বাংলাদেশ ১১:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
ভান্ডারিয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় স্বামী-স্ত্রী সহ আহত ৫ আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক দল নেই দেউলিয়া হয়ে গেছে-মহাসচিব মির্জা ফখরুল পিরোজপুরে দোকানের কর্মচারীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে মালিকের বিরুদ্ধে হাটপাঙ্গাসীতে নতুন আঙ্গিকে ঐতিহ্যবাহী গরু-ছাগলের হাট উদ্বোধন মণিরামপুরে নানা আয়োজনে পহেলা বৈশাখ পালিত বর্ণাঢ্য আয়োজনে পহেলা বৈশাখ উদযাপিত কালকিনিতে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ঘুড়ি উড়ানো প্রতিযোগিতা নাইক্ষ্যংছড়িতে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বাংলা নববর্ষের বর্ণাঢ্য আয়োজন-পাহাড়িদের বৈশাখী শুরু কচুয়ায় নাস্তিক মুরাদের ফাঁসির দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত। রাজশাহী মহানগরীতে বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে মঙ্গল শোভাযাত্রা পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে আরএমপিতে শুভেচ্ছা বিনিময় ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পদ্মায় গোসলে নেমে দুই শিশু নিখোঁজ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বাংলার নববর্ষ পালিত হয় মুন্সীগঞ্জে ১৫ কোটি টাকা মূল্যেও কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার রাঙ্গাবালীতে নবীন আলেম সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে

নির্বাচনী সহিংসতার মামলা প্রত্যাহার না করায় নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় শপথ নিয়েই বিজয়ী মেম্বার পরাজিত মেম্বার প্রার্থীকে কুপিয়েছে 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৩৪:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৬৮৫ বার পড়া হয়েছে

নির্বাচনী সহিংসতার মামলা প্রত্যাহার না করায় নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় শপথ নিয়েই বিজয়ী মেম্বার পরাজিত মেম্বার প্রার্থীকে কুপিয়েছে 

নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ
নির্বাচনী সহিংসতার মামলা প্রত্যাহার না করায় নব নির্বাচিত ইউপি মেম্বারের নেতৃত্বে ঘর থেকে ডেকে বের করে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে পরাজিত ইউপি মেম্বার প্রার্থী মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিককে (৪৪)।
ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার রোয়াইলবাড়ী ইউনিয়নের কুতুবপুর গ্রামে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রোয়াইলবাড়ী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে কুতুবপুর গ্রামের মৃত লুৎফুর রহমানের পুত্র শফিকুল ইসলাম  শফিক ও একই  গ্রামের শাহাবুদ্দিনের পুত্র হারেছ মিয়া অংশ গ্রহন করে।
এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। নির্বাচনে হারেছ মিয়া মেম্বার পদে জয়লাভ করার পর ঐ দিন রাতেই বিজয় মিছিল নিয়ে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী শফিক ও তার চাচাতো ভাই প্রখ্যাত কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের বাড়ীঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। এ ব্যাপারে শফিক বাদী হয়ে হারেছ মিয়াসহ ৭০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। এরপর থেকে মামলা আসামীরা বাদীকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য নানা ধরণের চাপ ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছিল।
এরই জের ধরে মেম্বার হিসেবে হারেছ মিয়া শপথ নেয়ার পর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তার নেতৃত্বে আলী হোসেন, এনামুল, মাসুদ, খায়রুলসহ ১৫/২০ জন লোক শফিকের বাড়ীতে গিয়ে তাকে ডেকে বের করে এলাপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে। তার আর্ত-চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে হারেছ ও তার লোকজন চলে যায়। মূমুর্ষ অবস্থায় শফিককে উদ্ধার করে প্রথমে কেন্দুয়া হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শাহনেওয়াজ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

ভান্ডারিয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় স্বামী-স্ত্রী সহ আহত ৫

নির্বাচনী সহিংসতার মামলা প্রত্যাহার না করায় নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় শপথ নিয়েই বিজয়ী মেম্বার পরাজিত মেম্বার প্রার্থীকে কুপিয়েছে 

আপডেট সময় ০৫:৩৪:৩৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২
নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ
নির্বাচনী সহিংসতার মামলা প্রত্যাহার না করায় নব নির্বাচিত ইউপি মেম্বারের নেতৃত্বে ঘর থেকে ডেকে বের করে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে পরাজিত ইউপি মেম্বার প্রার্থী মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিককে (৪৪)।
ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার রোয়াইলবাড়ী ইউনিয়নের কুতুবপুর গ্রামে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রোয়াইলবাড়ী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে কুতুবপুর গ্রামের মৃত লুৎফুর রহমানের পুত্র শফিকুল ইসলাম  শফিক ও একই  গ্রামের শাহাবুদ্দিনের পুত্র হারেছ মিয়া অংশ গ্রহন করে।
এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। নির্বাচনে হারেছ মিয়া মেম্বার পদে জয়লাভ করার পর ঐ দিন রাতেই বিজয় মিছিল নিয়ে পরাজিত মেম্বার প্রার্থী শফিক ও তার চাচাতো ভাই প্রখ্যাত কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের বাড়ীঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। এ ব্যাপারে শফিক বাদী হয়ে হারেছ মিয়াসহ ৭০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। এরপর থেকে মামলা আসামীরা বাদীকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য নানা ধরণের চাপ ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছিল।
এরই জের ধরে মেম্বার হিসেবে হারেছ মিয়া শপথ নেয়ার পর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তার নেতৃত্বে আলী হোসেন, এনামুল, মাসুদ, খায়রুলসহ ১৫/২০ জন লোক শফিকের বাড়ীতে গিয়ে তাকে ডেকে বের করে এলাপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে। তার আর্ত-চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে হারেছ ও তার লোকজন চলে যায়। মূমুর্ষ অবস্থায় শফিককে উদ্ধার করে প্রথমে কেন্দুয়া হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শাহনেওয়াজ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।