বাংলাদেশ ০৭:১৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
সালথার জয়ঝাফ উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা । পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে ছিল নানান আয়োজন, আজ বেশিভাগ ধর্মপ্রাণ মানুষেরা রোজা রেখেছেন টাকার বিনিময়ে সরকারী চাকুরী প্রলোভনকারী প্রতারক চক্রের মূলহোতাসহ ০২ জন প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১। গলা কেটে মাথা বিচ্ছিন্ন করে নৃশংসভাবে হত্যার চাঞ্চল্যকর ঘটনায় অন্যতম প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৩। দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয় ও পরিদর্শন শাখার শিক্ষক- কর্মকর্তাগণ পদোন্নতি বঞ্চিত, শিক্ষকদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ! বানারীপাড়ায় প্রেসক্লাবের সম্পাদক সুজন মোল্লার বড় বোনের ইন্তেকাল বরিশাল জেলা বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি শফিক শাহিন সম্পাদক মনিরুজ্জামান শেষ ঠিকানার কারিগর মনু মিয়া। বিপুল পরিমাণ ট্রেনের টিকেটসহ ০৫ জন টিকেট কালোবাজারিকে গ্রেফতার নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক সমিতি নির্বাচন কিশোরী গণধর্ষণের মূল হোতা ফাহিম হাসান দিহান কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১। অসাধু সিন্ডিকেটের কারনে রমজানের আগেই হুরহুর করে বাড়ছে নিত্যপন্যের দাম!  শত বছরের ঐতিহ্য ধরে রেখেছে সিরাজদীখানের”পাতক্ষীর” সাংবাদিক হতে হলে যেসব গুন থাকা দরকার কালকিনিতে ক্ষমতা পেয়েই ফুটপাথ দখলের হিরিক এমপির স্বজনদের

খেলার সময় এতিম বলায় ক্ষিপ্ত হয়ে বন্ধুকে গলা কেটে হত্যা!

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:৪৮:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ মার্চ ২০২২
  • ১৭৫০ বার পড়া হয়েছে

খেলার সময় এতিম বলায় ক্ষিপ্ত হয়ে বন্ধুকে গলা কেটে হত্যা!

মোঃ শহিদুল ইসলাম, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

 

 

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে খেলার সময় বার বার এতিম বলায় ক্ষোভে স্কুল ছাত্র রাহাত (১৪) কে হত্যা করা হয় বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে বিপ্লব।

নিহত ব্যক্তি উপজেলার বানিয়ারা গ্রামের শাহাদত হোসেনের ছেলে রাহাত। তিনি বল্লা করোনেশন উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ছিলেন।

শুক্রবার (২৫ মার্চ) রাতে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নিহত স্কুল ছাত্রের বন্ধু বিপ্লব র‌্যাবের হাতে আটক হওয়ার পর হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করা হয়। এর আগে বুধবার উপজেলার কোকডহরা ইউনিয়নের কাগুজিপাড়া এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আটককৃত বিপ্লব উপজেলার বানিয়ারা গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে।

সিপিসি-৩, র‌্যাব-১২-এর কোম্পানি কমান্ডার এরশাদুর রহমান শনিবার (২৬ মার্চ) দুপুরে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, রাহাত-বিপ্লবের বাড়ি পাশাপাশি। গত মঙ্গলবার রাতে বিপ্লব ও রাহাত কালিহাতীর কোকডহরা ইউনিয়নের কাগুজিপাড়া বাজারে বসে লুডু খেলছিল। এ সময় বিপ্লবকে কয়েকবার রাহাত এতিম বলে সম্বোধন করে। এ কারণে বিপ্লব ক্ষিপ্ত হয়ে রাহাতকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে বিপ্লব বাজারের একটি দোকান থেকে ব্লেড ও সিগারেট কিনে। এরপর বিপ্লব সিগারেট খাওয়ার কথা বলে রাহাতকে কাগুজিপাড়া এলাকার একটি পুকুরের ধারে নিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, সেখানে বিপ্লব ব্লেড দিয়ে রাহাতের গলায় পোঁচ দেয়। এ সময় রাহাত চিৎকার করলে বিপ্লব মুখ চেপে ধরে আরো কয়েকবার পোঁচ দেয়। পরে মৃত্যু নিশ্চিত করতে কাঁদার মধ্যে রাহাতের মুখ চেপে ধরে। রাহাতের মৃত্যুর পর মরদেহ পুকুরে ফেলে দিয়ে তার মোবাইল নিয়ে বাড়িতে চলে যায় বিপ্লব। এরপর নিজের রক্তমাখা জামাকাপড় ধুয়ে ফেলে। বিপ্লবের ঘর থেকে রাহাতের মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

সালথার জয়ঝাফ উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ।

খেলার সময় এতিম বলায় ক্ষিপ্ত হয়ে বন্ধুকে গলা কেটে হত্যা!

আপডেট সময় ০৫:৪৮:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৬ মার্চ ২০২২

মোঃ শহিদুল ইসলাম, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

 

 

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে খেলার সময় বার বার এতিম বলায় ক্ষোভে স্কুল ছাত্র রাহাত (১৪) কে হত্যা করা হয় বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছে বিপ্লব।

নিহত ব্যক্তি উপজেলার বানিয়ারা গ্রামের শাহাদত হোসেনের ছেলে রাহাত। তিনি বল্লা করোনেশন উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ছিলেন।

শুক্রবার (২৫ মার্চ) রাতে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নিহত স্কুল ছাত্রের বন্ধু বিপ্লব র‌্যাবের হাতে আটক হওয়ার পর হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করা হয়। এর আগে বুধবার উপজেলার কোকডহরা ইউনিয়নের কাগুজিপাড়া এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আটককৃত বিপ্লব উপজেলার বানিয়ারা গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে।

সিপিসি-৩, র‌্যাব-১২-এর কোম্পানি কমান্ডার এরশাদুর রহমান শনিবার (২৬ মার্চ) দুপুরে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, রাহাত-বিপ্লবের বাড়ি পাশাপাশি। গত মঙ্গলবার রাতে বিপ্লব ও রাহাত কালিহাতীর কোকডহরা ইউনিয়নের কাগুজিপাড়া বাজারে বসে লুডু খেলছিল। এ সময় বিপ্লবকে কয়েকবার রাহাত এতিম বলে সম্বোধন করে। এ কারণে বিপ্লব ক্ষিপ্ত হয়ে রাহাতকে হত্যা করার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে বিপ্লব বাজারের একটি দোকান থেকে ব্লেড ও সিগারেট কিনে। এরপর বিপ্লব সিগারেট খাওয়ার কথা বলে রাহাতকে কাগুজিপাড়া এলাকার একটি পুকুরের ধারে নিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, সেখানে বিপ্লব ব্লেড দিয়ে রাহাতের গলায় পোঁচ দেয়। এ সময় রাহাত চিৎকার করলে বিপ্লব মুখ চেপে ধরে আরো কয়েকবার পোঁচ দেয়। পরে মৃত্যু নিশ্চিত করতে কাঁদার মধ্যে রাহাতের মুখ চেপে ধরে। রাহাতের মৃত্যুর পর মরদেহ পুকুরে ফেলে দিয়ে তার মোবাইল নিয়ে বাড়িতে চলে যায় বিপ্লব। এরপর নিজের রক্তমাখা জামাকাপড় ধুয়ে ফেলে। বিপ্লবের ঘর থেকে রাহাতের মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।