বাংলাদেশ ০৯:১৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ফেরামের কার্যালয় উদ্বোধন ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত পটুয়াখালী পৌরসভার ১০ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, সারারাত জ্বলে কোম্পানির বিলবোর্ড। বরগুনা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সাংসদ গোলাম সরোয়ার টুকু’র শুভেচ্ছা বিনিময় নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা  ইউএস অ্যাগ্রিমেন্টে অ্যাপস প্রতারণায় রাজশাহীতে ১০ মামলা নারায়ণগঞ্জে শ্রমিকদের বেতন ভাতা ও ঘোষিত মজুরি বাস্তবায়নের জন্য জনসভা আরএমপি’র কমিশনারসহ ৬ পুলিশ সদস্য পেলেন বিপিএম-পিপিএম পদক রাজশাহীতে প্রতিবছর বাড়ছে পেঁয়াজ বীজের চাষ এসএসসি ’৯৪ ব্যাচের প্রয়াত বন্ধুদের স্মরণানুষ্ঠান হত্যা মামলার দীর্ঘ ২৩ বছর যাবত পলাতক আসামী নজরুল মাঝি গ্রেফতার।  আমতলীতে গরুসহ চোর গ্রেপ্তার অপরূপ সৌন্দর্যে ঘেরা রাঙ্গাবালী, হতে পারে পর্যটনের কেন্দ্রবিন্দু। বুড়িচংয়ে বিল্লাল হোসেন ঠিকাদার ডাবল হোল্ডা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রায়গঞ্জে এনডিপির উদ্যোগে মিনি ম্যারাথন অনুষ্ঠিত এক প্রার্থীর বিরুদ্ধে কালো টাকা ছড়ানোর তুলে এক নারী মেয়র প্রার্থীর প্রার্থীতা প্রত্যাহার

তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রস্তাবের প্রতি সাংবাদিকদের একাত্মতা প্রকাশ

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৭:১৯:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ এপ্রিল ২০২২
  • ১৬৭৯ বার পড়া হয়েছে

তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রস্তাবের প্রতি সাংবাদিকদের একাত্মতা প্রকাশ

আশিকুর রহমান শান্ত
ভোলা প্রতিনিধি
২০২২-২৩ অর্থ বছরে তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রস্তাবের প্রতি সাংবাদিকদের একাত্মতা প্রকাশ করেছেন । তামাক ও ধোঁয়াবিহীন তামাক পণ্যের সহজলভ্যতা হ্রাস ও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় বাংলাদেশের বিদ্যমান কর কাঠামো এবং করপদ্ধতি পরিবর্তন করে সুনির্দিষ্ট তামাক কর প্রবর্তন ও মূল্য বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছেন ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাংবাদিক কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী গণমাধ্যম নেতৃ ও কর্মীবৃন্দ।
বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) রাজধানীর কারওয়ান বাজারস্থ হোটেল লা ভিঞ্চিতে বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থা ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন অব দ্য রুরাল পূয়র (ডরপ) আয়োজিত ‘তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি’ বিষয়ক সাংবাদিক কর্মশালায় উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীরা এ দাবি জানান।
প্রজ্ঞা টোব্যাবো কনট্রোল প্রোগ্রাম এর প্রধান জনাব হাসান শাহরিয়ার এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী গণমাধ্যম কর্মীদের পক্ষ থেকে এনবিআরের প্রতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে তামাক ও ধোঁয়াবিহীন তামাক পণ্যের ক্ষেত্রে নিম্মলিখিত কর প্রস্তাবগুলো উত্থাপন করা হয়।
তামাক পণ্য সিগারেটের ক্ষেত্রে- নিম্ন স্তরে প্রতি ১০ শলাকা সিগারেটের খুচরা মূল্য ৫০ টাকা নির্ধারণ করে ৩২.৫০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; মধ্যম স্তরে খুচরা মূল্য ৭৫ টাকা নির্ধারণ করে ৪৮.৭৫ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; উচ্চ স্তরে খুচরা মূল্য ১২০ টাকা নির্ধারণ করে ৭৮.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক এবং প্রিমিয়াম স্তরে ১৫০ টাকা খুচরা মূল্য নির্ধারণ করে ৯৭.৫০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা।
ফিল্টারবিহীন ২৫ শলাকা বিড়ির ক্ষেত্রে খুচরা মূল্য ২৫ টাকা নির্ধারণ করে ১১.২৫ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা;  এবং ফিল্টারযুক্ত ২০ শলাকা বিড়ির খুচরা মূল্য ২০ টাকা নির্ধারণ করে ৯.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা। এর ফলে উভয় ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্কের হার হবে চূড়ান্ত খুচরা মূল্যের ৪৫ শতাংশ।
ধোঁয়াবিহীন তামাক পণ্যের ক্ষেত্রে- প্রতি ১০ গ্রাম জর্দার খুচরা মূল্য ৪৫ টাকা নির্ধারণ করে ২৭.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; এবং প্রতি ১০ গ্রাম গুলের খুচরা মূল্য ২৫ টাকা নির্ধারণ করে ১৫.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা। এরফলে উভয় ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্কের হার হবে চূড়ান্ত খুচরা মূল্যের ৬০ শতাংশ। উপরি উক্ত প্রস্তাবনায় সিগারেট ও বিড়ির খুচরা মূল্যের উপর বিদ্যমান ১% সারচার্জ ও ১৫% মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) বহাল রাখার কথাও প্রস্তাব করা হয়।
অনুষ্ঠানে বিষয় সংশ্লিষ্ট বক্তব্যে সিটিএফকে গ্রান্টস ম্যানেজার আব্দুস সালাম মিঞা বলেন, “উল্লেখিত কর প্রস্তাবসহ করারোপ প্রক্রিয়া সহজ করতে তামাকপণ্যের মধ্যে বিদ্যমান বিভাজন যেমন-ফিল্টার/নন ফিল্টার বিড়ি, সিগারেটের মূল্যস্তর, জর্দা ও গুলের আলাদা খুচরা মূল্য প্রভৃতি তুলে দিতে হবে এবং সকল ধোঁয়াবিহীন তামাকপণ্য উৎপাদনকারীকে করজালের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। এছাড়াও তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ২০৪০ সালের মধ্যে তামাক মুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে তামাক কর কাঠামো সহজ করা, সুনির্দিষ্ট করারোপ করা ও ৪ স্তর বিশিষ্ট সিগারেট করকে ২টি স্তরে নির্ধারণের প্রস্তাব দেন।
ডরপ এর উপ-নির্বাহী পরিচালক জনাব মোহাম্মদ যোবায়ের হাসান বলেন, “গণমাধ্যম কর্মীদের শক্তিশালী লিখনি পারে নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করতে। আপনারা জনস্বাস্থ্য রক্ষার এই আন্দোলনকে বেগবান করতে তথ্য-উপাত্ত সহকারে বিভিন্ন রিপোর্ট গণমাধ্যমে প্রকাশ করলে তা জাতীয় নীতি-নির্ধারণে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে এবং তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।
সাংবাদিক নেতা এবং সারাবাংলা ডটনেটের সিনিয়র রিপোর্টার জাকির হোসেন লিটন বলেন, “তামাকের ব্যবহার কমানোর সবচেয়ে কার্যকর উপায় হচ্ছে কর বৃদ্ধির মাধ্যমে তামাকপণ্যের মূল্য বাড়ানো। কার্যকরভাবে কর বাড়ালে তামাকপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি পায় এবং সহজলভ্যতা হ্রাস পায়। এছাড়াও উচ্চমূল্য তরুণদের তামাক ব্যবহার শুরুতে নিরুৎসাহিত করে এবং ব্যবহারকারীদেরকে তামাক ছাড়তে উৎসাহিত করে।
এজন্য আমি নীতি-নির্ধারকদের কাছে সুনির্দিষ্ট তামাক কর পদ্ধতি প্রবর্তন ও মূল্য বৃদ্ধির দাবি জানাই সভাপতির ভাষণে ডরপ এর প্রেসিডেন্ট জনাব আজহার আলী তালুকদার বলেন, “গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভে (গ্যাটস) ২০১৭ সালের রিপোর্টে দেখা যায় বাংলাদেশে ১৫-২৪ বছর বয়সি প্রায় ১০ ভাগ তরুণ ধূমপানে আসক্ত। আর এই আসক্তির ফলে তারা বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে। প্রস্তাবিত কর পদ্ধতি কার্যকর করা হলে সরকারের রাজস্ব আয় প্রায় ৯ হাজার ২ শত কোটি টাকা বৃদ্ধি পাবে এবং ধূমপানকারীর সংখ্যা ১৫.১ শতাংশ থেতে ১৪.১ শতাংশে কমে আসবে।
উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আমাদের সময়ের শিফট ইনচার্জ আলী ইমাম সুমন, দৈনিক প্রথম আলো’র আরিফুর রহমান, দৈনিক ইত্তেফাকের নিলয় মামুন, বিটিভি’র রুমানা আক্তার, দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড এর রিয়াদ হোসেন, নিউ এজ এর আহম্মদ ফয়েজ, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন এর রাশেদ শাহেদ, দৈনিক যুগান্তর এর হক ফারুক আহমেদ, বণিক বার্তা এর সাইফ সুজন, দৈনিক সমকালের জসীম উদ্দিন বাদল, বাংলা ট্রিবিউনের মাহমুদ মানসুর, আজকের পত্রিকার রবিউল আলম, এস এ টেলিভিশন এর মাঈন উদ্দিন আরিফ, ফাইনান্সিয়াল এক্সপ্রেস এর ইসমাইল হোসেন, বার্তা ২৪. এর মাজেদুল নয়ন, স্পাইস টেলিভিশন এর বেলায়েত হোসেন, বাংলাদেশের খবর সালাউদ্দিন চৌধুরী এবং ভোরের আকাশ এর জুনায়েদ শিশির।
আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ফেরামের কার্যালয় উদ্বোধন ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত

তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রস্তাবের প্রতি সাংবাদিকদের একাত্মতা প্রকাশ

আপডেট সময় ০৭:১৯:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ এপ্রিল ২০২২
আশিকুর রহমান শান্ত
ভোলা প্রতিনিধি
২০২২-২৩ অর্থ বছরে তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রস্তাবের প্রতি সাংবাদিকদের একাত্মতা প্রকাশ করেছেন । তামাক ও ধোঁয়াবিহীন তামাক পণ্যের সহজলভ্যতা হ্রাস ও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় বাংলাদেশের বিদ্যমান কর কাঠামো এবং করপদ্ধতি পরিবর্তন করে সুনির্দিষ্ট তামাক কর প্রবর্তন ও মূল্য বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছেন ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাংবাদিক কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী গণমাধ্যম নেতৃ ও কর্মীবৃন্দ।
বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) রাজধানীর কারওয়ান বাজারস্থ হোটেল লা ভিঞ্চিতে বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থা ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন অব দ্য রুরাল পূয়র (ডরপ) আয়োজিত ‘তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধি’ বিষয়ক সাংবাদিক কর্মশালায় উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীরা এ দাবি জানান।
প্রজ্ঞা টোব্যাবো কনট্রোল প্রোগ্রাম এর প্রধান জনাব হাসান শাহরিয়ার এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী গণমাধ্যম কর্মীদের পক্ষ থেকে এনবিআরের প্রতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে তামাক ও ধোঁয়াবিহীন তামাক পণ্যের ক্ষেত্রে নিম্মলিখিত কর প্রস্তাবগুলো উত্থাপন করা হয়।
তামাক পণ্য সিগারেটের ক্ষেত্রে- নিম্ন স্তরে প্রতি ১০ শলাকা সিগারেটের খুচরা মূল্য ৫০ টাকা নির্ধারণ করে ৩২.৫০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; মধ্যম স্তরে খুচরা মূল্য ৭৫ টাকা নির্ধারণ করে ৪৮.৭৫ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; উচ্চ স্তরে খুচরা মূল্য ১২০ টাকা নির্ধারণ করে ৭৮.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক এবং প্রিমিয়াম স্তরে ১৫০ টাকা খুচরা মূল্য নির্ধারণ করে ৯৭.৫০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা।
ফিল্টারবিহীন ২৫ শলাকা বিড়ির ক্ষেত্রে খুচরা মূল্য ২৫ টাকা নির্ধারণ করে ১১.২৫ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা;  এবং ফিল্টারযুক্ত ২০ শলাকা বিড়ির খুচরা মূল্য ২০ টাকা নির্ধারণ করে ৯.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা। এর ফলে উভয় ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্কের হার হবে চূড়ান্ত খুচরা মূল্যের ৪৫ শতাংশ।
ধোঁয়াবিহীন তামাক পণ্যের ক্ষেত্রে- প্রতি ১০ গ্রাম জর্দার খুচরা মূল্য ৪৫ টাকা নির্ধারণ করে ২৭.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা; এবং প্রতি ১০ গ্রাম গুলের খুচরা মূল্য ২৫ টাকা নির্ধারণ করে ১৫.০০ টাকা সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা। এরফলে উভয় ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্কের হার হবে চূড়ান্ত খুচরা মূল্যের ৬০ শতাংশ। উপরি উক্ত প্রস্তাবনায় সিগারেট ও বিড়ির খুচরা মূল্যের উপর বিদ্যমান ১% সারচার্জ ও ১৫% মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) বহাল রাখার কথাও প্রস্তাব করা হয়।
অনুষ্ঠানে বিষয় সংশ্লিষ্ট বক্তব্যে সিটিএফকে গ্রান্টস ম্যানেজার আব্দুস সালাম মিঞা বলেন, “উল্লেখিত কর প্রস্তাবসহ করারোপ প্রক্রিয়া সহজ করতে তামাকপণ্যের মধ্যে বিদ্যমান বিভাজন যেমন-ফিল্টার/নন ফিল্টার বিড়ি, সিগারেটের মূল্যস্তর, জর্দা ও গুলের আলাদা খুচরা মূল্য প্রভৃতি তুলে দিতে হবে এবং সকল ধোঁয়াবিহীন তামাকপণ্য উৎপাদনকারীকে করজালের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। এছাড়াও তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ২০৪০ সালের মধ্যে তামাক মুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে তামাক কর কাঠামো সহজ করা, সুনির্দিষ্ট করারোপ করা ও ৪ স্তর বিশিষ্ট সিগারেট করকে ২টি স্তরে নির্ধারণের প্রস্তাব দেন।
ডরপ এর উপ-নির্বাহী পরিচালক জনাব মোহাম্মদ যোবায়ের হাসান বলেন, “গণমাধ্যম কর্মীদের শক্তিশালী লিখনি পারে নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করতে। আপনারা জনস্বাস্থ্য রক্ষার এই আন্দোলনকে বেগবান করতে তথ্য-উপাত্ত সহকারে বিভিন্ন রিপোর্ট গণমাধ্যমে প্রকাশ করলে তা জাতীয় নীতি-নির্ধারণে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে এবং তামাক কর ও মূল্য বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।
সাংবাদিক নেতা এবং সারাবাংলা ডটনেটের সিনিয়র রিপোর্টার জাকির হোসেন লিটন বলেন, “তামাকের ব্যবহার কমানোর সবচেয়ে কার্যকর উপায় হচ্ছে কর বৃদ্ধির মাধ্যমে তামাকপণ্যের মূল্য বাড়ানো। কার্যকরভাবে কর বাড়ালে তামাকপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি পায় এবং সহজলভ্যতা হ্রাস পায়। এছাড়াও উচ্চমূল্য তরুণদের তামাক ব্যবহার শুরুতে নিরুৎসাহিত করে এবং ব্যবহারকারীদেরকে তামাক ছাড়তে উৎসাহিত করে।
এজন্য আমি নীতি-নির্ধারকদের কাছে সুনির্দিষ্ট তামাক কর পদ্ধতি প্রবর্তন ও মূল্য বৃদ্ধির দাবি জানাই সভাপতির ভাষণে ডরপ এর প্রেসিডেন্ট জনাব আজহার আলী তালুকদার বলেন, “গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভে (গ্যাটস) ২০১৭ সালের রিপোর্টে দেখা যায় বাংলাদেশে ১৫-২৪ বছর বয়সি প্রায় ১০ ভাগ তরুণ ধূমপানে আসক্ত। আর এই আসক্তির ফলে তারা বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছে। প্রস্তাবিত কর পদ্ধতি কার্যকর করা হলে সরকারের রাজস্ব আয় প্রায় ৯ হাজার ২ শত কোটি টাকা বৃদ্ধি পাবে এবং ধূমপানকারীর সংখ্যা ১৫.১ শতাংশ থেতে ১৪.১ শতাংশে কমে আসবে।
উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আমাদের সময়ের শিফট ইনচার্জ আলী ইমাম সুমন, দৈনিক প্রথম আলো’র আরিফুর রহমান, দৈনিক ইত্তেফাকের নিলয় মামুন, বিটিভি’র রুমানা আক্তার, দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড এর রিয়াদ হোসেন, নিউ এজ এর আহম্মদ ফয়েজ, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন এর রাশেদ শাহেদ, দৈনিক যুগান্তর এর হক ফারুক আহমেদ, বণিক বার্তা এর সাইফ সুজন, দৈনিক সমকালের জসীম উদ্দিন বাদল, বাংলা ট্রিবিউনের মাহমুদ মানসুর, আজকের পত্রিকার রবিউল আলম, এস এ টেলিভিশন এর মাঈন উদ্দিন আরিফ, ফাইনান্সিয়াল এক্সপ্রেস এর ইসমাইল হোসেন, বার্তা ২৪. এর মাজেদুল নয়ন, স্পাইস টেলিভিশন এর বেলায়েত হোসেন, বাংলাদেশের খবর সালাউদ্দিন চৌধুরী এবং ভোরের আকাশ এর জুনায়েদ শিশির।