বাংলাদেশ ০৬:১০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
বেইলী রোডের কাচ্চিভাই নামক রেস্টুরেন্টে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় সাহসী ভূমিকা পালন করছে র‌্যাব-৩। অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা মিজানুর রহমানকে জনতা ব্যাংকের নির্বাহী কর্মকর্তা হওয়ায় বেইলি রোডে একটি রেস্টুরেন্টে লাগা আগুন ফায়ার সার্ভিসের ১৩ টি ইউনিটের চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে। বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এপর্যন্ত ৬৮ জন জীবিত উদ্ধার, বদলগাছী উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত।  ভোটের সার্বিক কার্যক্রম কমিশন থেকে মনিটরিং ইসি সচিব জাহাঙ্গীর আলম কিশোর গ্যাং আমির গ্রুপের লীডার আমির সহ ০৯ সদস্য গ্রেফতার। নলছিটি তালতলা বাজার থেকে ৫ কেজি গাজা সহ গোশত ব্যবসায়ি ফারুক আটক বঙ্গবন্ধু মুক্তির সংগ্রাম বলতে অর্থনৈতিক মুক্তি বুঝিয়েছেন: কাজী খলীকুজ্জমান প্রায় অর্ধ কোটি টাকার অবৈধ মাদকদ্রব্য উদ্ধার: বিপুল পরিমান ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০৩ জন বড় মাদক ব্যবসায়ী আটক এবং মাদক পরিবহনকারী গাড়ী জব্দ। জবিতে ‘আমরা তোমাদের ভুলবো না’ শীর্ষক অনুষ্ঠান আয়োজিত  রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক পেলেন মাধবপুর থানার ওসি মোঃ রকিবুল খান দুই মামলা থেকেই অব্যাহতি পেলেন খাদিজা পৌরবাসীর ক্ষোভের মুখে সাবমার্সিবল বিল বাতিল ঘোষণা  জবিতে ক্যান্সার আক্রান্ত শিক্ষার্থীর জন্য ‘কনসার্ট ফর জহির’  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শিশু নাট্যমের ৯ম আর্ট ক্যাম্প আয়োজন।

বালুবাহী বলগেটের ধাক্কায় ভেঙে পড়েছে ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন ব্রিজের স্টেজিং

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৮:০১:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ ২০২২
  • ১৬৭২ বার পড়া হয়েছে

বালুবাহী বলগেটের ধাক্কায় ভেঙে পড়েছে ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন ব্রিজের স্টেজিং

 

 

 

 

 

নোয়াখালী প্রতিনিধি

 

নোয়াখালীর কবিরহাটের ধানশালিক ইউনিয়নের চাপরাশির খালের ওপর ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন চরএলাহী ব্রিজের স্টেজিং বালুবাহী বলগেটের আঘাতে ভেঙ্গে পানিতে তলিয়ে গেছে।
এছাড়াও এর আগেও তিনবার বালুবাহী বলগেটের আঘাতে ব্রিজের দুইটি গার্ডারে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নের চাপরাশি খালের উপর নির্মাণাধীন চরএলাহী ব্রিজে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান।

নোয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বসুরহাট বাজার থেকে চরএলাহী বাজারের সাথে সরাসরি যোগাযোগের লক্ষ্যে ২০২০ সালের ১৫ডিসেম্বর সড়ক ও জনপথ বিভাগ ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯৭ মিটার দৈর্ঘ্য এ ব্রিজের নির্মাণের কাজ শুরু করে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এম এম বিল্ডাস মাহমুদুর রহমান এর কাজটি করছে।

সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রজেক্ট ম্যানেজার মো.ইউছুফ ইউহানা বলেন, চাপরাশিরহাট ও কবিরহাট উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নের অসাধু বালু ব্যবসায়ী খুরশিদ,শাহজাহান ও সোহেল অবৈধ ভাবে কোন সেফটি ছাড়া বলগেটে করে চাপরাশি খালে বালু নিয়ে আসে। এরপর সেফটি ছাড়া বলগেট টাকে যেনতেন ভাবে রেখে যায়। এরপর বলগেট গুলো জোয়ারে ভেসে এসে নির্মাণাধীন ব্রিজের গার্ডার ক্ষতিগ্রস্থ করে এবং স্টেজিং ভেঙ্গে পানিতে তলিয়ে নিয়ে যায়। এ ব্রিজটা এখন হুমকির মুখে আছে। বড় গার্ডারটা যে কোন মুহূর্তে ভেঙ্গে পড়তে পারে। আজকের ঘটনায় প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এর আগেও তৎকালীন কবিরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাসিনা আক্তারকে জানানো হয়েছে কাজ চলাকালীন বলগেট চলাচল বন্ধ করার জন্য। কিন্তু অভিযুক্তরা বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে বালু উঠিয়ে বলগেট চালানো অব্যাহত রেখেছে।

ম্যানেজার ইউছুফ আরও জানান, এখন পর্যন্ত নির্মাণাধীন ব্রিজের ৭টা গার্ডারের এর কাজ করা হয়েছে। বর্ষা মৌসুমে এ খালে প্রচণ্ড স্রোত এবং বালুবাহী জাহাজ অদক্ষ চালকের কারণে আরও ৩বার নির্মাণাধীন গার্ডার গুলোকে আঘাত করে। এ বিষয়টি সংশ্লিষ্ট বিভাগ এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাসিনা আক্তার কে জানানো হলেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। বরং ইউএনও দায়িত্ব নিয়ে বলেছেন এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবেনা। কিন্তু তারপরও ঘটেছে।

এ বিষয়ে জানতে কবিরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আতিকুল মামুনের ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে নোয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ড.মোহাম্মদ আহাদ উল্যাহ বলেন, বিষয়টি জেনে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো.নিজাম উদ্দিন সরেজমিনে পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তিনি আরও বলেন একাধিকবার বালুবাহী বলগেট নির্মাণাধীন ব্রিজের স্টেজিংয়ে আঘাত করায় আগামী বর্ষার আগে কাজটি সন্তোষজনক পর্যায়ে আনা কষ্টকর হয়ে পড়বে।

জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান আরও বলেন বিষয়টি আমি জেনেছি। ব্রিজটি কোম্পানীগঞ্জ এবং কবিরহাট উপজেলার বর্ডার এলাকায়। দুই কিলোমিটার দূরে বেধে রাখা বালুবাহী বলগেট জোয়ারের পানিতে ভেসে এলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

 

 

বেইলী রোডের কাচ্চিভাই নামক রেস্টুরেন্টে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় সাহসী ভূমিকা পালন করছে র‌্যাব-৩।

বালুবাহী বলগেটের ধাক্কায় ভেঙে পড়েছে ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন ব্রিজের স্টেজিং

আপডেট সময় ০৮:০১:২৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ ২০২২

 

 

 

 

 

নোয়াখালী প্রতিনিধি

 

নোয়াখালীর কবিরহাটের ধানশালিক ইউনিয়নের চাপরাশির খালের ওপর ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন চরএলাহী ব্রিজের স্টেজিং বালুবাহী বলগেটের আঘাতে ভেঙ্গে পানিতে তলিয়ে গেছে।
এছাড়াও এর আগেও তিনবার বালুবাহী বলগেটের আঘাতে ব্রিজের দুইটি গার্ডারে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নের চাপরাশি খালের উপর নির্মাণাধীন চরএলাহী ব্রিজে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান।

নোয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বসুরহাট বাজার থেকে চরএলাহী বাজারের সাথে সরাসরি যোগাযোগের লক্ষ্যে ২০২০ সালের ১৫ডিসেম্বর সড়ক ও জনপথ বিভাগ ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯৭ মিটার দৈর্ঘ্য এ ব্রিজের নির্মাণের কাজ শুরু করে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এম এম বিল্ডাস মাহমুদুর রহমান এর কাজটি করছে।

সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রজেক্ট ম্যানেজার মো.ইউছুফ ইউহানা বলেন, চাপরাশিরহাট ও কবিরহাট উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়নের অসাধু বালু ব্যবসায়ী খুরশিদ,শাহজাহান ও সোহেল অবৈধ ভাবে কোন সেফটি ছাড়া বলগেটে করে চাপরাশি খালে বালু নিয়ে আসে। এরপর সেফটি ছাড়া বলগেট টাকে যেনতেন ভাবে রেখে যায়। এরপর বলগেট গুলো জোয়ারে ভেসে এসে নির্মাণাধীন ব্রিজের গার্ডার ক্ষতিগ্রস্থ করে এবং স্টেজিং ভেঙ্গে পানিতে তলিয়ে নিয়ে যায়। এ ব্রিজটা এখন হুমকির মুখে আছে। বড় গার্ডারটা যে কোন মুহূর্তে ভেঙ্গে পড়তে পারে। আজকের ঘটনায় প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এর আগেও তৎকালীন কবিরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাসিনা আক্তারকে জানানো হয়েছে কাজ চলাকালীন বলগেট চলাচল বন্ধ করার জন্য। কিন্তু অভিযুক্তরা বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে বালু উঠিয়ে বলগেট চালানো অব্যাহত রেখেছে।

ম্যানেজার ইউছুফ আরও জানান, এখন পর্যন্ত নির্মাণাধীন ব্রিজের ৭টা গার্ডারের এর কাজ করা হয়েছে। বর্ষা মৌসুমে এ খালে প্রচণ্ড স্রোত এবং বালুবাহী জাহাজ অদক্ষ চালকের কারণে আরও ৩বার নির্মাণাধীন গার্ডার গুলোকে আঘাত করে। এ বিষয়টি সংশ্লিষ্ট বিভাগ এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাসিনা আক্তার কে জানানো হলেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। বরং ইউএনও দায়িত্ব নিয়ে বলেছেন এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবেনা। কিন্তু তারপরও ঘটেছে।

এ বিষয়ে জানতে কবিরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আতিকুল মামুনের ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে নোয়াখালী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ড.মোহাম্মদ আহাদ উল্যাহ বলেন, বিষয়টি জেনে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো.নিজাম উদ্দিন সরেজমিনে পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তিনি আরও বলেন একাধিকবার বালুবাহী বলগেট নির্মাণাধীন ব্রিজের স্টেজিংয়ে আঘাত করায় আগামী বর্ষার আগে কাজটি সন্তোষজনক পর্যায়ে আনা কষ্টকর হয়ে পড়বে।

জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান আরও বলেন বিষয়টি আমি জেনেছি। ব্রিজটি কোম্পানীগঞ্জ এবং কবিরহাট উপজেলার বর্ডার এলাকায়। দুই কিলোমিটার দূরে বেধে রাখা বালুবাহী বলগেট জোয়ারের পানিতে ভেসে এলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।