বাংলাদেশ ০৬:০৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

বালাগঞ্জে শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরের ওপর অতর্কিত হামলা

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০১:৪৬:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ এপ্রিল ২০২২
  • ১৮৪১ বার পড়া হয়েছে
 ওসমানীনগর প্রতিনিধি ::
বালাগঞ্জ উপজেলার বোয়ালজুড় ইউনিয়নের বাণীগাঁও গ্রামে প্রবাসী শেখ আল মাসুদ সেলিমের ছেলে শারীরিক প্রতিবন্ধী শেখ আল মাহমুদ সামির (১৬) উপর অতর্কিত হামলা করা হয়েছে। আহত সামিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় সামির মা তাহেরা আক্তার বাদী হয়ে তিনজনকে অভিযুক্ত করে ৯ এপ্রিল রাতে বালাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন, মামলা নং-৮। মামলায় অভিযুক্তরা হলেন-বাণীগাঁও গ্রামের শেখ বদরুজ্জামানের ছেলে শেখ রাহিম আহমদ, শেখ বাতির মিয়ার ছেলে শেখ বদরুজ্জামান, শেখ শফিকুর রহমান দুদু।
এছাড়া, এজাহারে অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে- বদরুজ্জামানের পরিবার ও সামির পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ভূমি সংক্রান্ত এবং সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। পূর্ব বিরোধের জের ধরে বদরুজ্জামান ও তার লোকজন সামির পরিবারের ক্ষতি করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন।
মামলার এজাহারে বলা হয়েছে-৮ এপ্রিল সামি গ্রামের মসজিদে জুমআর নামাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে জনৈক কওছর মিয়ার দোকানের দক্ষিণ পাশের রাস্তায় যায়। এসময় অভিযুক্তরা সামির পথরোধ করেন। তখন অভিযুক্ত বদরুজ্জামান সামিকে মারপিট করার জন্য তার লোকজনকে নির্দেশ দেন। অভিযুক্ত রাহিম আহমদ স্টিলের জেআই ফাইভ দিয়ে সামির মাথায় আঘাত করলে মারত্মক জখম হয়। মাথায় আঘাত পেয়ে সামি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে অভিযুক্তরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকেন। সামির চিৎকার শুনে তার মা তাহেরা আক্তার ও স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে প্রথমে বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে সামির স্বজনরা জানিয়েছেন-তার শরীরে মারত্মকভাবে জখম করা হয়েছে। সে এখনও শঙ্কামুক্ত নয়, সেরে ওঠতে অনেক সময় লাগবে।
মামলার বাদী তাহেরা আক্তার বলেন, আমার শারীরিক প্রতিবন্ধী ছেলেকে প্রাণে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে সন্ত্রাসী হামলা করা হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে আমার স্বামীর পরিবারের বেশ কিছু জমি জোর পূর্বক তারা ভোগ-দখল করে আসছে। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় আমার স্বামীর পরিবার কোনো ধরনের প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছেন না। প্রতিবাদ করলে আমাদেরকে মামলা-হামলার হুমকি দিয়ে নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতন করা হচ্ছে। আমার স্বামীসহ তার তিন ভাই প্রবাসে থাকেন। বদরুজ্জামান ও তার লোকজনের অব্যাহত হুমকিতে আমার স্বামী ও তার ভাইয়েরা দেশে আসার সাহস পাচ্ছেন না।
বর্তমানে আমার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। মামলা তুলে নেয়ার জন্য তারা আমাকে চাপ দিচ্ছে। মামলা তুলে না নিলে আমাদেরকে ঘর থেকে বের হতে দেয়া হবে না বলে হুমকি দেয়া হচ্ছে। আমি এর ন্যায় বিচার চাই। এবিষয়ে বালাগঞ্জ থানার ওসি রমাপ্রসাদ চক্রবর্তী হামলা ও মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত করে মামলা নেয়া হয়েছে, অভিযুক্তদের আইনের আওতায় আনতে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

বালাগঞ্জে শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরের ওপর অতর্কিত হামলা

আপডেট সময় ০১:৪৬:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ এপ্রিল ২০২২
 ওসমানীনগর প্রতিনিধি ::
বালাগঞ্জ উপজেলার বোয়ালজুড় ইউনিয়নের বাণীগাঁও গ্রামে প্রবাসী শেখ আল মাসুদ সেলিমের ছেলে শারীরিক প্রতিবন্ধী শেখ আল মাহমুদ সামির (১৬) উপর অতর্কিত হামলা করা হয়েছে। আহত সামিকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় সামির মা তাহেরা আক্তার বাদী হয়ে তিনজনকে অভিযুক্ত করে ৯ এপ্রিল রাতে বালাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন, মামলা নং-৮। মামলায় অভিযুক্তরা হলেন-বাণীগাঁও গ্রামের শেখ বদরুজ্জামানের ছেলে শেখ রাহিম আহমদ, শেখ বাতির মিয়ার ছেলে শেখ বদরুজ্জামান, শেখ শফিকুর রহমান দুদু।
এছাড়া, এজাহারে অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে- বদরুজ্জামানের পরিবার ও সামির পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ভূমি সংক্রান্ত এবং সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। পূর্ব বিরোধের জের ধরে বদরুজ্জামান ও তার লোকজন সামির পরিবারের ক্ষতি করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন।
মামলার এজাহারে বলা হয়েছে-৮ এপ্রিল সামি গ্রামের মসজিদে জুমআর নামাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে জনৈক কওছর মিয়ার দোকানের দক্ষিণ পাশের রাস্তায় যায়। এসময় অভিযুক্তরা সামির পথরোধ করেন। তখন অভিযুক্ত বদরুজ্জামান সামিকে মারপিট করার জন্য তার লোকজনকে নির্দেশ দেন। অভিযুক্ত রাহিম আহমদ স্টিলের জেআই ফাইভ দিয়ে সামির মাথায় আঘাত করলে মারত্মক জখম হয়। মাথায় আঘাত পেয়ে সামি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে অভিযুক্তরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকেন। সামির চিৎকার শুনে তার মা তাহেরা আক্তার ও স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে প্রথমে বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে সামির স্বজনরা জানিয়েছেন-তার শরীরে মারত্মকভাবে জখম করা হয়েছে। সে এখনও শঙ্কামুক্ত নয়, সেরে ওঠতে অনেক সময় লাগবে।
মামলার বাদী তাহেরা আক্তার বলেন, আমার শারীরিক প্রতিবন্ধী ছেলেকে প্রাণে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে সন্ত্রাসী হামলা করা হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে আমার স্বামীর পরিবারের বেশ কিছু জমি জোর পূর্বক তারা ভোগ-দখল করে আসছে। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় আমার স্বামীর পরিবার কোনো ধরনের প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছেন না। প্রতিবাদ করলে আমাদেরকে মামলা-হামলার হুমকি দিয়ে নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতন করা হচ্ছে। আমার স্বামীসহ তার তিন ভাই প্রবাসে থাকেন। বদরুজ্জামান ও তার লোকজনের অব্যাহত হুমকিতে আমার স্বামী ও তার ভাইয়েরা দেশে আসার সাহস পাচ্ছেন না।
বর্তমানে আমার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। মামলা তুলে নেয়ার জন্য তারা আমাকে চাপ দিচ্ছে। মামলা তুলে না নিলে আমাদেরকে ঘর থেকে বের হতে দেয়া হবে না বলে হুমকি দেয়া হচ্ছে। আমি এর ন্যায় বিচার চাই। এবিষয়ে বালাগঞ্জ থানার ওসি রমাপ্রসাদ চক্রবর্তী হামলা ও মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত করে মামলা নেয়া হয়েছে, অভিযুক্তদের আইনের আওতায় আনতে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।