বাংলাদেশ ০২:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
ভ্রাম্যমাণ যৌন কর্মীদের কাছ থেকে সাংবাদিক ও পুলিশ চাঁদা আদায়-১ মহাসড়কে পণ্যবাহী যানবাহন থেকে চাঁদাবাজি চক্রের ১১ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। শ্রীমঙ্গলে আড়াই বছরের প্রতিবন্ধী শিশুকে বিষ খাইয়ে হত্যা কালকিনিতে স্ত্রীর জন্য শিক্ষকদের কাছে ভোট চাওয়ার অভিযোগ সরকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাচন- ঠাকুরগাঁওয়ে প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা নব-নির্বাচিত ময়না চেয়ারম্যানকে গণসংবর্ধনা রাবি শিক্ষার্থী জিসানের শতাধিক নিরীক্ষাধর্মী ছবি নিয়ে একক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী রাবি সায়েন্স ক্লাবের ” Win the Career Race” কর্মশালার আয়োজন অনিয়মের অভিযোগে ইটভাটায় অর্থদন্ড করে ভ্রাম্যমাণ আদালত রাবিতে শুরু হল দুই দিনব্যাপী আরিইউসিসি জব ফেয়ার কেন্দ্রীয় ম‌হিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠ‌নিক সৈয়দা রা‌জিয়া মোস্তফা’র পৈত্রিক বসতঘরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড যতদিন বাচবো মুলাদীর মানুষের সাথে থাকবো-মিঠু খান মির্জাগঞ্জের উপজেলা নির্বাচনে, প্রতিশ্রুতি নিয়ে ভোটের মাঠ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা কয়রায় হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত আট বছরের ঘুমন্ত শিশুকে কোলে করে ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা

যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যানকে মারার হুমকি- গ্রেফতার ৩

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:৪১:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ জুন ২০২২
  • ১৬৭৪ বার পড়া হয়েছে

যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যানকে মারার হুমকি- গ্রেফতার ৩

স্বীকৃতি বিশ্বাস, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সোমবার (২৭ জুন) রাত আটটার দিকে তিনি( মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী) কোতোয়ালি মডেল থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দিলে গতকাল মঙ্গলবার (২৮ জুন) জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কেশবপুরের সাংসদ শাহীন চাকলাদারের চাচাতো ভাই ফন্টু চাকলাদারসহ ৮ জনের নামে মামলা রেকর্ড হয়।
ঐদিন দুপুরে যশোর শহরের কাঁঠালতলা ব্রিজের উপর থেকে মামলার তিন আসামিকে আটক করে পুলিশ।
আটককৃতরা হলেন, পুরাতন কসবা কাঁঠালতলার আমজেদ গাজীর ছেলে বাবুল গাজী (৪৫), কাঁঠালতলা বটতলার তৌফিক সরদার তপুর ছেলে মোফাজ্জেল হোসেন তাপস (৩৫) ও মানিকতলার মৃত আব্দুল করীমের ছেলে নুরুন্নবী (৪০)।
মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান উল্লেখ করেনো, রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরে রোববার গভীর রাতে বাড়ির সামনে গিয়ে শাহীন চাকলাদারের চাচাতো ভাই শহরের কাজীপাড়ার তৌহিদ চাকলাদার ফন্টু (৪৫), লোন অফিস পাড়ার আশিকুল ইসলাম বাধন (৪০), কাজীপাড়ার তেঁতুলতলার রওশন ইকবাল শাহী (৩২), কাঁঠালতলার বাবুল (৪৫), রেলগেট তেঁতুলতলার ফাহমিদ হুদা বিজয় (২৫), কাঁঠালতলা বটতলার তাপস (৩৫), কাজীপাড়া মানিকতলার নূরনবী ও কাজীপাড়ার মেহেদী হাসান রনিসহ (৩০) অজ্ঞাতনামা কয়েকজনগালিগালাজ করতে থাকে।
ফরিদ চৌধুরী অভিযোগে বলেছেন, ঘর হতে বের হয়ে আসলে অভিযোগের এক নাম্বারে থাকা ব্যক্তি আমাকে প্রকাশ্যে দিবালোকে খুন করে লাশ গুম করার হুমকি দিয়ে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর গাড়ি দুটি আমার বাড়ির সামনে আবার এসে এক নাম্বার আসামি ফন্টু চাকলাদার আমাকে শাহীন চাকলাদারের রাজনৈতিক বাধা উল্লেখ করে খুনের হুমকি দিয়ে বলে যে, পথ পরিস্কার করে ফেলব। আমি পুলিশে খবর দিলে টহল গাড়ি এসে পড়ায় তারা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে যায়।
উল্লেখিত বিষয়ে জানতে চাইলে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরীর দেয়া অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে রেকর্ড করে থানা পুলিশ। আর এদিনই তিনজন আসামিকে আটকের পর আদালতে সোপর্দ করা হয় এবং অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার ও তাদের ব্যবহৃত গাড়ীসহ অন্যান্য আলামত উদ্ধারের অভিযান অব্যাহত আছে।
অন্যদিকে পুলিশ তাদের আদালতে সোপর্দ করলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম দুই হাজার টাকা বন্ডে তিনজনকেই জামিন দিয়েছেন।
আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

ভ্রাম্যমাণ যৌন কর্মীদের কাছ থেকে সাংবাদিক ও পুলিশ চাঁদা আদায়-১

যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যানকে মারার হুমকি- গ্রেফতার ৩

আপডেট সময় ০২:৪১:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ জুন ২০২২
স্বীকৃতি বিশ্বাস, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী হত্যাচেষ্টার অভিযোগে সোমবার (২৭ জুন) রাত আটটার দিকে তিনি( মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী) কোতোয়ালি মডেল থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দিলে গতকাল মঙ্গলবার (২৮ জুন) জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কেশবপুরের সাংসদ শাহীন চাকলাদারের চাচাতো ভাই ফন্টু চাকলাদারসহ ৮ জনের নামে মামলা রেকর্ড হয়।
ঐদিন দুপুরে যশোর শহরের কাঁঠালতলা ব্রিজের উপর থেকে মামলার তিন আসামিকে আটক করে পুলিশ।
আটককৃতরা হলেন, পুরাতন কসবা কাঁঠালতলার আমজেদ গাজীর ছেলে বাবুল গাজী (৪৫), কাঁঠালতলা বটতলার তৌফিক সরদার তপুর ছেলে মোফাজ্জেল হোসেন তাপস (৩৫) ও মানিকতলার মৃত আব্দুল করীমের ছেলে নুরুন্নবী (৪০)।
মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান উল্লেখ করেনো, রাজনৈতিক বিরোধের জের ধরে রোববার গভীর রাতে বাড়ির সামনে গিয়ে শাহীন চাকলাদারের চাচাতো ভাই শহরের কাজীপাড়ার তৌহিদ চাকলাদার ফন্টু (৪৫), লোন অফিস পাড়ার আশিকুল ইসলাম বাধন (৪০), কাজীপাড়ার তেঁতুলতলার রওশন ইকবাল শাহী (৩২), কাঁঠালতলার বাবুল (৪৫), রেলগেট তেঁতুলতলার ফাহমিদ হুদা বিজয় (২৫), কাঁঠালতলা বটতলার তাপস (৩৫), কাজীপাড়া মানিকতলার নূরনবী ও কাজীপাড়ার মেহেদী হাসান রনিসহ (৩০) অজ্ঞাতনামা কয়েকজনগালিগালাজ করতে থাকে।
ফরিদ চৌধুরী অভিযোগে বলেছেন, ঘর হতে বের হয়ে আসলে অভিযোগের এক নাম্বারে থাকা ব্যক্তি আমাকে প্রকাশ্যে দিবালোকে খুন করে লাশ গুম করার হুমকি দিয়ে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর গাড়ি দুটি আমার বাড়ির সামনে আবার এসে এক নাম্বার আসামি ফন্টু চাকলাদার আমাকে শাহীন চাকলাদারের রাজনৈতিক বাধা উল্লেখ করে খুনের হুমকি দিয়ে বলে যে, পথ পরিস্কার করে ফেলব। আমি পুলিশে খবর দিলে টহল গাড়ি এসে পড়ায় তারা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে যায়।
উল্লেখিত বিষয়ে জানতে চাইলে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরীর দেয়া অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে রেকর্ড করে থানা পুলিশ। আর এদিনই তিনজন আসামিকে আটকের পর আদালতে সোপর্দ করা হয় এবং অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার ও তাদের ব্যবহৃত গাড়ীসহ অন্যান্য আলামত উদ্ধারের অভিযান অব্যাহত আছে।
অন্যদিকে পুলিশ তাদের আদালতে সোপর্দ করলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম দুই হাজার টাকা বন্ডে তিনজনকেই জামিন দিয়েছেন।