বাংলাদেশ ১০:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

ফুলবাড়ীতে প্রধান শিক্ষক কর্তৃক দপ্তরীকে মারধর। এলাকাবাসীর বিক্ষোভ।

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০১:৩০:২০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ১৬২২ বার পড়া হয়েছে

 

 

 

মোঃ হারুন-উর-রশীদ,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) থেকে:

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী চাঁদাপাড়া সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হক কর্তৃক দপ্তরী আসাদুল আলমকে মারধর করার অভিযোগে বিদ্যালয় চত্ত¡রে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ। দ্রæত সময়ের মধ্যে প্রধান শিক্ষককে প্রত্যাহারের দাবি করেন বিক্ষোভকরীরা। তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করলেন প্রধান শিক্ষক।

 

 

 

দপ্তরী আসাদুল আলম জাননা, আমি ১০ বছর যাবৎ এই বিদ্যালয়ে দপ্তরী হিসাবে কাজ করে আসছি। বর্তমান প্রধান শিক্ষক প্রথম দিন থেকে আমাকে সহ্য করতে পারেন না। যেকোন অজুহাতে সে আমার সাথে খারাপ আচরণ করে থাকে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এর প্রত্যয়ন ছাড়া আমাদের বেতন হয় না। প্রতি মাসে তার কাছে প্রত্যায়ন নিতে গেলে সে এখন না পরে। আজ না কাল বলে ঘুরায়। যার কারনে প্রতি মাসে আমি আমার বেতন তুলি মাসের শেষে।  আজ (৩ সেপ্টেম্বর) রবিবার সকাল ১১টায় বিদ্যায়ের প্রধান শিক্ষককের কাছে প্রত্যয়ন নিতে গেলে সে আগের মতো আচরণ খারাপ করেন। আমি বিষয়টি জানতে চাইলে সে উপস্থিত সহকারী শিক্ষকদের সামনে আমাকে হাত ও লাঠি দ্বারা বেধড় মারধর করেন।  এলাকার মানুষ জানতে পেরে শিক্ষকের অপসারণ ও শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেন।

 

 

 

এদিকে দপ্তরী আসাদুল আলমকে মারধরের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হক কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্য বলে দাবি করেন। তিনি আরোও বলেন সে আমার কাছে প্রত্যয়ন নিতে আসলে আমি তাকে দিয়ে দেই। অতঃপর সে আমার ঘাড়ে একটা থাপ্পড় মারে চলে যায়।

 

 

 

প্রধান শিক্ষক ও দপ্তরীর বিবাদের বিষয়ে বিদ্যালয়ে পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর মোঃ মখলেসুর রহমান বলেন, দপ্তরীকে মারপিট করা হয়েছে এবং বিদ্যালয়ের সামনে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ চলছে জানতে পেরে আমি ঘটনাস্থলে আসি এবং উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করি। শিক্ষা অফিসার ছুটিতে থাকায় সহকারী শিক্ষা অফিসার আতিকুর রহমান ঘটনাস্থলে আসে এবং সেখানে থাকা বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে বলেন যে, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোছাম্মৎ হাসিনা ভুইয়া উপস্থিত হয়ে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবেন এমন আশ^াস পেয়ে এলাকাবাসী ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এসময় ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাজেদুর রহমান,সাবেক কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম,চাঁদাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বাবু সুরঞ্জিত চন্দ্রসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপসস্থিত ছিলেন।

 

 

 

এদিকে প্রধান শিক্ষকের নামে কোন প্রকার সংবাদ প্রকাশ যাতে না হয়ে সে জন্য এক শিক্ষক কর্তৃক সাংবাদিকদের সাথে সমঝতা করার চেষ্টা করা হলে অধিকাংশ সাংবাদিক তা প্রত্যাখান করেন।

 

 

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

ফুলবাড়ীতে প্রধান শিক্ষক কর্তৃক দপ্তরীকে মারধর। এলাকাবাসীর বিক্ষোভ।

আপডেট সময় ০১:৩০:২০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

 

 

 

মোঃ হারুন-উর-রশীদ,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) থেকে:

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী চাঁদাপাড়া সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হক কর্তৃক দপ্তরী আসাদুল আলমকে মারধর করার অভিযোগে বিদ্যালয় চত্ত¡রে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ। দ্রæত সময়ের মধ্যে প্রধান শিক্ষককে প্রত্যাহারের দাবি করেন বিক্ষোভকরীরা। তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করলেন প্রধান শিক্ষক।

 

 

 

দপ্তরী আসাদুল আলম জাননা, আমি ১০ বছর যাবৎ এই বিদ্যালয়ে দপ্তরী হিসাবে কাজ করে আসছি। বর্তমান প্রধান শিক্ষক প্রথম দিন থেকে আমাকে সহ্য করতে পারেন না। যেকোন অজুহাতে সে আমার সাথে খারাপ আচরণ করে থাকে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এর প্রত্যয়ন ছাড়া আমাদের বেতন হয় না। প্রতি মাসে তার কাছে প্রত্যায়ন নিতে গেলে সে এখন না পরে। আজ না কাল বলে ঘুরায়। যার কারনে প্রতি মাসে আমি আমার বেতন তুলি মাসের শেষে।  আজ (৩ সেপ্টেম্বর) রবিবার সকাল ১১টায় বিদ্যায়ের প্রধান শিক্ষককের কাছে প্রত্যয়ন নিতে গেলে সে আগের মতো আচরণ খারাপ করেন। আমি বিষয়টি জানতে চাইলে সে উপস্থিত সহকারী শিক্ষকদের সামনে আমাকে হাত ও লাঠি দ্বারা বেধড় মারধর করেন।  এলাকার মানুষ জানতে পেরে শিক্ষকের অপসারণ ও শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করেন।

 

 

 

এদিকে দপ্তরী আসাদুল আলমকে মারধরের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হক কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্য বলে দাবি করেন। তিনি আরোও বলেন সে আমার কাছে প্রত্যয়ন নিতে আসলে আমি তাকে দিয়ে দেই। অতঃপর সে আমার ঘাড়ে একটা থাপ্পড় মারে চলে যায়।

 

 

 

প্রধান শিক্ষক ও দপ্তরীর বিবাদের বিষয়ে বিদ্যালয়ে পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর মোঃ মখলেসুর রহমান বলেন, দপ্তরীকে মারপিট করা হয়েছে এবং বিদ্যালয়ের সামনে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ চলছে জানতে পেরে আমি ঘটনাস্থলে আসি এবং উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করি। শিক্ষা অফিসার ছুটিতে থাকায় সহকারী শিক্ষা অফিসার আতিকুর রহমান ঘটনাস্থলে আসে এবং সেখানে থাকা বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে বলেন যে, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোছাম্মৎ হাসিনা ভুইয়া উপস্থিত হয়ে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবেন এমন আশ^াস পেয়ে এলাকাবাসী ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। এসময় ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাজেদুর রহমান,সাবেক কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম,চাঁদাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বাবু সুরঞ্জিত চন্দ্রসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপসস্থিত ছিলেন।

 

 

 

এদিকে প্রধান শিক্ষকের নামে কোন প্রকার সংবাদ প্রকাশ যাতে না হয়ে সে জন্য এক শিক্ষক কর্তৃক সাংবাদিকদের সাথে সমঝতা করার চেষ্টা করা হলে অধিকাংশ সাংবাদিক তা প্রত্যাখান করেন।