বাংলাদেশ ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
ভান্ডারিয়ায় ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্থ ৩ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন সমাজ সেবক মিঠু মিয়া বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। বুড়িচং ফজলুর রহমান মেমোরিয়াল কলেজ অব টেকনোলজির শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মাদক সাপ্লাইয়ের অভিযোগ  পেকুয়ায় ইভটিজিংয়ের দায়ে ২ জনকে কারাদণ্ড পীরগঞ্জ মহিলা কলেজে মেহেদী উৎসব অনুষ্ঠিত। পীরগঞ্জে ডিজিটাল প্রযুক্তি ও জীবন জীবীকা বিষয়ক প্রশিক্ষণ চলছে পাঠক শূন্য রাজশাহীর পুঠিয়ার সাধারণ পাঠাগার হত্যা মামলার পলাতক অন্যতম আসামী নুরুলকে র‍্যাব কর্তৃক গ্রেফতার। রাজশাহীর পুঠিয়ায় যাবজ্জাীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেপ্তার কলাপাড়ায় জেলেদের জালে শিকার হলো জীবিত এক ডলফিন। দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত রাজশাহী মহানগরীতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেপ্তার মির্জাগঞ্জে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ শেখ কামাল আইটি ট্রেনিংয়ে সারাদেশের মধ্যে প্রথম হয়েছে রাজাপুরের মশিউর রহমান তামিম ত্রিশালে রেইজ’র অভিবাসী বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন

বেলালের অত্যাচারে অনেক গ্রাহক বাড়ি ছাড়া।।স্ট্যাম্প ও খালি চেকের পাতা ইচ্ছেমতো অংক বসিয়ে মামলার হয়রানির শিকার গ্রাহকরা

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৪:২০:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ মে ২০২৪
  • ১৭৩০ বার পড়া হয়েছে

বেলালের অত্যাচারে অনেক গ্রাহক বাড়ি ছাড়া।।স্ট্যাম্প ও খালি চেকের পাতা ইচ্ছেমতো অংক বসিয়ে মামলার হয়রানির শিকার গ্রাহকরা

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদক।। ঠাকুরগাঁও জেলার, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার গণউন্নয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতির সভাপতি বেলাল উদ্দীন ফাঁকা চেকে স্বাক্ষর নিয়ে ইচ্ছেমত টাকার অংক বসিয়ে প্রায় শতাধিক লোকের বিরুদ্ধে চেক ডিজঅর্নারের মামলা করেছে। সুদ ব্যবসায়ী বেলাল উদ্দীন তার ভাই ফইজুল ইসলাম, সমিতির সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম, কর্মচারী বজিরুল ইসলাম, হামিদুর রহমান ও রাকিবুল ইসলামকে বাদী করে ইচ্ছেমত ফাকা চেকের পাতা ও স্টাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে মোটা অংক বসিয়ে সাধারণ মানুষকে হয়রানীমূলক মামলা দায়ের করেছে।

ঋণ দেওয়ার নামে ফাকা চেক ও স্টাম্প নেয় পরে, ঋণ পরিশোধ করা হলেও তা ফেরৎ না দিয়ে সেই ফাকা চেক ও স্টাম্প দিয়ে মিথ্যা মামলা করে অনেক পরিবারকে ঘরবাড়ী ও এলাকা ছাড়া করেছে। তার অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকাবাসী, আত্মহত্যার ঘটনা বা আত্মহত্যার চেস্টার ঘটনা ঘটেছে গ্রাকদের টাকা আত্মসাৎ করে নিয়ম বহির্ভূত ঋণ বিতরণ ও আদায়ের উচ্চ সুদ গ্রহণ, সাধারণ গ্রাহকদের হয়রাণী এবং মিথ্যা মামলা দায়েরে বিষয়ে ভূক্তভগি পরিবার আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। ভূক্তভোগী এক গ্রাহক জানান, হঠাৎ টাকার গরম হওয়ায় সমিতির সভাপতি বেলাল উদ্দীন কাউকে সম্মান করে না। বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি অফিসের কর্মচারীদের চড়া সুদের উপর টাকা দিয়ে ব্যাংকের চেক ও স্ট্যাম্প নিয়ে রেখেছে বেলাল ।

ভুক্তভোগীর নাম, ঠিকানা ও টাকার অংক উল্লেখ করা হলোঃ
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আশ্রমপাড়া গ্রামের তফিজুল ইসলামের ছেলে মো: এসএম সহিদুল ইসলাম তুষার এর নামে ৩৫,০০,০০০/- (পয়ত্রিশ লক্ষ টাকা)। ২টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী- সফিকুল ইসলাম ও মো: বেলাল উদ্দীন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আশুতোষ দেবনাথ এর ছেলে কুলদ্বিপ দেবনাথ, সহকারী শিক্ষক (ইংরেজি) ভানোর এন এইচ উচ্চ বিদ্যালয়। এর নামে ৪০,০০,০০০/- (চল্লিশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ৈর করেছেন, বাদী- মো: বেলাল উদ্দীন। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ছোটসিংহিয়া গ্রামের মৃত দবির উদ্দীনের ছেলে মো: তাজিম উদ্দীনের নামে ৫,০০,০০০/- (পাঁচ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- বজিরুল ইসলাম।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মধুপুর গ্রামের মৃত কসির উদ্দীনের ছেলে বেলাল এর নামে ৩টি নামে ৪৩,০০,০০০/- (তেতাল্লিশ লক্ষ টাকা) )। ৯টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী বাদী মো: বেলাল উদ্দীন, হামিদুর রহমান, সফিকুল ইসলাম।
রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ ফরিদাপাড়া গ্রামের মো: আব্দুর রহিম এর ছেলে আমির আহম্মেদ এর নামে ১,১০,০০,০০০/- (এক কোটি দশ লক্ষ টাকা) )। ২টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী ২টি বাদী- মো: সফিকুল ইসলাম, ফইজুল ইসলাম।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার লোকায়ন পার্কের পাশ্বে আকচা ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত উদয় চন্দ্র রায় এর ছেলে শ্রী বিকর্ণ চন্দ্র রায়, ১০,০০,০০০/- (দশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী-মো: রাকিবুর রহমান। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার জোতপাড়া গ্রামের মৃত এরশাদ আলী মাস্টারের নামে ৬৫,০০,০০০/- (পয়ষট্টি লক্ষ টাকা) )। ২টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী – সফিকুল ইসলাম ও বজিরুল ইসলাম।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ছোট সিংগিয়া গ্রামের চাড়োল ইউনিয়নের প্রাক্তন ইউপি চেয়ারম্যান মো: আব্দুল বারেক মন্টু এর স্ত্রী মোছা: শেফালী খাতুন, এর নাম ১,২০,০০,০০০/- (এক কোটি বিশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- মো: সফিকুল ইসলাম। পীরগঞ্জ উপজেলার ভোমরাদহ গ্রামের মৃত সলিম উদ্দীনের ছেলে আব্দুল হক এর নাম ৭,০০,০০০/- (সাত লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- মো: বেলাল উদ্দীন। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মৃত খতিবর রহমান এর ছেলে আনোয়ার হোসেন এর নামে ৩০,০০,০০০/- (ত্রিশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- মো: বেলাল উদ্দীন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা গিয়াস উদ্দীনের ছেলে মনজুর আলম বাবু এর নামে ৯,০০,০০০/- (নয় লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী মো: সফিকুল ইসলাম। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চাড়োল ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা নাজীম উদ্দীনের ছেলে মামুন বাদশা এর নামে ৬,০০,০০০/- (ছয় লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী মো: বেলাল উদ্দীন। এছাড়াও ঠাকুরগাও সদর বালিয়াডাঙ্গী, রাণীশংকৈল, পীরগনজসহ বিভিন্ন এলাকার মানুষের বিরুদ্ধে চেকের মামলা করেছে। আরো মামলা করার প্রস্তুতি করে রেখেছে।

 

 

 

 

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

ভান্ডারিয়ায় ঘূর্ণিঝড় রিমালে ক্ষতিগ্রস্থ ৩ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন সমাজ সেবক মিঠু মিয়া

বেলালের অত্যাচারে অনেক গ্রাহক বাড়ি ছাড়া।।স্ট্যাম্প ও খালি চেকের পাতা ইচ্ছেমতো অংক বসিয়ে মামলার হয়রানির শিকার গ্রাহকরা

আপডেট সময় ০৪:২০:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ মে ২০২৪

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদক।। ঠাকুরগাঁও জেলার, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার গণউন্নয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতির সভাপতি বেলাল উদ্দীন ফাঁকা চেকে স্বাক্ষর নিয়ে ইচ্ছেমত টাকার অংক বসিয়ে প্রায় শতাধিক লোকের বিরুদ্ধে চেক ডিজঅর্নারের মামলা করেছে। সুদ ব্যবসায়ী বেলাল উদ্দীন তার ভাই ফইজুল ইসলাম, সমিতির সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম, কর্মচারী বজিরুল ইসলাম, হামিদুর রহমান ও রাকিবুল ইসলামকে বাদী করে ইচ্ছেমত ফাকা চেকের পাতা ও স্টাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে মোটা অংক বসিয়ে সাধারণ মানুষকে হয়রানীমূলক মামলা দায়ের করেছে।

ঋণ দেওয়ার নামে ফাকা চেক ও স্টাম্প নেয় পরে, ঋণ পরিশোধ করা হলেও তা ফেরৎ না দিয়ে সেই ফাকা চেক ও স্টাম্প দিয়ে মিথ্যা মামলা করে অনেক পরিবারকে ঘরবাড়ী ও এলাকা ছাড়া করেছে। তার অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকাবাসী, আত্মহত্যার ঘটনা বা আত্মহত্যার চেস্টার ঘটনা ঘটেছে গ্রাকদের টাকা আত্মসাৎ করে নিয়ম বহির্ভূত ঋণ বিতরণ ও আদায়ের উচ্চ সুদ গ্রহণ, সাধারণ গ্রাহকদের হয়রাণী এবং মিথ্যা মামলা দায়েরে বিষয়ে ভূক্তভগি পরিবার আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। ভূক্তভোগী এক গ্রাহক জানান, হঠাৎ টাকার গরম হওয়ায় সমিতির সভাপতি বেলাল উদ্দীন কাউকে সম্মান করে না। বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি অফিসের কর্মচারীদের চড়া সুদের উপর টাকা দিয়ে ব্যাংকের চেক ও স্ট্যাম্প নিয়ে রেখেছে বেলাল ।

ভুক্তভোগীর নাম, ঠিকানা ও টাকার অংক উল্লেখ করা হলোঃ
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আশ্রমপাড়া গ্রামের তফিজুল ইসলামের ছেলে মো: এসএম সহিদুল ইসলাম তুষার এর নামে ৩৫,০০,০০০/- (পয়ত্রিশ লক্ষ টাকা)। ২টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী- সফিকুল ইসলাম ও মো: বেলাল উদ্দীন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার আশুতোষ দেবনাথ এর ছেলে কুলদ্বিপ দেবনাথ, সহকারী শিক্ষক (ইংরেজি) ভানোর এন এইচ উচ্চ বিদ্যালয়। এর নামে ৪০,০০,০০০/- (চল্লিশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ৈর করেছেন, বাদী- মো: বেলাল উদ্দীন। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ছোটসিংহিয়া গ্রামের মৃত দবির উদ্দীনের ছেলে মো: তাজিম উদ্দীনের নামে ৫,০০,০০০/- (পাঁচ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- বজিরুল ইসলাম।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মধুপুর গ্রামের মৃত কসির উদ্দীনের ছেলে বেলাল এর নামে ৩টি নামে ৪৩,০০,০০০/- (তেতাল্লিশ লক্ষ টাকা) )। ৯টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী বাদী মো: বেলাল উদ্দীন, হামিদুর রহমান, সফিকুল ইসলাম।
রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ ফরিদাপাড়া গ্রামের মো: আব্দুর রহিম এর ছেলে আমির আহম্মেদ এর নামে ১,১০,০০,০০০/- (এক কোটি দশ লক্ষ টাকা) )। ২টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী ২টি বাদী- মো: সফিকুল ইসলাম, ফইজুল ইসলাম।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার লোকায়ন পার্কের পাশ্বে আকচা ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত উদয় চন্দ্র রায় এর ছেলে শ্রী বিকর্ণ চন্দ্র রায়, ১০,০০,০০০/- (দশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী-মো: রাকিবুর রহমান। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার জোতপাড়া গ্রামের মৃত এরশাদ আলী মাস্টারের নামে ৬৫,০০,০০০/- (পয়ষট্টি লক্ষ টাকা) )। ২টি চেকের মামলা পৃথকপৃথক ভাবে দায়ের করেছেন বাদী – সফিকুল ইসলাম ও বজিরুল ইসলাম।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ছোট সিংগিয়া গ্রামের চাড়োল ইউনিয়নের প্রাক্তন ইউপি চেয়ারম্যান মো: আব্দুল বারেক মন্টু এর স্ত্রী মোছা: শেফালী খাতুন, এর নাম ১,২০,০০,০০০/- (এক কোটি বিশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- মো: সফিকুল ইসলাম। পীরগঞ্জ উপজেলার ভোমরাদহ গ্রামের মৃত সলিম উদ্দীনের ছেলে আব্দুল হক এর নাম ৭,০০,০০০/- (সাত লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- মো: বেলাল উদ্দীন। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মৃত খতিবর রহমান এর ছেলে আনোয়ার হোসেন এর নামে ৩০,০০,০০০/- (ত্রিশ লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী- মো: বেলাল উদ্দীন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা গিয়াস উদ্দীনের ছেলে মনজুর আলম বাবু এর নামে ৯,০০,০০০/- (নয় লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী মো: সফিকুল ইসলাম। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চাড়োল ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা নাজীম উদ্দীনের ছেলে মামুন বাদশা এর নামে ৬,০০,০০০/- (ছয় লক্ষ টাকা) মামলা দায়ের করেছেন বাদী মো: বেলাল উদ্দীন। এছাড়াও ঠাকুরগাও সদর বালিয়াডাঙ্গী, রাণীশংকৈল, পীরগনজসহ বিভিন্ন এলাকার মানুষের বিরুদ্ধে চেকের মামলা করেছে। আরো মামলা করার প্রস্তুতি করে রেখেছে।