বাংলাদেশ ০৪:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

১২০ টাকার বিনিময়ে পুলিশে চাকরি

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:৩২:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ এপ্রিল ২০২২
  • ১৭৩৩ বার পড়া হয়েছে

১২০ টাকার বিনিময়ে পুলিশে চাকরি

মোঃ শহিদুল ইসলাম, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ
পুলিশের চাকরি পেতে মামা-খালুর জোর ও টাকা লাগে! এমন ধারণাকে ভুল প্রমান করে ১২০ টাকার বিনিময়ে পুলিশের চাকরি পেলেন ১০০ জন। ফলাফলের চুড়ান্ত কপি হাতে পেলেও নিজের চোখকেও যেন বিশ্বাস করতে পারছেনা সদ্য চাকরি হওয়া প্রার্থীরা।
আর চাকরি পাওয়ায় খুশি তাদের পরিবার। পুলিশের চাকরিতে ঘুষ লাগে না জানিয়ে সকলকে সাবধান হওয়ার পরামর্শ  দিয়েছিলেন টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার।
পায়ে ছেড়া জুতা, পরনে মলিন পোশাক পড়া যুবক রায়হান কবির। ১২০ টাকা দিয়ে অনলাইনে মাধ্যমে ফরম পূরণ করে চাকরির আশায় দাড়িয়েছিলেন টাঙ্গাইল পুলিশ লাইন মাঠে। পূর্নাঙ্গ ফলাফল নির্বাচিত হওয়ার খবর শুনে নিজের কানকেই যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তিনি।
টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার হাবলা উত্তরপাড়া গ্রামের কৃষক সুজন খানের ছেলে তিনি। ছোট বেলা থেকে পুলিশের চাকরির প্রতি লোভ থাকলেও ঘুষ ছাড়া এতো সহজেই চাকরি পাবে কখনো তা ভাবেননি।
শুধু রায়হান নয়, একই অবস্থায় নাগরপুরের আরিফ হোসেনের। দরিদ্র পরিবারের সন্তান হয়েও ১২০ টাকার বিনিময়ে পুলিশের চাকরি পেয়ে খুশির কান্না যেন থামছেইনা। তাইতো দেশের জন্য কাজ করতে চায় এ যুবক।
ঘুষ ছাড়া চাকরি হওয়ার খুশিকে আত্মহারা সদ্য চাকরি পাওয়ারা। এযুগে ঘুষ ছাড়া চাকরি হয় নিজ সন্তানের না হলে বিশ্বাস হতোনা। এতে খুশি অভিবাবকরাও।
জেলা পুলিশ সুপার ও নিয়োগ বোর্ডের সভাপতি সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, এ নিয়োগে যোগ্য ও মেধাবী ব্যক্তিকেই মূল্যায়ন করা হয়েছে। এখন আর পুলিশের চাকরিতে ঘুষ লাগে না।
চলতি বছর টাঙ্গাইল জেলায় ৮৭ জন পুরুষ ও ১৩ জন নারীকে পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আগামী মঙ্গলবার তাদের টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে মেডিকেল টেস্ট করিয়ে ঢাকা রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে চুড়ান্ত মেডিকেল টেস্ট করিয়ে ট্রেইনিংয়ের জন্য পাঠানো হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

১২০ টাকার বিনিময়ে পুলিশে চাকরি

আপডেট সময় ১০:৩২:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ এপ্রিল ২০২২
মোঃ শহিদুল ইসলাম, টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ
পুলিশের চাকরি পেতে মামা-খালুর জোর ও টাকা লাগে! এমন ধারণাকে ভুল প্রমান করে ১২০ টাকার বিনিময়ে পুলিশের চাকরি পেলেন ১০০ জন। ফলাফলের চুড়ান্ত কপি হাতে পেলেও নিজের চোখকেও যেন বিশ্বাস করতে পারছেনা সদ্য চাকরি হওয়া প্রার্থীরা।
আর চাকরি পাওয়ায় খুশি তাদের পরিবার। পুলিশের চাকরিতে ঘুষ লাগে না জানিয়ে সকলকে সাবধান হওয়ার পরামর্শ  দিয়েছিলেন টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার।
পায়ে ছেড়া জুতা, পরনে মলিন পোশাক পড়া যুবক রায়হান কবির। ১২০ টাকা দিয়ে অনলাইনে মাধ্যমে ফরম পূরণ করে চাকরির আশায় দাড়িয়েছিলেন টাঙ্গাইল পুলিশ লাইন মাঠে। পূর্নাঙ্গ ফলাফল নির্বাচিত হওয়ার খবর শুনে নিজের কানকেই যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তিনি।
টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার হাবলা উত্তরপাড়া গ্রামের কৃষক সুজন খানের ছেলে তিনি। ছোট বেলা থেকে পুলিশের চাকরির প্রতি লোভ থাকলেও ঘুষ ছাড়া এতো সহজেই চাকরি পাবে কখনো তা ভাবেননি।
শুধু রায়হান নয়, একই অবস্থায় নাগরপুরের আরিফ হোসেনের। দরিদ্র পরিবারের সন্তান হয়েও ১২০ টাকার বিনিময়ে পুলিশের চাকরি পেয়ে খুশির কান্না যেন থামছেইনা। তাইতো দেশের জন্য কাজ করতে চায় এ যুবক।
ঘুষ ছাড়া চাকরি হওয়ার খুশিকে আত্মহারা সদ্য চাকরি পাওয়ারা। এযুগে ঘুষ ছাড়া চাকরি হয় নিজ সন্তানের না হলে বিশ্বাস হতোনা। এতে খুশি অভিবাবকরাও।
জেলা পুলিশ সুপার ও নিয়োগ বোর্ডের সভাপতি সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, এ নিয়োগে যোগ্য ও মেধাবী ব্যক্তিকেই মূল্যায়ন করা হয়েছে। এখন আর পুলিশের চাকরিতে ঘুষ লাগে না।
চলতি বছর টাঙ্গাইল জেলায় ৮৭ জন পুরুষ ও ১৩ জন নারীকে পুলিশ কনস্টেবল পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আগামী মঙ্গলবার তাদের টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে মেডিকেল টেস্ট করিয়ে ঢাকা রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে চুড়ান্ত মেডিকেল টেস্ট করিয়ে ট্রেইনিংয়ের জন্য পাঠানো হবে।