বাংলাদেশ ০১:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে
ঝালকাঠিতে প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করা হয় শিক্ষার্থীদের

ঝালকাঠিতে প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করা হয় শিক্ষার্থীদের

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৫২:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৭২৯ বার পড়া হয়েছে
ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ 
ঝালকাঠির রাজাপুরে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করছেন রতন চন্দ্র বৈরাগী নামে এক স্কুল শিক্ষক। রতন চন্দ্র বৈরাগী উপজেলার গালুয়া এসকে বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সমাজ-বিজ্ঞান বিভাগে  শিক্ষক।
জানাগেছে, গালুয়া এসকে বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক না থাকায় সমাজ-বিজ্ঞানে নিয়োগ প্রাপ্ত রতন চন্দ্র বৈরাগীকে কয়েক দিনের জন্য ইংরেজি ক্লাস নিতে বলেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। রতন সেই সুযোগে নিজেকে ইংরেজি শিক্ষক দাবী করে স্কুলের শিক্ষার্থীদের তার কাছে প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করছেন। তার কাছে যারা পড়তে না আসে বিভিন্ন অযুহাতে পরীক্ষায় তাদের নম্বর কমিয়ে দেয় হয়। আর যারা নিয়মিত রতনের কাছে প্রাইভেট পড়ে তাদের নম্বর বেশি দিয়ে থাকেন। যেই স্কুলে শিক্ষক সেই স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়াতে বাধা থাকলেও তিনি নিয়মিত প্রাইভেট চালিয়ে যাচ্ছেন। এমনকি এই করোনা কালেও সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তার প্রাইভেট বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন।
প্রাইভেট পড়ানোর বিষয়টি স্বীকার করে অভিযুক্ত রতন চন্দ্র বৈরাগী জানায়, শিক্ষার্থীরা আমার কাছে পড়তে চায় বিধায় তাদের প্রাইভেট পড়াই। তবে নম্বর বেশি বা কাউকে কম দেয়ার বিষয়টি সত্য নয়।
অভিবাবক মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ইংরেজি শিক্ষক না হয়েও আমার মেয়েকে রতন বাবু প্রাইভেট পড়াতে চায়। আমার মেয়েও তার কাছে কিছু দিন প্রাইভেট পড়ে বাদ দেয়। পরীক্ষার খাতায় রতন বাবু আমার মেয়েকে নম্বর কমিয়ে দেয়।
গালুয়া এসকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গির হোসেন জানান, যেই স্কুলের শিক্ষক সেই স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ানো কোন বিধান নেই। নিয়ম নিতীর তোয়াক্কা না করে রতন বাবু প্রাইভেট চালিয়ে যাওয়ায় স্কুল কর্তৃপক্ষ রেজুলেশন করে তাকে দুই বার নোটিশ করা হয়েছে। আগে স্কুলে বসেই পড়াতো। নোটিশ করার পরে পাশেই একটি বাড়ির কক্ষ ভাড়া নিয়ে সেখানে প্রাইভেট পড়ায়।
রাজাপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এমডি আবুল বাশার তালুকদার বলেন, এসকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান শিক্ষক রতন বাবুর বিরুদ্ধে নিজেকে ইংরেজী শিক্ষক দাবি করে শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ানো,যারা প্রাইভেট না পড়ে তাদেরকে নাম্বার কম দেয়া এবং করোনাকালে নির্দেশনা অমান্য করে প্রাইভেট পড়ানোসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ আমরা পেয়েছি। তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

ঝালকাঠিতে প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করা হয় শিক্ষার্থীদের

ঝালকাঠিতে প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করা হয় শিক্ষার্থীদের

আপডেট সময় ০৫:৫২:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২২
ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ 
ঝালকাঠির রাজাপুরে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করছেন রতন চন্দ্র বৈরাগী নামে এক স্কুল শিক্ষক। রতন চন্দ্র বৈরাগী উপজেলার গালুয়া এসকে বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সমাজ-বিজ্ঞান বিভাগে  শিক্ষক।
জানাগেছে, গালুয়া এসকে বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক না থাকায় সমাজ-বিজ্ঞানে নিয়োগ প্রাপ্ত রতন চন্দ্র বৈরাগীকে কয়েক দিনের জন্য ইংরেজি ক্লাস নিতে বলেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। রতন সেই সুযোগে নিজেকে ইংরেজি শিক্ষক দাবী করে স্কুলের শিক্ষার্থীদের তার কাছে প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করছেন। তার কাছে যারা পড়তে না আসে বিভিন্ন অযুহাতে পরীক্ষায় তাদের নম্বর কমিয়ে দেয় হয়। আর যারা নিয়মিত রতনের কাছে প্রাইভেট পড়ে তাদের নম্বর বেশি দিয়ে থাকেন। যেই স্কুলে শিক্ষক সেই স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়াতে বাধা থাকলেও তিনি নিয়মিত প্রাইভেট চালিয়ে যাচ্ছেন। এমনকি এই করোনা কালেও সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তার প্রাইভেট বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন।
প্রাইভেট পড়ানোর বিষয়টি স্বীকার করে অভিযুক্ত রতন চন্দ্র বৈরাগী জানায়, শিক্ষার্থীরা আমার কাছে পড়তে চায় বিধায় তাদের প্রাইভেট পড়াই। তবে নম্বর বেশি বা কাউকে কম দেয়ার বিষয়টি সত্য নয়।
অভিবাবক মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ইংরেজি শিক্ষক না হয়েও আমার মেয়েকে রতন বাবু প্রাইভেট পড়াতে চায়। আমার মেয়েও তার কাছে কিছু দিন প্রাইভেট পড়ে বাদ দেয়। পরীক্ষার খাতায় রতন বাবু আমার মেয়েকে নম্বর কমিয়ে দেয়।
গালুয়া এসকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গির হোসেন জানান, যেই স্কুলের শিক্ষক সেই স্কুল শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ানো কোন বিধান নেই। নিয়ম নিতীর তোয়াক্কা না করে রতন বাবু প্রাইভেট চালিয়ে যাওয়ায় স্কুল কর্তৃপক্ষ রেজুলেশন করে তাকে দুই বার নোটিশ করা হয়েছে। আগে স্কুলে বসেই পড়াতো। নোটিশ করার পরে পাশেই একটি বাড়ির কক্ষ ভাড়া নিয়ে সেখানে প্রাইভেট পড়ায়।
রাজাপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এমডি আবুল বাশার তালুকদার বলেন, এসকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞান শিক্ষক রতন বাবুর বিরুদ্ধে নিজেকে ইংরেজী শিক্ষক দাবি করে শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ানো,যারা প্রাইভেট না পড়ে তাদেরকে নাম্বার কম দেয়া এবং করোনাকালে নির্দেশনা অমান্য করে প্রাইভেট পড়ানোসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ আমরা পেয়েছি। তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।