বাংলাদেশ ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
জণগণের পাশে ছিলাম, আছি এবং আজীবন থাকবো-অ্যাড. অরুনাংশু দত্ত টিটো দোকানের বাকির টাকা দিতে দেরি করায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে যখম, থানায় অভিযোগ।  সকল দলের মানুষের সেবক হিসেবে পাশে থাকতে চাই- অধ্যক্ষ সইদুল হক  পিরোজপুরে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা টিভি’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ঘোড়া মার্কার প্রার্থীকে জরিমানা রায়গঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে জামরুল ফল বিদেশী মদসহ ০৩ জন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। সরকারের অনিচ্ছাতেই উচ্চ শিক্ষায় স্বদেশি ভাষা চালু হয়নি: ড. সলিমুল্লাহ খান রাজশাহীতে ৩০ ছাত্রকে বলাৎকার করে ভিডিও ধারণ করেন শিক্ষক ওয়াকেল ঠাকুরগাঁওয়ে উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে জেলা আওয়ামী রাজনীতিতে বিভক্তি হওয়ার আশঙ্কা রাজশাহীর পুঠিয়ায় তিন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে সম্পদশালী মাসুদ পুঠিয়া উপজেলায় নির্বাচন: চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীদের কার সম্পদ কত? রাজশাহী মহানগরীতে চেকপোস্টে দুই পুলিশ পিটিয়ে আহত! দুইভাই আটক কাউনিয়ায় লিগ্যাল এইড সার্ভিসেস ট্রাস্ট এর সভা অনুষ্ঠিত ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি মামলার আসামী নাজিবুল ইসলাম নাজিমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। উল্লাপাড়ায় সড়ক দূর্ঘনায় ১ জনের মৃত্যু 

সংবাদকর্মীদের চেষ্টায় ভান্ডারিয়ায় ১৪ বছর পর ভারসাম্যহীন বৃদ্ধা রাবেয়া বাড়ি ফিরলেন

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৭:৩৬:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৭০৩ বার পড়া হয়েছে

 

 

 

 

 

ভান্ডারিয়া প্রতিনিধি ঃ

 

 

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায় ১৪ বছর ধরে আশ্রিত বৃদ্ধা রাবেয়া সংবাদকর্মীদের চেষ্টায় বাড়ি ফিরেছেন। গতকাল সোমবার সকালে বৃদ্ধা রাবেয়া বেগম (৯০) এর তিন সন্তান আইনুল ইসলাম,বোরহান উদ্দিন, মনোয়ার হোসেন ও তার নাতী হিৃদয় আহমেদ তাকে নিতে আসে।

 

 

অবশেষে বৃদ্ধাকে নাটর সদর উপজেলার দিঘাপাতিয়া ইউনিয়নের ইসলাবাড়ী খমার গ্রামে নিয়ে যায় সন্তানরা। বৃদ্ধার বিদায় কালে তাকে এক নজর দেখতে স্থানীয় বোথলা বাজারে শত শত মানুষ উপস্থিত হন। গত ১৪ বছর আগে রাবেয়া বেগম উপজেলার ইকড়ি ইউনিয়নের বোথলা বাজারের মুদি ব্যবসায়ী মো. হেদায়েতুল ইসলাম আকন (হিদু আকন) এর মায়ের মিলাদ অনুষ্ঠানে এসে উপস্থিত হন।

 

 

ক্ষুদায় কাহিল দেখে হিদু আকন তাকে খাবার দেয় । সেই থেকে রাবেয়া হিদু আকনের কাছে থেকে যায়। হিদু আকন ওই বৃদ্ধা রাবিয়া বেগমকে নানী বলে ডাকতো এবং নানীর থাকার জন্য বোথলা বাজার সংলগ্ন স্কুল ঘরের সামনে টিনের ছাপড়া কুড়ে ঘর তুলে দিয়ে সেখানে নিয়মিত খাবার দেয়া সহ তাকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করতেন । এ ঘটনাটি গত সপÍাহে নজরে আসে স্থানীয় সংবাদকর্মী মো: মামুন হোসেন ও সামসুল ইসলাম আমিরুলের। তারা এ বিষয় নিয়ে বিভিন্ন পত্রপত্রিকা সহ অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করলে বৃদ্ধা রাবেয়ার স্বজননা তা ফেজবুক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখতে পেয়ে ওই বৃদ্ধাকে খুঁজে পায়।

 

 

বৃদ্ধা রাবেয়ার বড় ছেলে আইনুল ইসলাম কেঁদে বলেন, গত ২০০৮ সালে মা হঠাৎ হারিয়ে যায়। তাকে বহু খোঁজেও পাইনি। আমরা বুজেছি এতো বছরে হয়তো মা আর নেই। তাই তার জন্য প্রতিবছর মিলাদ মাহফিল সহ দোয়া করে আসছি। কিন্তু আজ আল্লাহর অশেষ কুদরতে সাংবাদিক ভাইদের সহযোগীতায় মাকে খুঁজে পেয়ে মহান রবের দরবারে লাখো কোটি শুকরিয়া জানাচ্ছি। এ বিষয়ে বৃদ্ধার আশ্রয় দাতা মো. হেদায়েতুল ইসলাম আকন কেঁদে কেঁদে বলেন, বৃদ্ধা নানী রাবেয়া বেগম একজন মানষিক ভারসাম্যহীন মানুষ। ভাল ভাবে কিছুই বলতে পারতো না। আজ তাকে হারাতে খুব কষ্ট হচ্ছে। আবার, সন্তানদের হাতে মাকে তুলেদিতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি। এ জন্য সাংবাদিক ভাইদের প্রতি কৃজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

 

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

জণগণের পাশে ছিলাম, আছি এবং আজীবন থাকবো-অ্যাড. অরুনাংশু দত্ত টিটো

সংবাদকর্মীদের চেষ্টায় ভান্ডারিয়ায় ১৪ বছর পর ভারসাম্যহীন বৃদ্ধা রাবেয়া বাড়ি ফিরলেন

আপডেট সময় ০৭:৩৬:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২২

 

 

 

 

 

ভান্ডারিয়া প্রতিনিধি ঃ

 

 

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায় ১৪ বছর ধরে আশ্রিত বৃদ্ধা রাবেয়া সংবাদকর্মীদের চেষ্টায় বাড়ি ফিরেছেন। গতকাল সোমবার সকালে বৃদ্ধা রাবেয়া বেগম (৯০) এর তিন সন্তান আইনুল ইসলাম,বোরহান উদ্দিন, মনোয়ার হোসেন ও তার নাতী হিৃদয় আহমেদ তাকে নিতে আসে।

 

 

অবশেষে বৃদ্ধাকে নাটর সদর উপজেলার দিঘাপাতিয়া ইউনিয়নের ইসলাবাড়ী খমার গ্রামে নিয়ে যায় সন্তানরা। বৃদ্ধার বিদায় কালে তাকে এক নজর দেখতে স্থানীয় বোথলা বাজারে শত শত মানুষ উপস্থিত হন। গত ১৪ বছর আগে রাবেয়া বেগম উপজেলার ইকড়ি ইউনিয়নের বোথলা বাজারের মুদি ব্যবসায়ী মো. হেদায়েতুল ইসলাম আকন (হিদু আকন) এর মায়ের মিলাদ অনুষ্ঠানে এসে উপস্থিত হন।

 

 

ক্ষুদায় কাহিল দেখে হিদু আকন তাকে খাবার দেয় । সেই থেকে রাবেয়া হিদু আকনের কাছে থেকে যায়। হিদু আকন ওই বৃদ্ধা রাবিয়া বেগমকে নানী বলে ডাকতো এবং নানীর থাকার জন্য বোথলা বাজার সংলগ্ন স্কুল ঘরের সামনে টিনের ছাপড়া কুড়ে ঘর তুলে দিয়ে সেখানে নিয়মিত খাবার দেয়া সহ তাকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করতেন । এ ঘটনাটি গত সপÍাহে নজরে আসে স্থানীয় সংবাদকর্মী মো: মামুন হোসেন ও সামসুল ইসলাম আমিরুলের। তারা এ বিষয় নিয়ে বিভিন্ন পত্রপত্রিকা সহ অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করলে বৃদ্ধা রাবেয়ার স্বজননা তা ফেজবুক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখতে পেয়ে ওই বৃদ্ধাকে খুঁজে পায়।

 

 

বৃদ্ধা রাবেয়ার বড় ছেলে আইনুল ইসলাম কেঁদে বলেন, গত ২০০৮ সালে মা হঠাৎ হারিয়ে যায়। তাকে বহু খোঁজেও পাইনি। আমরা বুজেছি এতো বছরে হয়তো মা আর নেই। তাই তার জন্য প্রতিবছর মিলাদ মাহফিল সহ দোয়া করে আসছি। কিন্তু আজ আল্লাহর অশেষ কুদরতে সাংবাদিক ভাইদের সহযোগীতায় মাকে খুঁজে পেয়ে মহান রবের দরবারে লাখো কোটি শুকরিয়া জানাচ্ছি। এ বিষয়ে বৃদ্ধার আশ্রয় দাতা মো. হেদায়েতুল ইসলাম আকন কেঁদে কেঁদে বলেন, বৃদ্ধা নানী রাবেয়া বেগম একজন মানষিক ভারসাম্যহীন মানুষ। ভাল ভাবে কিছুই বলতে পারতো না। আজ তাকে হারাতে খুব কষ্ট হচ্ছে। আবার, সন্তানদের হাতে মাকে তুলেদিতে পেরে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি। এ জন্য সাংবাদিক ভাইদের প্রতি কৃজ্ঞতা প্রকাশ করছি।