বাংলাদেশ ০২:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
প্রতিমন্ত্রী মো. মহিববুর রহমান এমপি’র বানী রামপুর মধ্যপাড়া মরহুম হাজী নিতু মন্ডল এর বাড়ির উদ্যোগে-৪র্থ বার্ষিক ওয়াজ ও দোয়ার মাহফিল। রাজশাহী মহানগরীতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাই! দুই ভুয়া ডিবি গ্রেফতার পটুয়াখালী মহিপুর ইয়াবাসহ একজন গ্রেফতার। চন্দ্রকোনায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল এক ব্যতিক্রমী চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা। আজ শেরপুর জেলার জন্মদিন অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ অভিযান শুরু মুহম্মদ ফয়সল আকন্দের ‘চন্দ্রপুর’ গ্রন্থের পাঠ উন্মোচন সভা অনুষ্ঠিত  বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অনেক কিছু করেছে : আমু মতলব ব্রহ্মানন্দ যোগাশ্রমে শ্রী শ্রী বিশ্ব শান্তি গীতা যজ্ঞ ও সনাতন ধর্ম সম্মেলন ২৪ ফেব্রুয়ারী রাজশাহীতে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজের ডিজিটাল বুথের উদ্বোধন রাজশাহী পুলিশ লাইন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত জবিতে শুরু হচ্ছে ৬ দিন ব্যাপি সিনেশো ব্যরিস্টার শাহজাহান ওমরের বিকল্পে জামালকে মূল্যায়ন পিরোজপুরের নেছারাবাদে দুই দিনে পাগলা কুকুরের কামড়ে নারী শিশু, বৃদ্ধসহ ১৭ জন আহত

কোম্পানীগঞ্জে ভিজিএফের কার্ড চাওয়ায় বৃদ্ধ নারীকে পেটানোর অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:০৫:১৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২ মে ২০২২
  • ১৭৮০ বার পড়া হয়েছে

কোম্পানীগঞ্জে ভিজিএফের কার্ড চাওয়ায় বৃদ্ধ নারীকে পেটানোর অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

 

 

 

নোয়াখালী প্রতিনিধি-

আমাদের সমাজে প্রতিপক্ষের মান সম্মান নষ্টো করার একমাত্র হাতিয়ার হলো নারী। আমরা নারীদের খুব সহজে বিশ্বাস করে থাকি, সেই দর্বলতার সুযোগে পুরুষরা ক্ষতিগ্রহস্ত হচ্ছে হারাচ্ছে মান সম্মান তার পিছনে কাজ করছে সমাজের কিছু সার্থ্যনেশি ষড়যন্তকারী তাদের সার্থ্যর জন্য অন্য ব্যক্তি মান সম্মান নষ্টো করে থাকে।

 

 

 

প্রতিবেদকের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে আসল রহস্য, ভিজিএফ কর্মসূচির চালের কার্ড চাওয়ায় এক বিধবা বৃদ্ধ নারীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত মাত্র, আর কিছুই না। রোকেয় বেগম অভিযোগকারীর বাড়ির আশে-পাশের লোকজনের কাছে খোজ-খবর নিয়ে জানা যায় যে ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের একটি পুকুর আছে অভিযোগকারী রোকেয় বেগম এর বাড়িতে রোকেয় বেগম সেই পুকুর থেকে মাটি কাটে ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটকে না জানিয়ে সে যখন জানতে চায় তুমি আমার পুকুর থেকে কেনো মাটি কাটছো আমাকে না জানিয়ে এই শুরু হয় দুজনার মাঝে কথা কাটা-কাটি ও অশ্লীল খারাপ ভাষা গালমন্দ। সমাজে শালিশ করে জাফর উল্লাহ রোকেয় বেগমকে পরার্মশ দেয় মেয়র কাদের মির্জা ও থানায় যেতে বলে জাফর উল্লাহ সাংবাদিকদের খবর দেয় সে নিজেই প্রতিবেদকের কাছে শিকার করেছেন এসব কথা, সে আরও বলেন আমি আর ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটকে নিয়ে কোনো কথা বলবো না, তারি সাথে রোকেয় বেগমকে বলেছি এ মিথ্যা বিষয় নিয়ে আর সামনে বাড়া-বাড়ি না করার জন্য।

 

 

 

 

 

পুলিশ তদন্ত অফিসার মোঃ রবিউল  হক বলেন আমি রোকেয় বেগম অভিযোগকারীর বাড়িতে যাই বাড়ির ও বাড়ির আশেপাশের লোকজনের কাছে খোজ-খবর নেই তারা জানান রোকেয় বেগম ও ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের মাঝে কথা কাটা-কাটি হয় অশ্লীল খারাপ ভাষায় দুইজনেই গাল-মন্দ করে, তাদের মাঝে কোনো মারা-মারি বা হাতা-হাতির ঘটনা ঘটেনি ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মাত্র। আর পিঠের যে দাগ দেখায় তা চিরোনী দিয়ে দাগ দিয়েছে।

 

 

বিভিন্ন সংবাদকর্মীদের যে মিথ্যা তথ্যদেয় রোকেয় বেগম ও জাফর উল্লাহ নিম্নরুপ তুলে ধরা হলোঃ-

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সরকারের ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং (ভিজিএফ) কর্মসূচির চালের কার্ড চাওয়ায় এক বিধবা বৃদ্ধ নারীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ব্যাপক তৎপরতা চালাচ্ছে প্রভাবশালী একটি মহল।

 

ভুক্তভোগী রোকেয়া বেগম (৬০) উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম মোহাম্মদ নগর গ্রামের ওয়াসি মিজি বাড়ির মৃত ইউনুসের স্ত্রী।

 

গতকাল শুক্রবার ২৮ এপ্রিল রাতে এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার নারী অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এর আগে একই দিন দুপুর ২টার দিকে উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম মোহাম্মদ নগর গ্রামের ওয়াসি মিজি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

 

 

ভুক্তভোগীর লিখিত অভিযোগে জানা যায়, নির্যাতনের শিকার বিধাব নারী রোকেয়া বেগম অতিবৃদ্ধ চলাফেরা করতে খুবই কষ্ট হয়। তাঁর কোন ছেলে সন্তান নেই। স্বামীর মৃত্যুর পর স্থানীয়দের সহযোগিতায় কোন রকম জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। শুক্রবার দুপুরের দিকে উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সম্রাট ওই নারীদের বাড়িতে তাঁর অনুসারী কয়েকটি পরিবারের মাঝে সরকার প্রদত্ত ভিজিএফের চালের কার্ড বিতরণ করতে যান। কার্ড বিতরণ করার সময় মেম্বারের কাছে রোকেয়া বেগম ভিজিএফের একটি কার্ড চাইলে তিনি তাকে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে। একপর্যায়ে বৃদ্ধ নারী তাকে গালমন্দ করতে নিষেধ করলে মেম্বার ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনাস্থলের পাশে থাকা লাঠি নিয়ে ওই নারীকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে।

 

 

 

রোকেয় বেগম অভিযোগ করে আরো বলেন, এরপর তাঁর শৌরচিৎকার শুনে বাড়ির লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। ওই সময় মেম্বার উপস্থিত লোকজনের সামনে তাকে হুমকি দিয়ে বলে এ ঘটনায় কোন বিচার বৈঠক বসালে আমাকে পুনরায় পেটানো হবে।

 

 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাট অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে দিয়ে বলেন ভিজিএফের কার্ড চাওয়ায় বৃদ্ধ নারীকে মারধর করেনি তবে গালমন্দ করেছেন।

 

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম মিজানুর রহমান বলেন এখন ভিজিএফ কার্ডের সময় নয়। তবে ভিজিএফের চালের কার্ড চাওয়ায় এক নারীকে মারধর করার অভিযোগ এনে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় এক নারী লিখিত অভিযোগ করেছেন। ওসি আরো জানায়, মাটি কাটা নিয়ে কোন সমস্যা হয়েছে। একজন আরেক জনকে গালিগালাজ করেছে। মারধারের ঘটনা সত্য না। বৃদ্ধ নারীর শরীরে আঘাতের বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি জানায় অন্য কোথাও আঘাত পেয়েছে ওই নারী। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

প্রতিমন্ত্রী মো. মহিববুর রহমান এমপি’র বানী

কোম্পানীগঞ্জে ভিজিএফের কার্ড চাওয়ায় বৃদ্ধ নারীকে পেটানোর অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র

আপডেট সময় ১০:০৫:১৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২ মে ২০২২

 

 

 

নোয়াখালী প্রতিনিধি-

আমাদের সমাজে প্রতিপক্ষের মান সম্মান নষ্টো করার একমাত্র হাতিয়ার হলো নারী। আমরা নারীদের খুব সহজে বিশ্বাস করে থাকি, সেই দর্বলতার সুযোগে পুরুষরা ক্ষতিগ্রহস্ত হচ্ছে হারাচ্ছে মান সম্মান তার পিছনে কাজ করছে সমাজের কিছু সার্থ্যনেশি ষড়যন্তকারী তাদের সার্থ্যর জন্য অন্য ব্যক্তি মান সম্মান নষ্টো করে থাকে।

 

 

 

প্রতিবেদকের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে আসল রহস্য, ভিজিএফ কর্মসূচির চালের কার্ড চাওয়ায় এক বিধবা বৃদ্ধ নারীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও ষড়যন্ত মাত্র, আর কিছুই না। রোকেয় বেগম অভিযোগকারীর বাড়ির আশে-পাশের লোকজনের কাছে খোজ-খবর নিয়ে জানা যায় যে ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের একটি পুকুর আছে অভিযোগকারী রোকেয় বেগম এর বাড়িতে রোকেয় বেগম সেই পুকুর থেকে মাটি কাটে ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটকে না জানিয়ে সে যখন জানতে চায় তুমি আমার পুকুর থেকে কেনো মাটি কাটছো আমাকে না জানিয়ে এই শুরু হয় দুজনার মাঝে কথা কাটা-কাটি ও অশ্লীল খারাপ ভাষা গালমন্দ। সমাজে শালিশ করে জাফর উল্লাহ রোকেয় বেগমকে পরার্মশ দেয় মেয়র কাদের মির্জা ও থানায় যেতে বলে জাফর উল্লাহ সাংবাদিকদের খবর দেয় সে নিজেই প্রতিবেদকের কাছে শিকার করেছেন এসব কথা, সে আরও বলেন আমি আর ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটকে নিয়ে কোনো কথা বলবো না, তারি সাথে রোকেয় বেগমকে বলেছি এ মিথ্যা বিষয় নিয়ে আর সামনে বাড়া-বাড়ি না করার জন্য।

 

 

 

 

 

পুলিশ তদন্ত অফিসার মোঃ রবিউল  হক বলেন আমি রোকেয় বেগম অভিযোগকারীর বাড়িতে যাই বাড়ির ও বাড়ির আশেপাশের লোকজনের কাছে খোজ-খবর নেই তারা জানান রোকেয় বেগম ও ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের মাঝে কথা কাটা-কাটি হয় অশ্লীল খারাপ ভাষায় দুইজনেই গাল-মন্দ করে, তাদের মাঝে কোনো মারা-মারি বা হাতা-হাতির ঘটনা ঘটেনি ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মাত্র। আর পিঠের যে দাগ দেখায় তা চিরোনী দিয়ে দাগ দিয়েছে।

 

 

বিভিন্ন সংবাদকর্মীদের যে মিথ্যা তথ্যদেয় রোকেয় বেগম ও জাফর উল্লাহ নিম্নরুপ তুলে ধরা হলোঃ-

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সরকারের ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং (ভিজিএফ) কর্মসূচির চালের কার্ড চাওয়ায় এক বিধবা বৃদ্ধ নারীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ব্যাপক তৎপরতা চালাচ্ছে প্রভাবশালী একটি মহল।

 

ভুক্তভোগী রোকেয়া বেগম (৬০) উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম মোহাম্মদ নগর গ্রামের ওয়াসি মিজি বাড়ির মৃত ইউনুসের স্ত্রী।

 

গতকাল শুক্রবার ২৮ এপ্রিল রাতে এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার নারী অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এর আগে একই দিন দুপুর ২টার দিকে উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম মোহাম্মদ নগর গ্রামের ওয়াসি মিজি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

 

 

ভুক্তভোগীর লিখিত অভিযোগে জানা যায়, নির্যাতনের শিকার বিধাব নারী রোকেয়া বেগম অতিবৃদ্ধ চলাফেরা করতে খুবই কষ্ট হয়। তাঁর কোন ছেলে সন্তান নেই। স্বামীর মৃত্যুর পর স্থানীয়দের সহযোগিতায় কোন রকম জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। শুক্রবার দুপুরের দিকে উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সম্রাট ওই নারীদের বাড়িতে তাঁর অনুসারী কয়েকটি পরিবারের মাঝে সরকার প্রদত্ত ভিজিএফের চালের কার্ড বিতরণ করতে যান। কার্ড বিতরণ করার সময় মেম্বারের কাছে রোকেয়া বেগম ভিজিএফের একটি কার্ড চাইলে তিনি তাকে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে। একপর্যায়ে বৃদ্ধ নারী তাকে গালমন্দ করতে নিষেধ করলে মেম্বার ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনাস্থলের পাশে থাকা লাঠি নিয়ে ওই নারীকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে।

 

 

 

রোকেয় বেগম অভিযোগ করে আরো বলেন, এরপর তাঁর শৌরচিৎকার শুনে বাড়ির লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। ওই সময় মেম্বার উপস্থিত লোকজনের সামনে তাকে হুমকি দিয়ে বলে এ ঘটনায় কোন বিচার বৈঠক বসালে আমাকে পুনরায় পেটানো হবে।

 

 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সিরাজপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হায়দার হোসেন সম্রাট অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে দিয়ে বলেন ভিজিএফের কার্ড চাওয়ায় বৃদ্ধ নারীকে মারধর করেনি তবে গালমন্দ করেছেন।

 

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম মিজানুর রহমান বলেন এখন ভিজিএফ কার্ডের সময় নয়। তবে ভিজিএফের চালের কার্ড চাওয়ায় এক নারীকে মারধর করার অভিযোগ এনে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় এক নারী লিখিত অভিযোগ করেছেন। ওসি আরো জানায়, মাটি কাটা নিয়ে কোন সমস্যা হয়েছে। একজন আরেক জনকে গালিগালাজ করেছে। মারধারের ঘটনা সত্য না। বৃদ্ধ নারীর শরীরে আঘাতের বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি জানায় অন্য কোথাও আঘাত পেয়েছে ওই নারী। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে।