বাংলাদেশ ০৯:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
ত্রিশালে শুভেচ্ছা ও গণসংযোগে মাজহারুল ইসলাম জুয়েল পিরোজপুরে তিন উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ১০ প্রার্থীর মনোয়নপত্র দাখিল বাঙ্গালহালিয়া ধলিয়াপাড়া শিক্ষা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ রায়গঞ্জের হাটপাঙ্গাসীতে পহেলা বৈশাখ উদযাপিত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ব্রাহ্মণপাড়া ভগবান সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮৯ ব্যাচের ঈদ পূণর্মিলনী অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কাউনিয়ায় ১৩ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল বগুড়া-নন্দীগ্রাম (উত্তর-কচুগাড়ী) গ্রামে ১৬ প্রহর ব্যাপী হরিবাসর অনুষ্ঠিত..!! হরিপুর চেয়ারম্যান পদে ৫ জনসহ ৯ জনের মনোনয়ন দাখিল কুমিল্লায় মাই টিভির ১৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন নরসিংদীতে ইউপি সদস্যকে গুলি ও জবাই করে হত্যা ক্লাস-পরীক্ষা চালু রেখেই জবিতে ১৮ এপ্রিল বাংলা নববর্ষ উদযাপনের সিদ্ধান্ত  পঞ্চগড়ে পেঁয়াজ চাষে ভাগ্য পরিবর্তন। পীরগঞ্জে হেরোইন, গাঁজাসহ ৩ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার ভালুকায় প্রাইভেটকারের ভিতরে ধর্ষণের ঘটনায় বিএনপি নেতার ছেলে গ্রেফতার

এনায়েতপুরে অনিয়ম-দূর্নীতির অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৬:৪২:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ মার্চ ২০২২
  • ১৮৫৯ বার পড়া হয়েছে

এনায়েতপুরে অনিয়ম-দূর্নীতির অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন 

আসাদুর রহমান, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:
সিরাজগঞ্জের  শাহজাদপুর উপজেলার এনায়েতপুর থানার সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হামিদের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। শনিবার স্কুলের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসির আয়োজনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান শিক্ষককে দ্রুত অপসারন করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানানো হয়।
কর্মসূচিতে শিক্ষার্থী, অভিভাবক সহ বিপুল সংখ্যক এলাকাবাসি উপস্থিত ছিলেন। এলাকাবাসি ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় সাড়ে ৫শ শিক্ষার্থী রয়েছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ওমিক্রন অতিবাহিত হবার পর দেশ জুড়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত ক্লাস চালু হলেও সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অনুপস্থিত রয়েছেন। তিনি বিদ্যালয়ে না এসে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে শাহজাদপুরে বসে বিদ্যালয় নিয়ন্ত্রনের পায়তারা করছেন। একারনে এ বছর এসসসিতে উর্ত্তীন শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে তাকে না পেয়ে বাধ্য হয়ে প্রশংসা পত্র নিতে শাহজাদপুর যেতে হচ্ছে। গুনতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়া জনপ্রতি দেড় থেকে দুইশ টাকা।
এছাড়া প্রসংশা পত্র নিতে অনৈতিকভাবে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৩ শ করে টাকা নিচ্ছেন তিনি। এতে এক দিকে যেমন হতদরিদ্র শিক্ষার্থীরা বিপাকে পড়ছে অন্যদিকে অনেকেই উচ্চ শিক্ষা লাভে ভর্তি কার্যক্রমে নানাবিধ বিড়ম্বনায় পড়ছে বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থী সুজন ও তার সহপাঠীরা। এছাড়া ওই বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর শিক্ষার্থী তানিয়া ও দশম শ্রেনীর সুমাইয়া এবং রিয়াজ বলেন, প্রধান শিক্ষক স্কুলে উপস্থিত না থাকায় ক্লাস কার্যক্রমে অচলাবস্থা বিরাজ করছে। এছাড়া কয়েকজন শিক্ষক জানান, সাধারন শিক্ষকদের বেতনের শিটে সই না করে প্রধান শিক্ষক বাড়িতে অবস্থান করছেন।
একারনে শিক্ষকরা বেতন তুলতে না পারায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। এতে বিদ্যালয়ে শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ বিনষ্ট হচ্ছে। তারা আরও জানান, করোনাকালীন গত বছরে বিভিন্ন সময় স্কুলের নিজস্ব তহবিল থেকে প্রায় ৬ লাখ ৮৭ হাজার টাকা একাই চেক দিয়ে ও ডেবিট কার্ড দিয়ে উত্তোলন করেছেন। এর কোন ক্যাশ-ভাউচারও নেই।
৫ মাস আগে করোনাকালীন সময় বিদ্যালয়ের পুরনো জানালার গ্রিল বিক্রি করে প্রায় লক্ষাধিক টাকা আত্মসাত করেছেন। এদিকে প্রধান শিক্ষককের অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ায় বেশ কয়েকজন শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা পর্যন্ত করেছেন তিনি। জালালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক শাহাদৎ হোসেন বলেন, প্রধান শিক্ষক স্কুলে মাসে দু একদিন এসে চলে যায়। এতে সাধারন শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা চরম ভাবে বিঘ্ন ঘটছে। এছাড়া তার ইচ্ছেমত বিভিন্ন সময় নানা ফান্ডের কথা বলে শিক্ষার্থীদের নিকট টাকা দাবি করে থাকেন।
এদিকে এলাকাবাসির পক্ষ থেকে ফারুক হোসেন অভিযোগ করেন, সীমাহীন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে ইতোমধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও শিক্ষা অফিসে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। আশা করছি দ্রুতই তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অভিযোগের বিষয়ে জানতে সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল হামিদের মুঠোফোনে বারবার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। তবে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তা শাহ মোঃ শামসুজ্জোহা জানান, প্রধান শিক্ষকের অনিয়ম ও দুর্নীতি বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে তাকে দুই বার নোটিশ করেছি। তবে তিনি কোন উত্তর দেননি। সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিকট দ্রুতই লিখিত ভাবে জানানো হবে, তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

ত্রিশালে শুভেচ্ছা ও গণসংযোগে মাজহারুল ইসলাম জুয়েল

এনায়েতপুরে অনিয়ম-দূর্নীতির অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন 

আপডেট সময় ০৬:৪২:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৫ মার্চ ২০২২
আসাদুর রহমান, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:
সিরাজগঞ্জের  শাহজাদপুর উপজেলার এনায়েতপুর থানার সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হামিদের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। শনিবার স্কুলের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসির আয়োজনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান শিক্ষককে দ্রুত অপসারন করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানানো হয়।
কর্মসূচিতে শিক্ষার্থী, অভিভাবক সহ বিপুল সংখ্যক এলাকাবাসি উপস্থিত ছিলেন। এলাকাবাসি ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় সাড়ে ৫শ শিক্ষার্থী রয়েছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ওমিক্রন অতিবাহিত হবার পর দেশ জুড়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত ক্লাস চালু হলেও সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অনুপস্থিত রয়েছেন। তিনি বিদ্যালয়ে না এসে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে শাহজাদপুরে বসে বিদ্যালয় নিয়ন্ত্রনের পায়তারা করছেন। একারনে এ বছর এসসসিতে উর্ত্তীন শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে তাকে না পেয়ে বাধ্য হয়ে প্রশংসা পত্র নিতে শাহজাদপুর যেতে হচ্ছে। গুনতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়া জনপ্রতি দেড় থেকে দুইশ টাকা।
এছাড়া প্রসংশা পত্র নিতে অনৈতিকভাবে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৩ শ করে টাকা নিচ্ছেন তিনি। এতে এক দিকে যেমন হতদরিদ্র শিক্ষার্থীরা বিপাকে পড়ছে অন্যদিকে অনেকেই উচ্চ শিক্ষা লাভে ভর্তি কার্যক্রমে নানাবিধ বিড়ম্বনায় পড়ছে বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থী সুজন ও তার সহপাঠীরা। এছাড়া ওই বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর শিক্ষার্থী তানিয়া ও দশম শ্রেনীর সুমাইয়া এবং রিয়াজ বলেন, প্রধান শিক্ষক স্কুলে উপস্থিত না থাকায় ক্লাস কার্যক্রমে অচলাবস্থা বিরাজ করছে। এছাড়া কয়েকজন শিক্ষক জানান, সাধারন শিক্ষকদের বেতনের শিটে সই না করে প্রধান শিক্ষক বাড়িতে অবস্থান করছেন।
একারনে শিক্ষকরা বেতন তুলতে না পারায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। এতে বিদ্যালয়ে শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ বিনষ্ট হচ্ছে। তারা আরও জানান, করোনাকালীন গত বছরে বিভিন্ন সময় স্কুলের নিজস্ব তহবিল থেকে প্রায় ৬ লাখ ৮৭ হাজার টাকা একাই চেক দিয়ে ও ডেবিট কার্ড দিয়ে উত্তোলন করেছেন। এর কোন ক্যাশ-ভাউচারও নেই।
৫ মাস আগে করোনাকালীন সময় বিদ্যালয়ের পুরনো জানালার গ্রিল বিক্রি করে প্রায় লক্ষাধিক টাকা আত্মসাত করেছেন। এদিকে প্রধান শিক্ষককের অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ায় বেশ কয়েকজন শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা পর্যন্ত করেছেন তিনি। জালালপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক শাহাদৎ হোসেন বলেন, প্রধান শিক্ষক স্কুলে মাসে দু একদিন এসে চলে যায়। এতে সাধারন শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা চরম ভাবে বিঘ্ন ঘটছে। এছাড়া তার ইচ্ছেমত বিভিন্ন সময় নানা ফান্ডের কথা বলে শিক্ষার্থীদের নিকট টাকা দাবি করে থাকেন।
এদিকে এলাকাবাসির পক্ষ থেকে ফারুক হোসেন অভিযোগ করেন, সীমাহীন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে ইতোমধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও শিক্ষা অফিসে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। আশা করছি দ্রুতই তার বিরুদ্ধে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অভিযোগের বিষয়ে জানতে সৈয়দপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল হামিদের মুঠোফোনে বারবার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। তবে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তা শাহ মোঃ শামসুজ্জোহা জানান, প্রধান শিক্ষকের অনিয়ম ও দুর্নীতি বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে তাকে দুই বার নোটিশ করেছি। তবে তিনি কোন উত্তর দেননি। সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিকট দ্রুতই লিখিত ভাবে জানানো হবে, তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।