বাংলাদেশ ০৯:০৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মেহেন্দিগঞ্জে কিশোর গ্যাং এর ৬ সদস্য পুলিশের হাতে আটক। পঞ্চগড়ে বঞ্চিত শিশুদের আনন্দ দিতে শিশুস্বর্গের নানা আয়োজন শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চার নেতা কর্মীকে বহিষ্কার। অস্বাস্থ্যকর জেলি পুশকৃত চিংড়ি বাজারজাতকরণের উদ্দেশ্যে পরিবহনে সহায়তা করার অপরাধে চিংড়ি মালিককে জরিমানা ও জেলি পুশ চিংড়ি ধ্বংস করেছে র‌্যাব। কাউখালীতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতিসহ ৪ প্রার্থী জামানত হারান  চাকরি পেয়ে তো ঠিকই ঘুষ নিবেন আমরা একটু বেশি নিলে সমস্যা কি; রাবির দোকানি নরসিংদীর রায়পুরায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে পিটিয়ে হত্যা কালকিনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী তৌফিকুজ্জামান শাহীন সাহস করে উঠে দাঁড়ান নইলে কাল আপনার পালা: মঈন উদ্দিন খান মতিহারে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেপ্তার সাপাহারে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা ঘাটাইলে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার শ্রমজীবী-পথচারীদের মাঝে দাগনভূঞা সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের শরবত বিতরণ  কামারগাঁ ইউপি বাসীর পক্ষ থেকে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ময়নাকে সংবর্ধনা  সকল বাধা বিপত্তি অতিক্রম করে এগিয়ে চলেছেন রায়গঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম নান্নু

ভিডিও ছড়ানোর হুমকি প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থান

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:২৩:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৪ মার্চ ২০২২
  • ১৭১১ বার পড়া হয়েছে

ভিডিও ছড়ানোর হুমকি প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থান

 

 

নাটোর প্রতিনিধিঃ

ছেলে-মেয়ে উভয়েই পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুবাদে পরিচয়, এরপর প্রেম। পারিবারিকভাবে বিষয়টি জানাজানি হলে ছেলের বাবা মেয়েকে দেখে বিয়ের আশ্বাস দেন। এরপর তাদের ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়ে। এক পর্যায়ে বিয়ের কথা বললে চাকরি ছেড়ে বাড়িতে চলে আসে ছেলেটি। পরে মেয়েটি ছেলের বাড়িতে এসে অবস্থান নেয়। তবে এ অবস্থায় বাড়ি থেকে পালিয়ে যান বাবা ও ছেলে। এরপর থেকে গত তিনদিন বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতেই অবস্থান করছে মেয়েটি।

 

 

শুক্রবার সন্ধ্যায় নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার নগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। বড়াইগ্রাম থানার ওসি আবু সিদ্দিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

 

লাপাত্তা ওই প্রেমিকের নাম রায়হান আলী ওরফে শুভ। সে ওই গ্রামের জুলহাস উদ্দিনের ছেলে।

 

অবস্থান নেওয়া প্রেমিকা জানান, রায়হান পাবনার ঈশ্বরদীর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি করতো। আর তিনি চাকরি করতেন পাশের ইপিজেডে। এক সময় তাদের মধ্যে পরিচয় ও পরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিছুদিন পর রায়হানের বাবা তার বাড়িতে গিয়ে ছয় মাস পর বিয়ের আশ্বাসও দেন। এ অবস্থায় দুজনের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়ে। এদিকে ছয় মাস পার হলে রায়হানকে বিয়ের জন্য চাপ দেন তিনি। কিন্তু তাকে বিয়ে না করে হঠাৎ রায়হান চাকরি ছেড়ে বাড়িতে চলে আসে।

 

 

পরবর্তীতে বিয়ের কথা বললেই নিজেদের একান্তে সময় কাটানোর ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখায় রায়হান। কোনো উপায় না পেয়ে তিনি শুক্রবার সন্ধ্যায় রায়হানের বাড়িতে অবস্থান নিলে রায়হান ও তার বাবা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন প্রেমিকা।

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রায়হানের এক স্বজন বলেন, আমরা প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিয়ে বিয়ে করাতে রাজি ছিলাম। কিন্তু মেয়েটির আগে একবার বিয়ে হয়েছে শুনে পিছিয়ে গেছি।

 

বড়াইগ্রাম থানার ওসি আবু সিদ্দিক বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে তারা ঈশ্বরদী থানা এলাকায় থাকাকালে সব ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে সেখানেই মামলা করার পরামর্শ দিয়েছি।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

মেহেন্দিগঞ্জে কিশোর গ্যাং এর ৬ সদস্য পুলিশের হাতে আটক।

ভিডিও ছড়ানোর হুমকি প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অবস্থান

আপডেট সময় ০৫:২৩:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৪ মার্চ ২০২২

 

 

নাটোর প্রতিনিধিঃ

ছেলে-মেয়ে উভয়েই পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুবাদে পরিচয়, এরপর প্রেম। পারিবারিকভাবে বিষয়টি জানাজানি হলে ছেলের বাবা মেয়েকে দেখে বিয়ের আশ্বাস দেন। এরপর তাদের ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়ে। এক পর্যায়ে বিয়ের কথা বললে চাকরি ছেড়ে বাড়িতে চলে আসে ছেলেটি। পরে মেয়েটি ছেলের বাড়িতে এসে অবস্থান নেয়। তবে এ অবস্থায় বাড়ি থেকে পালিয়ে যান বাবা ও ছেলে। এরপর থেকে গত তিনদিন বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতেই অবস্থান করছে মেয়েটি।

 

 

শুক্রবার সন্ধ্যায় নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার নগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। বড়াইগ্রাম থানার ওসি আবু সিদ্দিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

 

লাপাত্তা ওই প্রেমিকের নাম রায়হান আলী ওরফে শুভ। সে ওই গ্রামের জুলহাস উদ্দিনের ছেলে।

 

অবস্থান নেওয়া প্রেমিকা জানান, রায়হান পাবনার ঈশ্বরদীর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চাকরি করতো। আর তিনি চাকরি করতেন পাশের ইপিজেডে। এক সময় তাদের মধ্যে পরিচয় ও পরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিছুদিন পর রায়হানের বাবা তার বাড়িতে গিয়ে ছয় মাস পর বিয়ের আশ্বাসও দেন। এ অবস্থায় দুজনের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা আরও বাড়ে। এদিকে ছয় মাস পার হলে রায়হানকে বিয়ের জন্য চাপ দেন তিনি। কিন্তু তাকে বিয়ে না করে হঠাৎ রায়হান চাকরি ছেড়ে বাড়িতে চলে আসে।

 

 

পরবর্তীতে বিয়ের কথা বললেই নিজেদের একান্তে সময় কাটানোর ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখায় রায়হান। কোনো উপায় না পেয়ে তিনি শুক্রবার সন্ধ্যায় রায়হানের বাড়িতে অবস্থান নিলে রায়হান ও তার বাবা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন প্রেমিকা।

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রায়হানের এক স্বজন বলেন, আমরা প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিয়ে বিয়ে করাতে রাজি ছিলাম। কিন্তু মেয়েটির আগে একবার বিয়ে হয়েছে শুনে পিছিয়ে গেছি।

 

বড়াইগ্রাম থানার ওসি আবু সিদ্দিক বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে তারা ঈশ্বরদী থানা এলাকায় থাকাকালে সব ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে সেখানেই মামলা করার পরামর্শ দিয়েছি।