বাংলাদেশ ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
পীরগঞ্জে বিশেষ অভিযানে জুয়ারী সহ ১৩জন গ্রেফতার। সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী উম্মে কুলসুম ধর্ষণ মামলার আসামী রনিকে গ্রেফতার। কুষ্টিয়ায় এক সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা বাবুগঞ্জে এসএসসি কৃতকার্য ছাত্রী ধর্ষিতা অবশেষে পুত্র সন্তানের মা হলেন চট্টগ্রামে নির্ধারিত সময়ের আগেই কোরবানির পশুর বর্জ্যমুক্ত তানোর পৌর বাসীকে ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামীলীগ নেতা সুজন রাঙ্গাবালীতে ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা। রাঙ্গাবালী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা। বেলাল চেয়ারম্যানের ঈদ শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা হত-দরিদ্রের মাঝে রাবি ছাত্রলীগের ইদ উপহার বিতরণ চট্টগ্রামে ঈদুল আজহা উপকরনে কিনতে ব্যস্থ কোরবানিরা প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়ম, তথ্য সংগ্রহ কালে সাংবাদিককে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে জুতা মারার হুমকি। উত্তরবঙ্গের টিকেট কালোবাজারি চক্রের প্রধান দুই সদস্য নুরুজ্জামান ও জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রংপুরের পীরগঞ্জে ইয়াবা, জুয়ারী,ও ওয়ারেন্টের আসামী সহ ৮জনকে আটক করে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রিয় নেতা এহসাম হাওলাদার

মিঠাপুকুরে আর্থিক লেনদেন সম্পর্কিত অভিযোগের দুদিন পরই ধর্ষন মামলা দায়ের গ্রেফতার-১

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৩:৩০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ মার্চ ২০২২
  • ১৭৪৮ বার পড়া হয়েছে

মিঠাপুকুরে আর্থিক লেনদেন সম্পর্কিত অভিযোগের দুদিন পরই ধর্ষন মামলা দায়ের গ্রেফতার-১

রংপুর, মিঠাপুকুর প্রতিনিধিঃ-
মিঠাপুকুরে দিনদিন বাড়ছে স্বামী পরিত্যক্তা, বিধবা নারীদের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক। নাবালক তরুণ তরুণীসহ প্রেমের সম্পর্কের জেরে বাড়ছে ধর্ষণ ও অপহরণ মামলা। এতে হয়রানির শিকার হচ্ছেন ভুক্তভোগীরা। এসব অপহরণ ও ধর্ষণ মামলা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা ও মিমাংসা করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত।
মিঠাপুকুর উপজেলার ০২ নং রানীপুকুর ইউনিয়নের মমিনপুর আদিবাসী পাড়ায় দীর্ঘ ৮ বছরের প্রেমের সম্পর্কের জেরে বিয়ের প্রলোভণে তাওয়াতো বোনকে ধর্ষণ মামলায় উজ্জ্বল ত্রির্কী (২৩) নামে একজনকে (২ মার্চ) বুধবার গ্রেফতার করে কোর্টের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় মিঠাপুকুর থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ঐ এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ঐ মহিলার বয়স (৩৭) তার পূর্বের দুজন স্বামীকে ছেড়ে বাবার বাড়িতে বসবাস করতেন। অভিযুক্ত উজ্বল বয়সে প্রায় ১৪ বছরের ছোট।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ধর্ষনের মামলায় অভিযুক্ত উজ্বল ত্রির্কী মৃত- জিতেন ত্রির্কীর ছেলে। ধর্ষণের বাদীর ভাই অক্ষয় কুমারের সাথে অভিযুক্ত উজ্বলের ছোট বোন বাসনা ত্রির্কীর প্রায় ৬ বছর আগে বিয়ে হয়েছে। অক্ষয় আর বাসনা ত্রির্কীর বিয়েকে কেন্দ্র করে এখনো একটি অপহরন মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।
 উভয়ের বাড়ি একসঙ্গে হওয়ায় উজ্জ্বলের সঙ্গে ধর্ষণের শিকার ঐ স্বামী পরিত্যক্তা নারীর সঙ্গে আট বছর আগে উভয়ে অর্থনৈতিক লেনদেন শুরু করেন। এতে উভয়ের মধ্যে ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। এক পর্যায়ে টাকা পয়সা লেনদেন সংক্রান্ত ঝামেলা তৈরী হলে টাকা ফেরত চেয়ে একাধিক গ্রাম্য সার্লিশ অনুষ্ঠিত হয়। কয়েক-দফা সার্লিশে টাকা লেনদেন ছাড়া অন্য বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ তোলেনি। পাওনা টাকার কয়েকটি নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প আছে। সর্বশেষ গত ১০ ফ্রেব্রুয়ারি পাওনা টাকা আদায়ে বাকবিতন্ডায় জড়লে থানায় একটি অভিযোগ করেছিলেন ঐ নারী।
টাকা সংক্রান্ত অভিযোগের দু-দিন পরই থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের এবং তারপরেই গ্রেফতারের বিষয়ে আদিবাসীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক কয়েকজন আদিবাসী সম্প্রদায়ের লোকজন জানান, কয়েকজন মুসলমান মাতাব্বর,টাউট উস্কানিমূলক ষড়যন্ত্র করে টাকা পয়সা খেয়ে বিষয়টিকে ভিন্নভাবে প্রভাবিত করছেন। তারা দাবি করেন,ধর্ষণের মত ঘটনা ঘটলে আমাদের ধর্মীয় রীতিনীতি অনুযায়ী বিয়ে, অথবা আইনি ব্যবস্হা নিতাম। তারা প্রশ্ন তুলেন,আট বছর আগে উজ্জ্বল নাবালক ছিলো। আর বয়সে বড় ঐ নারী কিভাবে নাবালক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ায়। ঘটনায় উজ্বলের বোন বাসনা ত্রির্কী তার ভাইয়ের নামে মামলা হওয়ায় অক্ষয়ের পরিবার ছেড়ে বাবার বাড়িতে অবস্থান করছেন। সংসার করবেন না বলে জানিয়েছেন বাসনা ত্রির্কী।
এ বিষয়ে মামলার বাদী ঐ নারীর দাবি, তার ভাইয়ের পূর্বের অপহরণ মামলা, স্টাম্পের টাকা না দেওয়ার জন্য, এবং উজ্জ্বল তার জীবন নষ্ট করার জন্য মামলা দিয়েছেন। এ ঘটনায় তিনি উজ্বলের মা-সুকুমনির উপর খোভ ঝাড়েন। প্রথমে টাকার অভিযোগ দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি টাকা পাইলে ধর্ষণ মামলা করতাম-না। কিন্তু টাকা না দেওয়ায় ঝামেলা বেড়েছে। মামলা করার কথা বলে মাতাব্বরেরা টাকা নিয়েছেন কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন এসব বলে কি লাভ ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ইমরান জানান, পাওনা টাকা চেয়ে থানায় অভিযোগ করার পরপরই ছেলের বিয়ে অন্য জায়গায় হচ্ছে, এ ঘটনা জানার পরই ঐ নারী ধর্ষনের মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় ভিকটিমের মেডিকেল সম্পন্ন হয়েছে। মামলাটির তদন্ত চলছে।
জনপ্রিয় সংবাদ

পীরগঞ্জে বিশেষ অভিযানে জুয়ারী সহ ১৩জন গ্রেফতার।

মিঠাপুকুরে আর্থিক লেনদেন সম্পর্কিত অভিযোগের দুদিন পরই ধর্ষন মামলা দায়ের গ্রেফতার-১

আপডেট সময় ০৩:৩০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ মার্চ ২০২২
রংপুর, মিঠাপুকুর প্রতিনিধিঃ-
মিঠাপুকুরে দিনদিন বাড়ছে স্বামী পরিত্যক্তা, বিধবা নারীদের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক। নাবালক তরুণ তরুণীসহ প্রেমের সম্পর্কের জেরে বাড়ছে ধর্ষণ ও অপহরণ মামলা। এতে হয়রানির শিকার হচ্ছেন ভুক্তভোগীরা। এসব অপহরণ ও ধর্ষণ মামলা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা ও মিমাংসা করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত।
মিঠাপুকুর উপজেলার ০২ নং রানীপুকুর ইউনিয়নের মমিনপুর আদিবাসী পাড়ায় দীর্ঘ ৮ বছরের প্রেমের সম্পর্কের জেরে বিয়ের প্রলোভণে তাওয়াতো বোনকে ধর্ষণ মামলায় উজ্জ্বল ত্রির্কী (২৩) নামে একজনকে (২ মার্চ) বুধবার গ্রেফতার করে কোর্টের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় মিঠাপুকুর থানা পুলিশ। এ ঘটনায় ঐ এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ধর্ষণের শিকার ঐ মহিলার বয়স (৩৭) তার পূর্বের দুজন স্বামীকে ছেড়ে বাবার বাড়িতে বসবাস করতেন। অভিযুক্ত উজ্বল বয়সে প্রায় ১৪ বছরের ছোট।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ধর্ষনের মামলায় অভিযুক্ত উজ্বল ত্রির্কী মৃত- জিতেন ত্রির্কীর ছেলে। ধর্ষণের বাদীর ভাই অক্ষয় কুমারের সাথে অভিযুক্ত উজ্বলের ছোট বোন বাসনা ত্রির্কীর প্রায় ৬ বছর আগে বিয়ে হয়েছে। অক্ষয় আর বাসনা ত্রির্কীর বিয়েকে কেন্দ্র করে এখনো একটি অপহরন মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।
 উভয়ের বাড়ি একসঙ্গে হওয়ায় উজ্জ্বলের সঙ্গে ধর্ষণের শিকার ঐ স্বামী পরিত্যক্তা নারীর সঙ্গে আট বছর আগে উভয়ে অর্থনৈতিক লেনদেন শুরু করেন। এতে উভয়ের মধ্যে ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। এক পর্যায়ে টাকা পয়সা লেনদেন সংক্রান্ত ঝামেলা তৈরী হলে টাকা ফেরত চেয়ে একাধিক গ্রাম্য সার্লিশ অনুষ্ঠিত হয়। কয়েক-দফা সার্লিশে টাকা লেনদেন ছাড়া অন্য বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ তোলেনি। পাওনা টাকার কয়েকটি নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প আছে। সর্বশেষ গত ১০ ফ্রেব্রুয়ারি পাওনা টাকা আদায়ে বাকবিতন্ডায় জড়লে থানায় একটি অভিযোগ করেছিলেন ঐ নারী।
টাকা সংক্রান্ত অভিযোগের দু-দিন পরই থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের এবং তারপরেই গ্রেফতারের বিষয়ে আদিবাসীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক কয়েকজন আদিবাসী সম্প্রদায়ের লোকজন জানান, কয়েকজন মুসলমান মাতাব্বর,টাউট উস্কানিমূলক ষড়যন্ত্র করে টাকা পয়সা খেয়ে বিষয়টিকে ভিন্নভাবে প্রভাবিত করছেন। তারা দাবি করেন,ধর্ষণের মত ঘটনা ঘটলে আমাদের ধর্মীয় রীতিনীতি অনুযায়ী বিয়ে, অথবা আইনি ব্যবস্হা নিতাম। তারা প্রশ্ন তুলেন,আট বছর আগে উজ্জ্বল নাবালক ছিলো। আর বয়সে বড় ঐ নারী কিভাবে নাবালক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ায়। ঘটনায় উজ্বলের বোন বাসনা ত্রির্কী তার ভাইয়ের নামে মামলা হওয়ায় অক্ষয়ের পরিবার ছেড়ে বাবার বাড়িতে অবস্থান করছেন। সংসার করবেন না বলে জানিয়েছেন বাসনা ত্রির্কী।
এ বিষয়ে মামলার বাদী ঐ নারীর দাবি, তার ভাইয়ের পূর্বের অপহরণ মামলা, স্টাম্পের টাকা না দেওয়ার জন্য, এবং উজ্জ্বল তার জীবন নষ্ট করার জন্য মামলা দিয়েছেন। এ ঘটনায় তিনি উজ্বলের মা-সুকুমনির উপর খোভ ঝাড়েন। প্রথমে টাকার অভিযোগ দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি টাকা পাইলে ধর্ষণ মামলা করতাম-না। কিন্তু টাকা না দেওয়ায় ঝামেলা বেড়েছে। মামলা করার কথা বলে মাতাব্বরেরা টাকা নিয়েছেন কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন এসব বলে কি লাভ ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ইমরান জানান, পাওনা টাকা চেয়ে থানায় অভিযোগ করার পরপরই ছেলের বিয়ে অন্য জায়গায় হচ্ছে, এ ঘটনা জানার পরই ঐ নারী ধর্ষনের মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় ভিকটিমের মেডিকেল সম্পন্ন হয়েছে। মামলাটির তদন্ত চলছে।