বাংলাদেশ ০৪:৫৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
চট্টগ্রামে নির্ধারিত সময়ের আগেই কোরবানির পশুর বর্জ্যমুক্ত তানোর পৌর বাসীকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামীলীগ নেতা সুজন রাঙ্গাবালীতে ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা। রাঙ্গাবালী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা। বেলাল চেয়ারম্যানের ঈদ শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা হত-দরিদ্রের মাঝে রাবি ছাত্রলীগের ইদ উপহার বিতরণ চট্টগ্রামে ঈদুল আজহা উপকরনে কিনতে ব্যস্থ কোরবানিরা প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়ম, তথ্য সংগ্রহ কালে সাংবাদিককে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে জুতা মারার হুমকি। উত্তরবঙ্গের টিকেট কালোবাজারি চক্রের প্রধান দুই সদস্য নুরুজ্জামান ও জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রংপুরের পীরগঞ্জে ইয়াবা, জুয়ারী,ও ওয়ারেন্টের আসামী সহ ৮জনকে আটক করে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রিয় নেতা এহসাম হাওলাদার শাহজাদপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অটোরিক্সা চালকের মৃত্যু পঞ্চগড়ে নিখোঁজের একদিন পর পকুরে মিললো কলেজ ছাত্রীর লাশ ভান্ডারিয়ায় ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্থ ৩ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন সমাজ সেবক মিঠু মিয়া বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

মসজিদের মুয়াজ্জিন কতৃক ১০ বছরের হিজাব পরিহিত শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা। 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:২১:০৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৪ মার্চ ২০২২
  • ১৭০১ বার পড়া হয়েছে

মসজিদের মুয়াজ্জিন কতৃক ১০ বছরের হিজাব পরিহিত শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা। 

প্রেস ব্রিফিং :-
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ২৭শে ফেব্রুয়ারী হাসনা খাতুন হেনা (১০) এর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার হয়। উক্ত হত্যাকান্ডের মূল আসামী মসজিদের মুয়াজ্জিন মোরসালীন(১৯) তার দোষ স্বীকার করে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ওরা মার্চ গাইবান্ধা পুলিশ সুপারের কার্যালয় হতে প্রেস ব্রিফিং এ পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, ২৬শে ফেব্রুয়ারী সকালে আসামী মোরসালীন যাথারীতি মসজিদের ভিতর মক্তবে পড়ানো শেষে হাসনা খাতুন হেনাকে ১০ টাকার নোট দিয়ে দোকান থেকে কিছুট আনতে বলে। বিস্কুট আনার পর হাসনা খাতুন হেনা সহ আরো দুইটি মেয়েকে বিস্কুট খাওয়ায়। সকাল ৮ টার দিকে আসামী বাইসাইকেল যোগে বর্ধন কুঠি এলাকায় জহিরুলের বাড়িতে মক্তব পড়ানোর জন্য যায়। মক্তব পড়ানো শেষে আনুমানিক ৯ টার দিকে সে তার মসজিদ সংলগ্ন বসবাসরত টিনের ঘরে আসে এবং পাশের এক বাড়ীতে সকালের খাবার খেয়ে আসার পথে রাস্তার হাসনাকে দেখে ডাক দিলে তার থাকার জায়গা টিনের ঘরে আসে হাসনা।
ঘরে আসলে প্রথমে আসামী মোরসালীন হাসনা খাতুন হেনাকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে হাসনা খাতুন হেনা বাঁধা প্রদান করে এবং তার নানীকে বলে দেবে বলে জানান। তখন মোরসালীন হাসনার গলা টিপে ধরলে হাসনা নিস্তেজ হয়ে পরে এবং তখন তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে হাসনার পরিহিত হিজাব দিয়ে শ্বাস রোধ করে তাকে হত্যা করে। হত্যা করার পর মসজিদের বালু ভর্তি বস্তা খালী করে তাকে ৰম্ভা বন্দি করে। হত্যাকান্ডের ঘটনাকে অন্যখাতে প্রবাহিত করার জন্য সকাল ১১ টার দিকে লাশটিকে তার বাইসাকেলের ক্যারিয়ারের পিছনে বেঁধে বর্ধন কুঠির মানিক কাজীর বাঁশ ঝাড়ের ভিতর রেখে আসে। উক্ত ঘটনায় সন্দেহ ভাজন আরো তিন জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃত অন্য তিনজন হলেন আরাফাত, আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং আল-আমিন।
তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে প্রেস ব্রিফিং এ জানান পুলিশ সুপার।
জনপ্রিয় সংবাদ

চট্টগ্রামে নির্ধারিত সময়ের আগেই কোরবানির পশুর বর্জ্যমুক্ত

মসজিদের মুয়াজ্জিন কতৃক ১০ বছরের হিজাব পরিহিত শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা। 

আপডেট সময় ১০:২১:০৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৪ মার্চ ২০২২
প্রেস ব্রিফিং :-
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ২৭শে ফেব্রুয়ারী হাসনা খাতুন হেনা (১০) এর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার হয়। উক্ত হত্যাকান্ডের মূল আসামী মসজিদের মুয়াজ্জিন মোরসালীন(১৯) তার দোষ স্বীকার করে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ওরা মার্চ গাইবান্ধা পুলিশ সুপারের কার্যালয় হতে প্রেস ব্রিফিং এ পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, ২৬শে ফেব্রুয়ারী সকালে আসামী মোরসালীন যাথারীতি মসজিদের ভিতর মক্তবে পড়ানো শেষে হাসনা খাতুন হেনাকে ১০ টাকার নোট দিয়ে দোকান থেকে কিছুট আনতে বলে। বিস্কুট আনার পর হাসনা খাতুন হেনা সহ আরো দুইটি মেয়েকে বিস্কুট খাওয়ায়। সকাল ৮ টার দিকে আসামী বাইসাইকেল যোগে বর্ধন কুঠি এলাকায় জহিরুলের বাড়িতে মক্তব পড়ানোর জন্য যায়। মক্তব পড়ানো শেষে আনুমানিক ৯ টার দিকে সে তার মসজিদ সংলগ্ন বসবাসরত টিনের ঘরে আসে এবং পাশের এক বাড়ীতে সকালের খাবার খেয়ে আসার পথে রাস্তার হাসনাকে দেখে ডাক দিলে তার থাকার জায়গা টিনের ঘরে আসে হাসনা।
ঘরে আসলে প্রথমে আসামী মোরসালীন হাসনা খাতুন হেনাকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে হাসনা খাতুন হেনা বাঁধা প্রদান করে এবং তার নানীকে বলে দেবে বলে জানান। তখন মোরসালীন হাসনার গলা টিপে ধরলে হাসনা নিস্তেজ হয়ে পরে এবং তখন তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে হাসনার পরিহিত হিজাব দিয়ে শ্বাস রোধ করে তাকে হত্যা করে। হত্যা করার পর মসজিদের বালু ভর্তি বস্তা খালী করে তাকে ৰম্ভা বন্দি করে। হত্যাকান্ডের ঘটনাকে অন্যখাতে প্রবাহিত করার জন্য সকাল ১১ টার দিকে লাশটিকে তার বাইসাকেলের ক্যারিয়ারের পিছনে বেঁধে বর্ধন কুঠির মানিক কাজীর বাঁশ ঝাড়ের ভিতর রেখে আসে। উক্ত ঘটনায় সন্দেহ ভাজন আরো তিন জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃত অন্য তিনজন হলেন আরাফাত, আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং আল-আমিন।
তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে প্রেস ব্রিফিং এ জানান পুলিশ সুপার।