বাংলাদেশ ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

রাজাপুরে দখলদারের হাত থেকে শত বছরের পুরোনো রাস্তা উদ্ধার

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৮:০২:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩
  • ১৬৪১ বার পড়া হয়েছে

রাজাপুরে দখলদারের হাত থেকে শত বছরের পুরোনো রাস্তা উদ্ধার

 

মো. নাঈম হাসান ঈমন, ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুরের বারবাকপুর এলাকায় দখলদারের হাত থেকে শত বছরের পুরোনো রাস্তা উদ্ধার করতে পেরে আনন্দে এলাকাবাসী।

 

 

 

স্থানীয়দের অভিযোগ, বারবাকপুর দারুস সুন্নত দীনিয়া এতিম খানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসা নামের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অবৈধভাবে দীর্ঘ ২২ বছর জে এল নং ৩১, খতিয়ান -১, দাগ নং ৮৩১, ১৪০`×৮` বর্গফুট পরিমাণ জমি ভোগদখল করে এলাকা বাসীর হাটার রাস্তা বন্ধকরে রাখে। দখলদারের হাত থেকে রাস্তাটি ফিরে পেয়ে সোমবার (২০ নভেম্বর) সকালে এলাকাবাসী রাস্তাটি মেরামত শুরু করেন।

 

স্থানীয় বাসিন্দা মাহমুদ হাসান রানা সহ একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, প্রতিষ্ঠানের মাওলানা আব্দুল কবির দেওয়াল তুলে রাস্তাটি দীর্ঘ ২২টি বছর যাবৎ ভোগদখল করে। এতে আমাদের এলাকাবাসীর হাঁটাচলা, কৃষি কাজের জন্য ব্যবহারিত ট্রাক্টর সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র নেয়া আনা করতে পারতাম না। এরপরে এলাকাবাসী সবাই মিলে স্থানীয় ইউপি সদস্য, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের জানাই এবং রাজাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।

আমাদের অভিযোগ আমলে নিয়ে সত্যতা যাচাই করে গত ২৫ জুলাই’২৩ তারিখে ততকালীন এসিল্যান্ড ফারজানা ববি মিতু এক সপ্তাহের মধ্যে ৮৩১ নং দাগের জমির ওপরের দেওয়াল উচ্ছেদ করার নোটিশ দেন। তিনি ও সারবেয়ার সরজমিনে এসে জমি মেপে আমাদের বুঝিয়ে দেন। মাওলানা আব্দুল কবির নোটিশের তোয়াক্কা না করে বিজ্ঞ আদালতে ৮২৬ নং দাগে নিজের সম্পত্তি দাবি করে মামলা দায়ের করলে আদালত উচ্ছেদে নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

আমরা ভূমি অফিসের দেওয়া উচ্ছেদ নোটিশ আদালতে পেশ করলে মহামান্য আদালত আব্দুল কবিরের পক্ষে দেয়া নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেয়। কারণ কবিরের মামলায় দাগ নং ৮২৬ আর ভূমি অফিসের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা নোটিশে দাগ নং ৮৩১। তারপরেও আব্দুল কবির জমিটা তার দখলে রেখে দেয়। এরপর স্থানীয় ইউপি সদস্য, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাস্তাটি পরিমাপ করে সিমানায় পিলার বসিয়ে দেয়।

 

 

 

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত মাওলানা আব্দুল কবির বলেন, এই সম্পত্তি আমাদের। এখানে একটি মহল তাদের পেশি শক্তির জোরে আমাদের সম্পত্তিতে পিলার বসিয়েছে। তিনি ৮২৬ নং দাগে মামলা দায়ের করেন বর্তমানে মামলা চলমান আছে। তবে ওই সম্পত্তি ৮৩১ নং দাগের কিন্তু তিনি ৮২৬ নং দাগে মামলা দায়ের করেছেন।

তাহলে ওই জমি তার দাগের না থাকার পরেও তিনি কেন দখল করে রাখছেন এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ৮৩১ নং দাগে সম্পত্তি ভুল বসত বেশি রেকর্ড হয়েছে। ওই দাগে এতো সম্পত্তি না।

 

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য আসলাম হোসেন লিটু জানান, এই জমি ইউনিয়ন পরিষদের ৩৮৬ নং দাগের ২২ ফুট সম্পত্তি (হালট) সাধারণ জনগণের রাস্তার প্রয়োজনে পরিমাপ করে পিলার স্থাপন করা হয়েছে। কবির মাওলানার ঐ দাগে কোন জায়গা নেই। তিনি জবরদখল করে দেওয়াল করে নিছে।

 

 

 

 

এবিষয়ে এই প্রতিবেদকের সাথে মুঠোফোনে কথা হয় ওই সময়ের রাজাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফারজানা ববি মিতুর সাথে তিনি জানান, মনিরুজ্জামান মধু, মাহমুদ হাসান রানাসহ স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ দিলে উভয় পক্ষের কাগজ পত্র দেখে সরজমিন পরিদর্শন করে ৮৩১ নং দাগের জমি সরকারি হওয়ায় কবির মোল্লাকে উচ্ছেদ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এরপর কি হয়েছে তা তিনি জানেন না।

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

রাজাপুরে দখলদারের হাত থেকে শত বছরের পুরোনো রাস্তা উদ্ধার

আপডেট সময় ০৮:০২:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩

 

মো. নাঈম হাসান ঈমন, ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুরের বারবাকপুর এলাকায় দখলদারের হাত থেকে শত বছরের পুরোনো রাস্তা উদ্ধার করতে পেরে আনন্দে এলাকাবাসী।

 

 

 

স্থানীয়দের অভিযোগ, বারবাকপুর দারুস সুন্নত দীনিয়া এতিম খানা ও হাফিজিয়া মাদ্রাসা নামের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অবৈধভাবে দীর্ঘ ২২ বছর জে এল নং ৩১, খতিয়ান -১, দাগ নং ৮৩১, ১৪০`×৮` বর্গফুট পরিমাণ জমি ভোগদখল করে এলাকা বাসীর হাটার রাস্তা বন্ধকরে রাখে। দখলদারের হাত থেকে রাস্তাটি ফিরে পেয়ে সোমবার (২০ নভেম্বর) সকালে এলাকাবাসী রাস্তাটি মেরামত শুরু করেন।

 

স্থানীয় বাসিন্দা মাহমুদ হাসান রানা সহ একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, প্রতিষ্ঠানের মাওলানা আব্দুল কবির দেওয়াল তুলে রাস্তাটি দীর্ঘ ২২টি বছর যাবৎ ভোগদখল করে। এতে আমাদের এলাকাবাসীর হাঁটাচলা, কৃষি কাজের জন্য ব্যবহারিত ট্রাক্টর সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র নেয়া আনা করতে পারতাম না। এরপরে এলাকাবাসী সবাই মিলে স্থানীয় ইউপি সদস্য, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের জানাই এবং রাজাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।

আমাদের অভিযোগ আমলে নিয়ে সত্যতা যাচাই করে গত ২৫ জুলাই’২৩ তারিখে ততকালীন এসিল্যান্ড ফারজানা ববি মিতু এক সপ্তাহের মধ্যে ৮৩১ নং দাগের জমির ওপরের দেওয়াল উচ্ছেদ করার নোটিশ দেন। তিনি ও সারবেয়ার সরজমিনে এসে জমি মেপে আমাদের বুঝিয়ে দেন। মাওলানা আব্দুল কবির নোটিশের তোয়াক্কা না করে বিজ্ঞ আদালতে ৮২৬ নং দাগে নিজের সম্পত্তি দাবি করে মামলা দায়ের করলে আদালত উচ্ছেদে নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

আমরা ভূমি অফিসের দেওয়া উচ্ছেদ নোটিশ আদালতে পেশ করলে মহামান্য আদালত আব্দুল কবিরের পক্ষে দেয়া নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেয়। কারণ কবিরের মামলায় দাগ নং ৮২৬ আর ভূমি অফিসের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা নোটিশে দাগ নং ৮৩১। তারপরেও আব্দুল কবির জমিটা তার দখলে রেখে দেয়। এরপর স্থানীয় ইউপি সদস্য, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাস্তাটি পরিমাপ করে সিমানায় পিলার বসিয়ে দেয়।

 

 

 

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত মাওলানা আব্দুল কবির বলেন, এই সম্পত্তি আমাদের। এখানে একটি মহল তাদের পেশি শক্তির জোরে আমাদের সম্পত্তিতে পিলার বসিয়েছে। তিনি ৮২৬ নং দাগে মামলা দায়ের করেন বর্তমানে মামলা চলমান আছে। তবে ওই সম্পত্তি ৮৩১ নং দাগের কিন্তু তিনি ৮২৬ নং দাগে মামলা দায়ের করেছেন।

তাহলে ওই জমি তার দাগের না থাকার পরেও তিনি কেন দখল করে রাখছেন এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ৮৩১ নং দাগে সম্পত্তি ভুল বসত বেশি রেকর্ড হয়েছে। ওই দাগে এতো সম্পত্তি না।

 

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য আসলাম হোসেন লিটু জানান, এই জমি ইউনিয়ন পরিষদের ৩৮৬ নং দাগের ২২ ফুট সম্পত্তি (হালট) সাধারণ জনগণের রাস্তার প্রয়োজনে পরিমাপ করে পিলার স্থাপন করা হয়েছে। কবির মাওলানার ঐ দাগে কোন জায়গা নেই। তিনি জবরদখল করে দেওয়াল করে নিছে।

 

 

 

 

এবিষয়ে এই প্রতিবেদকের সাথে মুঠোফোনে কথা হয় ওই সময়ের রাজাপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফারজানা ববি মিতুর সাথে তিনি জানান, মনিরুজ্জামান মধু, মাহমুদ হাসান রানাসহ স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ দিলে উভয় পক্ষের কাগজ পত্র দেখে সরজমিন পরিদর্শন করে ৮৩১ নং দাগের জমি সরকারি হওয়ায় কবির মোল্লাকে উচ্ছেদ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এরপর কি হয়েছে তা তিনি জানেন না।