বাংলাদেশ ০৫:০০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

ইফতার মাহফিলে সংঘর্ষের জের কোম্পানীগঞ্জে বিএনপি নেতাদের বাসায় পাল্টাপাল্টি হামলা-ভাংচুর

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১১:১৪:৪৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২২ এপ্রিল ২০২২
  • ১৬৬৭ বার পড়া হয়েছে

ইফতার মাহফিলে সংঘর্ষের জের কোম্পানীগঞ্জে বিএনপি নেতাদের বাসায় পাল্টাপাল্টি হামলা-ভাংচুর

নোয়াখালী প্রতিনিধি
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির ইফতার মাহফিলে বিবদমান দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের জের ধরে তিনটি বাসায় পাল্টাপাল্টি হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। তবে এসব ঘটনায় কোন গুরুত্বর হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

হামলা ও ভাংচুর হওয়া বাসা গুলো হলো হাসনা মওদুদের অনুসারী উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজনের শ্বশুরের বাসা,সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি খালেদ সাইফুল্যাহ ইমনের বাসা, ফখরুলের অনুসারী বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন ফাহাদের বাসা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত থেমে থেমে তিনটি বাসায় পাল্টাপাল্টি হামলা ও ভাংচুরের এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির ইফতার ও দোয়া মাহফিল চলাকালে সম্প্রতি বিএনপিতে যোগ দেওয়া সাবেক জামায়াত নেতা ফখরুল ইসলাম মঞ্চে উঠলে তাঁর অনুসারীরা স্লোগান দেয়। এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সাবেক সদস্য মরহুম ব্যারিস্ট্যার মওদুদ আহমদের সহধর্মিণী হাসনা মওদুদের অনুসারীরা বাধা দেয়। এতে দুই গ্রুপের অনুসারীদের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে একটি ককটেল বিস্ফোরণ,তিনটি মোটরসাইকেল ভাংচু ও একটি সিএনজি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে এ সংঘর্ষের জের ধরে প্রথমে বসুরহাট পৌরসভা ৮নম্বর ওয়ার্ডে হাসনা মওদুদের অনুসারী সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি খালেদ সাইফুল্যাহ ইমনের বাসায় এবং উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজনের শ্বশুরের বাসায় হামলা ও ভাংচুর চালানো হয়। এরপর ফখরুল অনুসারী বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন ফাহাদের বাসায়ও হামলা ও ভাংচুর চালায় হাসনা মওদুদ অনুসারীরা।

উপজেলা বিএনপির একাধিক নেতা জানান, সাবেক জামায়াত নেতা ফখরুল ইসলাম উপজেলা বিএনপির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ততা শুরু করলে উপজেলা বিএনপির রাজনীতিতে অভ্যন্তরীণ কোন্দল শুরু হয়। বর্তমানে তাকে উপজেলা বিএনপির রাজনীতি একটি পক্ষ প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া হয়ে উঠলে বিবদমান কোন্দল নতুন করে একটি মাত্রা পায়। তারা বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিরসনে দ্রুত জাতীয় নেতাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

জানতে চাইলে উপজেলা বিএনপির সদস্য ফখরুল ইসলাম অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বলেন ব্যারিস্ট্যার মওদুদ আহমদ জীবিত থাকা অবস্থায় ঊনার বাড়িতে পৌর বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুল মতিন লিটনের অনুসারীদের সঙ্গে উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব মাহমুদুর রহমান রিপন ও উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজনের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এখানে মূলত রিপন, রাজন ও লিটন অনুসারীদের মধ্যে দ্বন্দ্বের জের ধরে গতকাল এ ঘটনা ঘটে। একটি পক্ষ চাচ্ছেনা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি সুসংগঠিত হোক। ইফতার মাহফিলে সংঘর্ষে ক্ষমতাসীন দলের ইন্ধন থাকতে পারে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক ফখরুল অনুসারী নুর উদ্দিন ফাহাদ অভিযোগ করে বলেন উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক ফজলুল কবির ফয়সল,সদস্য সচিব রাজনের নেতৃত্বে তাঁর বাসায় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করা হয়। এ সময় তাঁর বাসায় থাকা তাঁর এক ভাতিজাও আহত বলেও জানান তিনি।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজন অভিযোগ করে বলেন ফাহাদের নেতৃত্বে সাবেক ছাত্রদল নেতা খালেদ ও আমার শ্বশুরের বাসায় হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়। আমার শ্বশুর একজন স্বর্ণ ব্যবসায়ী মূলত তাঁর বাসায় ডাকাতির উদ্দেশ্যে তারা এ হামলা চালায়। ফাহাদের অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন ফাহাদের বাসায় হামলার সাথে তিনি তারা জড়িত নয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম মিজানুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন পক্ষই থানায় লিখিত ভাবে অভিযোগ করেনি। তবে এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

ইফতার মাহফিলে সংঘর্ষের জের কোম্পানীগঞ্জে বিএনপি নেতাদের বাসায় পাল্টাপাল্টি হামলা-ভাংচুর

আপডেট সময় ১১:১৪:৪৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২২ এপ্রিল ২০২২

নোয়াখালী প্রতিনিধি
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির ইফতার মাহফিলে বিবদমান দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের জের ধরে তিনটি বাসায় পাল্টাপাল্টি হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। তবে এসব ঘটনায় কোন গুরুত্বর হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

হামলা ও ভাংচুর হওয়া বাসা গুলো হলো হাসনা মওদুদের অনুসারী উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজনের শ্বশুরের বাসা,সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি খালেদ সাইফুল্যাহ ইমনের বাসা, ফখরুলের অনুসারী বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন ফাহাদের বাসা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত থেমে থেমে তিনটি বাসায় পাল্টাপাল্টি হামলা ও ভাংচুরের এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির ইফতার ও দোয়া মাহফিল চলাকালে সম্প্রতি বিএনপিতে যোগ দেওয়া সাবেক জামায়াত নেতা ফখরুল ইসলাম মঞ্চে উঠলে তাঁর অনুসারীরা স্লোগান দেয়। এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সাবেক সদস্য মরহুম ব্যারিস্ট্যার মওদুদ আহমদের সহধর্মিণী হাসনা মওদুদের অনুসারীরা বাধা দেয়। এতে দুই গ্রুপের অনুসারীদের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে একটি ককটেল বিস্ফোরণ,তিনটি মোটরসাইকেল ভাংচু ও একটি সিএনজি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে এ সংঘর্ষের জের ধরে প্রথমে বসুরহাট পৌরসভা ৮নম্বর ওয়ার্ডে হাসনা মওদুদের অনুসারী সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি খালেদ সাইফুল্যাহ ইমনের বাসায় এবং উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজনের শ্বশুরের বাসায় হামলা ও ভাংচুর চালানো হয়। এরপর ফখরুল অনুসারী বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন ফাহাদের বাসায়ও হামলা ও ভাংচুর চালায় হাসনা মওদুদ অনুসারীরা।

উপজেলা বিএনপির একাধিক নেতা জানান, সাবেক জামায়াত নেতা ফখরুল ইসলাম উপজেলা বিএনপির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ততা শুরু করলে উপজেলা বিএনপির রাজনীতিতে অভ্যন্তরীণ কোন্দল শুরু হয়। বর্তমানে তাকে উপজেলা বিএনপির রাজনীতি একটি পক্ষ প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া হয়ে উঠলে বিবদমান কোন্দল নতুন করে একটি মাত্রা পায়। তারা বিএনপির অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিরসনে দ্রুত জাতীয় নেতাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

জানতে চাইলে উপজেলা বিএনপির সদস্য ফখরুল ইসলাম অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বলেন ব্যারিস্ট্যার মওদুদ আহমদ জীবিত থাকা অবস্থায় ঊনার বাড়িতে পৌর বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুল মতিন লিটনের অনুসারীদের সঙ্গে উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব মাহমুদুর রহমান রিপন ও উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজনের অনুসারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এখানে মূলত রিপন, রাজন ও লিটন অনুসারীদের মধ্যে দ্বন্দ্বের জের ধরে গতকাল এ ঘটনা ঘটে। একটি পক্ষ চাচ্ছেনা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি সুসংগঠিত হোক। ইফতার মাহফিলে সংঘর্ষে ক্ষমতাসীন দলের ইন্ধন থাকতে পারে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বসুরহাট পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক ফখরুল অনুসারী নুর উদ্দিন ফাহাদ অভিযোগ করে বলেন উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক ফজলুল কবির ফয়সল,সদস্য সচিব রাজনের নেতৃত্বে তাঁর বাসায় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করা হয়। এ সময় তাঁর বাসায় থাকা তাঁর এক ভাতিজাও আহত বলেও জানান তিনি।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জাহিদুর রহমান রাজন অভিযোগ করে বলেন ফাহাদের নেতৃত্বে সাবেক ছাত্রদল নেতা খালেদ ও আমার শ্বশুরের বাসায় হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়। আমার শ্বশুর একজন স্বর্ণ ব্যবসায়ী মূলত তাঁর বাসায় ডাকাতির উদ্দেশ্যে তারা এ হামলা চালায়। ফাহাদের অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন ফাহাদের বাসায় হামলার সাথে তিনি তারা জড়িত নয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম মিজানুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন পক্ষই থানায় লিখিত ভাবে অভিযোগ করেনি। তবে এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি বলেও তিনি মন্তব্য করেন।