বাংলাদেশ ০১:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

সহকারী জজ পদে জবির ছয় শিক্ষার্থী 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৪:১৭:২১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ এপ্রিল ২০২২
  • ১৭২৮ বার পড়া হয়েছে

সহকারী জজ পদে জবির ছয় শিক্ষার্থী 

জবি প্রতিনিধি।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবির) আইন বিভাগের ছয় শিক্ষার্থী চতুর্দশ বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস পরীক্ষায় (বিজেএস) সহকারী জজ পদে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন।
গত (বৃহস্পতিবার) ২১ এপ্রিল এই পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়। এতে মোট ১০২ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে জবির আইন বিভাগের ছয় শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ ও মনোনীত হয়েছেন।
উত্তীর্ণরা হলেন, ২০১৪-১৫ সেশনের রফিকুল ইসলাম (২১ তম) ও ফাহমিনা খন্দকার আন্না (৬৫তম), ২০১৩-১৪ সেশনের আনারুল ইসলাম মানিক (১১তম), মো. আবুল আলা মওদুদী (৭৪ তম) ও রায়হানুল হাসান চৌধুরী (৯১ তম) এবং ২০১০-১১ সেশনের নাসির উদ্দীন।
সুপারিশপ্রাপ্ত ২০১৪-১৫ সেশনের ফাহমিনা খন্দকার আন্না বলেন, আমি সহকারী জজ পদে সুপারিশপ্রাপ্ত হওয়ায় সবচেয়ে বেশি ভালো লাগছে এটি ভেবে যে, আমার নামের সাথে জগন্নাথ  বিশ্ববিদ্যালয় নামটিও উচ্চারিত হচ্ছে। আমার বিভাগের শিক্ষকরাই আমাকে আইনের শিক্ষা দিয়েছেন ও আমাকে বুঝতে শিখিয়েছেন যে ‘আইনই জীবন’। আমার এই অর্জনে সবচেয়ে বেশি অবদান আমার পরিবারের। বিয়ের পরে আমার স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির অসাধারণ সাপোর্ট আমাকে আরও বেশি আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছে। সমাজে আইনের শাসন নিশ্চিত করতে চাই।
২০১৩-১৪ সেশনের রায়হানুল হাসান চৌধুরী বলেন, শুধু জলের দিকে তাকিয়ে থাকলে যেমন সাগর পাড়ি দেওয়া হয় না, ঠিক তেমনি জীবনের কাঙ্ক্ষিত সাফল্যের ছোঁয়া পেতে শুধু স্বপ্ন দেখলেই হয় না। সৃষ্টিকর্তার শুকরিয়া আদায় করছি উনি আমাকে সম্মানিত করেছেন। এই সাফল্য বাবাকে উৎসর্গ করলাম। বিশেষ ধন্যবাদ জানাচ্ছি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সরকার আলী আক্কাস স্যারকে। পথ দেখানো ও অনুপ্রাণিত করার জন্য অগ্রজদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সরকার আলী আক্কাস ঢাকা মেইলকে বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কষ্ট করে পড়াশোনা করছে৷ সে হিসেবে এই সাফল্য নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। তবে শিক্ষার্থীদের আবাসন ব্যবস্থা হলে তারা আরও ভালো করবে। আমাদের শিক্ষার্থীরা ধারাবাহিকভাবেই সফলতা অর্জন করছে। এই মাত্রা আরও বাড়বে বলে আশা করি।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হক বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা বেশ ধারাবাহিক। সব জায়গাতেই ভালো করছে। নানান সংকটের মধ্যেও তাদের এই অর্জন অব্যাহত আছে। অদূর ভবিষ্যতে এই অর্জন আরও বাড়বে বলে আশা করা যায়।
আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

সহকারী জজ পদে জবির ছয় শিক্ষার্থী 

আপডেট সময় ০৪:১৭:২১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ এপ্রিল ২০২২
জবি প্রতিনিধি।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবির) আইন বিভাগের ছয় শিক্ষার্থী চতুর্দশ বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস পরীক্ষায় (বিজেএস) সহকারী জজ পদে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন।
গত (বৃহস্পতিবার) ২১ এপ্রিল এই পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়। এতে মোট ১০২ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে জবির আইন বিভাগের ছয় শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ ও মনোনীত হয়েছেন।
উত্তীর্ণরা হলেন, ২০১৪-১৫ সেশনের রফিকুল ইসলাম (২১ তম) ও ফাহমিনা খন্দকার আন্না (৬৫তম), ২০১৩-১৪ সেশনের আনারুল ইসলাম মানিক (১১তম), মো. আবুল আলা মওদুদী (৭৪ তম) ও রায়হানুল হাসান চৌধুরী (৯১ তম) এবং ২০১০-১১ সেশনের নাসির উদ্দীন।
সুপারিশপ্রাপ্ত ২০১৪-১৫ সেশনের ফাহমিনা খন্দকার আন্না বলেন, আমি সহকারী জজ পদে সুপারিশপ্রাপ্ত হওয়ায় সবচেয়ে বেশি ভালো লাগছে এটি ভেবে যে, আমার নামের সাথে জগন্নাথ  বিশ্ববিদ্যালয় নামটিও উচ্চারিত হচ্ছে। আমার বিভাগের শিক্ষকরাই আমাকে আইনের শিক্ষা দিয়েছেন ও আমাকে বুঝতে শিখিয়েছেন যে ‘আইনই জীবন’। আমার এই অর্জনে সবচেয়ে বেশি অবদান আমার পরিবারের। বিয়ের পরে আমার স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির অসাধারণ সাপোর্ট আমাকে আরও বেশি আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছে। সমাজে আইনের শাসন নিশ্চিত করতে চাই।
২০১৩-১৪ সেশনের রায়হানুল হাসান চৌধুরী বলেন, শুধু জলের দিকে তাকিয়ে থাকলে যেমন সাগর পাড়ি দেওয়া হয় না, ঠিক তেমনি জীবনের কাঙ্ক্ষিত সাফল্যের ছোঁয়া পেতে শুধু স্বপ্ন দেখলেই হয় না। সৃষ্টিকর্তার শুকরিয়া আদায় করছি উনি আমাকে সম্মানিত করেছেন। এই সাফল্য বাবাকে উৎসর্গ করলাম। বিশেষ ধন্যবাদ জানাচ্ছি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সরকার আলী আক্কাস স্যারকে। পথ দেখানো ও অনুপ্রাণিত করার জন্য অগ্রজদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সরকার আলী আক্কাস ঢাকা মেইলকে বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কষ্ট করে পড়াশোনা করছে৷ সে হিসেবে এই সাফল্য নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। তবে শিক্ষার্থীদের আবাসন ব্যবস্থা হলে তারা আরও ভালো করবে। আমাদের শিক্ষার্থীরা ধারাবাহিকভাবেই সফলতা অর্জন করছে। এই মাত্রা আরও বাড়বে বলে আশা করি।
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হক বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা বেশ ধারাবাহিক। সব জায়গাতেই ভালো করছে। নানান সংকটের মধ্যেও তাদের এই অর্জন অব্যাহত আছে। অদূর ভবিষ্যতে এই অর্জন আরও বাড়বে বলে আশা করা যায়।