বাংলাদেশ ১২:০০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
রাজশাহী মহানগরীতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাই! দুই ভুয়া ডিবি গ্রেফতার পটুয়াখালী মহিপুর ইয়াবাসহ একজন গ্রেফতার। চন্দ্রকোনায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল এক ব্যতিক্রমী চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা। আজ শেরপুর জেলার জন্মদিন অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ অভিযান শুরু মুহম্মদ ফয়সল আকন্দের ‘চন্দ্রপুর’ গ্রন্থের পাঠ উন্মোচন সভা অনুষ্ঠিত  বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অনেক কিছু করেছে : আমু মতলব ব্রহ্মানন্দ যোগাশ্রমে শ্রী শ্রী বিশ্ব শান্তি গীতা যজ্ঞ ও সনাতন ধর্ম সম্মেলন ২৪ ফেব্রুয়ারী রাজশাহীতে লংকাবাংলা সিকিউরিটিজের ডিজিটাল বুথের উদ্বোধন রাজশাহী পুলিশ লাইন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত জবিতে শুরু হচ্ছে ৬ দিন ব্যাপি সিনেশো ব্যরিস্টার শাহজাহান ওমরের বিকল্পে জামালকে মূল্যায়ন পিরোজপুরের নেছারাবাদে দুই দিনে পাগলা কুকুরের কামড়ে নারী শিশু, বৃদ্ধসহ ১৭ জন আহত নলছিটি বন্দর স্কুলের নতুন ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন আমির হোসেন আমু বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হলেন রফিকুল ইসলাম জামাল 

মিঠাপুকুরে বালু ব্যবসায়ীরা ড্রামট্রাক চলাচলের জন্য বুলডোজার দিয়ে ভাঙ্গলো ব্রিজ

মিঠাপুকুরে বালু ব্যবসায়ীরা ড্রামট্রাক চলাচলের জন্য বুলডোজার দিয়ে ভাঙ্গলো ব্রিজ

রুবেল হোসাইন (সংগ্রাম)-
মিঠাপুকুরে দিন দিন বাড়ছে বালু ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম। রাজনৈতিক আর স্হানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় গড়ে উঠেছে বালু সিন্ডিকেট। উপজেলার বিভিন্ন গ্রামীন অবকাঠামো, রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্ট ভেঙ্গে আর ফেঁটে এখন চৌচির। অবৈধভাবে বালু উত্তলনের ফলে হুমকির মুখে কৃষি জমি, নদনদী আর ছোট বড় বিল। বালু উত্তলনে বিভিন্ন সময়ে জরিমানা করা হলেও থামছেনা অবৈধভাবে বালু উত্তলনকারীরা। রাত দিন চলছে দশ চাকার ড্রাম ট্রাক দিয়ে বালু পরিবহন, ফলে ধূলিকণায় ঢেকে যাচ্ছে ফসলি জমি, ঘরবাড়ী এবং পথচারীরা।
এবার মিঠাপুকুর উপজেলার বালুয়ায় জনগণের চলাচলের জন্য নির্মিত একটি ব্রিজ বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে দিয়েছেন বালু ব্যবসায়ীরা। গত-(২১ মার্চ) সোমবার রাতে বালু পরিবহনের জন্য দশচাকার ড্রাম ট্রাক, ব্রিজটি দিয়ে পার হতে না পারায়, কাউকে না জানিয়ে, আইন কানুনের তোয়াক্কা না করে ব্রিজটি বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে ফেলেছেন বালু ব্যবসায়ীরা। ব্রিজটি ভেঙ্গে ফেলার সময় বাঁধা দেন স্হানীয়রা। এতে বালু ব্যবসায়ি ও স্হানীয়দের মধ্যে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ট্রাক ও বুলডোজারটি জব্দ করে উপজেলা প্রশাসন।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নের মরাহাটি বাজার নামক স্হানে ব্রিজটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। রাস্তার দুপাশে রয়েছে কয়েকশ একর কৃষিজমি। বর্ষাকালে এই ব্রিজ দিয়ে কৃষি জমি গুলোর পানি প্রবাহ হয়। অব্যাহতভাবে দশচাকার ড্রাম ট্রাক দিয়ে বালু পরিবহন করায় অনেক আগেই ব্রিজটির মধ্যে ফাঁটল দেখা দিয়েছিল। শেষ মেষ সোমবার রাতে সম্পূর্ণ ব্রিজটি ভেঙ্গে ফেলে সেখানে বালু ভরাট করতে শুরু করে বালু ব্যবসায়ীরা। কোন অনুমতি না থাকায় ব্রিজটি ভাঙ্গায় স্হানীয়দের তোপের মুখে এবং অবরোধের মূখে পড়ে বালু ব্যবসায়িরা।
স্হানীয় বাসিন্দারা বলেন, তাদের অনেক ক্ষমতা, কেউ মূখ খুললেই মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়। এছাড়া অনুমতি ছাড়া কেমনে ব্রিজটি ভাঙ্গলো তা নিয়ে অনেকে সংষয় প্রকাশ করেন। এরা রাজনৈতিক নেতা পরিচয়ে আইনকে তোয়াক্কাই করছেনা। তারা জানান, এমন অবস্থায় ব্রিজটি থাকলে বর্ষাকালে আমাদের কৃষি জমি ডুবে যাবে। আমরা ব্যাপক ক্ষতির শিকার হবো।
এ বিষয়ে বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ময়নূল হক বলেন ব্রিজ ভাঙ্গার কারণে ড্রাম ট্রাক ও বুলডোজার ঘটনাস্থলে আছে। বালু ও ট্রাক নিয়ামুল হকের। গ্রামের রাস্তা দিয়ে এভাবে নদীর বালু দিনের পর দিন পরিবহনের বৈধতা আছে কিনা আমি জানিনা। আপনি তার সাথ যোগাযোগ করেন।
মিঠাপুকুর উপজেলায় সদ্য সমাপ্ত ইউপি – নির্বাচনে উপজেলার লতিবপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত নিয়ামুল হক মন্ডলের সাথ যোগাযোগ করা হলে তিনি বালু বহনের জন্য তার বৈধতা আছে বলে জানান।
উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) আক্তারুজ্জামান জানান, রাস্তা ও ব্রিজ ভাঙ্গার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। এখনো কোন সমাধান হয়নি। আশাকরি ২৩ মার্চ বুধবার সমস্যা সমাধান হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

রাজশাহী মহানগরীতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাই! দুই ভুয়া ডিবি গ্রেফতার

মিঠাপুকুরে বালু ব্যবসায়ীরা ড্রামট্রাক চলাচলের জন্য বুলডোজার দিয়ে ভাঙ্গলো ব্রিজ

আপডেট সময় ০৩:২৯:৩৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৩ মার্চ ২০২২
রুবেল হোসাইন (সংগ্রাম)-
মিঠাপুকুরে দিন দিন বাড়ছে বালু ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম। রাজনৈতিক আর স্হানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় গড়ে উঠেছে বালু সিন্ডিকেট। উপজেলার বিভিন্ন গ্রামীন অবকাঠামো, রাস্তাঘাট, ব্রিজ, কালভার্ট ভেঙ্গে আর ফেঁটে এখন চৌচির। অবৈধভাবে বালু উত্তলনের ফলে হুমকির মুখে কৃষি জমি, নদনদী আর ছোট বড় বিল। বালু উত্তলনে বিভিন্ন সময়ে জরিমানা করা হলেও থামছেনা অবৈধভাবে বালু উত্তলনকারীরা। রাত দিন চলছে দশ চাকার ড্রাম ট্রাক দিয়ে বালু পরিবহন, ফলে ধূলিকণায় ঢেকে যাচ্ছে ফসলি জমি, ঘরবাড়ী এবং পথচারীরা।
এবার মিঠাপুকুর উপজেলার বালুয়ায় জনগণের চলাচলের জন্য নির্মিত একটি ব্রিজ বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে দিয়েছেন বালু ব্যবসায়ীরা। গত-(২১ মার্চ) সোমবার রাতে বালু পরিবহনের জন্য দশচাকার ড্রাম ট্রাক, ব্রিজটি দিয়ে পার হতে না পারায়, কাউকে না জানিয়ে, আইন কানুনের তোয়াক্কা না করে ব্রিজটি বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে ফেলেছেন বালু ব্যবসায়ীরা। ব্রিজটি ভেঙ্গে ফেলার সময় বাঁধা দেন স্হানীয়রা। এতে বালু ব্যবসায়ি ও স্হানীয়দের মধ্যে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ট্রাক ও বুলডোজারটি জব্দ করে উপজেলা প্রশাসন।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নের মরাহাটি বাজার নামক স্হানে ব্রিজটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। রাস্তার দুপাশে রয়েছে কয়েকশ একর কৃষিজমি। বর্ষাকালে এই ব্রিজ দিয়ে কৃষি জমি গুলোর পানি প্রবাহ হয়। অব্যাহতভাবে দশচাকার ড্রাম ট্রাক দিয়ে বালু পরিবহন করায় অনেক আগেই ব্রিজটির মধ্যে ফাঁটল দেখা দিয়েছিল। শেষ মেষ সোমবার রাতে সম্পূর্ণ ব্রিজটি ভেঙ্গে ফেলে সেখানে বালু ভরাট করতে শুরু করে বালু ব্যবসায়ীরা। কোন অনুমতি না থাকায় ব্রিজটি ভাঙ্গায় স্হানীয়দের তোপের মুখে এবং অবরোধের মূখে পড়ে বালু ব্যবসায়িরা।
স্হানীয় বাসিন্দারা বলেন, তাদের অনেক ক্ষমতা, কেউ মূখ খুললেই মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়। এছাড়া অনুমতি ছাড়া কেমনে ব্রিজটি ভাঙ্গলো তা নিয়ে অনেকে সংষয় প্রকাশ করেন। এরা রাজনৈতিক নেতা পরিচয়ে আইনকে তোয়াক্কাই করছেনা। তারা জানান, এমন অবস্থায় ব্রিজটি থাকলে বর্ষাকালে আমাদের কৃষি জমি ডুবে যাবে। আমরা ব্যাপক ক্ষতির শিকার হবো।
এ বিষয়ে বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ময়নূল হক বলেন ব্রিজ ভাঙ্গার কারণে ড্রাম ট্রাক ও বুলডোজার ঘটনাস্থলে আছে। বালু ও ট্রাক নিয়ামুল হকের। গ্রামের রাস্তা দিয়ে এভাবে নদীর বালু দিনের পর দিন পরিবহনের বৈধতা আছে কিনা আমি জানিনা। আপনি তার সাথ যোগাযোগ করেন।
মিঠাপুকুর উপজেলায় সদ্য সমাপ্ত ইউপি – নির্বাচনে উপজেলার লতিবপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত নিয়ামুল হক মন্ডলের সাথ যোগাযোগ করা হলে তিনি বালু বহনের জন্য তার বৈধতা আছে বলে জানান।
উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) আক্তারুজ্জামান জানান, রাস্তা ও ব্রিজ ভাঙ্গার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। এখনো কোন সমাধান হয়নি। আশাকরি ২৩ মার্চ বুধবার সমস্যা সমাধান হবে।