বাংলাদেশ ১০:০৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
তালতলীর খালাকে হত্যার পর কানের রিং বিক্রি করে খুনিকে টাকা দেয় ভাগ্নে কলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সুপারিশ রাঙ্গাবালীতে মৎস্য ব্যবসায়ী রাসাদ হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন। পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরনকে কেন্দ্র করে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মিলন মেলায় পরিনত  নাটোরের বড়াইগ্রামে বর্ণিল আয়োজনে পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরণ। পঞ্চগড়ের বোদায় ট্যাপেন্ডাডল ট্যাবলেটসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। রায়গঞ্জের বিভিন্ন গাছে গাছে দেখা যাচ্ছে আমের মুকুল মুক্তিযোদ্বা প্রজন্ম লীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখমকে কেন্দ্র করে পিরোজপুর শহরে উত্তেজনা রাবিতে চাঁদপুর পরিবারের নেতৃত্বে ইমন-রাহিম ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইঞ্জিঃ পিলাব মল্লিক (গোল্ডেন) -এর সংবাদ  সম্মেলন    ঝালকাঠিতে ৮টি গাঁজাগাছ ও ১৫পিস ইয়াবাসহ আটক-২ ঝালকাঠির নবগ্রামের শতবর্ষী রেইন্ট্রি গাছ নিয়ে গুনাই বিবি নাটকের রূপ কথার গল্প চার শিশুর জন্ম দিল এক মা। শিশুরা সবাই সুস্থ আছেন। ভান্ডারিয়ায় ৯৬ হাজার স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে শুভ উদ্বোধন

সংসদে ইমাম মুয়াজ্জিনদের সরকারি বেতন ভাতার দাবি পিরোজপুর-২ আসনের সাংসদ মহারাজের

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০১:১৯:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • ১৫৯৮ বার পড়া হয়েছে

সংসদে ইমাম মুয়াজ্জিনদের সরকারি বেতন ভাতার দাবি পিরোজপুর-২ আসনের সাংসদ মহারাজের

 

 

মামুন হোসেন, পিরোজপুর প্রতিনিধি: দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে দেশের সকল মসজিদের ইমাম মুয়াজ্জিন ও খতিবদের সরকারি ভাবে বেতন ভাতা দেয়ার দাবি উঠেছে।

মঙ্গলবার (৬ জানুয়ারি) ৭১ বিধি অনুসারে জন-গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণ করে সংসদ অধিবেশনে এ দাবি তোলেন পিরোজপুর-২ আসনের নবনির্বাচিত স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মহিউদ্দীন মহারাজ।

সংসদে দেয়া বক্তব্যে মহিউদ্দীন মহারাজ বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি ধর্মপ্রাণ মুসলমানের কাছে মসজিদ এবং ইমাম-মুয়াজ্জিন ও খতিবগণ অত্যন্ত সম্মান ও শ্রদ্ধার পাত্র হলেও তারা যথাযথ সম্মানী ও ভাতা পান না।

দেশের প্রায় তিন লক্ষাধিক মসজিদ রয়েছে জানিয়ে মহিউদ্দীন মহারাজ বলেন, ইমাম মুয়াজ্জিন ও খতিবরা সরকারিভাবে কোনো নির্দিষ্ট সম্মানী বা বেতন না পাওয়ায় স্থানীয়ভাবে সংগৃহীত সামান্য সম্মানী ও সুযোগ- সুবিধা নিয়ে তাদের জীবন ধারণ করতে হচ্ছে। এতে করে ইমাম মুয়াজ্জিনরা প্রতিনিয়ত অর্থনৈতিক ও সামাজিক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন বলেও দাবি করেন মহারাজ। তাই তাদের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধির জন্য সরকারিভাবে দেশের সকল মসজিদের ইমাম মুয়াজ্জিনদের বেতন ভাতা দেয়ার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। মহিউদ্দীন মহারাজ দাবি করেন, দেশের বেশিরভাগ মসজিদ পরিচালনার জন্য কোনো সুনির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকায় মসজিদগুলো মূলত পরিচালিত হচ্ছে পরিচালনা কমিটির খেয়াল খুশি মতো। মসজিদ কমিটিগুলো মসজিদের অবকাঠামোগত উন্নয়নকে ব্যাপক গুরুত্ব দিলেও ইমাম-মুয়াজ্জিনদের বেতন-ভাতার ব্যাপারে উদাসীন দেখা যায়।

 

 

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

তালতলীর খালাকে হত্যার পর কানের রিং বিক্রি করে খুনিকে টাকা দেয় ভাগ্নে

সংসদে ইমাম মুয়াজ্জিনদের সরকারি বেতন ভাতার দাবি পিরোজপুর-২ আসনের সাংসদ মহারাজের

আপডেট সময় ০১:১৯:৩৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

 

মামুন হোসেন, পিরোজপুর প্রতিনিধি: দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে দেশের সকল মসজিদের ইমাম মুয়াজ্জিন ও খতিবদের সরকারি ভাবে বেতন ভাতা দেয়ার দাবি উঠেছে।

মঙ্গলবার (৬ জানুয়ারি) ৭১ বিধি অনুসারে জন-গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণ করে সংসদ অধিবেশনে এ দাবি তোলেন পিরোজপুর-২ আসনের নবনির্বাচিত স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মহিউদ্দীন মহারাজ।

সংসদে দেয়া বক্তব্যে মহিউদ্দীন মহারাজ বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি ধর্মপ্রাণ মুসলমানের কাছে মসজিদ এবং ইমাম-মুয়াজ্জিন ও খতিবগণ অত্যন্ত সম্মান ও শ্রদ্ধার পাত্র হলেও তারা যথাযথ সম্মানী ও ভাতা পান না।

দেশের প্রায় তিন লক্ষাধিক মসজিদ রয়েছে জানিয়ে মহিউদ্দীন মহারাজ বলেন, ইমাম মুয়াজ্জিন ও খতিবরা সরকারিভাবে কোনো নির্দিষ্ট সম্মানী বা বেতন না পাওয়ায় স্থানীয়ভাবে সংগৃহীত সামান্য সম্মানী ও সুযোগ- সুবিধা নিয়ে তাদের জীবন ধারণ করতে হচ্ছে। এতে করে ইমাম মুয়াজ্জিনরা প্রতিনিয়ত অর্থনৈতিক ও সামাজিক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন বলেও দাবি করেন মহারাজ। তাই তাদের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধির জন্য সরকারিভাবে দেশের সকল মসজিদের ইমাম মুয়াজ্জিনদের বেতন ভাতা দেয়ার জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। মহিউদ্দীন মহারাজ দাবি করেন, দেশের বেশিরভাগ মসজিদ পরিচালনার জন্য কোনো সুনির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকায় মসজিদগুলো মূলত পরিচালিত হচ্ছে পরিচালনা কমিটির খেয়াল খুশি মতো। মসজিদ কমিটিগুলো মসজিদের অবকাঠামোগত উন্নয়নকে ব্যাপক গুরুত্ব দিলেও ইমাম-মুয়াজ্জিনদের বেতন-ভাতার ব্যাপারে উদাসীন দেখা যায়।