বাংলাদেশ ১২:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
চট্টগ্রামে নির্ধারিত সময়ের আগেই কোরবানির পশুর বর্জ্যমুক্ত তানোর পৌর বাসীকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামীলীগ নেতা সুজন রাঙ্গাবালীতে ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা। রাঙ্গাবালী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা। বেলাল চেয়ারম্যানের ঈদ শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা হত-দরিদ্রের মাঝে রাবি ছাত্রলীগের ইদ উপহার বিতরণ চট্টগ্রামে ঈদুল আজহা উপকরনে কিনতে ব্যস্থ কোরবানিরা প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়ম, তথ্য সংগ্রহ কালে সাংবাদিককে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে জুতা মারার হুমকি। উত্তরবঙ্গের টিকেট কালোবাজারি চক্রের প্রধান দুই সদস্য নুরুজ্জামান ও জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রংপুরের পীরগঞ্জে ইয়াবা, জুয়ারী,ও ওয়ারেন্টের আসামী সহ ৮জনকে আটক করে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রিয় নেতা এহসাম হাওলাদার শাহজাদপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অটোরিক্সা চালকের মৃত্যু পঞ্চগড়ে নিখোঁজের একদিন পর পকুরে মিললো কলেজ ছাত্রীর লাশ ভান্ডারিয়ায় ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্থ ৩ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন সমাজ সেবক মিঠু মিয়া বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

হাসপাতালে থেকে গিয়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়ে হাসপাতালে ফিরে দাখিল পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:৩৮:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩
  • ১৬৬০ বার পড়া হয়েছে

হাসপাতালে থেকে গিয়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়ে হাসপাতালে ফিরে দাখিল পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

 

 

 

 

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি: 
কুড়িগ্রামের উলিপুরে চিকিৎসাধীন এক শিক্ষার্থী হাসপাতাল থেকে গিয়ে দাখিল পরীক্ষায় অংশ নিয়ে হাসপাতালে ফিরে এসে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লেন। ঘটনাটি ঘটেছে, বুধবার (২৪ মে) দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

 

 

নিহতের স্বজন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের বড়াইবাড়ি এলাকার আনিছুর রহমানের ছেলে আরাফাত হোসেন (১৭) চলতি দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেন। বুধবার সকাল থেকে আরাফাত অসুস্থ্যবোধ করলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। একইদিনে ওই শিক্ষার্থীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে পরীক্ষা থাকায় তার কেন্দ্র উলিপুর বহুমূখী আলিম মাদ্রাসায় অসুস্থ্য অবস্থায় পরীক্ষায় অংশ নেন। পরীক্ষা শেষে পুনরায় তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে তার অবস্থার অবনতি হয়ে প্রচন্ড বমি শুরু হয় এবং এক পর্যায়ে তার মৃত্যু হয়। নিহত আরাফাত হোসেন যাদুপোদ্দার ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী ছিল। চলতি দাখিল পরীক্ষায় তার রোল নম্বর ১৭১২৬২।

 

 

 

নিহতের নানা আরমান মিয়া বলেন, আরাফাতের ২ মাস পূর্বে লিভারের সমস্যা ধরা পড়ে। তার চিকিৎসা চলছিল। সে সুস্থ্য ছিল। বুধবার সকালে হঠাৎ করে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি। চিকিৎসক তাকে কুড়িগ্রামে রেফার্ড করেন। এ সময় আরাফাত কিছুটা সুস্থ্যবোধ করলে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে চাইলে আমরা তাকে কেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা দেওয়াই। কিন্তু তারপরেই সে গুরুত্বর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। পুনরায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে প্রচন্ড বমি শুরু হয় এবং এক পর্যায়ে তার মৃত্যু হয়।

 

 

 

বুধবার বিকালে নিহতের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে চলছে শোকের মাতম। নিহত আরাফাতের মা আঞ্জুআরা বেগম ছেলের শোকে বার বার মুর্ছা যাচ্ছিলেন। ছেলেকে ফিরে পাওয়ার আকুতি ছিল তার। এ সময় শত শত নারী পুরুষ আরাফাতকে শেষ বারের মত দেখার জন্য ছুটে আসেন। ধামশ্রেনী ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডে সদস্য রঞ্জু মিয়া মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

 

 

 

 

উলিপুর বহুমূখী আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব মাও. শফিকুর রহমান জানান, আরাফাত অসুস্থ্য অবস্থায় পরীক্ষা দিতে আসেন। পরীক্ষা শেষে স্বজনদের সহযোগিতায় ফিরে যান। পরে তার মৃত্যুর খবর শুনে আমি মর্মাহত। স্থগিত হওয়া আর একটি মাত্র পরীক্ষা বাকী ছিল আরাফাতের। তা আর দেয়া হলো না।

 

 

 

 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মেহেরুল ইসলাম জানান, আরাফাতের স্বজনরা গুরুত্বর অসুস্থ্য অবস্থায় তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। তার অবস্থা আশঙ্খাজনক হওয়ায় তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে রেফার্ড করি। কিন্তু তার স্বজনরা দাখিল পরীক্ষা শেষে তাকে নিয়ে যেতে চেয়েছিল। এ কারনে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে তাকে নিয়ে যান। পরীক্ষার হলেই গুরুত্বর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে পুনরায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় তার প্রচন্ড বমি শুরু হয়। তার লিভার নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। জন্ডিসসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়।

 

 

 

 

 

 

 

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

চট্টগ্রামে নির্ধারিত সময়ের আগেই কোরবানির পশুর বর্জ্যমুক্ত

হাসপাতালে থেকে গিয়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়ে হাসপাতালে ফিরে দাখিল পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

আপডেট সময় ০৯:৩৮:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

 

 

 

 

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি: 
কুড়িগ্রামের উলিপুরে চিকিৎসাধীন এক শিক্ষার্থী হাসপাতাল থেকে গিয়ে দাখিল পরীক্ষায় অংশ নিয়ে হাসপাতালে ফিরে এসে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লেন। ঘটনাটি ঘটেছে, বুধবার (২৪ মে) দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

 

 

নিহতের স্বজন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের বড়াইবাড়ি এলাকার আনিছুর রহমানের ছেলে আরাফাত হোসেন (১৭) চলতি দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেন। বুধবার সকাল থেকে আরাফাত অসুস্থ্যবোধ করলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। একইদিনে ওই শিক্ষার্থীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে পরীক্ষা থাকায় তার কেন্দ্র উলিপুর বহুমূখী আলিম মাদ্রাসায় অসুস্থ্য অবস্থায় পরীক্ষায় অংশ নেন। পরীক্ষা শেষে পুনরায় তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে তার অবস্থার অবনতি হয়ে প্রচন্ড বমি শুরু হয় এবং এক পর্যায়ে তার মৃত্যু হয়। নিহত আরাফাত হোসেন যাদুপোদ্দার ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী ছিল। চলতি দাখিল পরীক্ষায় তার রোল নম্বর ১৭১২৬২।

 

 

 

নিহতের নানা আরমান মিয়া বলেন, আরাফাতের ২ মাস পূর্বে লিভারের সমস্যা ধরা পড়ে। তার চিকিৎসা চলছিল। সে সুস্থ্য ছিল। বুধবার সকালে হঠাৎ করে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি। চিকিৎসক তাকে কুড়িগ্রামে রেফার্ড করেন। এ সময় আরাফাত কিছুটা সুস্থ্যবোধ করলে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে চাইলে আমরা তাকে কেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা দেওয়াই। কিন্তু তারপরেই সে গুরুত্বর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। পুনরায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে প্রচন্ড বমি শুরু হয় এবং এক পর্যায়ে তার মৃত্যু হয়।

 

 

 

বুধবার বিকালে নিহতের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে চলছে শোকের মাতম। নিহত আরাফাতের মা আঞ্জুআরা বেগম ছেলের শোকে বার বার মুর্ছা যাচ্ছিলেন। ছেলেকে ফিরে পাওয়ার আকুতি ছিল তার। এ সময় শত শত নারী পুরুষ আরাফাতকে শেষ বারের মত দেখার জন্য ছুটে আসেন। ধামশ্রেনী ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডে সদস্য রঞ্জু মিয়া মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

 

 

 

 

উলিপুর বহুমূখী আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব মাও. শফিকুর রহমান জানান, আরাফাত অসুস্থ্য অবস্থায় পরীক্ষা দিতে আসেন। পরীক্ষা শেষে স্বজনদের সহযোগিতায় ফিরে যান। পরে তার মৃত্যুর খবর শুনে আমি মর্মাহত। স্থগিত হওয়া আর একটি মাত্র পরীক্ষা বাকী ছিল আরাফাতের। তা আর দেয়া হলো না।

 

 

 

 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মেহেরুল ইসলাম জানান, আরাফাতের স্বজনরা গুরুত্বর অসুস্থ্য অবস্থায় তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। তার অবস্থা আশঙ্খাজনক হওয়ায় তাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে রেফার্ড করি। কিন্তু তার স্বজনরা দাখিল পরীক্ষা শেষে তাকে নিয়ে যেতে চেয়েছিল। এ কারনে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে তাকে নিয়ে যান। পরীক্ষার হলেই গুরুত্বর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে পুনরায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় তার প্রচন্ড বমি শুরু হয়। তার লিভার নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। জন্ডিসসহ নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়।