ঢাকা ১২:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩, ৯ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, যোগাযোগ: মোবাইল : 01712-446306, 01999-953970
ব্রেকিং নিউজ ::
নোবিপ্রবিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৬ পুঠিয়া উপজেলাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেল ৫৯৮টি ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবার বাল্যবিবাহের প্রস্তুতির সময় একজন ভুয়া কাজীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৪ বুড়িচংয়ে চতুর্থ পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেল ৯৯ টি পরিবার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পটুয়াখালীর বাউফলে এক শিক্ষার্থীর ছুরিকাঘাতে দুই শিক্ষার্থী নিহত,গুরুত্বর আহত ১ পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে বাজার তদারকি বিদ্যালয়ের সংস্কৃতি অনুষ্ঠানে বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদ করায় আহত শিক্ষার্থী নাটোরের নলডাঙ্গায় ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার সুনামগঞ্জে জে.পি.এল’র ফাইনাল খেলা ও পুরষ্কার বিতরণ সম্পন্ন মানবিক ও সামাজিক কাজে বিশেষ অবদান রাখায় সন্মাননা পেলেন দেব বিশ্বাস পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় বিশ্ব পানি দিবস পালন করা হয়েছে আজ নেত্রকোণার ৯ উপজেলা ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা নারায়ণগঞ্জের শীতলেখা নদীতে অজ্ঞাত নারীর লাশ ধানক্ষেত দেখতে গিয়ে নেত্রকোণায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু নীলফামারীতে এমপি রানার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় জাতীয়পার্টির মানববন্ধন

বশেমুরবিপ্রবি’তে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৭:৪৭:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ মার্চ ২০২২
  • ১৬৮৬ বার পড়া হয়েছে

বশেমুরবিপ্রবি’তে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ভিডিও প্রতিযোগিতা: বিস্তারিত ফেইসবুক পেইজে

 

 বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি,
গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ ২০২২ পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ প্রচার ও আলোচনা সভা, টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার সমাধি সৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।
সোমবার (৭ই মার্চ) দুপুর ১২.৩০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনে ৫০১নং কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুব এবং মূখ্য আলোচক হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আশফাক হোসেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান ও সঞ্চালনা করেন বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শামীমা আক্তার।
মূখ্য আলোচক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আশফাক হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের মাধ্যমে বাংলার সকল শ্রেণির মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। এ ভাষণে বাঙালির হাজার বছরের সংগ্রাম, আবেগ ও ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছিল। তিনি আরও বলেন, ৭ই মার্চের ভাষণে বঙ্গবন্ধু কৌশলে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন এবং ২৬ মার্চ সরাসরি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন।
আলোচনা সভার সভাপতি ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুব বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ ছিল তাঁর জীবনের শ্রেষ্ঠ ভাষণ এবং এটির মধ্যে লুকায়িত আছে বাঙালির চেতনা ও স্বাধীনতা। তিনি তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশ্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও তাঁর আদর্শ বুকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে জননেত্রী শেখ হাসিনার পাশে থেকে তাঁর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।
বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান বলেন, জাতির পিতার ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ সাত কোটি মানুষকে অনুপ্রাণিত করেছিল।
অনুষ্ঠানে শিশু মিষ্টি সৃজিতা কবিতা আবৃত্তি করেন।
এর আগে সকাল ৯টায় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুব ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং তাঁর নেতৃত্বে সকাল ১১টায় টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতার সমাধি সৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরে শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স এসোসিয়েশন, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
এসময় জাতির পিতা ও ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট তাঁর পরিবারের সকল শহিদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

নোবিপ্রবিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৬

বশেমুরবিপ্রবি’তে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ পালিত

আপডেট সময় ০৭:৪৭:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ মার্চ ২০২২

 

 বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি,
গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ ২০২২ পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ প্রচার ও আলোচনা সভা, টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার সমাধি সৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।
সোমবার (৭ই মার্চ) দুপুর ১২.৩০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনে ৫০১নং কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুব এবং মূখ্য আলোচক হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আশফাক হোসেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান ও সঞ্চালনা করেন বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শামীমা আক্তার।
মূখ্য আলোচক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আশফাক হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের মাধ্যমে বাংলার সকল শ্রেণির মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। এ ভাষণে বাঙালির হাজার বছরের সংগ্রাম, আবেগ ও ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটেছিল। তিনি আরও বলেন, ৭ই মার্চের ভাষণে বঙ্গবন্ধু কৌশলে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন এবং ২৬ মার্চ সরাসরি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন।
আলোচনা সভার সভাপতি ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুব বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ ছিল তাঁর জীবনের শ্রেষ্ঠ ভাষণ এবং এটির মধ্যে লুকায়িত আছে বাঙালির চেতনা ও স্বাধীনতা। তিনি তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশ্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও তাঁর আদর্শ বুকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে জননেত্রী শেখ হাসিনার পাশে থেকে তাঁর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।
বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান বলেন, জাতির পিতার ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ সাত কোটি মানুষকে অনুপ্রাণিত করেছিল।
অনুষ্ঠানে শিশু মিষ্টি সৃজিতা কবিতা আবৃত্তি করেন।
এর আগে সকাল ৯টায় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. এ. কিউ. এম. মাহবুব ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং তাঁর নেতৃত্বে সকাল ১১টায় টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতার সমাধি সৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরে শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স এসোসিয়েশন, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
এসময় জাতির পিতা ও ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট তাঁর পরিবারের সকল শহিদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।