বাংলাদেশ ০১:১৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

০৬ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১ ॥ অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার। 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৩:৫৫:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ এপ্রিল ২০২২
  • ১৭০০ বার পড়া হয়েছে

০৬ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১ ॥ অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার। 

 

 

বিশেষ প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

রাজধানীর খিলক্ষেত হতে র‌্যাব পরিচয়ে অপহরণকারী চক্রের ০৬ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১ ॥ অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার।

 

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময় বিভিন্ন ধরণের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে এ পর্যন্ত জঙ্গি, অপহরণকারী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, ছিনতাইকারী, চাঁদাবাজ, প্রতারকচক্র, মাদক ব্যবসায়ী, এজাহারনামীয় আসামী, চোরাকারবারী, ডাকাতদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

 

সাম্প্রতিক সময়ে অপরাধী চক্রের সক্রিয় সদস্যরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যের ন্যায় বেশভূষা ধারণ করে ও বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অপহরণ, ছিনতাই, ডাকাতি, হত্যা/খুনসহ নানাবিধ অপরাধ সংগঠিত করছে। এই অপরাধী চক্রের সক্রিয় সদস্যরা নিজেদেরকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হিসেবে উপস্থাপন করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ইউনিফর্ম ও ওয়াকিটকি ব্যবহার এবং অস্ত্র বহন করে থাকে। নিজেদেরকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হিসেবে আরো বিশ্বাসযোগ্য করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর স্টিকার তৈরী করে মাইক্রোবাস/বিভিন্ন মানানসই গাড়ীতে ব্যবহার করছে। এ ধরনের অপরাধী দলের দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এমন বেশ কয়েকজন ভিকটিমের নিকট হতে অভিযোগ পাওয়া যায়।

 

গত ০৪ এপ্রিল ২০২২ ইং তারিখে ভিকটিম গার্মেন্টসকর্মী আব্দুছ ছালামকে ৫/৬ জন ব্যক্তি নিজেদের র‌্যাব পরিচয় দিয়ে ভিকটিমের মিরপুরের বাসা থেকে মারধর করতঃ দ্রুত একটি প্রাইভেটকারে তুলে বাড্ডা এলাকার দিকে নিয়ে আসে। আসামীরা ভিকটিমকে গাড়িতে তোলার পরপরই ভিকটিমের নিকট ৫০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। ভিকটিম টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে ভিকটিমকে ০১ নং আসামী হারুনের বাসায় আটকিয়ে রেখে আসামী হারুনসহ অন্যান্যরা এলোপাতাড়িভাবে মারধর শুরু করে। ভিকটিম পরে কোন উপায় না দেখে টাকা দিতে রাজি হয়। পরবর্তীতে আসামীরা ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন থেকে ভিকটিমের মেয়েকে মুক্তিপণের টাকা নিয়ে নিকুঞ্জ এলাকায় আসতে বলে এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগীতা নিলে ভিকটিমকে জানে মেরে ফেলবে মর্মে হুমকি প্রদান করে। ভিকটিমের মেয়ে এতো টাকা নাই বা দিতে পারবে না বললে ০৫ লক্ষ টাকা দিলে ভিকটিমকে ছেড়ে দিবে মর্মে আসামীরা আশ্বস্ত করে। এসংক্রান্তে ভিকটিমের মেয়ে র‌্যাব-১ এর নিকট অভিযোগ করলে র‌্যাব-১ অপহরণকারী চক্রের সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে দ্রুততার সাথে ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

 

এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ০৭ এপ্রিল ২০২২ তারিখ ০২৩০ ঘটিকায় র‌্যাব-১, উত্তরা, ঢাকার একটি আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ডিএমপি, ঢাকার খিলক্ষেত থানাধীন নিকুঞ্জ-২ এলাকাস্থ রোড নং-১/এ, বাড়ি নং-২১, বিনু জেনারেল স্টোরের সামনে পাকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব পরিচয়ে অপহরণকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য ১) মোঃ হারুন-অর-রশিদ (৪০), পিতা- আব্দুল লতিফ মল্লিক, জেলা- পাবনা, ২) মোঃ সোহেল হাওলাদার (২৮), পিতা-মোঃ হাসান হাওলাদার, জেলা- বাগেরহাট, ৩) মোঃ রবিউল সরদার (৩২), পিতা- মোঃ নাসির উদ্দিন সরদার, জেলা- খুলনা, ৪) মোঃ জামাল শেখ (১৯), পিতা- মোঃ আপেল উদ্দিন শেখ, জেলা- মাদারীপুর, ৫) আব্দুল সাত্তার (১৯), পিতা- আব্দুল কাশেম, জেলা- চাঁদপুর এবং ৬) মোঃ আশিক (২০), পিতা- মোঃ খোরশেদ আলম, জেলা- জামালপুর’দেরকে গ্রেফতার করে এবং অপহৃত ভিকটিমকে উদ্ধার করে। এ সময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে ০৪ টি মোবাইল ফোন ও ০১ টি প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়।

 

গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা একটি অপহরণকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকার করে। তারা পরস্পর যোগসাজশে নিজেদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ডিবি/র‌্যাব পরিচয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ রাজধানী ঢাকাসহ আশে পাশের এলাকায় পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বিভিন্ন স্থানে ওঁৎ পেতে থাকে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের উপর হামলা করে ও অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়, শারীরিক নির্যাতন করে, বিভিন্নভাবে ভয় ভীতি প্রদর্শন করে অপহরণ করে বিপুল পরিমাণ মুক্তিপণ আদায় করে আসছে মর্মে জানায়।

 

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন। স্বাক্ষরিত/- নোমান আহমদ সহকারী পুলিশ সুপার সহকারী পরিচালক (অপস্ অফিসার) অধিনায়কের পক্ষে মোবাঃ ০১৭৭৭৭১০১০৩।

 

 

 

 

জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

০৬ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১ ॥ অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার। 

আপডেট সময় ০৩:৫৫:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ এপ্রিল ২০২২

 

 

বিশেষ প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

রাজধানীর খিলক্ষেত হতে র‌্যাব পরিচয়ে অপহরণকারী চক্রের ০৬ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১ ॥ অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার।

 

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময় বিভিন্ন ধরণের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে এ পর্যন্ত জঙ্গি, অপহরণকারী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, ছিনতাইকারী, চাঁদাবাজ, প্রতারকচক্র, মাদক ব্যবসায়ী, এজাহারনামীয় আসামী, চোরাকারবারী, ডাকাতদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

 

সাম্প্রতিক সময়ে অপরাধী চক্রের সক্রিয় সদস্যরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যের ন্যায় বেশভূষা ধারণ করে ও বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অপহরণ, ছিনতাই, ডাকাতি, হত্যা/খুনসহ নানাবিধ অপরাধ সংগঠিত করছে। এই অপরাধী চক্রের সক্রিয় সদস্যরা নিজেদেরকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হিসেবে উপস্থাপন করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ইউনিফর্ম ও ওয়াকিটকি ব্যবহার এবং অস্ত্র বহন করে থাকে। নিজেদেরকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হিসেবে আরো বিশ্বাসযোগ্য করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর স্টিকার তৈরী করে মাইক্রোবাস/বিভিন্ন মানানসই গাড়ীতে ব্যবহার করছে। এ ধরনের অপরাধী দলের দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এমন বেশ কয়েকজন ভিকটিমের নিকট হতে অভিযোগ পাওয়া যায়।

 

গত ০৪ এপ্রিল ২০২২ ইং তারিখে ভিকটিম গার্মেন্টসকর্মী আব্দুছ ছালামকে ৫/৬ জন ব্যক্তি নিজেদের র‌্যাব পরিচয় দিয়ে ভিকটিমের মিরপুরের বাসা থেকে মারধর করতঃ দ্রুত একটি প্রাইভেটকারে তুলে বাড্ডা এলাকার দিকে নিয়ে আসে। আসামীরা ভিকটিমকে গাড়িতে তোলার পরপরই ভিকটিমের নিকট ৫০ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। ভিকটিম টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে ভিকটিমকে ০১ নং আসামী হারুনের বাসায় আটকিয়ে রেখে আসামী হারুনসহ অন্যান্যরা এলোপাতাড়িভাবে মারধর শুরু করে। ভিকটিম পরে কোন উপায় না দেখে টাকা দিতে রাজি হয়। পরবর্তীতে আসামীরা ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন থেকে ভিকটিমের মেয়েকে মুক্তিপণের টাকা নিয়ে নিকুঞ্জ এলাকায় আসতে বলে এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগীতা নিলে ভিকটিমকে জানে মেরে ফেলবে মর্মে হুমকি প্রদান করে। ভিকটিমের মেয়ে এতো টাকা নাই বা দিতে পারবে না বললে ০৫ লক্ষ টাকা দিলে ভিকটিমকে ছেড়ে দিবে মর্মে আসামীরা আশ্বস্ত করে। এসংক্রান্তে ভিকটিমের মেয়ে র‌্যাব-১ এর নিকট অভিযোগ করলে র‌্যাব-১ অপহরণকারী চক্রের সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে দ্রুততার সাথে ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

 

এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ০৭ এপ্রিল ২০২২ তারিখ ০২৩০ ঘটিকায় র‌্যাব-১, উত্তরা, ঢাকার একটি আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ডিএমপি, ঢাকার খিলক্ষেত থানাধীন নিকুঞ্জ-২ এলাকাস্থ রোড নং-১/এ, বাড়ি নং-২১, বিনু জেনারেল স্টোরের সামনে পাকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব পরিচয়ে অপহরণকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য ১) মোঃ হারুন-অর-রশিদ (৪০), পিতা- আব্দুল লতিফ মল্লিক, জেলা- পাবনা, ২) মোঃ সোহেল হাওলাদার (২৮), পিতা-মোঃ হাসান হাওলাদার, জেলা- বাগেরহাট, ৩) মোঃ রবিউল সরদার (৩২), পিতা- মোঃ নাসির উদ্দিন সরদার, জেলা- খুলনা, ৪) মোঃ জামাল শেখ (১৯), পিতা- মোঃ আপেল উদ্দিন শেখ, জেলা- মাদারীপুর, ৫) আব্দুল সাত্তার (১৯), পিতা- আব্দুল কাশেম, জেলা- চাঁদপুর এবং ৬) মোঃ আশিক (২০), পিতা- মোঃ খোরশেদ আলম, জেলা- জামালপুর’দেরকে গ্রেফতার করে এবং অপহৃত ভিকটিমকে উদ্ধার করে। এ সময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে ০৪ টি মোবাইল ফোন ও ০১ টি প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়।

 

গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা একটি অপহরণকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকার করে। তারা পরস্পর যোগসাজশে নিজেদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ডিবি/র‌্যাব পরিচয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ রাজধানী ঢাকাসহ আশে পাশের এলাকায় পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বিভিন্ন স্থানে ওঁৎ পেতে থাকে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের উপর হামলা করে ও অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়, শারীরিক নির্যাতন করে, বিভিন্নভাবে ভয় ভীতি প্রদর্শন করে অপহরণ করে বিপুল পরিমাণ মুক্তিপণ আদায় করে আসছে মর্মে জানায়।

 

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন। স্বাক্ষরিত/- নোমান আহমদ সহকারী পুলিশ সুপার সহকারী পরিচালক (অপস্ অফিসার) অধিনায়কের পক্ষে মোবাঃ ০১৭৭৭৭১০১০৩।