বাংলাদেশ ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
জণগণের পাশে ছিলাম, আছি এবং আজীবন থাকবো-অ্যাড. অরুনাংশু দত্ত টিটো দোকানের বাকির টাকা দিতে দেরি করায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে যখম, থানায় অভিযোগ।  সকল দলের মানুষের সেবক হিসেবে পাশে থাকতে চাই- অধ্যক্ষ সইদুল হক  পিরোজপুরে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা টিভি’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ঘোড়া মার্কার প্রার্থীকে জরিমানা রায়গঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে জামরুল ফল বিদেশী মদসহ ০৩ জন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। সরকারের অনিচ্ছাতেই উচ্চ শিক্ষায় স্বদেশি ভাষা চালু হয়নি: ড. সলিমুল্লাহ খান রাজশাহীতে ৩০ ছাত্রকে বলাৎকার করে ভিডিও ধারণ করেন শিক্ষক ওয়াকেল ঠাকুরগাঁওয়ে উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে জেলা আওয়ামী রাজনীতিতে বিভক্তি হওয়ার আশঙ্কা রাজশাহীর পুঠিয়ায় তিন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে সম্পদশালী মাসুদ পুঠিয়া উপজেলায় নির্বাচন: চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীদের কার সম্পদ কত? রাজশাহী মহানগরীতে চেকপোস্টে দুই পুলিশ পিটিয়ে আহত! দুইভাই আটক কাউনিয়ায় লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস ট্রাস্ট এর সভা অনুষ্ঠিত ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি মামলার আসামী নাজিবুল ইসলাম নাজিমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। উল্লাপাড়ায় সড়ক দূর্ঘনায় ১ জনের মৃত্যু 

ডাকাতির সময় গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার ও ডাকাতির মালামাল উদ্ধার।

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৩:১২:০২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৪ মার্চ ২০২২
  • ১৭২৩ বার পড়া হয়েছে

ডাকাতির সময় গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার ও ডাকাতির মালামাল উদ্ধার।

 

 

 

র‌্যাব-৬ এর অভিযানে চাঞ্চল্যকর ডাকাতির সময় গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার ও ডাকাতির মালামাল উদ্ধার।

 

র‌্যাব ফোর্সেস আমাদের প্রিয় মাতৃভূমির অপ্রতিরোধ্য উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে তরান্বিত করতে এবং সন্মানিত নাগরিকদের জন্য টেকসই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইনের আলোকে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত চাঞ্চল্যকর অপরাধে জড়িত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে র‌্যাব জনগনের সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

https://youtu.be/xEf2JmWwds8

 

 

গত ২ মার্চ ২০২২ তারিখ বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ থানাধীন উত্তর জিলবুনিয়া এলাকার এক বাসিন্দা তার স্ত্রী ও  ছেলে সহ খাওয়া দাওয়া শেষে তার নিজ বসত ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। দিবাগত রাত ০১.৩০ ঘটিকার সময় স্থানীয় ১০/১২ জন দুস্কৃতকারী পরিচয় গোপন করা লক্ষ্যে মুখ কাপড় দিয়ে ঢেকে সংঘবদ্ধ হয়ে ঐ ব্যক্তির বসত ঘরে সিদ কেটে ঘরে প্রবেশ করে তার ছেলে ও তাকে ধাঁরালো রাম দা এর মুখে হাত পা বেঁধে লেপ দিয়ে ঢেকে রেখে তার স্ত্রী কে অন্য ঘরে নিয়ে যায় এবং নগদ টাকা, স্বর্নালংকার, মোবাইল ফোন, শাড়ী ও শুকনা সুপারিসহ মোট ১ লক্ষ ৮৫ হাজার ৫ শত টাকার মালামাল ডাকাতি করে। ডাকাতি শেষে ঐ ব্যক্তির স্ত্রীকে পালাক্রমে নৃশংসভাবে গণধর্ষণ করে।

 

 

ধর্ষণকালে ০১ জন ডাকাতের মুখের কাপড় সরে গেলে ধর্ষিতা ভিকটিম ঐ ধর্ষণকারী ডাকাতকে সনাক্ত করতে সক্ষম হয়। এরপর দুস্কৃতকারীরা রাত আনুমানিক ০৩.৩০ ঘটিকায় ডাকাতির মালামাল নিয়ে সরে পড়ে।

 

 

উক্ত ঘটনায় ভিকটিম স্বামী বাদী হয়ে বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ থানায় ধর্ষণকারী ডাকাতদের বিরুদ্ধে মামলা করে। এ বিষয়ে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয় এবং জনমনে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। উক্ত ঘটনার পর থেকে আসামীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) এর একটি আভিযানিক দলটি ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যহত রাখে।

 

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) এর একটি চৌকস আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে জানতে পারে যে, উক্ত চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ ও ডাকাতি মামলার অন্যতম পলাতক আসামী বাগেরহাট জেলার কচুয়া থানাধীন টেংরাখালী গ্রামস্থ বাঘমারা খেয়াঘাট এলাকায় অবস্থান করছে। প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ০৩ মার্চ ২০২২ তারিখ ১৭.৫৫ ঘটিকার সময় সদর কোম্পানি, র‌্যাব-৬, খুলনার একটি চৌকস আভিযানিক দলটি বাগেরহাট জেলার কচুয়া থানাধীন টেংরাখালী গ্রামস্থ বাঘমারা খেয়াঘাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পলাতক আসামী ১। রিয়াজ শিকদার(৩৮), পিতাঃ মৃত আঃ মজিদ শিকদার, মাতা-আম্বিয়া বেগম, সাং-বর্শিবাওয়া, থানা-মোড়েলগঞ্জ, জেলা-বাগেরহাটকে গ্রেফতার করে।

 

 

 

আসামীকে গ্রেফতারের পর আসামীকে অদিকতর জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সাথে তার সম্পৃক্ততা স্বিকার করে। আসামীর স্বিকারোক্তি মতে  আসামীর বসত বাড়ি হতে ডাকাতির মাধ্যমে লুন্ঠিত মালামাল ১। ভিকটিমের মোবাইল ফোন-০১ টি, ২। নগদ-৫৫০০ টাকা, ৩। শুকনা সুপারী-০২ বস্তা, এবং আসামীর ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ১। ০১ টি মোটর সাইকেল, ২। মোবাইল ফোন-০৪ টি, ৩। ০৪ টি সীম কার্ড, ৫। ০২ টি মেমোরি কার্ড উদ্ধার পূর্বক জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী তার সাথে আরো কয়েকজন দুস্কৃতকারী ছিল বলে জানায়। তাদেরকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-৬ এর অভিযান অব্যাহত আছে।

 

উল্লেখ্য যে, গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় খুন, অপহরণ, চাঁদাবাজি, চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধের আরো ০৯টি মামলা রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ থানায় হস্তান্তর এর কাজ প্রক্রিয়াধীন।

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

জণগণের পাশে ছিলাম, আছি এবং আজীবন থাকবো-অ্যাড. অরুনাংশু দত্ত টিটো

ডাকাতির সময় গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার ও ডাকাতির মালামাল উদ্ধার।

আপডেট সময় ০৩:১২:০২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৪ মার্চ ২০২২

 

 

 

র‌্যাব-৬ এর অভিযানে চাঞ্চল্যকর ডাকাতির সময় গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামীকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার ও ডাকাতির মালামাল উদ্ধার।

 

র‌্যাব ফোর্সেস আমাদের প্রিয় মাতৃভূমির অপ্রতিরোধ্য উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে তরান্বিত করতে এবং সন্মানিত নাগরিকদের জন্য টেকসই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইনের আলোকে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত চাঞ্চল্যকর অপরাধে জড়িত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে র‌্যাব জনগনের সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

https://youtu.be/xEf2JmWwds8

 

 

গত ২ মার্চ ২০২২ তারিখ বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ থানাধীন উত্তর জিলবুনিয়া এলাকার এক বাসিন্দা তার স্ত্রী ও  ছেলে সহ খাওয়া দাওয়া শেষে তার নিজ বসত ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। দিবাগত রাত ০১.৩০ ঘটিকার সময় স্থানীয় ১০/১২ জন দুস্কৃতকারী পরিচয় গোপন করা লক্ষ্যে মুখ কাপড় দিয়ে ঢেকে সংঘবদ্ধ হয়ে ঐ ব্যক্তির বসত ঘরে সিদ কেটে ঘরে প্রবেশ করে তার ছেলে ও তাকে ধাঁরালো রাম দা এর মুখে হাত পা বেঁধে লেপ দিয়ে ঢেকে রেখে তার স্ত্রী কে অন্য ঘরে নিয়ে যায় এবং নগদ টাকা, স্বর্নালংকার, মোবাইল ফোন, শাড়ী ও শুকনা সুপারিসহ মোট ১ লক্ষ ৮৫ হাজার ৫ শত টাকার মালামাল ডাকাতি করে। ডাকাতি শেষে ঐ ব্যক্তির স্ত্রীকে পালাক্রমে নৃশংসভাবে গণধর্ষণ করে।

 

 

ধর্ষণকালে ০১ জন ডাকাতের মুখের কাপড় সরে গেলে ধর্ষিতা ভিকটিম ঐ ধর্ষণকারী ডাকাতকে সনাক্ত করতে সক্ষম হয়। এরপর দুস্কৃতকারীরা রাত আনুমানিক ০৩.৩০ ঘটিকায় ডাকাতির মালামাল নিয়ে সরে পড়ে।

 

 

উক্ত ঘটনায় ভিকটিম স্বামী বাদী হয়ে বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ থানায় ধর্ষণকারী ডাকাতদের বিরুদ্ধে মামলা করে। এ বিষয়ে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয় এবং জনমনে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। উক্ত ঘটনার পর থেকে আসামীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) এর একটি আভিযানিক দলটি ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যহত রাখে।

 

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৬ (সদর কোম্পানি) এর একটি চৌকস আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে জানতে পারে যে, উক্ত চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ ও ডাকাতি মামলার অন্যতম পলাতক আসামী বাগেরহাট জেলার কচুয়া থানাধীন টেংরাখালী গ্রামস্থ বাঘমারা খেয়াঘাট এলাকায় অবস্থান করছে। প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ০৩ মার্চ ২০২২ তারিখ ১৭.৫৫ ঘটিকার সময় সদর কোম্পানি, র‌্যাব-৬, খুলনার একটি চৌকস আভিযানিক দলটি বাগেরহাট জেলার কচুয়া থানাধীন টেংরাখালী গ্রামস্থ বাঘমারা খেয়াঘাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পলাতক আসামী ১। রিয়াজ শিকদার(৩৮), পিতাঃ মৃত আঃ মজিদ শিকদার, মাতা-আম্বিয়া বেগম, সাং-বর্শিবাওয়া, থানা-মোড়েলগঞ্জ, জেলা-বাগেরহাটকে গ্রেফতার করে।

 

 

 

আসামীকে গ্রেফতারের পর আসামীকে অদিকতর জিজ্ঞাসাবাদে সে ঘটনার সাথে তার সম্পৃক্ততা স্বিকার করে। আসামীর স্বিকারোক্তি মতে  আসামীর বসত বাড়ি হতে ডাকাতির মাধ্যমে লুন্ঠিত মালামাল ১। ভিকটিমের মোবাইল ফোন-০১ টি, ২। নগদ-৫৫০০ টাকা, ৩। শুকনা সুপারী-০২ বস্তা, এবং আসামীর ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত ১। ০১ টি মোটর সাইকেল, ২। মোবাইল ফোন-০৪ টি, ৩। ০৪ টি সীম কার্ড, ৫। ০২ টি মেমোরি কার্ড উদ্ধার পূর্বক জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী তার সাথে আরো কয়েকজন দুস্কৃতকারী ছিল বলে জানায়। তাদেরকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-৬ এর অভিযান অব্যাহত আছে।

 

উল্লেখ্য যে, গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় খুন, অপহরণ, চাঁদাবাজি, চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধের আরো ০৯টি মামলা রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ থানায় হস্তান্তর এর কাজ প্রক্রিয়াধীন।