বাংলাদেশ ০৭:০৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
পবিত্র শবে বরাত আজ মাওলানা আব্দুল হালিম সাহেবের মাদ্রাসায় দশ জন (১০) হাফেজে কুরআন কে পাগড়ি প্রদান  ‌সি‌লে‌টে কবি আবুল বশর আনসারী’র লেখা কবিতা পবিত্র সিলেট ভূমি ফলক উন্মোচন ও জীবনী নি‌য়ে আলোচনা। তিন পদে লোক নিচ্ছে হুয়াওয়ে বাংলাদেশ সম্পত্তির লালসায় তিনশত ফলজ কলাগাছ কেটে টুকরো, কলাগাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা প্রশ্ন স্হানীয়দের লাল মরিচের ঝাঁঝে কৃষকের খুঁশি স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ ও হত্যার পলাতক আসামী গ্রেফতার।  গার্মেন্টস কর্মীকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে জোরপূর্বক গণধর্ষণের মূল পরিকল্পনাকারী সহ ০৫ জন ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। হেরোইনসহ ০১ জন মাদক কারবারী কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।  শিশুদের রংতুলিতে ভাষা আন্দোলনের প্রতিচ্ছবি: জবি উপাচার্য রাবিতে ঢাকা জেলা সমিতির নেতৃত্বে আনাস-শিহাব তালতলীর খালাকে হত্যার পর কানের রিং বিক্রি করে খুনিকে টাকা দেয় ভাগ্নে কলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সুপারিশ রাঙ্গাবালীতে মৎস্য ব্যবসায়ী রাসাদ হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন।

নাইন্দার হাওরে কৃষকের মুখে ফুটেছে হাসি, প্রশংসায় ভাসছেন ইউএনও দেবাংশু কুমার সিংহ 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:৫৭:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ এপ্রিল ২০২২
  • ১৭১২ বার পড়া হয়েছে

নাইন্দার হাওরে কৃষকের মুখে ফুটেছে হাসি, প্রশংসায় ভাসছেন ইউএনও দেবাংশু কুমার সিংহ 

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি :: নাইন্দার হাওরের ঝুঁকিপূর্ণ ফসল রক্ষা বাঁধের লিকেজ ও স্তুপ ধ্বসে যাওয়া বন্ধ করণে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছিলেন দোয়ারাবাজার উপজেলা প্রশাসন ও পিআইসি এবং পাউবো’র সংশ্লিষ্টরা। গত ২ এপ্রিল থেকে ২২ এপ্রিল পর্যন্ত পাহাড়ি ঢলে দুই দফা বন্যায় ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠে নাইন্দার হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ। এ কারণে এই হাওরের হাজার হাজার একর বোরো ফসলি জমি পড়ে হুমকির মুখে। হাওরের কালিউরি নদীর প্রধানতম ফসল রক্ষা বাঁধ ফোল্ডার ২ ও ৩ যথাক্রমে ১০,১১ও ১২ নম্বর পিআইসি বেশ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠলে বাঁধ রক্ষায় কোমর বেঁধে মাঠে নামেন উপজেলা প্রশাসন, পাউবো এবং সংশ্লিষ্ট পিআইসিরা। দফায় দফায় ফসল রক্ষা বাঁধ পরিদর্শন করতে দেখাগেছে তখন উপজেলা প্রশাসন, পাউবো ও সংশ্লিষ্টদের। বাঁধে লিকেজ ও স্তুপ ধ্বসে যাওয়া বন্ধ করতে দীর্ঘ ২০ দিন ধরে সংশ্লিষ্টরা বাঁধে তাবু তৈরি করে রাত জেগে কাজ করতে দেখা গেছে। অবশষে সকল ঝুঁকি কেটে উপজেেলা নির্বাহী অফিসার দেবাংশু কুমার সিংহ এঁর আন্তরিক প্রচেষ্টা ও তদারকিতে ওই হাওরের অন্তত দেড় হাজার হেক্টর বোরোধান রক্ষা পায়। এখন কৃষকের মুখে ফুটছে হাসি। ইতোমধ্যে ৯৮ ভাগ ফসল কাটা হয়েগেছে।
নাইনন্দার হাওর ফোল্ডার -২, ১২ নম্বর পিআইসির সভাপতি তাজুল ইসলাম বলেন, দুই দফা বন্যা আসলে আমাদের ইউএনও মহোদয় এবং পাউবোর, প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী, উপবিভাগীয় প্রকৌশলী এবং এসও মহোদয়ের আন্তরিক তদারকিতে আমরা সার্বক্ষণিক বাঁধে কাজ করেছি। বাঁধের কাজ শেষ হওয়ার পরও আকষ্মিক বন্যা আসার পর বাঁধ ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠলে বাঁশ ফাইলিং ও বস্তা দিয়ে ড্রাপিং এবং শ্রমিকের যে অতিরিক্ত কাজ করা হয়েছে এগুলো ছিল নির্ধারিত কাজের বাইরে। আমাদের দাবি হল জরুরি ভিত্তিতে যে ব্যায় হয়েছে তা প্রশাসনের আন্তরিকতার কারণে অতিরিক্ত ব্যায় করেছি। বাঁধ ঠেকাতে আমরা সূদঋণ করেও বাঁধের কাজ করিয়েছি। অতিরিক্ত কাজের বিল দেওয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানাই।
আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

পবিত্র শবে বরাত আজ

নাইন্দার হাওরে কৃষকের মুখে ফুটেছে হাসি, প্রশংসায় ভাসছেন ইউএনও দেবাংশু কুমার সিংহ 

আপডেট সময় ১০:৫৭:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ এপ্রিল ২০২২
দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি :: নাইন্দার হাওরের ঝুঁকিপূর্ণ ফসল রক্ষা বাঁধের লিকেজ ও স্তুপ ধ্বসে যাওয়া বন্ধ করণে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছিলেন দোয়ারাবাজার উপজেলা প্রশাসন ও পিআইসি এবং পাউবো’র সংশ্লিষ্টরা। গত ২ এপ্রিল থেকে ২২ এপ্রিল পর্যন্ত পাহাড়ি ঢলে দুই দফা বন্যায় ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠে নাইন্দার হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ। এ কারণে এই হাওরের হাজার হাজার একর বোরো ফসলি জমি পড়ে হুমকির মুখে। হাওরের কালিউরি নদীর প্রধানতম ফসল রক্ষা বাঁধ ফোল্ডার ২ ও ৩ যথাক্রমে ১০,১১ও ১২ নম্বর পিআইসি বেশ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠলে বাঁধ রক্ষায় কোমর বেঁধে মাঠে নামেন উপজেলা প্রশাসন, পাউবো এবং সংশ্লিষ্ট পিআইসিরা। দফায় দফায় ফসল রক্ষা বাঁধ পরিদর্শন করতে দেখাগেছে তখন উপজেলা প্রশাসন, পাউবো ও সংশ্লিষ্টদের। বাঁধে লিকেজ ও স্তুপ ধ্বসে যাওয়া বন্ধ করতে দীর্ঘ ২০ দিন ধরে সংশ্লিষ্টরা বাঁধে তাবু তৈরি করে রাত জেগে কাজ করতে দেখা গেছে। অবশষে সকল ঝুঁকি কেটে উপজেেলা নির্বাহী অফিসার দেবাংশু কুমার সিংহ এঁর আন্তরিক প্রচেষ্টা ও তদারকিতে ওই হাওরের অন্তত দেড় হাজার হেক্টর বোরোধান রক্ষা পায়। এখন কৃষকের মুখে ফুটছে হাসি। ইতোমধ্যে ৯৮ ভাগ ফসল কাটা হয়েগেছে।
নাইনন্দার হাওর ফোল্ডার -২, ১২ নম্বর পিআইসির সভাপতি তাজুল ইসলাম বলেন, দুই দফা বন্যা আসলে আমাদের ইউএনও মহোদয় এবং পাউবোর, প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী, উপবিভাগীয় প্রকৌশলী এবং এসও মহোদয়ের আন্তরিক তদারকিতে আমরা সার্বক্ষণিক বাঁধে কাজ করেছি। বাঁধের কাজ শেষ হওয়ার পরও আকষ্মিক বন্যা আসার পর বাঁধ ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠলে বাঁশ ফাইলিং ও বস্তা দিয়ে ড্রাপিং এবং শ্রমিকের যে অতিরিক্ত কাজ করা হয়েছে এগুলো ছিল নির্ধারিত কাজের বাইরে। আমাদের দাবি হল জরুরি ভিত্তিতে যে ব্যায় হয়েছে তা প্রশাসনের আন্তরিকতার কারণে অতিরিক্ত ব্যায় করেছি। বাঁধ ঠেকাতে আমরা সূদঋণ করেও বাঁধের কাজ করিয়েছি। অতিরিক্ত কাজের বিল দেওয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানাই।