বাংলাদেশ ১২:১১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ ও হত্যার পলাতক আসামী গ্রেফতার।  তালতলীর খালাকে হত্যার পর কানের রিং বিক্রি করে খুনিকে টাকা দেয় ভাগ্নে কলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সুপারিশ রাঙ্গাবালীতে মৎস্য ব্যবসায়ী রাসাদ হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন। পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরনকে কেন্দ্র করে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মিলন মেলায় পরিনত  নাটোরের বড়াইগ্রামে বর্ণিল আয়োজনে পিঠা উৎসব ও বসন্ত বরণ। পঞ্চগড়ের বোদায় ট্যাপেন্ডাডল ট্যাবলেটসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। রায়গঞ্জের বিভিন্ন গাছে গাছে দেখা যাচ্ছে আমের মুকুল মুক্তিযোদ্বা প্রজন্ম লীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখমকে কেন্দ্র করে পিরোজপুর শহরে উত্তেজনা রাবিতে চাঁদপুর পরিবারের নেতৃত্বে ইমন-রাহিম ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইঞ্জিঃ পিলাব মল্লিক (গোল্ডেন) -এর সংবাদ  সম্মেলন    ঝালকাঠিতে ৮টি গাঁজাগাছ ও ১৫পিস ইয়াবাসহ আটক-২ ঝালকাঠির নবগ্রামের শতবর্ষী রেইন্ট্রি গাছ নিয়ে গুনাই বিবি নাটকের রূপ কথার গল্প চার শিশুর জন্ম দিল এক মা। শিশুরা সবাই সুস্থ আছেন।

পুলিশ ও জনতার দূরত্ব করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে-ময়মনসিংহে পুলিশ সুপার।।

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১১:০৮:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৮ মার্চ ২০২২
  • ১৬৬৯ বার পড়া হয়েছে

পুলিশ ও জনতার দূরত্ব করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে-ময়মনসিংহে পুলিশ সুপার।।

মোহাম্মদ ছালাহ্ উদ্দিন উজ্জ্বল বিশেষ প্রতিনিধিঃ
ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান  বলেছেন, পুলিশ ও মানুষের সম্পর্ক সুদৃঢ় করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। অপরাধ প্রবণতা ও মাদক রোধে এই বিট পুলিশং অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। সমাজের প্রত্যেককে সঙ্গে নিয়ে বিট পুলিশিংয়ের কাজ তরান্বিত করতে হবে।
রবিবার (৬ মার্চ) বিকেলে ময়মনসিংহ নগরীর খাগডহরের বাহাদুরপুর আবাসন এলাকায় কোতোয়ালী মডেল থানার আয়োজনে বিট পুলিশিং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার মো. আহমার উজ্জামান এসব কথা বলেন।
কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহ কামাল আকন্দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার আরও বলেন, ‘মাদকের বিষয়ে পুলিশ কোন ছাড় দিবে না। মাদক নির্মূলে দিনরাত কাজ করছে পুলিশ বাহিনী। পুলিশের কোন সদস্য যদি অপকর্ম করে, এমনকি মাদকের সাথে জড়িত থাকে, তাহলে তার বিরুদ্ধেও যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
তিনি বলেন, সন্ত্রাসী যে কেউ হোক না কেন তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অপরাধীরা কেউ ছাড় পাবে না। ফিটিংবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কেউ ফিটিং করে মানুষকে হয়রানী ও ক্ষতিগ্রস্থ করলে তার কোন ছাড় হবে না। এক্ষেত্রে পুলিশও যদি জড়িত থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, আমাদের  সবাইকে ভাল থাকতে হবে। মাদক নির্মুল করতে হবে। এজন্য পুলিশের পাশাপাশি সাধারন মানুষকেও এগিয়ে আসতে হবে।  যোগ্য সন্তান তৈরী করতে হলে মাদক থেকে দুরে রাখতে হবে। সন্তানদের প্রতি অভিভাবকদের খেয়াল রাখতে হবে। সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে  তুলতে হবে।
সমাজের নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের ঘটনা গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে সমাধানের বিষয়ে তিনি বলেন- অনেক সময়ল স্থানীয় বিরোধ মিমাংসা অনেক সময় গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে সমাধান হয়ে থাকে। কিন্তু, নারী নির্যাতন বা ধর্ষণের মতো ঘটনার বিচার গ্রাম্য শালিস করতে পারে না। এ বিষয়ে থানা পুলিশকে অবগত করতে হবে। ভুল করেও যদি এ ধরনের বিচার-শালিস কেউ করে, তাহলে তা অপরাধ বলে গণ্য হবে।’
ইন্সপেক্টর অপারেশন ওয়াজেদ আলীর সঞ্চালনায় সভায় স্বাগত বক্তব্যে কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ  বলেন, ‘জনসাধারণের সাথে পুলিশের দুরত্ব কমানো এবং পুলিশ ভীতি কমাতে আমরা কাজ করছি। কোতোয়ালী মডেল থানায় মামলা ও জিডি করতে কোন টাকা পয়সা লাগে না। এছাড়া মামলা করতে এখন আর কাউকে থানায় যেতে হয়না। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে। তিনি বলেন-কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের অফিসারদের মেধাবী কর্মকান্ডে এই থানা এলাকায় বর্তমানে অপরাধ মুলক কাজ অনেক কমেছে,অনেক শান্তিপ্রিয় এলকা এখন কোতোয়ালি এলাকার প্রতিটি এলাকা উল্লেখ করে ওসি বলেন- সদ্য অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন নিয়ে বহু এলাকায় খুন-খারাবিসহ অনেক ঘটনা ঘটেছে, তবে কোতোয়ালি   মডেল থানার আওতায় সদর উপজেলায় অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচন গুলোতে কোন প্রকার সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি।
সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার ফজলে রাব্বি, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল বাশার, ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক, শামছুল হক কালু, একরামুল হক, আলীগ নেতা কামরুল হক, শফিকুল ইসলাম তপন, বিট অফিসার আনোয়ার হোসেন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ ও হত্যার পলাতক আসামী গ্রেফতার। 

পুলিশ ও জনতার দূরত্ব করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে-ময়মনসিংহে পুলিশ সুপার।।

আপডেট সময় ১১:০৮:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৮ মার্চ ২০২২
মোহাম্মদ ছালাহ্ উদ্দিন উজ্জ্বল বিশেষ প্রতিনিধিঃ
ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান  বলেছেন, পুলিশ ও মানুষের সম্পর্ক সুদৃঢ় করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। অপরাধ প্রবণতা ও মাদক রোধে এই বিট পুলিশং অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। সমাজের প্রত্যেককে সঙ্গে নিয়ে বিট পুলিশিংয়ের কাজ তরান্বিত করতে হবে।
রবিবার (৬ মার্চ) বিকেলে ময়মনসিংহ নগরীর খাগডহরের বাহাদুরপুর আবাসন এলাকায় কোতোয়ালী মডেল থানার আয়োজনে বিট পুলিশিং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার মো. আহমার উজ্জামান এসব কথা বলেন।
কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহ কামাল আকন্দের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার আরও বলেন, ‘মাদকের বিষয়ে পুলিশ কোন ছাড় দিবে না। মাদক নির্মূলে দিনরাত কাজ করছে পুলিশ বাহিনী। পুলিশের কোন সদস্য যদি অপকর্ম করে, এমনকি মাদকের সাথে জড়িত থাকে, তাহলে তার বিরুদ্ধেও যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
তিনি বলেন, সন্ত্রাসী যে কেউ হোক না কেন তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অপরাধীরা কেউ ছাড় পাবে না। ফিটিংবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কেউ ফিটিং করে মানুষকে হয়রানী ও ক্ষতিগ্রস্থ করলে তার কোন ছাড় হবে না। এক্ষেত্রে পুলিশও যদি জড়িত থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, আমাদের  সবাইকে ভাল থাকতে হবে। মাদক নির্মুল করতে হবে। এজন্য পুলিশের পাশাপাশি সাধারন মানুষকেও এগিয়ে আসতে হবে।  যোগ্য সন্তান তৈরী করতে হলে মাদক থেকে দুরে রাখতে হবে। সন্তানদের প্রতি অভিভাবকদের খেয়াল রাখতে হবে। সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে  তুলতে হবে।
সমাজের নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের ঘটনা গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে সমাধানের বিষয়ে তিনি বলেন- অনেক সময়ল স্থানীয় বিরোধ মিমাংসা অনেক সময় গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে সমাধান হয়ে থাকে। কিন্তু, নারী নির্যাতন বা ধর্ষণের মতো ঘটনার বিচার গ্রাম্য শালিস করতে পারে না। এ বিষয়ে থানা পুলিশকে অবগত করতে হবে। ভুল করেও যদি এ ধরনের বিচার-শালিস কেউ করে, তাহলে তা অপরাধ বলে গণ্য হবে।’
ইন্সপেক্টর অপারেশন ওয়াজেদ আলীর সঞ্চালনায় সভায় স্বাগত বক্তব্যে কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ  বলেন, ‘জনসাধারণের সাথে পুলিশের দুরত্ব কমানো এবং পুলিশ ভীতি কমাতে আমরা কাজ করছি। কোতোয়ালী মডেল থানায় মামলা ও জিডি করতে কোন টাকা পয়সা লাগে না। এছাড়া মামলা করতে এখন আর কাউকে থানায় যেতে হয়না। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে। তিনি বলেন-কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের অফিসারদের মেধাবী কর্মকান্ডে এই থানা এলাকায় বর্তমানে অপরাধ মুলক কাজ অনেক কমেছে,অনেক শান্তিপ্রিয় এলকা এখন কোতোয়ালি এলাকার প্রতিটি এলাকা উল্লেখ করে ওসি বলেন- সদ্য অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন নিয়ে বহু এলাকায় খুন-খারাবিসহ অনেক ঘটনা ঘটেছে, তবে কোতোয়ালি   মডেল থানার আওতায় সদর উপজেলায় অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচন গুলোতে কোন প্রকার সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি।
সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার ফজলে রাব্বি, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল বাশার, ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদুল হক, শামছুল হক কালু, একরামুল হক, আলীগ নেতা কামরুল হক, শফিকুল ইসলাম তপন, বিট অফিসার আনোয়ার হোসেন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।