্তিতে জনৈক আবুল হুসেনের কাছে ২.৫০ শতক জমি বিক্রয় করেন। (যা অদ্যাবধি সাব কবলা দলিল মুলে রেজিস্ট্রি হয়নি) বাকী ৮ শতক জমি তার চার ছেলে ভুগ দখল করে আসছিলো। কিন্তু তাদের মধ্যে দুই ভাই ছোট ছোট শিশু রেখে মৃত্যু বরন করেন। তাদের রেখে যাওয়া এতিম শিশুদের অধিকার ঐ জমিটি জবর দখলের পায়তারা করে আসছে একটি চক্র। বিআরএস মাঠ জরিপের ৪২নং খতিয়ানে ৮ শতক জমি মৃত ইব্রাহীম মীরের নামে লিপিবদ্ধ হয়।
পরবর্তিতে আবুল হোসেন প্রতিবেশি মৃত আব্দুল জব্বার খানের ছেলে জালাল উদ্দিন খানের কাছে তার ক্রয়কৃত ২.৫০ শতক জমি বিক্রি করে চলে যান। কিন্তু কিছুদিন যাবৎ জালাল উদ্দিন খান ও তার দুই ছেলে জাহাঙ্গির খান এবং আলমগীর খান বাকী ৮ শতক জমিতে মাটি ভরাটসহ টিনের বেড়া দিয়ে জবর দখলের পায়তারা করে আসছে। এঘটনায় মৃত ইব্রাহীম মীরের বড় ছেলে ছোবহান মীর বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সাব ইন্সপেক্টর করিম বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছি এবং কাজ বন্ধ করতে নির্দেশ দিয়েছি এবং দুই পক্ষকেই কাগজ নিয়ে থানায় আসতে বলেছি।
কাগজ দেখে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ছোবহান মীর বলেন, আমার বাবা আবুল হোসেনের কাছে ২.৫০ শতক জমি বিক্রি করেছিলো পরে হোসেন জালালের কাছে বিক্রি করে দেয় কিন্তু এখন তারা ১০.৫০ শতক জমি জবর দখলের চেষ্টা করছে। এদিকে অভিযোক্ত জালাল উদ্দিন খান বলেন আমরা জমিটি মৌখিক ভাবে ক্রয় করেছিলাম কাগজ করিনি। ছোবহান মীরের চাচাত ভাই বিদ্যুৎ মীরের প্ররোচনাতে সোবহান মীর উদ্দশ্য প্রনোদিত ভাবে এখানে গন্ডগোল সৃষ্টির চেষ্টা করছে। আমরা বিদ্যুৎ মিরের  বিরুদ্ধে নির্বাচন করায় সে প্রতিহিংসা বসত এগুলা করছে।