বাংলাদেশ ০১:২৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:২১:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০২৩
  • ১৬৩৯ বার পড়া হয়েছে

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ
১৬ নভেম্বর কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে “ভালুকায় অটো চালককে দুই হাত ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে” শিরোনামে একটি সংবাদ আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পুর্ন মিথ্যা, বানোয়াট,উদ্দেশ্য প্রনোদিত ও মনগড়া। কারন সংবাটিতে লিখা হয়েছে কাচিনা গ্রামের মোছলেম উদ্দিনের ছেলে সেলিম ও ছোট কাশর গ্রামের আবু জাফরের ছেলে নাঈম সরকার অটো চালককে রড দিয়ে পিটিয়ে দুই হাত ভেঙ্গে দিয়েছে।
কিন্তু গত ১৩ নভেম্বর সন্ত্রাসী হামলায় সেলিম গুরতর আহত হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে সেখানকার ডাক্তাররা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ করেন, ঢাকায় জাপান ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালে ৪ ঘন্টার বেশি সময় ICU তে থাকার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য ইবনেসিনা তে পাঠানো হয়, সেলিম এখনও ঢাকার ইবনেসিনা হাসপাতালে মুমূর্ষু অবস্থায় চিকিৎসাধীন।
প্রশ্ন হলো ১৩ নভেম্বর থেকে সেলিম মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ১৫ নভেম্বর কি করে অটো চালকের উপর হামলা করলো? হাসপাতালে খোজ নিলেই প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে। প্রকৃত সত্য হলো ওই অটো চালক একটি প্রাইভেট কারের এক পাশে অটো আংশিক সংঘর্ষ করলে প্রাইভেট কারটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ঘটনায় অটো চালক ভুল শিকার না করে সে কিছুই হয়নি এমন ভাব করে চলে যায়।
পরে স্থানীয়রা অটো চালককে পিছনে তারা করে আটক করে ও চর থাপ্পর দেয়। পরে শুনতে পাই ওই অটো চালকের হাত ভেঙ্গে গেছে, তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।ঘটনাটি যাতে অন্য দিকে মোড় নেয় এবং সেলিম ও আমার ছেলে নাঈম সরকারকে ফাসানো যায় এই উদ্দেশ্যই অন্য  কেও অটো চালকের উপর হামলা করে থাকতে পারে।
সেলিমের উপর যারা হামলা চালায় তারা এই ঘটনার ফায়দা নেওয়ার জন্য এই ধরনের মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি এহেন মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত সংবাদের তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
নিবেদক
আবু জাফর সরকার
গ্রাম: ছোট কাশর
উপজেলাঃ ভালুকা
জেলাঃ ময়মনসিংহ।
আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

আপডেট সময় ১০:২১:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০২৩
প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ
১৬ নভেম্বর কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে “ভালুকায় অটো চালককে দুই হাত ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে” শিরোনামে একটি সংবাদ আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটি সম্পুর্ন মিথ্যা, বানোয়াট,উদ্দেশ্য প্রনোদিত ও মনগড়া। কারন সংবাটিতে লিখা হয়েছে কাচিনা গ্রামের মোছলেম উদ্দিনের ছেলে সেলিম ও ছোট কাশর গ্রামের আবু জাফরের ছেলে নাঈম সরকার অটো চালককে রড দিয়ে পিটিয়ে দুই হাত ভেঙ্গে দিয়েছে।
কিন্তু গত ১৩ নভেম্বর সন্ত্রাসী হামলায় সেলিম গুরতর আহত হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে সেখানকার ডাক্তাররা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ করেন, ঢাকায় জাপান ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালে ৪ ঘন্টার বেশি সময় ICU তে থাকার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য ইবনেসিনা তে পাঠানো হয়, সেলিম এখনও ঢাকার ইবনেসিনা হাসপাতালে মুমূর্ষু অবস্থায় চিকিৎসাধীন।
প্রশ্ন হলো ১৩ নভেম্বর থেকে সেলিম মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকায় চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ১৫ নভেম্বর কি করে অটো চালকের উপর হামলা করলো? হাসপাতালে খোজ নিলেই প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে। প্রকৃত সত্য হলো ওই অটো চালক একটি প্রাইভেট কারের এক পাশে অটো আংশিক সংঘর্ষ করলে প্রাইভেট কারটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ঘটনায় অটো চালক ভুল শিকার না করে সে কিছুই হয়নি এমন ভাব করে চলে যায়।
পরে স্থানীয়রা অটো চালককে পিছনে তারা করে আটক করে ও চর থাপ্পর দেয়। পরে শুনতে পাই ওই অটো চালকের হাত ভেঙ্গে গেছে, তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।ঘটনাটি যাতে অন্য দিকে মোড় নেয় এবং সেলিম ও আমার ছেলে নাঈম সরকারকে ফাসানো যায় এই উদ্দেশ্যই অন্য  কেও অটো চালকের উপর হামলা করে থাকতে পারে।
সেলিমের উপর যারা হামলা চালায় তারা এই ঘটনার ফায়দা নেওয়ার জন্য এই ধরনের মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি এহেন মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত সংবাদের তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
নিবেদক
আবু জাফর সরকার
গ্রাম: ছোট কাশর
উপজেলাঃ ভালুকা
জেলাঃ ময়মনসিংহ।