বাংলাদেশ ০১:২৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
জবিতে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও প্রজন্মের নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ  মুলাদীতে নিজস্ব অর্থায়নে সামাজিক উন্নয়ন করে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন ইউপি সদস্য ইরান হোসেন॥ ভালুকায় প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সাংবাদিক জিগারুল ইসলাম রাঙ্গুনিয়ার মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসার সভাপতি নির্বাচিত। পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে বিশিষ্ট সাংবাদিক আতিকুর রহমান আতিকের জোর তৎপরতা॥ ফুলবাড়ীতে কুকুরের কামড়ে ৮টি ছাগলে মৃত্যু বদলগাছীতে অভিনব কায়দায় লুকায়িত ৭২ কেজি গাঁজা উদ্ধার গ্রেফতার-১  ভালুকায় যুবলীগ নেতাকে ফাসানোর চেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত  রাবির ভোলা জেলা ছাত্রকল্যাণ সমিতির নেতৃত্বে জুলিয়া-মমিন বুড়িচংয়ে আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা  শিক্ষার্থীদের অনলাইন সেবা দিতে আমতলী সোনালী ব্যাংকের চুক্তিপত্র স্বাক্ষর রাবি ফটোগ্রাফিক ক্লাবের সভাপতি রেজওয়ান, সম্পাদক নাজমুল কার মদদে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে অবৈধ ট্রলি?রামগঞ্জে নিষিদ্ধ ট্রাক্টরের দাপট বিলিন হচ্ছে ফসলি জমি প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক ভূষিত হলেন গলাচিপা থানার ওসি ফেরদৌস খান গৌরীপুর উপজেলা সিপিবি’র সম্মেলনে নতুন কমিটি গঠন

ক্ষুদ্র ঋণদান সমিতির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) ও তার ০১ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:১৮:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৬৭৫ বার পড়া হয়েছে

ক্ষুদ্র ঋণদান সমিতির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) ও তার ০১ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।

 

 

 

 

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন কাকনা বাজার এলাকা হতে প্রতারণার অভিযোগে কথিত ক্ষুদ্র ঋণদান সমিতির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) ও তার ০১ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।

 

সাম্প্রতিককালে প্রতারণার নতুন নতুন কৌশল ব্যবহার করে সাধারণ জনগণকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে তাদের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এক শ্রেণীর পেশাদার প্রতারক চক্র। অতি সম্প্রতি মাল্টিলেভেল মার্কেটিং (এমএলএম), ই-কমার্স, সমবায় সমিতি, এনজিও, অনলাইন ব্যবসার মাধ্যমে অসংখ্য মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে সর্বশান্ত করার বেশকিছু অভিযোগ পেয়েছে র‌্যাব। এই সকল প্রতারকদের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে ফাল্গুনী ডটকম ও “কর্ণফুলী মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ” এর মতো বেশকিছু সফল অভিযান পরিচালনা করেছে র‌্যাব-৪।

 

সম্প্রতি মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন কাকনা বাজার এলাকার কতিপয় ক্ষতিগ্রস্থ ভুক্তভোগীদের সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখ ১৬.০০ ঘটিকা হতে ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখ ১৮.৩০ ঘটিকা পর্যন্ত র‌্যাব-৪ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন ধামশ্বর ইউনিয়নের ০৬ নং ওয়ার্ডের কাকনা বাজারের একটি অফিসে অভিযান পরিচালনা করে প্রতারণার দায়ে ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ ও পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) সহ মোট ০২ জনকে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয়। উল্লেখ্য যে, উক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমিতি লিমিটেড হিসেবে রেজিস্টার্ডভুক্ত হলেও প্রতারণামূলকভাবে উক্ত প্রতিষ্ঠানদ্বয় ভুয়া নামে প্রচার ও বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলো। উক্ত ভুয়া সমিতির ২০ জন সদস্য অন্তর্ভুক্তির কথা উল্লেখ থাকলেও বর্তমানে প্রায় ৩৫০ জন সদস্য রয়েছে বলে প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়। উক্ত প্রতিষ্ঠানের কোনো রক্ষিত জামানত নেই বলে তথ্য পাওয়া যায়।

 

অভিযান কালে উক্ত কথিত ও ভুয়া অফিসদ্বয় হতে প্রতারণায় ব্যবহৃত বিভিন্ন সামগ্রী যেমনঃ ভর্তি ফরম, ঋণ গ্রহীতার ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্র, ক্ষুদ্রঋণ গ্রহীতাদের জীবন বৃত্তান্ত, লিফলেট, সিল, বিভিন্ন নামে সঞ্চয় পাশবই, অব্যবহৃত পাশ বই, দৈনিক কিস্তি ও ঋণ বিতরণের বিভিন্ন রেজিষ্টার, অব্যবহৃত ষ্ট্যাম্প, দৈনিক কিস্তি আদায়ের শিট, ঋণের আবেদনপত্র, সঞ্চয় ও ঋণ পাশ বই, মনিটর, সিপিইউ উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত অভিযুক্ত ব্যক্তিরা হলোঃ ক। মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩), জেলা- মানিকগঞ্জ। খ। মোঃ বিদ্যুৎ হোসাইন (২৫), জেলা- মানিকগঞ্জ

 

 

প্রতারক সংগঠনের কার্যপদ্ধতি/প্রতারণার কৌশলঃ (ক) সদস্য সংগ্রহঃ এই প্রতারক চক্রের মাঠ পর্যায়ের কর্মী/সদস্যদের মাধ্যমে মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানার বিভিন্ন এলাকার দরিদ্র ব্যক্তি, মনোহরী ও ফুটপাতের দোকানদার, গৃহকর্মী ও নিম্নআয়ের মানুষদের টার্গেট করে ঋণের লোভ দেখিয়ে সঞ্চয়ের নামে তাদের কোম্পানী’তে বিনিয়োগ/ডিপিএস করতে উদ্বুদ্ধ করে। ২ (খ) ভিকটিমদের প্রলুব্ধকরণ ও সঞ্চয় সংগ্রহঃ এরা ভুক্তভোগীদেরকে প্রলুব্ধ ও বিভিন্ন তথ্যাদি সংগ্রহ করে নানান কৌশলে ভুলিয়ে প্রতারক চক্রের অফিস কার্যালয়ে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করে। ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ ও পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর নামে তারা প্রতিদিন আনুমানিক ৩০০ জন গ্রাহকের কাছ থেকে সঞ্চয় সংগ্রহ করে।

 

 

(গ) স্বল্প সময়ে ঋণ প্রদানের প্রলোভনঃ গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা ভুক্তভোগীদের বিভিন্নভাবে অল্প সময়ে ঋণ প্রদানের নিশ্চয়তা প্রদান করে ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ ও পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এ সঞ্চয়/বিনিয়োগ/ডিপিএস করতে আগ্রহী করে আসছিলো। ভুক্তভোগীদের বলা হতো ১০-১৫ দিন ঠিকমত নির্দিষ্ট হারে সঞ্চয় প্রদান করলে তাদেরকে ঋণ প্রদান করা হবে, যাতে করে তারা সুন্দরভাবে ব্যবসা করতে পারে। কিন্তু ভূক্তভোগীদের দ্#ু৩৯;একজনকে ঋণ দিলেও কেউ সঞ্চয় থেকে ঋণ পেতো না। (ঘ) ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহঃ এ কোম্পানির কিছু সদস্য দৈনিক ভিত্তিতে ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে সঞ্চয়/ডিপিএস এর টাকা সংগ্রহ করতো। ভুক্তভোগীদেরকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানো হতো, তারা যদি সময়মত সঞ্চয়/ডিপিএস এর টাকা না পরিশোধ করে তাহলে তাদেরকে সঠিক সময়ে ঋণ প্রদান করা হবে না বা মেয়াদ শেষে তারা মুনাফা কম পাবে এবং জরিমানাও করা হবে। (ঙ) ফ্ল্যাট/জমি দেয়ার আশ্বাসঃ প্রতারণার আর একটি কৌশল হিসেবে ভূক্তভোগীদেরকে বুঝানো হতো যে দৈনিক মাত্র ২০০/৩০০ টাকা করে জমা করলে এক সময় মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানা শহরে তাদের একটি করে ফ্ল্যাট বা জমি দেওয়া হবে। (চ) প্রতারক চক্রটি ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ এবং ভুয়া ও অনুমোদনবিহীন ‘‘পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ” কে সেবামূলক প্রতিষ্ঠান বলে মিথ্যা আশ্বাস প্রদান করতো।

 

প্রতারক মোঃ রবিউল আলম @ আদম সম্পর্কে অন্যান্য তথ্যাদিঃ মূল অভিযুক্ত উক্ত কমিটির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) এর নিজ বাড়ি মানিকগঞ্জ। সে মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন স্থানীয় একটি স্কুল হতে এসএসসি পাশ করেছে। পরবর্তীতে এনজিও এর মাধ্যমে কাজ শুরু করে। পরবর্তীতে গত ২০০৯ সালে নিজে ‘‘পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ” প্রতিষ্ঠা করে এবং পরবর্তীতে সে এই সমিতির নাম বেআইনিভাবে বিকৃত ও পরিবর্তন করে প্রতারনার উদ্দেশ্যে ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ” নামে কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী এই কোম্পানীর মোট সদস্য সংখ্যা ৩০০-৩৫০ জন এবং প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিগত ১২ বছরে ২ (দুই) কোটি অর্থ আত্মসাৎ করেছে বলে অনুসন্ধানে জানা যায়। ব্যক্তিগত জীবনে মোঃ রবিউল আলম @ আদম বিবাহিত, তার এক স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে।

 

সমিতির ব্যবস্থাপনা কমিটিঃ উক্ত সমিতির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম নিজে, কোষাধ্যক্ষ তার সহযোগী আসামী মোঃ বিদ্যুৎ হোসাইন (২৫) উক্ত সমিতির কার্যকরি কমিটির সকল সদস্য নিজেই।

 

মূল অভিযোগ সমূহঃ (ক) প্রতারক সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ” নামে নিবন্ধন নিলেও প্রতারণার লক্ষ্যে ‘‘পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর নামে অবৈধভাবে ঋণদানের কার্যক্রম চালু ও লিফলেট প্রচার করে আসছিলো। (খ) প্রতিষ্ঠানের ব্যাংকিং কার্যক্রম বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে অনুমোদিত নয় যা সম্পূর্ণ অবৈধ এবং এনজিও হিসেবে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি আর্থিক লেনদেনের জন্য অনুমোদিত নয়। ৩ (গ) পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর কোনো অনুমোদন নেই। এছাড়া ডাচ-বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং এর অনুমোদন থাকলেও তারা উক্ত ব্যাংকের নামে অনুমোদনহীন পাশ বই তৈরির মাধ্যমে সমিতি পরিচালনা করে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায় করে আসছে এবং মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ এর ২৫ জন সদস্য অন্তর্ভুক্তির অনুমোদন থাকলেও প্রায় ৩৫০ জন সদস্য সংগ্রহ করে সমিতি পরিচালনা করে আসছে। (ঘ) প্রতিষ্ঠানের নামে কোন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই।

 

 

সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ উক্ত অভিযানটি পরিচালনা করে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন। অদূর ভবিষ্যতে এইরুপ অসাধু সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোড়ালো সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে। (মোঃ জিয়াউর রহমান চৌধুরী) সহকারী পুলিশ সুপার সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) পক্ষে পরিচালক

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

জবিতে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও প্রজন্মের নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ 

ক্ষুদ্র ঋণদান সমিতির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) ও তার ০১ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।

আপডেট সময় ০৫:১৮:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২

 

 

 

 

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন কাকনা বাজার এলাকা হতে প্রতারণার অভিযোগে কথিত ক্ষুদ্র ঋণদান সমিতির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) ও তার ০১ সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।

 

সাম্প্রতিককালে প্রতারণার নতুন নতুন কৌশল ব্যবহার করে সাধারণ জনগণকে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে তাদের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এক শ্রেণীর পেশাদার প্রতারক চক্র। অতি সম্প্রতি মাল্টিলেভেল মার্কেটিং (এমএলএম), ই-কমার্স, সমবায় সমিতি, এনজিও, অনলাইন ব্যবসার মাধ্যমে অসংখ্য মানুষকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে সর্বশান্ত করার বেশকিছু অভিযোগ পেয়েছে র‌্যাব। এই সকল প্রতারকদের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে ফাল্গুনী ডটকম ও “কর্ণফুলী মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ” এর মতো বেশকিছু সফল অভিযান পরিচালনা করেছে র‌্যাব-৪।

 

সম্প্রতি মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন কাকনা বাজার এলাকার কতিপয় ক্ষতিগ্রস্থ ভুক্তভোগীদের সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখ ১৬.০০ ঘটিকা হতে ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখ ১৮.৩০ ঘটিকা পর্যন্ত র‌্যাব-৪ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন ধামশ্বর ইউনিয়নের ০৬ নং ওয়ার্ডের কাকনা বাজারের একটি অফিসে অভিযান পরিচালনা করে প্রতারণার দায়ে ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ ও পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) সহ মোট ০২ জনকে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয়। উল্লেখ্য যে, উক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমিতি লিমিটেড হিসেবে রেজিস্টার্ডভুক্ত হলেও প্রতারণামূলকভাবে উক্ত প্রতিষ্ঠানদ্বয় ভুয়া নামে প্রচার ও বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলো। উক্ত ভুয়া সমিতির ২০ জন সদস্য অন্তর্ভুক্তির কথা উল্লেখ থাকলেও বর্তমানে প্রায় ৩৫০ জন সদস্য রয়েছে বলে প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়। উক্ত প্রতিষ্ঠানের কোনো রক্ষিত জামানত নেই বলে তথ্য পাওয়া যায়।

 

অভিযান কালে উক্ত কথিত ও ভুয়া অফিসদ্বয় হতে প্রতারণায় ব্যবহৃত বিভিন্ন সামগ্রী যেমনঃ ভর্তি ফরম, ঋণ গ্রহীতার ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্র, ক্ষুদ্রঋণ গ্রহীতাদের জীবন বৃত্তান্ত, লিফলেট, সিল, বিভিন্ন নামে সঞ্চয় পাশবই, অব্যবহৃত পাশ বই, দৈনিক কিস্তি ও ঋণ বিতরণের বিভিন্ন রেজিষ্টার, অব্যবহৃত ষ্ট্যাম্প, দৈনিক কিস্তি আদায়ের শিট, ঋণের আবেদনপত্র, সঞ্চয় ও ঋণ পাশ বই, মনিটর, সিপিইউ উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত অভিযুক্ত ব্যক্তিরা হলোঃ ক। মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩), জেলা- মানিকগঞ্জ। খ। মোঃ বিদ্যুৎ হোসাইন (২৫), জেলা- মানিকগঞ্জ

 

 

প্রতারক সংগঠনের কার্যপদ্ধতি/প্রতারণার কৌশলঃ (ক) সদস্য সংগ্রহঃ এই প্রতারক চক্রের মাঠ পর্যায়ের কর্মী/সদস্যদের মাধ্যমে মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানার বিভিন্ন এলাকার দরিদ্র ব্যক্তি, মনোহরী ও ফুটপাতের দোকানদার, গৃহকর্মী ও নিম্নআয়ের মানুষদের টার্গেট করে ঋণের লোভ দেখিয়ে সঞ্চয়ের নামে তাদের কোম্পানী’তে বিনিয়োগ/ডিপিএস করতে উদ্বুদ্ধ করে। ২ (খ) ভিকটিমদের প্রলুব্ধকরণ ও সঞ্চয় সংগ্রহঃ এরা ভুক্তভোগীদেরকে প্রলুব্ধ ও বিভিন্ন তথ্যাদি সংগ্রহ করে নানান কৌশলে ভুলিয়ে প্রতারক চক্রের অফিস কার্যালয়ে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করে। ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ ও পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর নামে তারা প্রতিদিন আনুমানিক ৩০০ জন গ্রাহকের কাছ থেকে সঞ্চয় সংগ্রহ করে।

 

 

(গ) স্বল্প সময়ে ঋণ প্রদানের প্রলোভনঃ গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা ভুক্তভোগীদের বিভিন্নভাবে অল্প সময়ে ঋণ প্রদানের নিশ্চয়তা প্রদান করে ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ ও পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এ সঞ্চয়/বিনিয়োগ/ডিপিএস করতে আগ্রহী করে আসছিলো। ভুক্তভোগীদের বলা হতো ১০-১৫ দিন ঠিকমত নির্দিষ্ট হারে সঞ্চয় প্রদান করলে তাদেরকে ঋণ প্রদান করা হবে, যাতে করে তারা সুন্দরভাবে ব্যবসা করতে পারে। কিন্তু ভূক্তভোগীদের দ্#ু৩৯;একজনকে ঋণ দিলেও কেউ সঞ্চয় থেকে ঋণ পেতো না। (ঘ) ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহঃ এ কোম্পানির কিছু সদস্য দৈনিক ভিত্তিতে ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে সঞ্চয়/ডিপিএস এর টাকা সংগ্রহ করতো। ভুক্তভোগীদেরকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানো হতো, তারা যদি সময়মত সঞ্চয়/ডিপিএস এর টাকা না পরিশোধ করে তাহলে তাদেরকে সঠিক সময়ে ঋণ প্রদান করা হবে না বা মেয়াদ শেষে তারা মুনাফা কম পাবে এবং জরিমানাও করা হবে। (ঙ) ফ্ল্যাট/জমি দেয়ার আশ্বাসঃ প্রতারণার আর একটি কৌশল হিসেবে ভূক্তভোগীদেরকে বুঝানো হতো যে দৈনিক মাত্র ২০০/৩০০ টাকা করে জমা করলে এক সময় মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানা শহরে তাদের একটি করে ফ্ল্যাট বা জমি দেওয়া হবে। (চ) প্রতারক চক্রটি ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ এবং ভুয়া ও অনুমোদনবিহীন ‘‘পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ” কে সেবামূলক প্রতিষ্ঠান বলে মিথ্যা আশ্বাস প্রদান করতো।

 

প্রতারক মোঃ রবিউল আলম @ আদম সম্পর্কে অন্যান্য তথ্যাদিঃ মূল অভিযুক্ত উক্ত কমিটির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) এর নিজ বাড়ি মানিকগঞ্জ। সে মানিকগঞ্জ জেলার দৌলতপুর থানাধীন স্থানীয় একটি স্কুল হতে এসএসসি পাশ করেছে। পরবর্তীতে এনজিও এর মাধ্যমে কাজ শুরু করে। পরবর্তীতে গত ২০০৯ সালে নিজে ‘‘পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ” প্রতিষ্ঠা করে এবং পরবর্তীতে সে এই সমিতির নাম বেআইনিভাবে বিকৃত ও পরিবর্তন করে প্রতারনার উদ্দেশ্যে ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ” নামে কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী এই কোম্পানীর মোট সদস্য সংখ্যা ৩০০-৩৫০ জন এবং প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিগত ১২ বছরে ২ (দুই) কোটি অর্থ আত্মসাৎ করেছে বলে অনুসন্ধানে জানা যায়। ব্যক্তিগত জীবনে মোঃ রবিউল আলম @ আদম বিবাহিত, তার এক স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে।

 

সমিতির ব্যবস্থাপনা কমিটিঃ উক্ত সমিতির সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম নিজে, কোষাধ্যক্ষ তার সহযোগী আসামী মোঃ বিদ্যুৎ হোসাইন (২৫) উক্ত সমিতির কার্যকরি কমিটির সকল সদস্য নিজেই।

 

মূল অভিযোগ সমূহঃ (ক) প্রতারক সভাপতি মোঃ রবিউল আলম @ আদম (৩৩) ‘‘মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ” নামে নিবন্ধন নিলেও প্রতারণার লক্ষ্যে ‘‘পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর নামে অবৈধভাবে ঋণদানের কার্যক্রম চালু ও লিফলেট প্রচার করে আসছিলো। (খ) প্রতিষ্ঠানের ব্যাংকিং কার্যক্রম বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে অনুমোদিত নয় যা সম্পূর্ণ অবৈধ এবং এনজিও হিসেবে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি আর্থিক লেনদেনের জন্য অনুমোদিত নয়। ৩ (গ) পল্লী উন্নয়ন সমিতি লিঃ এর কোনো অনুমোদন নেই। এছাড়া ডাচ-বাংলা ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং এর অনুমোদন থাকলেও তারা উক্ত ব্যাংকের নামে অনুমোদনহীন পাশ বই তৈরির মাধ্যমে সমিতি পরিচালনা করে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায় করে আসছে এবং মুনলাইট ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি লিঃ এর ২৫ জন সদস্য অন্তর্ভুক্তির অনুমোদন থাকলেও প্রায় ৩৫০ জন সদস্য সংগ্রহ করে সমিতি পরিচালনা করে আসছে। (ঘ) প্রতিষ্ঠানের নামে কোন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই।

 

 

সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ উক্ত অভিযানটি পরিচালনা করে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন। অদূর ভবিষ্যতে এইরুপ অসাধু সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোড়ালো সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে। (মোঃ জিয়াউর রহমান চৌধুরী) সহকারী পুলিশ সুপার সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) পক্ষে পরিচালক