বাংলাদেশ ১২:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
রাজশাহী মহানগরীতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাই! দুই ভুয়া ডিবি গ্রেফতার পটুয়াখালী মহিপুর ইয়াবাসহ একজন গ্রেফতার। চন্দ্রকোনায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল এক ব্যতিক্রমী চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা। আজ শেরপুর জেলার জন্মদিন অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ অভিযান শুরু মুহম্মদ ফয়সল আকন্দের ‘চন্দ্রপুর’ গ্রন্থের পাঠ উন্মোচন সভা অনুষ্ঠিত  বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অনেক কিছু করেছে : আমু মতলব ব্রহ্মানন্দ যোগাশ্রমে শ্রী শ্রী বিশ্ব শান্তি গীতা যজ্ঞ ও সনাতন ধর্ম সম্মেলন ২৪ ফেব্রুয়ারী রাজশাহীতে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজের ডিজিটাল বুথের উদ্বোধন রাজশাহী পুলিশ লাইন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত জবিতে শুরু হচ্ছে ৬ দিন ব্যাপি সিনেশো ব্যরিস্টার শাহজাহান ওমরের বিকল্পে জামালকে মূল্যায়ন পিরোজপুরের নেছারাবাদে দুই দিনে পাগলা কুকুরের কামড়ে নারী শিশু, বৃদ্ধসহ ১৭ জন আহত নলছিটি বন্দর স্কুলের নতুন ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন আমির হোসেন আমু বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হলেন রফিকুল ইসলাম জামাল 

গৌরীপুরে ডি.কে বি কিন্ডারগার্টেনে তালা লাগিয়ে দেয়ায় সংবাদ সম্মেলন

গৌরীপুরে ডি.কে বি কিন্ডারগার্টেনে তালা লাগিয়ে দেয়ায় সংবাদ সম্মেলন

 

ওবায়দুর রহমান, উপজেলা প্রতিনিধি, গৌরীপুর, ময়মনসিংহ। 

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তালা লাগিয়ে দেয়ার অভিযোগ সংবাদ সম্মেলন করেছেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক। রবিবার (২০ মার্চ) দুপুরে গৌরীপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ডি.কে.বি কিন্ডার গার্টেনের পরিচালক মো. শাহজাহান কবির হিরা।

 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কিন্ডার গার্টেনের পরিচালক বলেন, পঞ্চাশ হাজার টাকা জামানত দিয়ে ২০১৭ সালে পৌর এলাকার পূর্ব দাপুনিয়া মহল্লায় জুলহাস উদ্দিন রতনের দু’ তলা বাড়ির দ্বিতীয় তলার চারটি কক্ষ ভাড়া নেয়া হয়। মাসিক পাঁচ হাজার টাকা ভাড়া নির্ধারণ করে ডি.কে বি কিন্ডারগার্টেন নামে স্কুল চালু করেন তিনি। করোনাকালীন লকডাউনের সময় সরকারি নির্দেশনায় বিদ্যালয়টি বন্ধ রাখা হয়। এসময়ে মধ্যে বাড়ির মালিক মাসিক দুই হাজার টাকা ভাড়া বৃদ্ধির নোটিশ দেন। এতে উভয় পক্ষের মাঝে বিরোধ দেখা দেয়। এর জেরে বাড়ির মালিক জুলহাস উদ্দিন রতন স্কুলে তালা লাগিয়ে দেন।

 

বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানালে উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিশ বৈঠক করেন তাঁরা। দীর্ঘ আলোচনার পরও বিষয়টি সুরাহা না হওয়ায় স্কুল পড়ুয়া প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। উদ্ধিগ্ন হয়ে পড়েছেন অভিভাবকরা।

তিনি আরো বলেন, মৌখিক চুক্তিতে মাসিক পাঁচ হাজার টাকা ভাড়ায় পাঁচ বছর মেয়াদে বাড়িটি ভাড়া নিয়ে স্কুল চালু করেছিলাম। করোনার সময় কয়েক মাসের ভাড়া বকেয়া থাকায় বাড়ির মালিক স্কুলে তালা লাগিয়ে দিয়েছেন।

 

এ ঘটনায় স্থানীয় সাংসদ, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দায়ের করার পরও বিষয়টির নিষ্পত্তি হয়নি। বাড়ির মালিক জুলহাস উদ্দিন রতন বলেন, বিদ্যালয়ের মালামাল সরিয়ে ফেলা হয়েছে এবং বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য স্থানীয় কাউন্সিলরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় কাউন্সিলর জিয়াউর রহমান জিয়া জানান, মালামাল সরিয়ে ফেলার বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না। আর বিষয়টি মীমাংসার জন্য দু’পক্ষকে একত্র করে চেষ্টা করেছি।

জনপ্রিয় সংবাদ

রাজশাহী মহানগরীতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাই! দুই ভুয়া ডিবি গ্রেফতার

গৌরীপুরে ডি.কে বি কিন্ডারগার্টেনে তালা লাগিয়ে দেয়ায় সংবাদ সম্মেলন

আপডেট সময় ০২:১১:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ মার্চ ২০২২

 

ওবায়দুর রহমান, উপজেলা প্রতিনিধি, গৌরীপুর, ময়মনসিংহ। 

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তালা লাগিয়ে দেয়ার অভিযোগ সংবাদ সম্মেলন করেছেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক। রবিবার (২০ মার্চ) দুপুরে গৌরীপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ডি.কে.বি কিন্ডার গার্টেনের পরিচালক মো. শাহজাহান কবির হিরা।

 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কিন্ডার গার্টেনের পরিচালক বলেন, পঞ্চাশ হাজার টাকা জামানত দিয়ে ২০১৭ সালে পৌর এলাকার পূর্ব দাপুনিয়া মহল্লায় জুলহাস উদ্দিন রতনের দু’ তলা বাড়ির দ্বিতীয় তলার চারটি কক্ষ ভাড়া নেয়া হয়। মাসিক পাঁচ হাজার টাকা ভাড়া নির্ধারণ করে ডি.কে বি কিন্ডারগার্টেন নামে স্কুল চালু করেন তিনি। করোনাকালীন লকডাউনের সময় সরকারি নির্দেশনায় বিদ্যালয়টি বন্ধ রাখা হয়। এসময়ে মধ্যে বাড়ির মালিক মাসিক দুই হাজার টাকা ভাড়া বৃদ্ধির নোটিশ দেন। এতে উভয় পক্ষের মাঝে বিরোধ দেখা দেয়। এর জেরে বাড়ির মালিক জুলহাস উদ্দিন রতন স্কুলে তালা লাগিয়ে দেন।

 

বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জানালে উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিশ বৈঠক করেন তাঁরা। দীর্ঘ আলোচনার পরও বিষয়টি সুরাহা না হওয়ায় স্কুল পড়ুয়া প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। উদ্ধিগ্ন হয়ে পড়েছেন অভিভাবকরা।

তিনি আরো বলেন, মৌখিক চুক্তিতে মাসিক পাঁচ হাজার টাকা ভাড়ায় পাঁচ বছর মেয়াদে বাড়িটি ভাড়া নিয়ে স্কুল চালু করেছিলাম। করোনার সময় কয়েক মাসের ভাড়া বকেয়া থাকায় বাড়ির মালিক স্কুলে তালা লাগিয়ে দিয়েছেন।

 

এ ঘটনায় স্থানীয় সাংসদ, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে অভিযোগ দায়ের করার পরও বিষয়টির নিষ্পত্তি হয়নি। বাড়ির মালিক জুলহাস উদ্দিন রতন বলেন, বিদ্যালয়ের মালামাল সরিয়ে ফেলা হয়েছে এবং বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য স্থানীয় কাউন্সিলরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় কাউন্সিলর জিয়াউর রহমান জিয়া জানান, মালামাল সরিয়ে ফেলার বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না। আর বিষয়টি মীমাংসার জন্য দু’পক্ষকে একত্র করে চেষ্টা করেছি।