বাংলাদেশ ০১:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
ফাল্গুনেও বসন্ত আসেনি আম বাগানগুলোতে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ অভিযানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, মেয়াদ উর্ত্তীন রেজিস্ট্রেশন, ডাক্তারের এর নামের শেষে প্রতারণামূলক পদবী ব্যবহার সহ বিভিন্ন অপরাধের দায়ে ০৫ টি ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ০১ টি চিকিৎসালয়কে জরিমানা। সরকার মানুষের ভোটাধিকার ও বাকস্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে : এড. এমরান চৌধুরী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্র সরবরাহ করতে গিয়ে পেকুয়ার জয়নাল র‍্যাবে হাতে আটক ভান্ডারিয়ায় মাদ্রাসার দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ ১২নং চাঁদপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গরীরের চেয়ারম্যান মানিক চৌধুরী জনপ্রিয়তার শীর্ষে ধর্ষণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী কে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৬। বিদেশী মদসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১। নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা মামলার আসামি কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-০২। শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালের ভয় দেখিয়ে যুবতীকে ধর্ষণ এর সাথে জড়িত প্রধান আসামীকে গ্রেফতার। মহিপুর মৎস্য আড়ৎ পট্টিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড; ভস্মিভূত একাধিক আড়ৎ- দোকান পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশনের নব নির্বাচিত সভাপতি মনিরুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা রাসেল সেনাবাহিনীকে আরও আধুনিক বাহিনীতে পরিণত করা হবে প্রধানমন্ত্রী রায়গঞ্জে প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি রফিকুল সম্পাদক ইয়ামিন কাল রুয়েটে প্রকৌশল গুচ্ছ পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে সাড়ে সাত হাজার ভর্তিচ্ছু

ব্রিজ ভেঙে খালে, ভোগান্তিতে ১০ গ্রামের মানুষ

ব্রিজ ভেঙে খালে, ভোগান্তিতে ১০ গ্রামের মানুষ

আশরাফুল ইসলাম সাওন,
তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
বরগুনার তালতলী উপজেলার কড়ই বাড়িয়া ইউনিয়নের বেহালা-শানুর বাজার খালের সংযোগ ব্রিজটি গতকাল শনিবার (১৯ মার্চ) রাত ৯ টার দিকে ব্রিজটি হঠাৎ খালে ভেঙে পড়ে। তবে এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।
ব্রিজটি ভেঙে হাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে প্রায় ১০ গ্রামের মানুষ। ছোট্ট একটি ডিঙি নৌকায় ঝুকি নিয়ে পারাপার করছে মানুষ। এই ব্রিজটি প্রায় ৫ বছর ধরে ঝুক পূর্ণ ছিলো।
স্থানীয় প্রকৌশলী বিভাগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কড়ইবাড়িয়া ইউনিয়নের বেহালা-শানুর বাজার খালের ওপর ব্রিজটি প্রায় ২০ বছর আগে নির্মাণ করা হয়েছে। এর পর থেকে আর কোনো সংস্কার হয়নি। এই ব্রিজটি দিয়ে তালতলী সদর বাজারসহ জেলা শহরে ঐ এলাকার প্রায় ১০ টি গ্রামের প্রায় ৮ হাজার গ্রামবাসীর চলাচল করে। একই সাথে এবং বেহালা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও তিনটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহস্রাধিক শিক্ষার্থীদের আসা-যাওয়া করে।
ব্রিজটি দীর্ঘদিনেও সংস্কার না করায় লোহার এঙ্গেলগুলো নোনা পানিতে নষ্ট হয়ে যায়। সেতুটি ভেঙে যাওয়ায় জনসাধারণ ও স্কুলশিক্ষর্থীদের চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে ৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। ব্যাহত হচ্ছে তাদের লেখাপড়া। এছাড়ও ঝুকি নিয়ে ডিঙি নৌকায় ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে মানুষ।
রবিবার (২০ মার্চ) দুপুরের দিকে সরেজমিন দেখা যায়, ব্রিজটি সম্পূর্ণ ধসে খালের পানির মধ্যে পড়ে আছে। আর ব্রিজটির দুই পাড়ে স্কুল শিক্ষার্থ ও ব্যবসায়ীরা হাটবাজারে যাওয়ার জন্য পারাপারের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছে। পারাপারের জন্য ঝুঁকি নিয়েই ডিঙি নৌকায় খাল পার হচ্ছেন। ওই দুই ইউনিয়নের ৮ হাজার মানুষের যাতায়াতের জন্য এই ব্রিজটিই একমাত্র মাধ্যম।
শানুর বাজারে প্রতিষ্ঠিতা শানু হাওলাদার বলেন, ব্রিজের পাশে আমার বাসা রাত ১০ টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দ পাই। এরপরে গিয়ে দেখি ব্রিজটি ভেঙে খালে পড়ে যায়।তিনি আরও বলেন এই ব্রিজটি প্রায় ১৫ বছরেও বেশি সময় ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়ে আছে। স্থানীয়রা সংস্কার করে র্দীঘ দিন ঝুকি নিয়ে চলাচল করেছে। পরে একাধিক বার নতুন ব্রিজ নির্মানের আবেদন করা হলেও কোনো উদ্যোগ নেয়নি স্থানীয় প্রকৌশলী বিভাগ। তাই দ্রুত নতুন একটি সেতু নির্মান করা দরকার।
মাদব চন্দ্র দেবনাথ ও আ.রশীদ বলেন, বাজারের কাজ শেষ করে রাতে বাড়ি যাওয়ার জন্য ব্রিজে উঠার সাথে সাথে ভেঙে পরে। এসময় দৌড়ে এক পারে চলে আসি। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
তালতলী উপজেলা প্রকৌশলী আহম্মদ আলী বলেন, ব্রিজটি পূর্ণ নির্মানে জন্য ইতিমধ্যে সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। এখন বরাদ্ধের জন্য অপেক্ষ করছি। এর ভিতরেই ব্রিজটি ভেঙে গেছে। তবে বরাদ্ধ খুব শীঘ্রই পেয়ে যাবো। বরাদ্ধ পেলেই ব্রিজটি পূর্ণ নির্মানের কাজ শুরু করা হবে। তিনি আরও বলেন স্থানীয়দের চলাচলের জন্য বিকল্প ব্যবস্থার জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের সাথে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

ফাল্গুনেও বসন্ত আসেনি আম বাগানগুলোতে

ব্রিজ ভেঙে খালে, ভোগান্তিতে ১০ গ্রামের মানুষ

আপডেট সময় ০৭:১৪:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ মার্চ ২০২২
আশরাফুল ইসলাম সাওন,
তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
বরগুনার তালতলী উপজেলার কড়ই বাড়িয়া ইউনিয়নের বেহালা-শানুর বাজার খালের সংযোগ ব্রিজটি গতকাল শনিবার (১৯ মার্চ) রাত ৯ টার দিকে ব্রিজটি হঠাৎ খালে ভেঙে পড়ে। তবে এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।
ব্রিজটি ভেঙে হাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে প্রায় ১০ গ্রামের মানুষ। ছোট্ট একটি ডিঙি নৌকায় ঝুকি নিয়ে পারাপার করছে মানুষ। এই ব্রিজটি প্রায় ৫ বছর ধরে ঝুক পূর্ণ ছিলো।
স্থানীয় প্রকৌশলী বিভাগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কড়ইবাড়িয়া ইউনিয়নের বেহালা-শানুর বাজার খালের ওপর ব্রিজটি প্রায় ২০ বছর আগে নির্মাণ করা হয়েছে। এর পর থেকে আর কোনো সংস্কার হয়নি। এই ব্রিজটি দিয়ে তালতলী সদর বাজারসহ জেলা শহরে ঐ এলাকার প্রায় ১০ টি গ্রামের প্রায় ৮ হাজার গ্রামবাসীর চলাচল করে। একই সাথে এবং বেহালা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও তিনটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহস্রাধিক শিক্ষার্থীদের আসা-যাওয়া করে।
ব্রিজটি দীর্ঘদিনেও সংস্কার না করায় লোহার এঙ্গেলগুলো নোনা পানিতে নষ্ট হয়ে যায়। সেতুটি ভেঙে যাওয়ায় জনসাধারণ ও স্কুলশিক্ষর্থীদের চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে ৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। ব্যাহত হচ্ছে তাদের লেখাপড়া। এছাড়ও ঝুকি নিয়ে ডিঙি নৌকায় ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে মানুষ।
রবিবার (২০ মার্চ) দুপুরের দিকে সরেজমিন দেখা যায়, ব্রিজটি সম্পূর্ণ ধসে খালের পানির মধ্যে পড়ে আছে। আর ব্রিজটির দুই পাড়ে স্কুল শিক্ষার্থ ও ব্যবসায়ীরা হাটবাজারে যাওয়ার জন্য পারাপারের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছে। পারাপারের জন্য ঝুঁকি নিয়েই ডিঙি নৌকায় খাল পার হচ্ছেন। ওই দুই ইউনিয়নের ৮ হাজার মানুষের যাতায়াতের জন্য এই ব্রিজটিই একমাত্র মাধ্যম।
শানুর বাজারে প্রতিষ্ঠিতা শানু হাওলাদার বলেন, ব্রিজের পাশে আমার বাসা রাত ১০ টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দ পাই। এরপরে গিয়ে দেখি ব্রিজটি ভেঙে খালে পড়ে যায়।তিনি আরও বলেন এই ব্রিজটি প্রায় ১৫ বছরেও বেশি সময় ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়ে আছে। স্থানীয়রা সংস্কার করে র্দীঘ দিন ঝুকি নিয়ে চলাচল করেছে। পরে একাধিক বার নতুন ব্রিজ নির্মানের আবেদন করা হলেও কোনো উদ্যোগ নেয়নি স্থানীয় প্রকৌশলী বিভাগ। তাই দ্রুত নতুন একটি সেতু নির্মান করা দরকার।
মাদব চন্দ্র দেবনাথ ও আ.রশীদ বলেন, বাজারের কাজ শেষ করে রাতে বাড়ি যাওয়ার জন্য ব্রিজে উঠার সাথে সাথে ভেঙে পরে। এসময় দৌড়ে এক পারে চলে আসি। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
তালতলী উপজেলা প্রকৌশলী আহম্মদ আলী বলেন, ব্রিজটি পূর্ণ নির্মানে জন্য ইতিমধ্যে সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। এখন বরাদ্ধের জন্য অপেক্ষ করছি। এর ভিতরেই ব্রিজটি ভেঙে গেছে। তবে বরাদ্ধ খুব শীঘ্রই পেয়ে যাবো। বরাদ্ধ পেলেই ব্রিজটি পূর্ণ নির্মানের কাজ শুরু করা হবে। তিনি আরও বলেন স্থানীয়দের চলাচলের জন্য বিকল্প ব্যবস্থার জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারের সাথে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।