বাংলাদেশ ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রিয় নেতা এহসাম হাওলাদার শাহজাদপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অটোরিক্সা চালকের মৃত্যু পঞ্চগড়ে নিখোঁজের একদিন পর পকুরে মিললো কলেজ ছাত্রীর লাশ ভান্ডারিয়ায় ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্থ ৩ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন সমাজ সেবক মিঠু মিয়া বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। বুড়িচং ফজলুর রহমান মেমোরিয়াল কলেজ অব টেকনোলজির শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মাদক সাপ্লাইয়ের অভিযোগ  পেকুয়ায় ইভটিজিংয়ের দায়ে ২ জনকে কারাদণ্ড পীরগঞ্জ মহিলা কলেজে মেহেদী উৎসব অনুষ্ঠিত। পীরগঞ্জে ডিজিটাল প্রযুক্তি ও জীবন জীবীকা বিষয়ক প্রশিক্ষণ চলছে পাঠক শূন্য রাজশাহীর পুঠিয়ার সাধারণ পাঠাগার হত্যা মামলার পলাতক অন্যতম আসামী নুরুলকে র‍্যাব কর্তৃক গ্রেফতার। রাজশাহীর পুঠিয়ায় যাবজ্জাীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার কলাপাড়ায় জেলেদের জালে শিকার হলো জীবিত এক ডলফিন। দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত রাজশাহী মহানগরীতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেপ্তার

ওসমানীনগরে প্রবসীর স্ত্রীরীর সংবাদ সম্মেলন 

  • জুিতু আহমদ
  • আপডেট সময় ১১:৫৫:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ মার্চ ২০২২
  • ১৭২০ বার পড়া হয়েছে

ওসমানীনগরে প্রবসীর স্ত্রীরীর সংবাদ সম্মেলন 

ওসমানীনগর প্রতিনিধি::
সম্পদ ও সম্ভ্রম না দেয়ায় একঘরে করা হয়েছে একটি অসহায় পরিবারকে। সন্তানদের মসজিদ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ রাস্তাঘাটে চলাচল না করতেও পঞ্চায়েতের প্রভাবশালী কতিপয় নেতারা নির্দেশ দিয়েছেন অসহায় এই পরিবারকে।
নিজের বসতভিটা সৎ দেবর শাহাবুদ্দিন ও শফিকদের না দেয়ার কারণে নানা নির্যাতনের পর গ্রাম্য মাতব্বরদের নিয়ে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে নির্যাতিতা গৃহবধূ মনোয়ারা বেগমের পরিবারের সাথে। বর্তমানে ৪ সন্তান নিয়ে গৃহবন্দী হিসেবে দিন যাপন করছেন এই পরিবারটি। শুধু তাই নয় নিজের সম্ভ্রম ও সম্পদ রক্ষা করতে আদালতে মামলা করায় চরম বিপাকে পড়েছেন গৃহবধূ মনোয়ারা।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলা অনলাইন প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেছেন তাজপুর ইউনিয়নের আইলাকান্দি গ্রামের আমির উদ্দিনের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো জানান, তার স্বামী গত ৭ বছর ধরে মধ্যপ্রাচ্যে বৈধ ভিসা না থাকায় দেশে আসতে পারছেন না। এ সুযোগে একমাত্র সম্পদ বসত ভিটা দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে সৎ দেবররা। এছাড়া তাকে কু প্রস্তাবের  দিলে তিনি তাতে রাজি না হলে দেবর শাহাবুদ্দিন মনোয়ারা বেগমের ছেলে রেদুয়ান হোসেন রনিকে মারপিট করে। এছাড়া সৎ দেবর শাহাব উদ্দিন গত ১৯ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে মনোয়ারা ঘরের দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে মনোয়ারা সাথে অনৈতিক আচরণ ও মারপিট করে।
এ সময় তার ঘর থেকে নগদ ৩০ হাজার টাকা ও আধা ভরি স্বর্ণ নিয়ে যায়। এ বিয়য়ে গত ২০ ফেব্রুয়ারি সিলেট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন মনোয়ারা। এর পর থেকে আরো মরিয়া হয়ে উঠে শাহাবুদ্দিন। ১৩ মার্চ ডিবি পুলিশ মামলা তদন্ত হওয়ার পর গ্রাম পাঞ্চায়েতের কিছু লোকজন সমস্যা মিমাংসার জন্য রাত ১০ টার দিকে মনোয়ারাকে ডাকলে তিনি উপস্থিত হন।
গ্রাম্য সালিশ ডেকে সৎদেবর শাহাবুদ্দিন, শফিক মিয়া ও গ্রামের প্রভাবশালী লিম্বর মিয়া, আব্দুল আহাদ, ছমির মিয়া, লিটন মিয়া, আব্দুল আজিজ, হান্নান মিয়া, সমুজ মিয়ারা ৫০ হাজার টাকা অগ্রীম জমা রাখার নির্দেশ প্রদান করেন মনোয়ারাকে। এতে তিনি অপারগতা প্রকাশ করলে তারা তাকে একঘরে (সমাজচ্যুত) করে দেয়া হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। থানা পুলিশের দারস্থ হওয়ায় বর্তমানে মনোয়ারা বেগমের পরিবার শাহাব উদ্দিন গংদের ভয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন। তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপ¯িত’ ছিলেন তার চার সন্তান, রেদওয়ান হোসেন রনি (১৩), রকিব হোসেন (৬), শাখাওয়াত হোসেন রাব্বি (১০) ও সোনিয়া আক্তার মুন্নি (১৭)।
আইলাকান্দি জামে মসজিদের সাবেক মোতাওয়াল্লি হান্নান মিয়া বলেন, আমরা মনোয়ারা বেগমকে একঘরে করিনি। তিনি পঞ্চায়েতের বিচারের ফি দিতে অস্বীকার করায় এবং বিচার না মানায় আমরা পঞ্চায়েতের লোকজন মনোয়ার কোনো বিষয়ে যাবনা বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত শুক্রবারে মসজিদে দেয়া মনোয়ারা বেগমের শিরনি ফেরত দেয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, পঞ্চায়েতের অনেকে তার শিরনি খাবেনা বলায় তিনি রাগ করে অন্য মসজিদের শিরনি নিয়ে গেছেন।
মনোয়ারা বেগমের সৎ দেবর শাহাবুদ্দিনের ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বারে একাধিকবার ফোন করলেও তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। মনোয়ারা বেগমের মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিলেট ডিবি পুলিশের এসআই নিরঞ্জন বলেন, মনোয়ারা বেগমকে পুনরায় তার দেবররা নির্যাতন করছে বলে আমার নিকট অভিযোগ করেছেন। এর প্রেক্ষিতে গত সোমবার আমি আইলাকান্দি গিয়ে বিষয়টি তদন্ত করেছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রিয় নেতা এহসাম হাওলাদার

ওসমানীনগরে প্রবসীর স্ত্রীরীর সংবাদ সম্মেলন 

আপডেট সময় ১১:৫৫:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ মার্চ ২০২২
ওসমানীনগর প্রতিনিধি::
সম্পদ ও সম্ভ্রম না দেয়ায় একঘরে করা হয়েছে একটি অসহায় পরিবারকে। সন্তানদের মসজিদ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ রাস্তাঘাটে চলাচল না করতেও পঞ্চায়েতের প্রভাবশালী কতিপয় নেতারা নির্দেশ দিয়েছেন অসহায় এই পরিবারকে।
নিজের বসতভিটা সৎ দেবর শাহাবুদ্দিন ও শফিকদের না দেয়ার কারণে নানা নির্যাতনের পর গ্রাম্য মাতব্বরদের নিয়ে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে নির্যাতিতা গৃহবধূ মনোয়ারা বেগমের পরিবারের সাথে। বর্তমানে ৪ সন্তান নিয়ে গৃহবন্দী হিসেবে দিন যাপন করছেন এই পরিবারটি। শুধু তাই নয় নিজের সম্ভ্রম ও সম্পদ রক্ষা করতে আদালতে মামলা করায় চরম বিপাকে পড়েছেন গৃহবধূ মনোয়ারা।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলা অনলাইন প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেছেন তাজপুর ইউনিয়নের আইলাকান্দি গ্রামের আমির উদ্দিনের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো জানান, তার স্বামী গত ৭ বছর ধরে মধ্যপ্রাচ্যে বৈধ ভিসা না থাকায় দেশে আসতে পারছেন না। এ সুযোগে একমাত্র সম্পদ বসত ভিটা দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে সৎ দেবররা। এছাড়া তাকে কু প্রস্তাবের  দিলে তিনি তাতে রাজি না হলে দেবর শাহাবুদ্দিন মনোয়ারা বেগমের ছেলে রেদুয়ান হোসেন রনিকে মারপিট করে। এছাড়া সৎ দেবর শাহাব উদ্দিন গত ১৯ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে মনোয়ারা ঘরের দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে মনোয়ারা সাথে অনৈতিক আচরণ ও মারপিট করে।
এ সময় তার ঘর থেকে নগদ ৩০ হাজার টাকা ও আধা ভরি স্বর্ণ নিয়ে যায়। এ বিয়য়ে গত ২০ ফেব্রুয়ারি সিলেট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন মনোয়ারা। এর পর থেকে আরো মরিয়া হয়ে উঠে শাহাবুদ্দিন। ১৩ মার্চ ডিবি পুলিশ মামলা তদন্ত হওয়ার পর গ্রাম পাঞ্চায়েতের কিছু লোকজন সমস্যা মিমাংসার জন্য রাত ১০ টার দিকে মনোয়ারাকে ডাকলে তিনি উপস্থিত হন।
গ্রাম্য সালিশ ডেকে সৎদেবর শাহাবুদ্দিন, শফিক মিয়া ও গ্রামের প্রভাবশালী লিম্বর মিয়া, আব্দুল আহাদ, ছমির মিয়া, লিটন মিয়া, আব্দুল আজিজ, হান্নান মিয়া, সমুজ মিয়ারা ৫০ হাজার টাকা অগ্রীম জমা রাখার নির্দেশ প্রদান করেন মনোয়ারাকে। এতে তিনি অপারগতা প্রকাশ করলে তারা তাকে একঘরে (সমাজচ্যুত) করে দেয়া হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। থানা পুলিশের দারস্থ হওয়ায় বর্তমানে মনোয়ারা বেগমের পরিবার শাহাব উদ্দিন গংদের ভয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন। তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপ¯িত’ ছিলেন তার চার সন্তান, রেদওয়ান হোসেন রনি (১৩), রকিব হোসেন (৬), শাখাওয়াত হোসেন রাব্বি (১০) ও সোনিয়া আক্তার মুন্নি (১৭)।
আইলাকান্দি জামে মসজিদের সাবেক মোতাওয়াল্লি হান্নান মিয়া বলেন, আমরা মনোয়ারা বেগমকে একঘরে করিনি। তিনি পঞ্চায়েতের বিচারের ফি দিতে অস্বীকার করায় এবং বিচার না মানায় আমরা পঞ্চায়েতের লোকজন মনোয়ার কোনো বিষয়ে যাবনা বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত শুক্রবারে মসজিদে দেয়া মনোয়ারা বেগমের শিরনি ফেরত দেয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, পঞ্চায়েতের অনেকে তার শিরনি খাবেনা বলায় তিনি রাগ করে অন্য মসজিদের শিরনি নিয়ে গেছেন।
মনোয়ারা বেগমের সৎ দেবর শাহাবুদ্দিনের ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বারে একাধিকবার ফোন করলেও তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। মনোয়ারা বেগমের মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিলেট ডিবি পুলিশের এসআই নিরঞ্জন বলেন, মনোয়ারা বেগমকে পুনরায় তার দেবররা নির্যাতন করছে বলে আমার নিকট অভিযোগ করেছেন। এর প্রেক্ষিতে গত সোমবার আমি আইলাকান্দি গিয়ে বিষয়টি তদন্ত করেছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।