বাংলাদেশ ০৩:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিকে শোকজ জনগনের ভালবাসায় এগিয়ে ফুটবল প্রতীকের প্রার্থী চায়না খানম কালকিনিতে প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী শহিদুল ইসলাম ভ্রাম্যমাণ যৌন কর্মীদের কাছ থেকে সাংবাদিক ও পুলিশ চাঁদা আদায়-১ মহাসড়কে পণ্যবাহী যানবাহন থেকে চাঁদাবাজি চক্রের ১১ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। শ্রীমঙ্গলে আড়াই বছরের প্রতিবন্ধী শিশুকে বিষ খাইয়ে হত্যা কালকিনিতে স্ত্রীর জন্য শিক্ষকদের কাছে ভোট চাওয়ার অভিযোগ সরকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাচন- ঠাকুরগাঁওয়ে প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা নব-নির্বাচিত ময়না চেয়ারম্যানকে গণসংবর্ধনা রাবি শিক্ষার্থী জিসানের শতাধিক নিরীক্ষাধর্মী ছবি নিয়ে একক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী রাবি সায়েন্স ক্লাবের ” Win the Career Race” কর্মশালার আয়োজন অনিয়মের অভিযোগে ইটভাটায় অর্থদন্ড করে ভ্রাম্যমাণ আদালত রাবিতে শুরু হল দুই দিনব্যাপী আরিইউসিসি জব ফেয়ার কেন্দ্রীয় ম‌হিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠ‌নিক সৈয়দা রা‌জিয়া মোস্তফা’র পৈত্রিক বসতঘরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড যতদিন বাচবো মুলাদীর মানুষের সাথে থাকবো-মিঠু খান

বোরকা পরা দেখলেই ‘মেয়েদের কাপড় উল্টাইয়া পিটিয়ে চামড়া উঠায়ে ফেলব

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১১:৫৫:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ জুন ২০২২
  • ১৬৮৬ বার পড়া হয়েছে

 

নোয়াখালী প্রতিনিধি
নোয়াালীর সদর উপজেলার লক্ষীনারায়নপুর এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হাফেজ আহম্মদ ও মাইন উদ্দিনের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের সাথে অনৈতিক আচরণ করে বিদ্যালয়ে বোরকা নিষিদ্ধ করার অভিযোগ উঠেছে।

রোববার (২৬ জুন) সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নবম-দশম শ্রেণির ৯জন ছাত্রী তাদের সঙ্গে অনৈতিক আচরণের অভিযোগ এনে নোয়াখালী জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

 

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, অভিযোগকারীরা নোয়াখালী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের লক্ষী নারায়নপুর এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম ও দশম শ্রেণীর ছাত্রী। গত বুধবাার ১৫ জুন বিদ্যালয়ের অর্ধ বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালীন দুপুর ১২টার দিকে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হাফেজ আহম্মদ ও মাইন উদ্দিন আমাদের পরীক্ষা হলে ঢুকে মেয়েদের চরিত্র সম্পর্কে কটূক্তি করে বলেন, মেয়েরা পার্কে যাই, বোরকা পরে স্কুলে এসে খারাপ চলাফেরা করে, বোরকা পরে আসে এবং কখনও পার্কে দেখলে, মেয়েদের কাপড় উল্টাইয়া পাচায় বেত্রাঘাত কোরিয়া পাচার চামড়া উঠায়ে ফেলবে। সকল ছাত্রী পার্কে যায় না বললে কয়েকজন ছাত্রীর সাথে তাদের বাকবিতণ্ডা হয়।

 

 

এরপর তারা স্কুলে বোরকা নিষিদ্ধ করেন। পরে এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক সাংবাদিক সিরাজ উদ্দিন শাহীন স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর আহসান হাবিব হাসান এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকাকে মুঠোফোনে জানানোর পরও কোন প্রতিকার মেলেনি।

 

 

এখনো তারা প্রতিনিয়ত ক্লাসে প্রবেশ করে ছাত্রীদের সাথে বিভিন্ন অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে। লিখিত অভিযোগে শিক্ষার্থীরা অভিযুক্তদের শাস্তি চেয়ে তাদের স্বাধীন ভাবে লেখাপড়া করার ব্যবস্থা করে দিতে জেলা প্রশাসকের কাছে দাবি জানান।

 

 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হাফেজ আহম্মদ ও মাইন উদ্দিন বলেন, এ ধরনের অভিযোগ পুরোপুরি মিথ্যা। শিক্ষার্থীদের বাড়িতে গিয়ে ভুল বুঝিয়ে অভিযোগ পত্রে স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছে।

 

এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রুনা আক্তার বলেন, সিরাজ উদ্দিন শাহীন নামে একজন শিক্ষার্থীর পিতা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও আমার কাছে মৌখিক ভাবে অভিযোগ করেছেন ম্যনেজিং কমিটির দুইজন সদস্য ক্লাস রুমে ঢুকে ছাত্রীদের সাথে খারাপ আচরণ করে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষিকা বলেন, অন্য ছাত্রীরা কোন অভিযোগ করেনি।

 

 

তবে অভিযোগের বিষয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রীদের কাছে জানতে চাইলে ম্যাক্সিমাম ছাত্রী ম্যানেজিং কমিটির ২জন সদস্য খারাপ আচরণ করে বলে তারা নিশ্চিত করেন। তবে অভিযুক্ত ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা অভিযোগ নাকচ করেন।

 

অভিযোগের বিয়ে জানতে চাইলে এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আহসান হাবিব হাসান বলেন, প্রাথমিক ভাবে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় নি। তবে অভিযোগের তদন্ত চলমান রয়েছে।

এ বিষয়ে নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান বলেন, অভিযোগের কপি এখনো আমার হাতে এসে পৌঁছায় নি।

 

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিকে শোকজ

বোরকা পরা দেখলেই ‘মেয়েদের কাপড় উল্টাইয়া পিটিয়ে চামড়া উঠায়ে ফেলব

আপডেট সময় ১১:৫৫:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ জুন ২০২২

 

নোয়াখালী প্রতিনিধি
নোয়াালীর সদর উপজেলার লক্ষীনারায়নপুর এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হাফেজ আহম্মদ ও মাইন উদ্দিনের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের সাথে অনৈতিক আচরণ করে বিদ্যালয়ে বোরকা নিষিদ্ধ করার অভিযোগ উঠেছে।

রোববার (২৬ জুন) সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নবম-দশম শ্রেণির ৯জন ছাত্রী তাদের সঙ্গে অনৈতিক আচরণের অভিযোগ এনে নোয়াখালী জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

 

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, অভিযোগকারীরা নোয়াখালী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের লক্ষী নারায়নপুর এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম ও দশম শ্রেণীর ছাত্রী। গত বুধবাার ১৫ জুন বিদ্যালয়ের অর্ধ বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালীন দুপুর ১২টার দিকে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হাফেজ আহম্মদ ও মাইন উদ্দিন আমাদের পরীক্ষা হলে ঢুকে মেয়েদের চরিত্র সম্পর্কে কটূক্তি করে বলেন, মেয়েরা পার্কে যাই, বোরকা পরে স্কুলে এসে খারাপ চলাফেরা করে, বোরকা পরে আসে এবং কখনও পার্কে দেখলে, মেয়েদের কাপড় উল্টাইয়া পাচায় বেত্রাঘাত কোরিয়া পাচার চামড়া উঠায়ে ফেলবে। সকল ছাত্রী পার্কে যায় না বললে কয়েকজন ছাত্রীর সাথে তাদের বাকবিতণ্ডা হয়।

 

 

এরপর তারা স্কুলে বোরকা নিষিদ্ধ করেন। পরে এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক সাংবাদিক সিরাজ উদ্দিন শাহীন স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাবেক কাউন্সিলর আহসান হাবিব হাসান এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকাকে মুঠোফোনে জানানোর পরও কোন প্রতিকার মেলেনি।

 

 

এখনো তারা প্রতিনিয়ত ক্লাসে প্রবেশ করে ছাত্রীদের সাথে বিভিন্ন অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে। লিখিত অভিযোগে শিক্ষার্থীরা অভিযুক্তদের শাস্তি চেয়ে তাদের স্বাধীন ভাবে লেখাপড়া করার ব্যবস্থা করে দিতে জেলা প্রশাসকের কাছে দাবি জানান।

 

 

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য হাফেজ আহম্মদ ও মাইন উদ্দিন বলেন, এ ধরনের অভিযোগ পুরোপুরি মিথ্যা। শিক্ষার্থীদের বাড়িতে গিয়ে ভুল বুঝিয়ে অভিযোগ পত্রে স্বাক্ষর নেওয়া হয়েছে।

 

এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রুনা আক্তার বলেন, সিরাজ উদ্দিন শাহীন নামে একজন শিক্ষার্থীর পিতা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও আমার কাছে মৌখিক ভাবে অভিযোগ করেছেন ম্যনেজিং কমিটির দুইজন সদস্য ক্লাস রুমে ঢুকে ছাত্রীদের সাথে খারাপ আচরণ করে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান শিক্ষিকা বলেন, অন্য ছাত্রীরা কোন অভিযোগ করেনি।

 

 

তবে অভিযোগের বিষয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রীদের কাছে জানতে চাইলে ম্যাক্সিমাম ছাত্রী ম্যানেজিং কমিটির ২জন সদস্য খারাপ আচরণ করে বলে তারা নিশ্চিত করেন। তবে অভিযুক্ত ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা অভিযোগ নাকচ করেন।

 

অভিযোগের বিয়ে জানতে চাইলে এম.এ.রশিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আহসান হাবিব হাসান বলেন, প্রাথমিক ভাবে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় নি। তবে অভিযোগের তদন্ত চলমান রয়েছে।

এ বিষয়ে নোয়াখালী জেলা প্রশাসক দেওয়ান মাহবুবুর রহমান বলেন, অভিযোগের কপি এখনো আমার হাতে এসে পৌঁছায় নি।