বাংলাদেশ ১০:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ফেরামের কার্যালয় উদ্বোধন ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত পটুয়াখালী পৌরসভার ১০ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া, সারারাত জ্বলে কোম্পানির বিলবোর্ড। বরগুনা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সাংসদ গোলাম সরোয়ার টুকু’র শুভেচ্ছা বিনিময় নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা  ইউএস অ্যাগ্রিমেন্টে অ্যাপস প্রতারণায় রাজশাহীতে ১০ মামলা নারায়ণগঞ্জে শ্রমিকদের বেতন ভাতা ও ঘোষিত মজুরি বাস্তবায়নের জন্য জনসভা আরএমপি’র কমিশনারসহ ৬ পুলিশ সদস্য পেলেন বিপিএম-পিপিএম পদক রাজশাহীতে প্রতিবছর বাড়ছে পেঁয়াজ বীজের চাষ এসএসসি ’৯৪ ব্যাচের প্রয়াত বন্ধুদের স্মরণানুষ্ঠান হত্যা মামলার দীর্ঘ ২৩ বছর যাবত পলাতক আসামী নজরুল মাঝি গ্রেফতার।  আমতলীতে গরুসহ চোর গ্রেপ্তার অপরূপ সৌন্দর্যে ঘেরা রাঙ্গাবালী, হতে পারে পর্যটনের কেন্দ্রবিন্দু। বুড়িচংয়ে বিল্লাল হোসেন ঠিকাদার ডাবল হোল্ডা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রায়গঞ্জে এনডিপির উদ্যোগে মিনি ম্যারাথন অনুষ্ঠিত এক প্রার্থীর বিরুদ্ধে কালো টাকা ছড়ানোর তুলে এক নারী মেয়র প্রার্থীর প্রার্থীতা প্রত্যাহার

ভূরুঙ্গামারীতে চৈত্র মাসে আষাঢ়ে বৃষ্টি 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৭:৫৪:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ ২০২২
  • ১৬৬২ বার পড়া হয়েছে

ভূরুঙ্গামারীতে চৈত্র মাসে আষাঢ়ে বৃষ্টি 

ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে আবহাওয়ার বৈপরীত্য লক্ষ্য করা যাচ্ছে। প্রকৃতি এবার বিচিত্র ধরনের আচরণ করছে। কখনও মেঘ ভেঙ্গে বৃষ্টি নামছে। আবার রৌদ্র বাড়লে ভ্যাপসা গরমে দরদর করে ঘাম ঝরে পড়ছে। বৃষ্টিপাতের পরই বয়ে যাচ্ছে শীতল অনুভূতি। মনে হচ্ছে প্রকৃতিতে এখন বয়ে যাচ্ছে শীতের সকাল। গত বুধবার থেকে ভূরুঙ্গামারীতে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। গোটা উপজেলা জুড়ে আকাশ ছিল মেঘলা।বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বৃষ্টি।
কখনো ঝেঁপে, কখনো গুঁড়ি গুঁড়ি। আবার কখনো মুষলধারে বৃষ্টি। বৃষ্টির ধরন দেখে বোঝার উপায় নাই এখন আষাঢ় না বসন্ত চলছে। অথচ মাসটা চৈত্র। চৈত্রের মাঝা মাঝিতে এমন বৃষ্টিতে অনেকেই বিষ্মিত। বৃষ্টির সাথে হিমেল হাওয়ার কারণে শীতের পোষাক পড়ে বাইরে বেড় হতে দেখা গেছে অনককে। অপর দিকে স্কুলগামী শিশুদের নিয়ে অভিভাবকদের পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। এ বৃষ্টিপাত দীর্ঘস্থায়ী হলে বাড়িতে কেটে রাখা গম নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন কৃষক।
উপজেলার পশ্চিম ছাট গোপালপুর গ্রামের কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, তিন বিঘা জমির পাকা গম কেটে বাড়ির উঠানে পালা দিয়ে রেখেছেন। দুই দিন থেকে বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টি না থামলে গম নষ্টের আশঙ্কা করছেন তিনি।
কুড়িগ্রাম কৃষি আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সবুর হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ২২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এটি অস্থায়ী আবহাওয়া। রংপুর বিভাগের কিছু কিছু এলাকায় হাল্কা থেখে মাঝাড়ি বৃষ্টি পাতের সম্ভবনা রয়েছে।
ভূরুঙ্গামারী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান জানান, প্রায় ৯০ শতাংশ গম কেটে ঘরে তুলেছেন কৃষক। এ বৃষ্টি পাতে কৃষকের কোন ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। বরং পাট বপনের জন‍্য তৈরি জমি ও সবজি ক্ষেতের জন‍্য উপকারি এবং বোরো আবাদে সেচ কম লাগবে চাষিদের।
জনপ্রিয় সংবাদ

নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ফেরামের কার্যালয় উদ্বোধন ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত

ভূরুঙ্গামারীতে চৈত্র মাসে আষাঢ়ে বৃষ্টি 

আপডেট সময় ০৭:৫৪:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ ২০২২
ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে আবহাওয়ার বৈপরীত্য লক্ষ্য করা যাচ্ছে। প্রকৃতি এবার বিচিত্র ধরনের আচরণ করছে। কখনও মেঘ ভেঙ্গে বৃষ্টি নামছে। আবার রৌদ্র বাড়লে ভ্যাপসা গরমে দরদর করে ঘাম ঝরে পড়ছে। বৃষ্টিপাতের পরই বয়ে যাচ্ছে শীতল অনুভূতি। মনে হচ্ছে প্রকৃতিতে এখন বয়ে যাচ্ছে শীতের সকাল। গত বুধবার থেকে ভূরুঙ্গামারীতে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। গোটা উপজেলা জুড়ে আকাশ ছিল মেঘলা।বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বৃষ্টি।
কখনো ঝেঁপে, কখনো গুঁড়ি গুঁড়ি। আবার কখনো মুষলধারে বৃষ্টি। বৃষ্টির ধরন দেখে বোঝার উপায় নাই এখন আষাঢ় না বসন্ত চলছে। অথচ মাসটা চৈত্র। চৈত্রের মাঝা মাঝিতে এমন বৃষ্টিতে অনেকেই বিষ্মিত। বৃষ্টির সাথে হিমেল হাওয়ার কারণে শীতের পোষাক পড়ে বাইরে বেড় হতে দেখা গেছে অনককে। অপর দিকে স্কুলগামী শিশুদের নিয়ে অভিভাবকদের পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। এ বৃষ্টিপাত দীর্ঘস্থায়ী হলে বাড়িতে কেটে রাখা গম নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছেন কৃষক।
উপজেলার পশ্চিম ছাট গোপালপুর গ্রামের কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, তিন বিঘা জমির পাকা গম কেটে বাড়ির উঠানে পালা দিয়ে রেখেছেন। দুই দিন থেকে বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টি না থামলে গম নষ্টের আশঙ্কা করছেন তিনি।
কুড়িগ্রাম কৃষি আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সবুর হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ২২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এটি অস্থায়ী আবহাওয়া। রংপুর বিভাগের কিছু কিছু এলাকায় হাল্কা থেখে মাঝাড়ি বৃষ্টি পাতের সম্ভবনা রয়েছে।
ভূরুঙ্গামারী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান জানান, প্রায় ৯০ শতাংশ গম কেটে ঘরে তুলেছেন কৃষক। এ বৃষ্টি পাতে কৃষকের কোন ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। বরং পাট বপনের জন‍্য তৈরি জমি ও সবজি ক্ষেতের জন‍্য উপকারি এবং বোরো আবাদে সেচ কম লাগবে চাষিদের।