বাংলাদেশ ০৯:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
ধর্মীয় শিক্ষার অভাবে মানুষ বিপদগামী হচ্ছে — ভান্ডারিয়ায় মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করিম নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে যা করার প্রয়োজন তাই করা হবে- নির্বাচন কমিশনার ২৪ এপ্রিল থেকে তিন দিনব্যাপী ঐতিহ্যবাহী জব্বারের বলিখেলা কালুরঘাট ভারী শিল্প এলাকার চার শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করলেন চসিক ভ্রাম্যমান আদালত চলতি বছরেই পঁচিশ শতাংশ ভাটায় ব্লক ইট তৈরী নিশ্চিত করতে হবে — জেলা প্রশাসক নলছিটিতে শেষ হলো মরহুম আঃ সোবাহান চেয়ারম্যান স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। নওগাঁর হাসপাতাল গুলোতে বাড়ছে ডায়রিয়া রুগী  ভান্ডারিয়ায় প্রাণি সম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত ব্রাহ্মণপাড়ায় প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী উপলক্ষে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা  ব্রাহ্মণপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে হতদরিদ্রের মাঝে ঘর উপহার  ব্রাহ্মণপাড়া থেকে কুমিল্লায় সিএনজি ভাড়া দ্বিগুণ থেকে তিন গুণ ভোগান্তিতে যাত্রীরা ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তণের দায়ে স্ত্রী কারাগারে! বাগেরহাটে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী ২০২৪ অনুষ্ঠিত একযুগেরও বেশি সময় পর ঠাকুরগাঁও চেম্বারের নির্বাচন দোকান কর্মচারি, গৃহবধু, ঝাড়ুদার ভোটার। অনিয়মের ছড়াছড়ি তালতলীতে এবার ইউপি চেয়ারম্যানের আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল

কচুয়া ছাত্রদলে পকেট কমিটি গঠনের অভিযোগ তৃনমুলে ক্ষোভ

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৬:৪৩:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ মার্চ ২০২২
  • ১৭১২ বার পড়া হয়েছে

কচুয়া ছাত্রদলে পকেট কমিটি গঠনের অভিযোগ তৃনমুলে ক্ষোভ

কচুয়া, বাগেরহাট প্রতিনিধি।।  
বাংলাদেশ জাতীয়বাদী ছাত্রদলের বাগেরহাট জেলা শাখার আওতাধীন কচুয়া উপজেলা ছাএদলের ০৭ টি ইউনিয়ন এর আংশিক কমিটি ঘোষণা হয়েছে।প্রতিটি কমিটিতে ১ জন করে সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক মিলে মোট ৫ জনকে রাখা হয়েছে।
২৮-০২-২০২২ ইং তারিখ বাগেরহাট জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক ইয়াহিয়া শেখ সুমন স্বাক্ষরিত কমিটির তালিকা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।এর পর থেকে তৃনমূল ছাত্রদল কর্মীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভ লক্ষ্য করা গেছে। ছাত্রদল সমর্থনকারিদের সরাসরি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করে নব ঘোষিত কমিটিতে স্থান পাওয়া কয়েক জনের নামে জোরালো অভিযোগ তুলতে দেখাগেছে। এর পর থেকেই তৃনমূল ছাত্র দলের কর্মীদের মধ্যে দেখা যাচ্ছে হতাশা।
এছাড়াও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক ছাত্র দলের কর্মী ও জেলা- উপজেলা ছাত্রদলের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা একাধিক নেতাকর্মী নবগঠিত ইউনিয়ন কমিটির সমালোচনা করে বলেন, ছাত্রদলের সাংগঠনিক শক্তি দুর্বল করে দিয়ে একটি মহল বিশেষ স্বার্থ হাসিলের জন্য একটা মনগড়া কমিটি ঘোষণা করেছে।এটাকে পকেট কমিটি ছাড়া কিছু বলা যায় না। যেখানে দলের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিদের কোন মতামত নেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ করেন। অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন ঘোষিত কমিটিতে মাদকাশক্ত ব্যাক্তি, চুরি-ডাকাতি সহ নানা অপরাধে জরিত থাকা ব্যাক্তি সহ অসাংগঠনিক, অছাত্র, ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী এবং সংগঠনের কোন কর্মসূচিতে অংশগ্রহন করেননি এমন ব্যাক্তিদের গুরুত্বপূর্ণ পদে রাখা হয়েছে।এছাড়াও কচুয়া উপজেলা ছাত্র দলের আহবায়ক কমিটি গঠনের পর থেকেই বেশকিছু অভিযোগের ভিত্তিতে আহবায়ক রানা দিদারের পদত্যাগের দাবিতে ০৭ টি ইউনিয়নের ছাত্রদল কর্মীরা ধারাবাহিক বিক্ষোভ মিছিল করেন।এরপর থেকেই কমিটি গঠন প্রকৃয়া সহ বিভিন্ন বিষয়ে মতানৈক্য সৃষ্টি হয়।
কচুয়া উপজেলা শাখা ছাত্র দলের সদস্য সচিব সাওন সরদারের কাছে কমিটির বিষয় জানতে চাইলে তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন,আমি কমিটি ঘোষণার কথা লোকমুখে সুনেছি পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে একটি তালিকা সংগ্রহ করেছি কিন্তু ঘোষিত নতুন কমিটি সম্পর্কে আমার কিছু জানানেই।তবে এ বিষয়ে জানার জন্য আমি বাগেরহাট জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তারা ফোন রিসিভ করেন নাই।তবে ইতিপূর্বে কমিটি দেওয়ার জন্য আমি উপজেলা শাখার আহবায়ক ও জেলা সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ করি কিন্তু কেন আমাকে নাজানিয়ে তৃণমূলের পরিক্ষিত ছাত্রদল কর্মীদের বাদদিয়ে বিতর্কিত দের কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে জানিনা।আশাকরি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবেন।ছাত্র সংগঠনের মধ্যে কোন কোন্দল আছে কিনা?এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,একটি বৃহত্তর রাজনৈতিক সংগঠনের মধ্যে খুটি নাটি কিছু সমস্যা এবং মতো বিরোধ থাকতে পারে তবে আলোচনা করে সমন্বয়ের মাধ্যমে কমিটি দেওয়া হলে এ ধরনের অভিযোগ উঠার কথা না।
বিষয়টি নিয়ে কচুয়া উপজেলা ছাত্র দলের আহবায়ক রানা দিদারের সাথে কথা হয়।তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন ৭ ইউনিয়নের যে কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে তা মুল দলের মতামতের ভিত্তিতে আমাদের কমিটি অনুমোদন দিয়েছে।এক পর্যায়ে কমিটির অনুমোদনের ব্যাপারে জানতে চাইলে ছাত্রদলের কচুয়া উপজেলা শাখার আহবায়ক আরো বলেন,আমাদের উপজেলা কমিটির আহবায়ক ও সাধারন সম্পাদকের বিরুপ মতার্দশের কারনে আমরা অনুমোদন দিতে পারিনি তাই এ কমিটি অনুমোদন দিয়েছে জেলা কমিটির দপ্তর সম্পাদক।
এই বিষয়ে অন্যএক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের দলের নীতিমালা রয়েছে সভাপতি সাধারন সম্পাদকের যদি বিরুপ মতার্দশা থাকে তাহলে দপ্তর সম্পাদক কমিটির অনুমোদন দিতে পারবে বলে এমটিই জানান। তবে কমিটি গঠন প্রকৃয়ায় কতটা সচ্ছতা রয়েছে তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়। বিষয়টির বিস্তারিত জানার জন্য ছাত্র দলের বাগেরহাট জেলা কমিটির সভাপতি ইমরানখান সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক আলী সাদ্দাম আহম্মেদ দীপের সাথে ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
জনপ্রিয় সংবাদ

ধর্মীয় শিক্ষার অভাবে মানুষ বিপদগামী হচ্ছে — ভান্ডারিয়ায় মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করিম

কচুয়া ছাত্রদলে পকেট কমিটি গঠনের অভিযোগ তৃনমুলে ক্ষোভ

আপডেট সময় ০৬:৪৩:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ মার্চ ২০২২
কচুয়া, বাগেরহাট প্রতিনিধি।।  
বাংলাদেশ জাতীয়বাদী ছাত্রদলের বাগেরহাট জেলা শাখার আওতাধীন কচুয়া উপজেলা ছাএদলের ০৭ টি ইউনিয়ন এর আংশিক কমিটি ঘোষণা হয়েছে।প্রতিটি কমিটিতে ১ জন করে সভাপতি, সিনিয়র সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক মিলে মোট ৫ জনকে রাখা হয়েছে।
২৮-০২-২০২২ ইং তারিখ বাগেরহাট জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক ইয়াহিয়া শেখ সুমন স্বাক্ষরিত কমিটির তালিকা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।এর পর থেকে তৃনমূল ছাত্রদল কর্মীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভ লক্ষ্য করা গেছে। ছাত্রদল সমর্থনকারিদের সরাসরি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করে নব ঘোষিত কমিটিতে স্থান পাওয়া কয়েক জনের নামে জোরালো অভিযোগ তুলতে দেখাগেছে। এর পর থেকেই তৃনমূল ছাত্র দলের কর্মীদের মধ্যে দেখা যাচ্ছে হতাশা।
এছাড়াও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক ছাত্র দলের কর্মী ও জেলা- উপজেলা ছাত্রদলের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা একাধিক নেতাকর্মী নবগঠিত ইউনিয়ন কমিটির সমালোচনা করে বলেন, ছাত্রদলের সাংগঠনিক শক্তি দুর্বল করে দিয়ে একটি মহল বিশেষ স্বার্থ হাসিলের জন্য একটা মনগড়া কমিটি ঘোষণা করেছে।এটাকে পকেট কমিটি ছাড়া কিছু বলা যায় না। যেখানে দলের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিদের কোন মতামত নেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ করেন। অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন ঘোষিত কমিটিতে মাদকাশক্ত ব্যাক্তি, চুরি-ডাকাতি সহ নানা অপরাধে জরিত থাকা ব্যাক্তি সহ অসাংগঠনিক, অছাত্র, ছাত্রলীগের সক্রিয় কর্মী এবং সংগঠনের কোন কর্মসূচিতে অংশগ্রহন করেননি এমন ব্যাক্তিদের গুরুত্বপূর্ণ পদে রাখা হয়েছে।এছাড়াও কচুয়া উপজেলা ছাত্র দলের আহবায়ক কমিটি গঠনের পর থেকেই বেশকিছু অভিযোগের ভিত্তিতে আহবায়ক রানা দিদারের পদত্যাগের দাবিতে ০৭ টি ইউনিয়নের ছাত্রদল কর্মীরা ধারাবাহিক বিক্ষোভ মিছিল করেন।এরপর থেকেই কমিটি গঠন প্রকৃয়া সহ বিভিন্ন বিষয়ে মতানৈক্য সৃষ্টি হয়।
কচুয়া উপজেলা শাখা ছাত্র দলের সদস্য সচিব সাওন সরদারের কাছে কমিটির বিষয় জানতে চাইলে তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন,আমি কমিটি ঘোষণার কথা লোকমুখে সুনেছি পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে একটি তালিকা সংগ্রহ করেছি কিন্তু ঘোষিত নতুন কমিটি সম্পর্কে আমার কিছু জানানেই।তবে এ বিষয়ে জানার জন্য আমি বাগেরহাট জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তারা ফোন রিসিভ করেন নাই।তবে ইতিপূর্বে কমিটি দেওয়ার জন্য আমি উপজেলা শাখার আহবায়ক ও জেলা সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ করি কিন্তু কেন আমাকে নাজানিয়ে তৃণমূলের পরিক্ষিত ছাত্রদল কর্মীদের বাদদিয়ে বিতর্কিত দের কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে জানিনা।আশাকরি কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবেন।ছাত্র সংগঠনের মধ্যে কোন কোন্দল আছে কিনা?এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,একটি বৃহত্তর রাজনৈতিক সংগঠনের মধ্যে খুটি নাটি কিছু সমস্যা এবং মতো বিরোধ থাকতে পারে তবে আলোচনা করে সমন্বয়ের মাধ্যমে কমিটি দেওয়া হলে এ ধরনের অভিযোগ উঠার কথা না।
বিষয়টি নিয়ে কচুয়া উপজেলা ছাত্র দলের আহবায়ক রানা দিদারের সাথে কথা হয়।তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন ৭ ইউনিয়নের যে কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে তা মুল দলের মতামতের ভিত্তিতে আমাদের কমিটি অনুমোদন দিয়েছে।এক পর্যায়ে কমিটির অনুমোদনের ব্যাপারে জানতে চাইলে ছাত্রদলের কচুয়া উপজেলা শাখার আহবায়ক আরো বলেন,আমাদের উপজেলা কমিটির আহবায়ক ও সাধারন সম্পাদকের বিরুপ মতার্দশের কারনে আমরা অনুমোদন দিতে পারিনি তাই এ কমিটি অনুমোদন দিয়েছে জেলা কমিটির দপ্তর সম্পাদক।
এই বিষয়ে অন্যএক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের দলের নীতিমালা রয়েছে সভাপতি সাধারন সম্পাদকের যদি বিরুপ মতার্দশা থাকে তাহলে দপ্তর সম্পাদক কমিটির অনুমোদন দিতে পারবে বলে এমটিই জানান। তবে কমিটি গঠন প্রকৃয়ায় কতটা সচ্ছতা রয়েছে তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়। বিষয়টির বিস্তারিত জানার জন্য ছাত্র দলের বাগেরহাট জেলা কমিটির সভাপতি ইমরানখান সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক আলী সাদ্দাম আহম্মেদ দীপের সাথে ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।