বাংলাদেশ ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

মাতৃভাষা দিবসে ইবি আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে কুষ্টিয়া বৃদ্ধাশ্রমে প্রীতিভোজ, উপঢৌকন ও দিবস উদযাপন।

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৭:২১:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৭৭৯ বার পড়া হয়েছে

মাতৃভাষা দিবসে ইবি আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে কুষ্টিয়া বৃদ্ধাশ্রমে প্রীতিভোজ, উপঢৌকন ও দিবস উদযাপন।

 

 

 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি।

মাতৃভাষা দিবসে ইবি আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে কুষ্টিয়া বৃদ্ধাশ্রমে প্রীতিভোজ, উপঢৌকন ও দিবস উদযাপন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ২০১৬/২০১৭ সেশন ( ১৪তম ব্যাচ) এর পক্ষ থেকে ”মা ও শিশু পুনর্বাসন কেন্দ্র’’ কুষ্টিয়াতে আশ্রিত অসহায় মা’দের সম্মানে প্রীতিভোজ, উপহার বিতরণ ও মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করা হয়। শিক্ষার্থীরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বৃদ্ধাশ্রমের মা’দের সাথে সময় কাটায়। শিক্ষার্থীরা সকাল এগারোটায় মায়েদেরকে শাড়ি ও জুতা উপহার প্রদান করে। মা’দের সাথে নিয়ে রান্নাবান্না শেষ একত্রে খাওয়া দাওয়া করে। দুপুরের পর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মা’দের মধ্যে অনেকেই কথা বলে। শিক্ষার্থীরা মা’দের কথায় আবেগে আপ্লুত হয়। মায়েরাও শিক্ষার্থীদের পেয়ে আনন্দ প্রকাশ করেন। আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মুহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত ত্বোহা’র সমাপনী বক্তব্যের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

 

 

 

 

অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক ও আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মুহাম্মদ আব্দুল আহাদ বলেন, গত ৩ তারিখ বন্ধুদের নিয়ে কুষ্টিয়া শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এই বৃদ্ধাশ্রমে আসলাম। এখানে আসার আগে পুস্তক, পত্রিকা ও ভিডিও ক্লিপ ব্যতিত তেমন কোনো অভিজ্ঞতা ছিল না বৃদ্ধাশ্রমের বিষয়ে। কিন্তু সেদিন এক নতুন অভিজ্ঞতা যোগ হলো। মলিন মুখ আর বয়সের ছাপে একেক জন মা ঠিক মতো চলতে ফিরতে পারে না। পারে না নিজের কাজ গুলো ঠিক মতো করতে। কয়েকজন কে তো দেখলাম ৩ থেকে ৪ বার স্ট্রোক পর্যন্ত করেছে। তারপর ও তারা নিজের বসবাসের জায়গা, ভিটে মাটি ছেড়ে পরে আছে এক অচেনা আশ্রমে। যেখানে ৮০ বছরের সম্পর্কের মানুষগুলোর কেউ নেই।

 

 

 

৯০ বছর বয়সে পেয়েছে তাদের বয়সেরই কিছু নতুন সঙ্গী। তাদের এহেন অবস্থা মনে দাগ কাটলো। তারপর বন্ধুদের নিয়ে আলোচনায় বসলাম কিছু করা যায় কি না? বন্ধু মুহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত ত্বোহার পরামর্শে আজ আমরা সকল বন্ধুর সমন্বয়ে বৃদ্ধ মায়েদের জন্য যেটুকু আয়োজন করতে পেরেছি তাতে নিজেকে অনেক ধন্য মনে হচ্ছে। সমাজের বিত্তশালী সকলের প্রতি আহবান থাকবে যেন অসহায় এই মা’দের পাশে দাড়িয়ে তাদের সর্বাত্তক সহযোগিতা প্রদান করেন। আর আমার ১৪ ব্যাচের সকল বন্ধুদের প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

 

 

 

 

১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মু.সাদেকুল ইসলাম বলেন, আমরা সমাজে আজ অর্থ সম্পত্তির মোহে পরে নিজেদের রক্তের সম্পর্কের মানুষগুলোকে খুব সহজেই ভুলে যাই। মানুষ হারিয়ে ফেলছে মনুষত্ববোধ যার জন্যই আজ বৃদ্ধাশ্রমের মত আশ্রায়ন প্রতিষ্ঠা করতে হচ্ছে। সকলের প্রতি আমার আহ্বান থাকবে যেন কেউ তার মা বাবার প্রতি দূরহ কোন আচরণ না করে। সবাই যেন ভালোবাসার চাদরে ঢেকে রাখে তাদের মা-বাবাকে।

 

 

 

মা ও শিশু পুনর্বাসন কেন্দ্রের সম্মানিত চেয়ারম্যান মানবতাবাদী ইফতেখার ইসলাম মিঠু ও সম্মানিত পরিচালক জনাবা আফরোজা ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের বিজ্ঞ আইনজীবী , বহু আইনগ্রন্থ প্রণেতা জনাব সিরাজুল ইসলাম প্রামাণিক। এছাড়াও ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

মাতৃভাষা দিবসে ইবি আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে কুষ্টিয়া বৃদ্ধাশ্রমে প্রীতিভোজ, উপঢৌকন ও দিবস উদযাপন।

আপডেট সময় ০৭:২১:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২২

 

 

 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি।

মাতৃভাষা দিবসে ইবি আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে কুষ্টিয়া বৃদ্ধাশ্রমে প্রীতিভোজ, উপঢৌকন ও দিবস উদযাপন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ২০১৬/২০১৭ সেশন ( ১৪তম ব্যাচ) এর পক্ষ থেকে ”মা ও শিশু পুনর্বাসন কেন্দ্র’’ কুষ্টিয়াতে আশ্রিত অসহায় মা’দের সম্মানে প্রীতিভোজ, উপহার বিতরণ ও মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করা হয়। শিক্ষার্থীরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বৃদ্ধাশ্রমের মা’দের সাথে সময় কাটায়। শিক্ষার্থীরা সকাল এগারোটায় মায়েদেরকে শাড়ি ও জুতা উপহার প্রদান করে। মা’দের সাথে নিয়ে রান্নাবান্না শেষ একত্রে খাওয়া দাওয়া করে। দুপুরের পর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মা’দের মধ্যে অনেকেই কথা বলে। শিক্ষার্থীরা মা’দের কথায় আবেগে আপ্লুত হয়। মায়েরাও শিক্ষার্থীদের পেয়ে আনন্দ প্রকাশ করেন। আল-ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মুহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত ত্বোহা’র সমাপনী বক্তব্যের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

 

 

 

 

অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক ও আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মুহাম্মদ আব্দুল আহাদ বলেন, গত ৩ তারিখ বন্ধুদের নিয়ে কুষ্টিয়া শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এই বৃদ্ধাশ্রমে আসলাম। এখানে আসার আগে পুস্তক, পত্রিকা ও ভিডিও ক্লিপ ব্যতিত তেমন কোনো অভিজ্ঞতা ছিল না বৃদ্ধাশ্রমের বিষয়ে। কিন্তু সেদিন এক নতুন অভিজ্ঞতা যোগ হলো। মলিন মুখ আর বয়সের ছাপে একেক জন মা ঠিক মতো চলতে ফিরতে পারে না। পারে না নিজের কাজ গুলো ঠিক মতো করতে। কয়েকজন কে তো দেখলাম ৩ থেকে ৪ বার স্ট্রোক পর্যন্ত করেছে। তারপর ও তারা নিজের বসবাসের জায়গা, ভিটে মাটি ছেড়ে পরে আছে এক অচেনা আশ্রমে। যেখানে ৮০ বছরের সম্পর্কের মানুষগুলোর কেউ নেই।

 

 

 

৯০ বছর বয়সে পেয়েছে তাদের বয়সেরই কিছু নতুন সঙ্গী। তাদের এহেন অবস্থা মনে দাগ কাটলো। তারপর বন্ধুদের নিয়ে আলোচনায় বসলাম কিছু করা যায় কি না? বন্ধু মুহাম্মদ ইয়াসিন আরাফাত ত্বোহার পরামর্শে আজ আমরা সকল বন্ধুর সমন্বয়ে বৃদ্ধ মায়েদের জন্য যেটুকু আয়োজন করতে পেরেছি তাতে নিজেকে অনেক ধন্য মনে হচ্ছে। সমাজের বিত্তশালী সকলের প্রতি আহবান থাকবে যেন অসহায় এই মা’দের পাশে দাড়িয়ে তাদের সর্বাত্তক সহযোগিতা প্রদান করেন। আর আমার ১৪ ব্যাচের সকল বন্ধুদের প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

 

 

 

 

১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মু.সাদেকুল ইসলাম বলেন, আমরা সমাজে আজ অর্থ সম্পত্তির মোহে পরে নিজেদের রক্তের সম্পর্কের মানুষগুলোকে খুব সহজেই ভুলে যাই। মানুষ হারিয়ে ফেলছে মনুষত্ববোধ যার জন্যই আজ বৃদ্ধাশ্রমের মত আশ্রায়ন প্রতিষ্ঠা করতে হচ্ছে। সকলের প্রতি আমার আহ্বান থাকবে যেন কেউ তার মা বাবার প্রতি দূরহ কোন আচরণ না করে। সবাই যেন ভালোবাসার চাদরে ঢেকে রাখে তাদের মা-বাবাকে।

 

 

 

মা ও শিশু পুনর্বাসন কেন্দ্রের সম্মানিত চেয়ারম্যান মানবতাবাদী ইফতেখার ইসলাম মিঠু ও সম্মানিত পরিচালক জনাবা আফরোজা ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের বিজ্ঞ আইনজীবী , বহু আইনগ্রন্থ প্রণেতা জনাব সিরাজুল ইসলাম প্রামাণিক। এছাড়াও ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।