ঢাকা ০৩:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০১ এপ্রিল ২০২৩, ১৭ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, যোগাযোগ: মোবাইল : 01712-446306, 01999-953970
ব্রেকিং নিউজ ::
কাউখালী উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্রেস্ট প্রদান নেত্রকোণায় ধান কাটা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫ জননেত্রকোণায় ধান কাটা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫ জন বদলগাছিতে শিশু জুঁই ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগটি ৬০ হাজার টাকায় রফদফা একটি হারানো বিজ্ঞপ্তি ফেনীতে কর্মরত সাংবাদিকদের সম্মানে ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটির ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত যশোরে জোড়া খুন রানীশংকৈল জয়কালী বাজারে ভেজাল দুধ বিক্রী নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শকের অভিযান পটুয়াখালীতে রমজানে খেটে-খাওয়া রোজাদার পথেই পাবে ইফতার কুমিল্লায় জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত। বদলগাছিতে অসুস্থ গরুর মাংস বিক্রির টাকা ইউপি সদস্যর পকেটে ব্রাহ্মণপাড়ায় ফেন্সিডিলসহ গ্রেফতার ১ জন যশোরে মামলা প্রত্যাহারসহ সাংবাদিকের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন সাউন্ডবাংলা-পল্টনড্ডায় ইফতার ও স্বপ্নালোক-এর মোড়ক উন্মোচন নতুন কৌশলে ডাক্তার কোটিপতি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ে মানববন্ধন
ভোলায় লঞ্চের ধাক্কায় দুই পা হারিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে শিশু স্বাধীন 

ভোলায় লঞ্চের ধাক্কায় দুই পা হারিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে শিশু স্বাধীন 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:২২:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২২
  • ১৬৫১ বার পড়া হয়েছে

ভোলায় লঞ্চের ধাক্কায় দুই পা হারিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে শিশু স্বাধীন 

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ভিডিও প্রতিযোগিতা: বিস্তারিত ফেইসবুক পেইজে

আর জে শান্ত, ভোলা 
কালীগঞ্জ ঘাটে কর্ণফুলী-৩ লঞ্চের ধাক্কায় শিশু হামিদুর রহমান স্বাধীনের (৬) পা বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঘটনায় দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি ও ক্ষতিপূরণের দাবিতে ভোলায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে ভোলা প্রেসক্লাব চত্বরে ভোলা জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের ব্যানারে বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ ও শিশু স্বাধীনের স্বজনরা মানববন্ধনে অংশ নেন।
মানববন্ধনে শিশু স্বাধীনের বাবা মো. হাসান আলী বলেন, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি আমার পরিবারসহ ভোলা ইলিশা ঘাট থেকে মেহেন্দীগঞ্জের উদ্দেশে ঢাকাগামী এমভি কর্ণফুলী-৩ লঞ্চে রওনা হই। লঞ্চটি মেহেন্দীগঞ্জের কালীগঞ্জ (উলানিয়া) ঘাটে না বেঁধে চলতি অবস্থায় যাত্রীদের নামায়। আমার পরিবারসহ শতাধিক মানুষ তখন ঘাটে নামে।
হঠাৎ পেছন থেকে লঞ্চটি সজোরে টার্মিনালে ধাক্কা দেয়। এ সময় আমার ছোট ছেলে স্বাধীন আমার হাত থেকে ছিটকে লঞ্চ ও টার্মিনালের মাঝে চাপে পড়ে। এতে তার দুই পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। আমার ছেলে বর্তমানে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। এ দুর্ঘটনার পরপরই এমভি কর্ণফুলী-৩ লঞ্চটি দ্রুত ঘাট ত্যাগ করে পালিয়ে যায়।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ভোলা জেলার সঙ্গে রাজধানী ঢাকাসহ অন্য জেলার যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে লঞ্চ। আর এই লঞ্চের চালক ও স্টাফদের খামখেয়ালি ও গাফিলতিতে এবং ক্ষমতার দাপটের কারনে ভোলাবাসী তাদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। তাই প্রশাসনের কাছে তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি এবং স্বাধীনের চিকিৎসার জন্য ক্ষতিপূরণের দাবি জানান।
মানববন্ধন শেষে এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি দেয় ভুক্তভোগীর পরিবার।

কাউখালী উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্রেস্ট প্রদান

ভোলায় লঞ্চের ধাক্কায় দুই পা হারিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে শিশু স্বাধীন 

ভোলায় লঞ্চের ধাক্কায় দুই পা হারিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে শিশু স্বাধীন 

আপডেট সময় ০২:২২:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২২
আর জে শান্ত, ভোলা 
কালীগঞ্জ ঘাটে কর্ণফুলী-৩ লঞ্চের ধাক্কায় শিশু হামিদুর রহমান স্বাধীনের (৬) পা বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঘটনায় দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি ও ক্ষতিপূরণের দাবিতে ভোলায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে ভোলা প্রেসক্লাব চত্বরে ভোলা জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের ব্যানারে বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ ও শিশু স্বাধীনের স্বজনরা মানববন্ধনে অংশ নেন।
মানববন্ধনে শিশু স্বাধীনের বাবা মো. হাসান আলী বলেন, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি আমার পরিবারসহ ভোলা ইলিশা ঘাট থেকে মেহেন্দীগঞ্জের উদ্দেশে ঢাকাগামী এমভি কর্ণফুলী-৩ লঞ্চে রওনা হই। লঞ্চটি মেহেন্দীগঞ্জের কালীগঞ্জ (উলানিয়া) ঘাটে না বেঁধে চলতি অবস্থায় যাত্রীদের নামায়। আমার পরিবারসহ শতাধিক মানুষ তখন ঘাটে নামে।
হঠাৎ পেছন থেকে লঞ্চটি সজোরে টার্মিনালে ধাক্কা দেয়। এ সময় আমার ছোট ছেলে স্বাধীন আমার হাত থেকে ছিটকে লঞ্চ ও টার্মিনালের মাঝে চাপে পড়ে। এতে তার দুই পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। আমার ছেলে বর্তমানে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। এ দুর্ঘটনার পরপরই এমভি কর্ণফুলী-৩ লঞ্চটি দ্রুত ঘাট ত্যাগ করে পালিয়ে যায়।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ভোলা জেলার সঙ্গে রাজধানী ঢাকাসহ অন্য জেলার যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে লঞ্চ। আর এই লঞ্চের চালক ও স্টাফদের খামখেয়ালি ও গাফিলতিতে এবং ক্ষমতার দাপটের কারনে ভোলাবাসী তাদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। তাই প্রশাসনের কাছে তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি এবং স্বাধীনের চিকিৎসার জন্য ক্ষতিপূরণের দাবি জানান।
মানববন্ধন শেষে এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি দেয় ভুক্তভোগীর পরিবার।