বাংলাদেশ ১২:০৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন সন্ধ্যার মধ্যে উপাচার্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসভবন ছাড়ার আল্টিমেটাম কুবি শিক্ষার্থীদের রাবিতে জড়ো হওয়া আন্দোলনকারীদের পুলিশ-বিজিবির ধাওয়া মেহেন্দিগঞ্জে অজ্ঞাতনামা নারীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার। মুন্সীগঞ্জে গায়েবানা জানাযা থেকে ঈমাম ও বিএনপি নেতাকে ধরে নিয়ে গেলো পুলিশ কোটা আন্দোলনের পক্ষে সংহতি জানিয়ে ফেনী ইউনিভার্সিটির বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের বিবৃতি চলমান পরিস্থিতিতে রাবি ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি আপাতত স্থগিত: উপাচার্য বিদেশের পাঠানো টাকা চাইতে গিয়ে বিপাকে প্রবাসী স্বামী রাজশাহীতে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র আশুরা পালিত চট্রগ্রামের কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত ওয়াসিমের জানাজায় মানুষের ঢল পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌরসভার রাস্তায় সমবায় সমিতি ভবনের ট্যাংকির ময়লা: জনদুর্ভোগ মুন্সীগঞ্জে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা, আহত ৫ হরিপুরে, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর পক্ষ থেকে কর্মী মিটিং ও গ্রাহক সমাবেশ অনুষ্ঠিত। গৌরীপুরে উদীচী কার্য়ালয়ে হামলা ও ভাংচুর স্ত্রীর যৌতুক মামলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারাগারে

পেকুয়ায় শতবর্শী বৃদ্ধ ও গৃহবধূকে পিটিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা 

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:১৯:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল ২০২২
  • ১৭৭৭ বার পড়া হয়েছে

পেকুয়ায় শতবর্শী বৃদ্ধ ও গৃহবধূকে পিটিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা 

পেকুয়া প্রতিনিধি :-
কক্সবাজারের পেকুয়ার বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারইয়্যাকাটা এলাকায় পূর্বে শত্রুতার জেরে শতবর্ষী বৃদ্ধ শব্বির আহম্মদ বৃদ্ধকে ও তার পুত্রবধু মাইমুনা বেগমকে (৩০)  পিটিয়ে আহত করেছে দূর্বৃত্তরা।
মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলা বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারইয়্যাকাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতেরা হল একই এলাকার মৃত এজাহার মিয়ার ছেলে শব্বির আহমদ ও তার ছেলে সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী মাইমুনা বেগম।
হামলাকারীরা উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারইয়্যাকাটা এলাকার মৃত উকিল আহমদের ছেলে মোস্তাক প্রকাশ মনিয়া,তার ছেলে ইসমাঈল ও ওসমান,তার ভাই বদিউল আলম,স্ত্রী লালমতি, বদিউল আলমের স্ত্রী শাকেরা বেগম ও ছেলে জোবাইর, জোবাইরের স্ত্রী আমেনা বেগম ও ওসমানের স্ত্রী সেলিনা আকতারসহ আরো ৩/৪ জন সংঘবদ্ধ হয়ে এ হামলা চালায়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে জায়গায়-জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আজ দুপুর ১২ টার দিকে মাইমুনা বেগমের বাড়িতে পুলিশ আসে। পুলিশ চলে যাওয়ার পরপর মোস্তাক ও তার বদিউল আলমসহ ১০/১২ জন লোক সংঘবদ্ধ হয়ে এসে ঘরে ঢুকে মাইমুনা ও তার শশুর শতবর্ষী শব্বির আহমদকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে। পরে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। তারা বর্তমান চিকিৎসাধীন আছে।
আহত মাইমুনা বেগম জানান, জোবাইর, ইসমাইল এবং ওসমানের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে জায়গায় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। তা নিয়ে একাধিকবার শালিসী বৈঠক হয়। বৈঠকে শুরাহা না হওয়ায় আমরা থানায় অভিযোগ দিই। অভিযোগের ভিত্তিতে  আজ দুপুরে পুলিশ সরেজমিন এসে তদন্ত করে চলে যায়। পরে তারা পুলিশ আসায় ক্ষীপ্ত হয়ে আমাকে গলাটিপে ধরে শ্লীলতাহানি  করে এবং আমার শশুরকে মারধর করে আহত করে। এ বিষয়ে পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সীগঞ্জ সদর ইউএনওর চরডুমুরিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন

পেকুয়ায় শতবর্শী বৃদ্ধ ও গৃহবধূকে পিটিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা 

আপডেট সময় ০৯:১৯:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল ২০২২
পেকুয়া প্রতিনিধি :-
কক্সবাজারের পেকুয়ার বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারইয়্যাকাটা এলাকায় পূর্বে শত্রুতার জেরে শতবর্ষী বৃদ্ধ শব্বির আহম্মদ বৃদ্ধকে ও তার পুত্রবধু মাইমুনা বেগমকে (৩০)  পিটিয়ে আহত করেছে দূর্বৃত্তরা।
মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলা বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারইয়্যাকাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতেরা হল একই এলাকার মৃত এজাহার মিয়ার ছেলে শব্বির আহমদ ও তার ছেলে সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী মাইমুনা বেগম।
হামলাকারীরা উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের বারইয়্যাকাটা এলাকার মৃত উকিল আহমদের ছেলে মোস্তাক প্রকাশ মনিয়া,তার ছেলে ইসমাঈল ও ওসমান,তার ভাই বদিউল আলম,স্ত্রী লালমতি, বদিউল আলমের স্ত্রী শাকেরা বেগম ও ছেলে জোবাইর, জোবাইরের স্ত্রী আমেনা বেগম ও ওসমানের স্ত্রী সেলিনা আকতারসহ আরো ৩/৪ জন সংঘবদ্ধ হয়ে এ হামলা চালায়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে জায়গায়-জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আজ দুপুর ১২ টার দিকে মাইমুনা বেগমের বাড়িতে পুলিশ আসে। পুলিশ চলে যাওয়ার পরপর মোস্তাক ও তার বদিউল আলমসহ ১০/১২ জন লোক সংঘবদ্ধ হয়ে এসে ঘরে ঢুকে মাইমুনা ও তার শশুর শতবর্ষী শব্বির আহমদকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে। পরে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। তারা বর্তমান চিকিৎসাধীন আছে।
আহত মাইমুনা বেগম জানান, জোবাইর, ইসমাইল এবং ওসমানের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে জায়গায় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। তা নিয়ে একাধিকবার শালিসী বৈঠক হয়। বৈঠকে শুরাহা না হওয়ায় আমরা থানায় অভিযোগ দিই। অভিযোগের ভিত্তিতে  আজ দুপুরে পুলিশ সরেজমিন এসে তদন্ত করে চলে যায়। পরে তারা পুলিশ আসায় ক্ষীপ্ত হয়ে আমাকে গলাটিপে ধরে শ্লীলতাহানি  করে এবং আমার শশুরকে মারধর করে আহত করে। এ বিষয়ে পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।