ঢাকা ০৫:০৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০২ জুন ২০২৩, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, যোগাযোগ: মোবাইল : 01712-446306, 01999-953970
ব্রেকিং নিউজ ::
নিয়ন্ত্রণহীন কাভার্ডভ্যানে প্রাণ গেলো মা-মেয়ের ইউনূসের প্ররোচনায় আমেরিকা স্যাংশন দিয়েছে: শিক্ষা উপমন্ত্রী  ভাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বোন’কে গণধর্ষণের ঘটনায় প্রধান ০৩ আসামীদের গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪। ভারত এখন আ.লীগের প্রতি প্রসন্ন না: হাসনা মওদুদ রামগঞ্জে ধর্ষণের দায়ে যুবক কারাগারে  ইন্দুরকানীতে বিদ্যুৎ বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে মাদ্রাসার ছাত্রর মৃত্যু শাহাজাদী বেগমের হত্যা মামলার আসামিরা ধরাছোঁয়ার বাহিরে, প্রশাসন নিরব!  খানসামায় প্রাথমিক শিক্ষা কমিটি গঠনে নানান অভিযোগ রাঙ্গাবালীতে মা ইলিশ রক্ষায় ৬৫ দিনের অবরোধে ২৩৯৩ জেলেদের মাঝে চাল বিতরণ উলিপুরে ফুল মিয়া হত্যাকান্ডে জড়িতদের ফাঁসির দাবীবে মানববন্ধন নওগাঁর বদলগাছীতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কর্তৃক মসলা দোকানে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা প্রতিকৃতি সরিয়ে মেয়রের রক্ষা!  পাথরঘাটায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১ ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০; মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার জব্দ। নোয়াখালীতে বিস্ফোরক মামলায় উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক গ্রেফতার

অগ্নিকান্ডে স্বামী ও তিন সন্তানের পর না ফেরার দেশে স্ত্রী রেখাও!

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:৫৬:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ মার্চ ২০২২
  • ১৬৫৯ বার পড়া হয়েছে

অগ্নিকান্ডে স্বামী ও তিন সন্তানের পর না ফেরার দেশে স্ত্রী রেখাও!

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ভিডিও প্রতিযোগিতা: বিস্তারিত ফেইসবুক পেইজে

 

 

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদক।  

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে বহুতল ভবনে অগ্নিকান্ডে স্বামী ও ৩ সন্তানের পর এবার মারা গেলেন গৃহবধূ রেখা আক্তার। এর ফলে ওই পরিবারের আর কেউ বেঁচে রইলো না। সোমবার রাত ১১টার দিকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রেখা। তার মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার চাচা শ্বশুর ও উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শরীফ হোসাইন।

 

 

গত মঙ্গলবার  (ফেব্রুয়ারী) রাতে  উপজেলার আশুগঞ্জ বাজারের আলাই মোল্লা ভবনে অগ্নিকান্ড হয়। এতে স্কুলশিক্ষক মকবুল মিয়া (৪২), তার স্ত্রী রেখা বেগম (৩৫), বড় ছেলে আরিফ হোসেন জয় (১১) ও জুবায়ের হোসেন (৭) অগ্নিদগ্ধ হয়। এছাড়াও মকবুলেল স্ত্রী রেখার গর্ভে থাকা ৮ মাসের মেয়ে সন্তানও মৃত্যুবরণ করেছেন।  এই ঘটনায় একে একে মারা গেলেন সবাই। রেখাসহ মকবুলের পরিবারের ৫ সদস্যের মৃত্যু ঘটনা নিয়ে এলাকায় চলছে শোকের মাতম।

 

 

পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ১৩ বছরে আগে জেলার নবীনগরের রেখা বেগমকে বিয়ে করেন আশুগঞ্জ উপজেলার শরীফপুরের সফর মিয়ার ছেলে মকবুল মিয়া। মকবুল ছিলেন সাবেক ইউপি সদস্য ও ইউপি সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি। পেশায় ছিলেন একজন সহকারী শিক্ষক। বিয়ের পর তাদের সংসারে দুই ছেলে সন্তান জন্ম নেয়। মকবুল দুই ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে উপজেলা সদরে ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।

 

 

গত মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারী) রাত আনুমানিক সাড়ে ১০ টার দিকে হঠাৎ মকবুলের বাসায় বিস্ফোরণের বিকট শব্দ হং। এতে মকবুল মিয়া, মকবুলের গর্ভবতী স্ত্রী রেখা, বড় ছেলে জয় ও ছোট ছেলে জুবায়ের অগ্নিদগ্ধ হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকায় নেওয়ার পথে মকবুলের ছোট ছেলে জুবায়ের মারা যায়। ঘটনার পরদিন বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মকবুল মিয়া মারা যান। স্বামী মারা যাওয়ার একদিন পর গত বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীতে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অগ্নিদগ্ধ রেখা একটি মৃত সন্তান প্রসব করেন। গত রোববার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় মকবুলের বড় ছেলে জয়। সর্বশেষ সোমবার রাত ১১টার দিকে নিহত মকবুলের স্ত্রী রেখা বেগম আইসিসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলেন।

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

নিয়ন্ত্রণহীন কাভার্ডভ্যানে প্রাণ গেলো মা-মেয়ের

অগ্নিকান্ডে স্বামী ও তিন সন্তানের পর না ফেরার দেশে স্ত্রী রেখাও!

আপডেট সময় ০২:৫৬:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১ মার্চ ২০২২

 

 

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদক।  

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে বহুতল ভবনে অগ্নিকান্ডে স্বামী ও ৩ সন্তানের পর এবার মারা গেলেন গৃহবধূ রেখা আক্তার। এর ফলে ওই পরিবারের আর কেউ বেঁচে রইলো না। সোমবার রাত ১১টার দিকে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রেখা। তার মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার চাচা শ্বশুর ও উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শরীফ হোসাইন।

 

 

গত মঙ্গলবার  (ফেব্রুয়ারী) রাতে  উপজেলার আশুগঞ্জ বাজারের আলাই মোল্লা ভবনে অগ্নিকান্ড হয়। এতে স্কুলশিক্ষক মকবুল মিয়া (৪২), তার স্ত্রী রেখা বেগম (৩৫), বড় ছেলে আরিফ হোসেন জয় (১১) ও জুবায়ের হোসেন (৭) অগ্নিদগ্ধ হয়। এছাড়াও মকবুলেল স্ত্রী রেখার গর্ভে থাকা ৮ মাসের মেয়ে সন্তানও মৃত্যুবরণ করেছেন।  এই ঘটনায় একে একে মারা গেলেন সবাই। রেখাসহ মকবুলের পরিবারের ৫ সদস্যের মৃত্যু ঘটনা নিয়ে এলাকায় চলছে শোকের মাতম।

 

 

পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ১৩ বছরে আগে জেলার নবীনগরের রেখা বেগমকে বিয়ে করেন আশুগঞ্জ উপজেলার শরীফপুরের সফর মিয়ার ছেলে মকবুল মিয়া। মকবুল ছিলেন সাবেক ইউপি সদস্য ও ইউপি সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি। পেশায় ছিলেন একজন সহকারী শিক্ষক। বিয়ের পর তাদের সংসারে দুই ছেলে সন্তান জন্ম নেয়। মকবুল দুই ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে উপজেলা সদরে ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।

 

 

গত মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারী) রাত আনুমানিক সাড়ে ১০ টার দিকে হঠাৎ মকবুলের বাসায় বিস্ফোরণের বিকট শব্দ হং। এতে মকবুল মিয়া, মকবুলের গর্ভবতী স্ত্রী রেখা, বড় ছেলে জয় ও ছোট ছেলে জুবায়ের অগ্নিদগ্ধ হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকায় নেওয়ার পথে মকবুলের ছোট ছেলে জুবায়ের মারা যায়। ঘটনার পরদিন বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মকবুল মিয়া মারা যান। স্বামী মারা যাওয়ার একদিন পর গত বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীতে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অগ্নিদগ্ধ রেখা একটি মৃত সন্তান প্রসব করেন। গত রোববার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় মকবুলের বড় ছেলে জয়। সর্বশেষ সোমবার রাত ১১টার দিকে নিহত মকবুলের স্ত্রী রেখা বেগম আইসিসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলেন।