বাংলাদেশ ০৬:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

স্বাধীনতা দিবসকে ঘিরে শিক্ষার্থীদের চাওয়া-পাওয়া

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:০৪:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ মার্চ ২০২২
  • ১৬৯৮ বার পড়া হয়েছে
মিলন হোসেন শিক্ষার্থী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।  
২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস। এ দিবসকে ঘিরে পূর্ব বাংলার সাড়ে সাত কোটি মানুষের লাল রক্ত খচিত একটি সূর্যের অর্জন ছিলো। বাঙালির মনে স্বাধীন হওয়ার তীব্র ভাসনা শুরু হয়েছে। নতুন করে বিশ্বমানচিত্রে নিজেদের অস্ত্বিত্ব জানান দেওয়ার সোনালী কাব্যের কবি হয়েছেন এ দেশের বীর সন্তানরা। ছিনিয়ে নিয়ে এসেছে পাকিস্তানি দুসরদের হাত থেকে মুক্তিকামী অসংখ্য বাঙালির স্বপ্নকে।
হাঁটি হাঁটি, পা পা করে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী শেষ লগ্ন অতিক্রম করে আজ আমরা ৫১ তম বছরে পদার্পন করতে যাচ্ছি। লাল – সবুজের পটভূমিতে প্রতিনিয়ত কেউ স্বপ্ন বুনছেন, কেউ বা স্বপ্ন দেখিয়ে যাচ্ছেন আবার কেউ বা স্বপ্নের মতো স্বপ্নরথী হয়ে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচিয়ে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করে যাচ্ছে অবিরত। স্বাধীনতা – সংগ্রাম প্রতিটি জাতির তরুণ তাজা প্রাণকে উজ্জীবিত করে নতুন আঙ্গিকে, নতুন করে স্বপ্ন দেখায় কিংবা মাথা উচু করে লড়াই করতে সাহস জোগায় স্বপ্ন জয়ে।
স্বাধীনতা শব্দটা কারও সাহস, কারও শক্তি কিংবা কারও নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন। স্বাধীনতা দিবসকে ঘিরে আমরা প্রতি বছরে গোটা বাঙালি জাতির মধ্যে একটা আত্মশক্তির সঞ্চার হয় উদীপ্ত কন্ঠে। মহাবিজয়ের মহানায়ক হয়ে বঙ্গবন্ধুর মতো জাতির শ্রেষ্ঠ বীর সন্তানদের আত্মত্যাগের মাধ্যমে। তরুণ প্রজন্ম বরাবরের মতো চাই, “স্বাধীনতা দিবসে নতুন করে শপথ নিয়ে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে লড়াই করবে আবারও বীরত্ব গাঁথা বীর সন্তানদের মতো”।
বিজয়ের পঞ্চাশ পেরিয়ে স্বাধীনতা দিবসের ৫১ তম বছরে নতুন করে দেশকে নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে সুকান্ত ভট্টাচার্যের ১৮ বছরের তরুণ প্রজন্মের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা। এসব শিক্ষার্থীরা চাই মাথা উঁচিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে দেশকে নতুন করে বঙ্গবন্ধু স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে। নুরুলদীনের মতো আবারো রাজপথে বেরিয়ে জাগো বাহী কন্ঠে জয়বাংলা ধ্বনিতে মুখরিত করবে লোকালয় থেকে সমুদ্র জনপদে। তখন হয়তো শকুনের মতো কোনো দেশদ্রোহী বিশ্বাসঘাতক নীরবে চুপসে যাবে স্বাধীনতা ভয়ানক অগ্নি শিখায় কিংবা রক্তিম সূর্যের তাপদাহে। দেশের সম্মান রক্ষায় কেউ সামান্য আঘাত হানলেও তরুণ প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা কখনো ছাড় দিবে না এ বিষয়ে সকলে ঐক্যবদ্ধ।
সেই স্বাধীনতার ৫১ তম বছরের লালিত স্বপ্নগুলোকে নিয়ে কথা বলেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের  সাংবাদিক মিলন একুশের চেতনায় একঝাঁক তরুণ মেধাবী শিক্ষার্থীর স্বাধীনতা দিবসের ভাবনা নিয়ে…
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

স্বাধীনতা দিবসকে ঘিরে শিক্ষার্থীদের চাওয়া-পাওয়া

আপডেট সময় ০৯:০৪:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ মার্চ ২০২২
মিলন হোসেন শিক্ষার্থী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।  
২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস। এ দিবসকে ঘিরে পূর্ব বাংলার সাড়ে সাত কোটি মানুষের লাল রক্ত খচিত একটি সূর্যের অর্জন ছিলো। বাঙালির মনে স্বাধীন হওয়ার তীব্র ভাসনা শুরু হয়েছে। নতুন করে বিশ্বমানচিত্রে নিজেদের অস্ত্বিত্ব জানান দেওয়ার সোনালী কাব্যের কবি হয়েছেন এ দেশের বীর সন্তানরা। ছিনিয়ে নিয়ে এসেছে পাকিস্তানি দুসরদের হাত থেকে মুক্তিকামী অসংখ্য বাঙালির স্বপ্নকে।
হাঁটি হাঁটি, পা পা করে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী শেষ লগ্ন অতিক্রম করে আজ আমরা ৫১ তম বছরে পদার্পন করতে যাচ্ছি। লাল – সবুজের পটভূমিতে প্রতিনিয়ত কেউ স্বপ্ন বুনছেন, কেউ বা স্বপ্ন দেখিয়ে যাচ্ছেন আবার কেউ বা স্বপ্নের মতো স্বপ্নরথী হয়ে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচিয়ে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করে যাচ্ছে অবিরত। স্বাধীনতা – সংগ্রাম প্রতিটি জাতির তরুণ তাজা প্রাণকে উজ্জীবিত করে নতুন আঙ্গিকে, নতুন করে স্বপ্ন দেখায় কিংবা মাথা উচু করে লড়াই করতে সাহস জোগায় স্বপ্ন জয়ে।
স্বাধীনতা শব্দটা কারও সাহস, কারও শক্তি কিংবা কারও নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন। স্বাধীনতা দিবসকে ঘিরে আমরা প্রতি বছরে গোটা বাঙালি জাতির মধ্যে একটা আত্মশক্তির সঞ্চার হয় উদীপ্ত কন্ঠে। মহাবিজয়ের মহানায়ক হয়ে বঙ্গবন্ধুর মতো জাতির শ্রেষ্ঠ বীর সন্তানদের আত্মত্যাগের মাধ্যমে। তরুণ প্রজন্ম বরাবরের মতো চাই, “স্বাধীনতা দিবসে নতুন করে শপথ নিয়ে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে লড়াই করবে আবারও বীরত্ব গাঁথা বীর সন্তানদের মতো”।
বিজয়ের পঞ্চাশ পেরিয়ে স্বাধীনতা দিবসের ৫১ তম বছরে নতুন করে দেশকে নিয়ে ভাবতে শুরু করেছে সুকান্ত ভট্টাচার্যের ১৮ বছরের তরুণ প্রজন্মের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা। এসব শিক্ষার্থীরা চাই মাথা উঁচিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভাবে দেশকে নতুন করে বঙ্গবন্ধু স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে। নুরুলদীনের মতো আবারো রাজপথে বেরিয়ে জাগো বাহী কন্ঠে জয়বাংলা ধ্বনিতে মুখরিত করবে লোকালয় থেকে সমুদ্র জনপদে। তখন হয়তো শকুনের মতো কোনো দেশদ্রোহী বিশ্বাসঘাতক নীরবে চুপসে যাবে স্বাধীনতা ভয়ানক অগ্নি শিখায় কিংবা রক্তিম সূর্যের তাপদাহে। দেশের সম্মান রক্ষায় কেউ সামান্য আঘাত হানলেও তরুণ প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা কখনো ছাড় দিবে না এ বিষয়ে সকলে ঐক্যবদ্ধ।
সেই স্বাধীনতার ৫১ তম বছরের লালিত স্বপ্নগুলোকে নিয়ে কথা বলেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের  সাংবাদিক মিলন একুশের চেতনায় একঝাঁক তরুণ মেধাবী শিক্ষার্থীর স্বাধীনতা দিবসের ভাবনা নিয়ে…