বাংলাদেশ ০৪:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
‌সি‌লে‌টে কবি আবুল বশর আনসারী’র লেখা কবিতা পবিত্র সিলেট ভূমি ফলক উন্মোচন ও জীবনী নি‌য়ে আলোচনা। তিন পদে লোক নিচ্ছে হুয়াওয়ে বাংলাদেশ স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ ও হত্যার পলাতক আসামী গ্রেফতার।  তালতলীর খালাকে হত্যার পর কানের রিং বিক্রি করে খুনিকে টাকা দেয় ভাগ্নে কলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সুপারিশ রাঙ্গাবালীতে মৎস্য ব্যবসায়ী রাসাদ হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন। পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরনকে কেন্দ্র করে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মিলন মেলায় পরিনত  নাটোরের বড়াইগ্রামে বর্ণিল আয়োজনে পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরণ। পঞ্চগড়ের বোদায় ট্যাপেন্ডাডল ট্যাবলেটসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। রায়গঞ্জের বিভিন্ন গাছে গাছে দেখা যাচ্ছে আমের মুকুল মুক্তিযোদ্বা প্রজন্ম লীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখমকে কেন্দ্র করে পিরোজপুর শহরে উত্তেজনা রাবিতে চাঁদপুর পরিবারের নেতৃত্বে ইমন-রাহিম ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইঞ্জিঃ পিলাব মল্লিক (গোল্ডেন) -এর সংবাদ  সম্মেলন    ঝালকাঠিতে ৮টি গাঁজাগাছ ও ১৫পিস ইয়াবাসহ আটক-২

তাসলির নিয়ন্ত্রণে কড়াইল বস্তির দখলবাজি, মাদক কারবার

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০১:৪৪:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ১৬৪৪ বার পড়া হয়েছে

তাসলির নিয়ন্ত্রণে কড়াইল বস্তির দখলবাজি, মাদক কারবার

 

সোহেল রানা প্রতিনিধি:
২০ বছর আগে নরসিংদী থেকে ঢাকায় এসে কড়াইল বস্তিতে বসবাস করেছিলেন তাসলিমা। শুরুতে বনানীর একটি হোটেলে তরকারি কোটার কাজ করতেন তিনি। একসময় হোটেলের কাজ ছেড়ে বস্তিতে মাদক বিক্রি শুরু করেন। মাদকসহ একাধিকবার গ্রেপ্তার হয়েছেন।
জামিনে বেরিয়ে আবারও জড়িয়েছেন মাদক কারবারে। একপর্যায়ে মাদক কেনাবেচার জন্য নিজস্ব বাহিনী গড়ে তোলেন। তিন বোন ছাড়াও তাঁর বাহিনীতে রয়েছে আরও ছয়জন, যাঁরা মাদকসহ হত্যা মামলার আসামি। বর্তমানে তাঁর নামে একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানান স্থানীয় লোকজন।
অনুসন্ধানের তথ্য বলছে, বস্তিতে মাদক কারবার নিয়ন্ত্রণ করেন তাসলিমা। তিনি কাউন্সিলর মফিজুরের ঘনিষ্ঠ। নিজেকে যুব মহিলা লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলে পরিচয় দেন তাসলিমা। মফিজুরের ঘনিষ্ঠ হলেও মাদক কারবার চালাতে আরেক কাউন্সিলর কেউ টাকার ভাগ দেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রের ভাষ্য, কড়াইল বস্তিতে মাদক কারবার চালাতে তাসলিমা স্থানীয় কাউন্সিলর মফিজুরকে প্রতি মাসে দেন ৭ লাখ।
তাসলিমা মাদক ব্যবসা করে গুলশান ও বাড্ডা এলাকায় ফ্ল্যাট কিনেছেন। এ প্রসঙ্গে ঢাকা উত্তর সিটির ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মফিজুর রহমান বলেন, তাসলিমার মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি আগে শোনা যেত। এখন তিনি এসবের সঙ্গে জড়িত নন। অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, স্থানীয় মহিলা যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত তাসলিমা। তাঁকে আমি চিনি।
তাসলিমার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা প্রসঙ্গে ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. নাছির বলেন, তাসলিমা ইয়াবা কারবারসহ নানা অপরাধে জড়িত। বস্তিতে তাঁর পাঁচশর মতো ঘর রয়েছে। তিনি সব সময় তাসলিমার কাজের বিরোধিতা করে এসেছেন।
তাসলি অন্ধকার জগতের এক পরিচিত নাম বনানী থানার ১৯ নং ওয়ার্ড টিএনটি, স্যাটেলাইট, আদর্শ নগর বস্তির সাধারন মানুষের কাছে এক আতংক, যুব মহিলা লীগের পদ পদবী পুঁজি করে গড়ে তুলেছে তার একক রাজত্ব, দখলবাজী, চাঁদাবাজি, ধান্ধাবাজি, মাদক ব্যবসাসহ অবৈধ বিদুৎ, গ্যাস,পানি সরবরাহ করে প্রতি মাসে কয়েক লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে, একাধিক মামলায় জেল খাটা আসামী তাসলির বিরুদ্ধে।
তাসলির কাছে অসহায় বস্তির বাসিন্দারা তাসলির কথা না শুনলেই বন্ধ করে দেওয়া হয় জরুরী সেবা গ্যাস,বিদ্যুৎ,পানি এমন কি শারীরিক নির্যাতন ও মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করার ও অভিযোগ রয়েছে।
বেশ কিছু দিন আগে বস্তিবাসীরা তাসলিমার সিন্ডিকেটের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে তাসলি হঠাও বস্তি বাঁচাও।
বেশ কয়েকটি সরকারী দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করে ও লাভ হয়নি, বস্তিবাসীদের চাপে কিছুদিন গা ঢাকা দিলেও বনানী থানা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতাদের শেল্টারে ফের সক্রীয় তাসলিমা, গুঞ্জন উঠেছে বনানী থানা ১৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ৩ নং ইউনিট সভাপতি পদপ্রার্থী তাসলিমা।
গুলশান, বনানী, এবং মহাখালীর মাঝে উপশহরের মত গড়ে উঠেছে কড়াইল বস্তি। রাজধানীর দরিদ্র মানুষদের আবাসস্থলে পরিণত হয়েছে এই বস্তি। গার্মেন্টস শ্রমিক, দিনমজুর, গৃহপরিচারিকা, রিকশাওয়ালা সহ কায়িক শ্রমজীবী। বস্তিটি নগরীর শ্রমজীবী বহু মানুষকে মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিলেও কড়াইল বস্তিতে নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখার জন্য বেশ কয়েকটি গ্রুপ সক্রিয়।
তারা তাদের আধিপত্য জানান দেওয়া এবং ভাগবাটোয়ারা নিয়েই বিভিন্ন সময় মারামারি সংঘর্ষ হয়ে থাকে। আর সংঘর্ষের কারণেই হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনা ঘটে। আগেও যেসব হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে সেসব বিষয়গুলোর মামলা চলমান রয়েছে।
সব বিষয়ে মাথায় রেখেই বস্তি এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বলে জানায় ডিএমপি।
জনপ্রিয় সংবাদ

‌সি‌লে‌টে কবি আবুল বশর আনসারী’র লেখা কবিতা পবিত্র সিলেট ভূমি ফলক উন্মোচন ও জীবনী নি‌য়ে আলোচনা।

তাসলির নিয়ন্ত্রণে কড়াইল বস্তির দখলবাজি, মাদক কারবার

আপডেট সময় ০১:৪৪:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩

 

সোহেল রানা প্রতিনিধি:
২০ বছর আগে নরসিংদী থেকে ঢাকায় এসে কড়াইল বস্তিতে বসবাস করেছিলেন তাসলিমা। শুরুতে বনানীর একটি হোটেলে তরকারি কোটার কাজ করতেন তিনি। একসময় হোটেলের কাজ ছেড়ে বস্তিতে মাদক বিক্রি শুরু করেন। মাদকসহ একাধিকবার গ্রেপ্তার হয়েছেন।
জামিনে বেরিয়ে আবারও জড়িয়েছেন মাদক কারবারে। একপর্যায়ে মাদক কেনাবেচার জন্য নিজস্ব বাহিনী গড়ে তোলেন। তিন বোন ছাড়াও তাঁর বাহিনীতে রয়েছে আরও ছয়জন, যাঁরা মাদকসহ হত্যা মামলার আসামি। বর্তমানে তাঁর নামে একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানান স্থানীয় লোকজন।
অনুসন্ধানের তথ্য বলছে, বস্তিতে মাদক কারবার নিয়ন্ত্রণ করেন তাসলিমা। তিনি কাউন্সিলর মফিজুরের ঘনিষ্ঠ। নিজেকে যুব মহিলা লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলে পরিচয় দেন তাসলিমা। মফিজুরের ঘনিষ্ঠ হলেও মাদক কারবার চালাতে আরেক কাউন্সিলর কেউ টাকার ভাগ দেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রের ভাষ্য, কড়াইল বস্তিতে মাদক কারবার চালাতে তাসলিমা স্থানীয় কাউন্সিলর মফিজুরকে প্রতি মাসে দেন ৭ লাখ।
তাসলিমা মাদক ব্যবসা করে গুলশান ও বাড্ডা এলাকায় ফ্ল্যাট কিনেছেন। এ প্রসঙ্গে ঢাকা উত্তর সিটির ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মফিজুর রহমান বলেন, তাসলিমার মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি আগে শোনা যেত। এখন তিনি এসবের সঙ্গে জড়িত নন। অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, স্থানীয় মহিলা যুবলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত তাসলিমা। তাঁকে আমি চিনি।
তাসলিমার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা প্রসঙ্গে ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. নাছির বলেন, তাসলিমা ইয়াবা কারবারসহ নানা অপরাধে জড়িত। বস্তিতে তাঁর পাঁচশর মতো ঘর রয়েছে। তিনি সব সময় তাসলিমার কাজের বিরোধিতা করে এসেছেন।
তাসলি অন্ধকার জগতের এক পরিচিত নাম বনানী থানার ১৯ নং ওয়ার্ড টিএনটি, স্যাটেলাইট, আদর্শ নগর বস্তির সাধারন মানুষের কাছে এক আতংক, যুব মহিলা লীগের পদ পদবী পুঁজি করে গড়ে তুলেছে তার একক রাজত্ব, দখলবাজী, চাঁদাবাজি, ধান্ধাবাজি, মাদক ব্যবসাসহ অবৈধ বিদুৎ, গ্যাস,পানি সরবরাহ করে প্রতি মাসে কয়েক লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে, একাধিক মামলায় জেল খাটা আসামী তাসলির বিরুদ্ধে।
তাসলির কাছে অসহায় বস্তির বাসিন্দারা তাসলির কথা না শুনলেই বন্ধ করে দেওয়া হয় জরুরী সেবা গ্যাস,বিদ্যুৎ,পানি এমন কি শারীরিক নির্যাতন ও মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করার ও অভিযোগ রয়েছে।
বেশ কিছু দিন আগে বস্তিবাসীরা তাসলিমার সিন্ডিকেটের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে তাসলি হঠাও বস্তি বাঁচাও।
বেশ কয়েকটি সরকারী দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করে ও লাভ হয়নি, বস্তিবাসীদের চাপে কিছুদিন গা ঢাকা দিলেও বনানী থানা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতাদের শেল্টারে ফের সক্রীয় তাসলিমা, গুঞ্জন উঠেছে বনানী থানা ১৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ৩ নং ইউনিট সভাপতি পদপ্রার্থী তাসলিমা।
গুলশান, বনানী, এবং মহাখালীর মাঝে উপশহরের মত গড়ে উঠেছে কড়াইল বস্তি। রাজধানীর দরিদ্র মানুষদের আবাসস্থলে পরিণত হয়েছে এই বস্তি। গার্মেন্টস শ্রমিক, দিনমজুর, গৃহপরিচারিকা, রিকশাওয়ালা সহ কায়িক শ্রমজীবী। বস্তিটি নগরীর শ্রমজীবী বহু মানুষকে মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিলেও কড়াইল বস্তিতে নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখার জন্য বেশ কয়েকটি গ্রুপ সক্রিয়।
তারা তাদের আধিপত্য জানান দেওয়া এবং ভাগবাটোয়ারা নিয়েই বিভিন্ন সময় মারামারি সংঘর্ষ হয়ে থাকে। আর সংঘর্ষের কারণেই হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনা ঘটে। আগেও যেসব হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে সেসব বিষয়গুলোর মামলা চলমান রয়েছে।
সব বিষয়ে মাথায় রেখেই বস্তি এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বলে জানায় ডিএমপি।