বাংলাদেশ ০৫:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
‌সি‌লে‌টে কবি আবুল বশর আনসারী’র লেখা কবিতা পবিত্র সিলেট ভূমি ফলক উন্মোচন ও জীবনী নি‌য়ে আলোচনা। তিন পদে লোক নিচ্ছে হুয়াওয়ে বাংলাদেশ স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ ও হত্যার পলাতক আসামী গ্রেফতার।  তালতলীর খালাকে হত্যার পর কানের রিং বিক্রি করে খুনিকে টাকা দেয় ভাগ্নে কলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সুপারিশ রাঙ্গাবালীতে মৎস্য ব্যবসায়ী রাসাদ হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন। পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরনকে কেন্দ্র করে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মিলন মেলায় পরিনত  নাটোরের বড়াইগ্রামে বর্ণিল আয়োজনে পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরণ। পঞ্চগড়ের বোদায় ট্যাপেন্ডাডল ট্যাবলেটসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। রায়গঞ্জের বিভিন্ন গাছে গাছে দেখা যাচ্ছে আমের মুকুল মুক্তিযোদ্বা প্রজন্ম লীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখমকে কেন্দ্র করে পিরোজপুর শহরে উত্তেজনা রাবিতে চাঁদপুর পরিবারের নেতৃত্বে ইমন-রাহিম ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইঞ্জিঃ পিলাব মল্লিক (গোল্ডেন) -এর সংবাদ  সম্মেলন    ঝালকাঠিতে ৮টি গাঁজাগাছ ও ১৫পিস ইয়াবাসহ আটক-২

এমপি হয়ে শ ম রেজাউল করিমের আয় বেড়েছে ১৩০ গুণ

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:০৩:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ১৬১২ বার পড়া হয়েছে

এমপি হয়ে শ ম রেজাউল করিমের আয় বেড়েছে ১৩০ গুণ

 

 

 

 

 

মামুন হোসেন পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের বাড়িভাড়া বাবদ আয় গত পাঁচ বছরে ১৩০ গুণ বেড়েছে। পাঁচ বছর আগে এমপি হওয়ার সময় তার বাড়িভাড়া বাবদ আয় দেখানো হয়েছিলো ১৬ হাজার ৮০০ টাকা। বর্তমানে সেই আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১ লাখ ৮৮ হাজার ৮০০ টাকা।

 

 

 

 

 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে দেয়া হলফনামা বিশ্লেষণ করে এ তথ্য জানা গেছে। ২০১৮ সালে শ ম রেজাউল করিমের বাড়িভাড়া, ব্যবসা, সঞ্চয়পত্র বা আমানতের সুদসহ বিভিন্ন খাতে মোট আয় ছিল ৭৬ লাখ ৭২ হাজার টাকা। ২০২৩ সালে এই আয় কমে দাঁড়িয়েছে ৫৭ লাখ ১৫ হাজার ১৫৭ টাকা। গত নির্বাচনে তার বিভিন্ন ভাড়া বাবদ আয় দেখানো হয়েছিলো ১৬ হাজার ৮০০ টাকা।

 

 

 

 

 

পাঁচ বছর পর সে আয় ১৩০ গুণ বেড়ে দাঁড়ায় ২১ লাখ ৮৮ হাজার ৮০০ টাকা। তবে ৫ বছর আগে তার পেশাগত আয় ৬০ লাখ ২৪ হাজার ১০৩ টাকা থাকলেও পাঁচ বছর পরে এসে এ নির্বাচনে তার আয়ের সে ঘর ফাঁকা দেখানো হয়েছে। একাদশ নির্বাচনের হলফ নামায় তার স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তি দেখানো হয়েছিল ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৩ হাজার ২৮৯ টাকা।

 

 

 

 

 

সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার ৫ বছর পর ২০২৩ সালে তার স্থাবর/ অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়ায় ৭ কোটি ১৫ হাজার ৪৭২ টাকায়। ২০১৮ সালে শ ম রেজাউল করিমের ওপর নির্ভরশীলদের আয় ছিল ১০ লাখ ২০ হাজার ৬১০ টাকা, যা ২০২৩ সালে কমে হয়েছে ৮ লাখ ৫০ হাজার ৩০৭ টাকায়। তবে ২০১৮ সালে শ ম রেজাউল করিমের স্ত্রীর নামে স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ৪৩ লাখ ২৮ হাজার ৩২৬ টাকা, যা গত পাঁচ বছরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ১৫ লাখ ১২ হাজার ৭৮৫ টাকায়।

 

 

 

 

 

এ ছাড়া হলফনামার বিবরণী অনুযায়ী জানা যায়, তাদের স্বামী/স্ত্রীর উভয়ের কাছে কিছু পরিমাণ স্বর্ণ ও মূল্যবান ধাতুর তৈরি অলংকার আছে, কি পরিমাণ আছে এবং তার মূল্য কত হবে তা তাদের জানা নাই।

 

 

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

‌সি‌লে‌টে কবি আবুল বশর আনসারী’র লেখা কবিতা পবিত্র সিলেট ভূমি ফলক উন্মোচন ও জীবনী নি‌য়ে আলোচনা।

এমপি হয়ে শ ম রেজাউল করিমের আয় বেড়েছে ১৩০ গুণ

আপডেট সময় ০২:০৩:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২৩

 

 

 

 

 

মামুন হোসেন পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের বাড়িভাড়া বাবদ আয় গত পাঁচ বছরে ১৩০ গুণ বেড়েছে। পাঁচ বছর আগে এমপি হওয়ার সময় তার বাড়িভাড়া বাবদ আয় দেখানো হয়েছিলো ১৬ হাজার ৮০০ টাকা। বর্তমানে সেই আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১ লাখ ৮৮ হাজার ৮০০ টাকা।

 

 

 

 

 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে দেয়া হলফনামা বিশ্লেষণ করে এ তথ্য জানা গেছে। ২০১৮ সালে শ ম রেজাউল করিমের বাড়িভাড়া, ব্যবসা, সঞ্চয়পত্র বা আমানতের সুদসহ বিভিন্ন খাতে মোট আয় ছিল ৭৬ লাখ ৭২ হাজার টাকা। ২০২৩ সালে এই আয় কমে দাঁড়িয়েছে ৫৭ লাখ ১৫ হাজার ১৫৭ টাকা। গত নির্বাচনে তার বিভিন্ন ভাড়া বাবদ আয় দেখানো হয়েছিলো ১৬ হাজার ৮০০ টাকা।

 

 

 

 

 

পাঁচ বছর পর সে আয় ১৩০ গুণ বেড়ে দাঁড়ায় ২১ লাখ ৮৮ হাজার ৮০০ টাকা। তবে ৫ বছর আগে তার পেশাগত আয় ৬০ লাখ ২৪ হাজার ১০৩ টাকা থাকলেও পাঁচ বছর পরে এসে এ নির্বাচনে তার আয়ের সে ঘর ফাঁকা দেখানো হয়েছে। একাদশ নির্বাচনের হলফ নামায় তার স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তি দেখানো হয়েছিল ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৩ হাজার ২৮৯ টাকা।

 

 

 

 

 

সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার ৫ বছর পর ২০২৩ সালে তার স্থাবর/ অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়ায় ৭ কোটি ১৫ হাজার ৪৭২ টাকায়। ২০১৮ সালে শ ম রেজাউল করিমের ওপর নির্ভরশীলদের আয় ছিল ১০ লাখ ২০ হাজার ৬১০ টাকা, যা ২০২৩ সালে কমে হয়েছে ৮ লাখ ৫০ হাজার ৩০৭ টাকায়। তবে ২০১৮ সালে শ ম রেজাউল করিমের স্ত্রীর নামে স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ৪৩ লাখ ২৮ হাজার ৩২৬ টাকা, যা গত পাঁচ বছরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ১৫ লাখ ১২ হাজার ৭৮৫ টাকায়।

 

 

 

 

 

এ ছাড়া হলফনামার বিবরণী অনুযায়ী জানা যায়, তাদের স্বামী/স্ত্রীর উভয়ের কাছে কিছু পরিমাণ স্বর্ণ ও মূল্যবান ধাতুর তৈরি অলংকার আছে, কি পরিমাণ আছে এবং তার মূল্য কত হবে তা তাদের জানা নাই।