বাংলাদেশ ০৩:৩৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

নওগাঁয় সৎ মায়ের কারনে পিতার ভিটায় ঠাই হলো না প্রবাসী নজরুলের

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১২:৫৯:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ১৬২১ বার পড়া হয়েছে

নওগাঁ প্রতিনিধি, মোঃ সারোয়ার হোসেন অপু 

নওগাঁ সদর উপজেলার কির্ত্তিপুর ইউনিয়নের দাসকান্দি গ্রামের নজরুল ইসলাম কে তাঁর পরিবার সহ বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে তার বাড়িঘর ভাংচুর করছে তার সৎ মা ও তার ভাইয়েরা। জানা গেছে নজরুল ইসলাম, আব্দুল গফুর শাহ্ প্রথম পক্ষের সন্তান।

ঘটনাটি ঘটেছে, গত সোমবার ২৮/০৮/২৩ তারিখে, পিতাকে হাত করে ৩য় পক্ষের সন্তানদের যোগ সাজসে তাদের বসবাস করা ঘর ছেড়ে দিয়ে আজ দারে দারে ঘুরছে এতিম নজরুল ইসলাম ও তাঁর পরিবার।

 

 

 

 

২ বছর বয়স কালে নজরুল ইসলামকে রেখে তার মা লুৎফা বেগম মারা যান। মৃত্যুর প্রায় ৩৫ বছর হয়ে গেছে। নজরুলের মায়ের মৃত্যুর পরে তার বাবা আরো ২ টা বিয়ে করেন। তৃতীয় স্ত্রীর উরসে ২ ছেলে ফজলু ও শফিকুল এবং মেয়ে লাবনী আক্তার জন্ম নেয়। তখন থেকে নজরুল ইসলাম অনেক কষ্ট করে সাবালক হয়ে ওই সংসারে থেকে বিয়ে করেন । বিয়ের পরে সংসারের অভাব দুর করতে ২০০৭ সালে প্রবাসে যান। দীর্ঘ প্রবাস জীবন থেকে তার বাবা সহ সৎ মা ও ভাই বোনদের খরচ পাঠাতেন। সে তার সৎ ভাই ফজলুকেও বিদেশে পাঠিয়েছেন। বর্তমানে তাঁর সৎ ভাইয়েরা বাবার সম্পত্তি থেকে নজরুল ইসলাম কে বঞ্চিত করার জন্য বিভিন্ন ভাবে অত্যাচার শুরু করেছে সৎ মায়ের পরিবার । তারই ধারাবাহিকতায় বসবাসরত ঘর ও ঘরে থাকা আসবাপত্রসহ ঘর ভেঙ্গে ফেলেছে। নজরুল ইসলামের ঘর ভাঙ্গার পরে সেই জায়গাতে পাকা ঘর নির্মানের জন্য কাজ চলছে। একারনে ভুক্তভোগি পরিবার আইনী সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন নওগাঁ জেলা অফিসে অভিযোগ করলে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা মিলেছে।

 

 

 

 

এবিষয়ে নজরুল ইসলাম বলেন, আমি বাবার সন্তান হিসেবে বাবার সেই বাড়িতে বসবাস করতাম আমাকে বের করে দিলে আমি কোথায় থাকবো। আমার দাবী বসবাসের জন্য আমার বাবার বাড়ি ভিটায় আমাকে ঠাই দেওয়া হউক। আমি সেখানে বসত বাড়ি নির্মাণ করে বউ বাচ্চা নিয়ে বসবাস করবো। সেখানে ঘর নির্মান করলে আমি কোথায় থাকবো। তাই আমি মামলার জন্য প্রস্তিতি নিচ্ছি।

 

 

 

 

আব্দুল গফুর শাহ্ বলেন, আমার পুরোনো ঘর আমি ভেঙ্গে নতুন করে ঘর করবো আমার ছেলে নজরুলকে আলাদা যায়গাতে ৫ শতক জমি দিব বসবাসের জন্য। যাতে করে কোন গন্ডগল না হয়।

 

 

 

 

এবিষয়ে কির্ত্তিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমুল হক বলেন, আমার গ্রাম আদালতে বিচার চেয়েছিল সেখানে এক পক্ষ মানে আর এক পক্ষ মানে না। তাই নজরুলের বাবার উপরে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

নওগাঁয় সৎ মায়ের কারনে পিতার ভিটায় ঠাই হলো না প্রবাসী নজরুলের

আপডেট সময় ১২:৫৯:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

নওগাঁ প্রতিনিধি, মোঃ সারোয়ার হোসেন অপু 

নওগাঁ সদর উপজেলার কির্ত্তিপুর ইউনিয়নের দাসকান্দি গ্রামের নজরুল ইসলাম কে তাঁর পরিবার সহ বাড়ি থেকে বের করে দিয়ে তার বাড়িঘর ভাংচুর করছে তার সৎ মা ও তার ভাইয়েরা। জানা গেছে নজরুল ইসলাম, আব্দুল গফুর শাহ্ প্রথম পক্ষের সন্তান।

ঘটনাটি ঘটেছে, গত সোমবার ২৮/০৮/২৩ তারিখে, পিতাকে হাত করে ৩য় পক্ষের সন্তানদের যোগ সাজসে তাদের বসবাস করা ঘর ছেড়ে দিয়ে আজ দারে দারে ঘুরছে এতিম নজরুল ইসলাম ও তাঁর পরিবার।

 

 

 

 

২ বছর বয়স কালে নজরুল ইসলামকে রেখে তার মা লুৎফা বেগম মারা যান। মৃত্যুর প্রায় ৩৫ বছর হয়ে গেছে। নজরুলের মায়ের মৃত্যুর পরে তার বাবা আরো ২ টা বিয়ে করেন। তৃতীয় স্ত্রীর উরসে ২ ছেলে ফজলু ও শফিকুল এবং মেয়ে লাবনী আক্তার জন্ম নেয়। তখন থেকে নজরুল ইসলাম অনেক কষ্ট করে সাবালক হয়ে ওই সংসারে থেকে বিয়ে করেন । বিয়ের পরে সংসারের অভাব দুর করতে ২০০৭ সালে প্রবাসে যান। দীর্ঘ প্রবাস জীবন থেকে তার বাবা সহ সৎ মা ও ভাই বোনদের খরচ পাঠাতেন। সে তার সৎ ভাই ফজলুকেও বিদেশে পাঠিয়েছেন। বর্তমানে তাঁর সৎ ভাইয়েরা বাবার সম্পত্তি থেকে নজরুল ইসলাম কে বঞ্চিত করার জন্য বিভিন্ন ভাবে অত্যাচার শুরু করেছে সৎ মায়ের পরিবার । তারই ধারাবাহিকতায় বসবাসরত ঘর ও ঘরে থাকা আসবাপত্রসহ ঘর ভেঙ্গে ফেলেছে। নজরুল ইসলামের ঘর ভাঙ্গার পরে সেই জায়গাতে পাকা ঘর নির্মানের জন্য কাজ চলছে। একারনে ভুক্তভোগি পরিবার আইনী সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন নওগাঁ জেলা অফিসে অভিযোগ করলে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা মিলেছে।

 

 

 

 

এবিষয়ে নজরুল ইসলাম বলেন, আমি বাবার সন্তান হিসেবে বাবার সেই বাড়িতে বসবাস করতাম আমাকে বের করে দিলে আমি কোথায় থাকবো। আমার দাবী বসবাসের জন্য আমার বাবার বাড়ি ভিটায় আমাকে ঠাই দেওয়া হউক। আমি সেখানে বসত বাড়ি নির্মাণ করে বউ বাচ্চা নিয়ে বসবাস করবো। সেখানে ঘর নির্মান করলে আমি কোথায় থাকবো। তাই আমি মামলার জন্য প্রস্তিতি নিচ্ছি।

 

 

 

 

আব্দুল গফুর শাহ্ বলেন, আমার পুরোনো ঘর আমি ভেঙ্গে নতুন করে ঘর করবো আমার ছেলে নজরুলকে আলাদা যায়গাতে ৫ শতক জমি দিব বসবাসের জন্য। যাতে করে কোন গন্ডগল না হয়।

 

 

 

 

এবিষয়ে কির্ত্তিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজমুল হক বলেন, আমার গ্রাম আদালতে বিচার চেয়েছিল সেখানে এক পক্ষ মানে আর এক পক্ষ মানে না। তাই নজরুলের বাবার উপরে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।