বাংলাদেশ ০৩:৫৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
জবিতে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও প্রজন্মের নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ  মুলাদীতে নিজস্ব অর্থায়নে সামাজিক উন্নয়ন করে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন ইউপি সদস্য ইরান হোসেন॥ ভালুকায় প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ জয়ঝাপ যুব সমাজের উদ্যোগে ১৫তম মাহফিল অনুষ্ঠিত। সাংবাদিক জিগারুল ইসলাম রাঙ্গুনিয়ার মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসার সভাপতি নির্বাচিত। পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে বিশিষ্ট সাংবাদিক আতিকুর রহমান আতিকের জোর তৎপরতা॥ ফুলবাড়ীতে কুকুরের কামড়ে ৮টি ছাগলে মৃত্যু বদলগাছীতে অভিনব কায়দায় লুকায়িত ৭২ কেজি গাঁজা উদ্ধার গ্রেফতার-১  ভালুকায় যুবলীগ নেতাকে ফাসানোর চেষ্টার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত  রাবির ভোলা জেলা ছাত্রকল্যাণ সমিতির নেতৃত্বে জুলিয়া-মমিন বুড়িচংয়ে আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা  শিক্ষার্থীদের অনলাইন সেবা দিতে আমতলী সোনালী ব্যাংকের চুক্তিপত্র স্বাক্ষর রাবি ফটোগ্রাফিক ক্লাবের সভাপতি রেজওয়ান, সম্পাদক নাজমুল কার মদদে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে অবৈধ ট্রলি?রামগঞ্জে নিষিদ্ধ ট্রাক্টরের দাপট বিলিন হচ্ছে ফসলি জমি প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক ভূষিত হলেন গলাচিপা থানার ওসি ফেরদৌস খান

ভুমিহীন পরিবারের বোরো ধানের চারা নষ্ঠ করে দিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল ॥

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:২৫:২০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৭০৩ বার পড়া হয়েছে

ভুমিহীন পরিবারের বোরো ধানের চারা নষ্ঠ করে দিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল ॥

নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ
নেত্রকোণায় পাচঁ ভূমিহীন কৃষক পরিবারের রোপনকৃত বোরো ধানের ফসলি জমির ধানের চারা নষ্ট করে দিয়েছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল। এ বিষয়ে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কাছে ভূক্তভোগীদের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ করলেও মিলছেনা কোনো প্রতিকার। আর একমাত্র বোরো ফসল নষ্ঠ হওয়ায় ভূক্তভোগী পরিবার গুলোর মাঝে দেখা দিয়েছে চরম হতাশা। সংশ্লিষ্টদের নিকট সঠিক বিচারের দাবী তাদের।
এটি নেত্রকোণা জেলার আটপাড়া উপজেলার লুনেশ্বর ইউনিয়নের কতুবপুর গ্রামের কুবাদ মিয়া ও তার ছেলে-ভাইসহ ৫ পরিবার ফসলি জমি। ভূক্তভোগীরা এলাকার ভূমিহীন হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে সরকারের কাছ থেকে মৌখিক ভাবে উপজেলার হাঁসকুড়ি বিলের প্রায় ৫০ কাটা জমিকে বোরো মৌসুমে চাষ করে আসছিল।
কিন্তু এলাকার প্রভাবশালী মৎস ব্যবসায়ী জয়তুন মিয়া রোপনকৃত চারা একটু বড় হতে না হতেই তার দলবল নিয়ে ধানের চারা কেটে-ভেঙ্গে  মুড়িয়ে নষ্ট করে দেয়। ফলে ভূমিহীন পরিবার গুলো অসহায় ভাবে দিনাতিপাত করছে।
কুবাদ মিয়া গত ১৪ ফেব্রুয়ারী এ বিষয়ে এলাকার প্রভাবশালী ভূমিখেকো জয়তুনের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিলেও এখনো কোনো পদক্ষেপ নেয়নি স্থানীয় প্রশাসন।
ফলে প্রতিপক্ষ প্রভাবশালী হওয়ায় ভয় ও আতংক বিরাজ করছে পরিবার গুলোর মাঝে। তবে অভিযুক্ত জয়তুন মিয়ার দাবী তিনি এই বিলের মৎস ইজারাদার, উপজেলা সহকারী ভূমি কর্মকর্তার নির্দেশে জমি নষ্ঠ করেছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করে ব্যর্থ হলে, আটপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সুলতানা রাজিয়া জানান,হাসঁকুড়ি বিলে সীমানা নির্ধারণে এলাকাবাসীর সাথে ইজারাদারের বিরোধ রয়েছে। বিরোধপূর্ন স্থানে ধান আবাদে কৃষকদের বারন করা হয়েছে। কেউ যদি আবাদ করে থাকে ধান পাকলে সেই ধানের দাবীদার তারাই হবে। রোপনকৃত ধানের চারা নষ্ট করার জন্য কাউকে বলা হয় নাই।
জনপ্রিয় সংবাদ

জবিতে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও প্রজন্মের নতুন কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ 

ভুমিহীন পরিবারের বোরো ধানের চারা নষ্ঠ করে দিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল ॥

আপডেট সময় ০৯:২৫:২০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২২
নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ
নেত্রকোণায় পাচঁ ভূমিহীন কৃষক পরিবারের রোপনকৃত বোরো ধানের ফসলি জমির ধানের চারা নষ্ট করে দিয়েছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল। এ বিষয়ে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কাছে ভূক্তভোগীদের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ করলেও মিলছেনা কোনো প্রতিকার। আর একমাত্র বোরো ফসল নষ্ঠ হওয়ায় ভূক্তভোগী পরিবার গুলোর মাঝে দেখা দিয়েছে চরম হতাশা। সংশ্লিষ্টদের নিকট সঠিক বিচারের দাবী তাদের।
এটি নেত্রকোণা জেলার আটপাড়া উপজেলার লুনেশ্বর ইউনিয়নের কতুবপুর গ্রামের কুবাদ মিয়া ও তার ছেলে-ভাইসহ ৫ পরিবার ফসলি জমি। ভূক্তভোগীরা এলাকার ভূমিহীন হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে সরকারের কাছ থেকে মৌখিক ভাবে উপজেলার হাঁসকুড়ি বিলের প্রায় ৫০ কাটা জমিকে বোরো মৌসুমে চাষ করে আসছিল।
কিন্তু এলাকার প্রভাবশালী মৎস ব্যবসায়ী জয়তুন মিয়া রোপনকৃত চারা একটু বড় হতে না হতেই তার দলবল নিয়ে ধানের চারা কেটে-ভেঙ্গে  মুড়িয়ে নষ্ট করে দেয়। ফলে ভূমিহীন পরিবার গুলো অসহায় ভাবে দিনাতিপাত করছে।
কুবাদ মিয়া গত ১৪ ফেব্রুয়ারী এ বিষয়ে এলাকার প্রভাবশালী ভূমিখেকো জয়তুনের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিলেও এখনো কোনো পদক্ষেপ নেয়নি স্থানীয় প্রশাসন।
ফলে প্রতিপক্ষ প্রভাবশালী হওয়ায় ভয় ও আতংক বিরাজ করছে পরিবার গুলোর মাঝে। তবে অভিযুক্ত জয়তুন মিয়ার দাবী তিনি এই বিলের মৎস ইজারাদার, উপজেলা সহকারী ভূমি কর্মকর্তার নির্দেশে জমি নষ্ঠ করেছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করে ব্যর্থ হলে, আটপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সুলতানা রাজিয়া জানান,হাসঁকুড়ি বিলে সীমানা নির্ধারণে এলাকাবাসীর সাথে ইজারাদারের বিরোধ রয়েছে। বিরোধপূর্ন স্থানে ধান আবাদে কৃষকদের বারন করা হয়েছে। কেউ যদি আবাদ করে থাকে ধান পাকলে সেই ধানের দাবীদার তারাই হবে। রোপনকৃত ধানের চারা নষ্ট করার জন্য কাউকে বলা হয় নাই।