বাংলাদেশ ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :

সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,, সাংবাদিক নিয়োগ চলছে,,০১৯৯৯-৯৫৩৯৭০, ০১৭১২-৪৪৬৩০৬,০১৭১১-০০৬২১৪ সম্পাদক

     
ব্রেকিং নিউজ ::
মিরপুরে মোটরসাইকেলের তেলের ট্যাংকের ভেতর ফেনসিডিল সহ আটক-০১ শাশুড়িকে বাঁচাতে গিয়ে অন্তঃসত্ত্বা পুত্রবধূ ভেসে গেলেন হাওরের জলে। শিবপুরে স্মার্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্মচারী ফেডারেশনের সম্মেলন অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ায় দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১, আহত-৩ বোয়ালখালীতে পুকুরে ডুবে যুবকের মৃত্যু এম.আই. টেলিভিশন’ এর ৩য় বর্ষপূর্তি উদযাপন একদফা দাবি নিয়ে আবারো রেললাইন অবরোধে রাবি শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করলো কুবির অর্থনীতি বিভাগ বিসিএস প্রশ্ন ফাঁস করে কোটি টাকার জমি কিনেছেন শাহাদাত আপন মামা কর্তৃক কিশোরী ভাগনীকে ধর্ষণ মামলার পলাতক প্রধান আসামী জগন্নাথ বিশ্বাসকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ধনবাড়ীতে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ৩ মাদক কারবারি আটক বিপুল পরিমাণে গাঁজাভর্তি ট্রাকসহ ০২শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। বাবুগঞ্জে রাস্তার ভোগান্তিতে পথ চলা বন্ধ শিক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগে। রাজশাহীর বাগমারায় অনলাইন জুয়ার কালো থাবায় নিঃস্ব হচ্ছে তরুণ-যুব সমাজ ফেনী ইউনিভার্সিটিতে গবেষণা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত 

নির্ধারিত তারিখের আগেই বাউসা ইউনিয়নে মিলছে ওয়ারিশন সনদ, চেয়ারম্যান না থাকলেও দেওয়া হয়েছে স্বাক্ষর

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:০৫:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪
  • ১৫৮৬ বার পড়া হয়েছে

 

 

 

 

স্টাফ রিপোর্টার:
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাউসা ইউনিয়ন পরিষদে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ পরিষদে অনুপস্থিত, এরপরেও ওয়ারিশান সনদে পরিলক্ষিত হচ্ছে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর। এছাড়াও হাতে লেখা ওই সনদে ১০/০৭/২০২৪ ইং তারিখ উল্লেখ করে মঙ্গলবার ৯ জুলাই তা বিতরণ করা হয়েছে।

জানা যায়, তেঁথুলিয়া শিকদার পাড়া গ্রামের মৃত আমিরন নেসা বিবি, পিতা: মৃত ইয়াজ উদ্দিন, মাতা: মৃত.ছমিরন বিবি। তার তিন কণ্যা আম্বিয়া বেগম, রিজিয়া বেগম ও রাজিয়া বেগম কে ওয়ারিশ করে এ সনদ দেওয়া হয়। উক্ত সনদে অনুমোদনকারীর সীলমোহর ও স্বাক্ষর ব্যাবহার করা হয়েছে চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ এর।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুলের মৃত্যুর পরের দিন ২৭ জুন থেকে বাউসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ তুফান অনুপস্থিত। তিনি দীর্ঘ ১৩ দিন যাবৎ পরিষদে অনুপস্থিত থাকায় ভোগান্তিতে পড়ছে সেবা নিতে আসা সাধারণ জনগন। বিশেষ করে বিভিন্ন সনদে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর না পাওয়ায় ব্যাপক ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে হঠাৎ করে চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে হাতে লেখা ওয়ারিশন সনদে তার স্বাক্ষর জন মনে অনেক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

এ বিষয়ে আম্বিয়া বেগমের ছেলে নাসির উদ্দিন জানান, বাউসা ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুর রহমান হাতে লিখে ওয়ারিশান সনদ দিয়েছে। তাতে অগ্রীম ৯ তারিখের স্থলে ১০ তারিখ ব্যাবহার করা হয়েছে।

৯ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুর রহমান জানান, চেয়ারম্যান না থাকায় জনগন অসুবিধায় পড়েছে। আগে থেকেই চেয়ারম্যান সাক্ষরিত সনদের কপি আমার কাছে ছিলো। তাই আমার ওয়ার্ডের জনগনের সুবিধার্থে আমি এ সনদ প্রদান করেছি।

পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মহাসিন আলী বলেন, চেয়ারম্যান না থাকায় বিশেষ করে জনগন স্বাক্ষর জনিত সমস্যায় পড়েছে। তবে আমি শুধুমাত্র প্রত্যয়ন পত্রে সাক্ষর করছি।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে বাউসা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব রফি আহমেদ বলেন, এই ওয়ারিশান সনদ প্রদান সম্পর্কে আমার কিছুই জানা নেই।

চেয়ারম্যানের অনুপস্থিত থাকা সহ সকল বিষয়ে জানতে মুঠোফোনে একাধিকবার নূর মোহাম্মদ তুফান কে কল দিলে তিনি রিসিভ করেননি।

উল্লেখ্য, চেয়ারম্যান থাকায় একদিকে ভোগান্তিতে পড়ছে সাধারণ জনগন, অন্যদিকে পরিষদের আঙ্গিনা অরক্ষিত অবস্থায় ব্যাবহার হচ্ছে কৃষি কাজে।

 

 

 

আপলোডকারীর তথ্য

Banglar Alo News

hello
জনপ্রিয় সংবাদ

মিরপুরে মোটরসাইকেলের তেলের ট্যাংকের ভেতর ফেনসিডিল সহ আটক-০১

নির্ধারিত তারিখের আগেই বাউসা ইউনিয়নে মিলছে ওয়ারিশন সনদ, চেয়ারম্যান না থাকলেও দেওয়া হয়েছে স্বাক্ষর

আপডেট সময় ১০:০৫:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪

 

 

 

 

স্টাফ রিপোর্টার:
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাউসা ইউনিয়ন পরিষদে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ পরিষদে অনুপস্থিত, এরপরেও ওয়ারিশান সনদে পরিলক্ষিত হচ্ছে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর। এছাড়াও হাতে লেখা ওই সনদে ১০/০৭/২০২৪ ইং তারিখ উল্লেখ করে মঙ্গলবার ৯ জুলাই তা বিতরণ করা হয়েছে।

জানা যায়, তেঁথুলিয়া শিকদার পাড়া গ্রামের মৃত আমিরন নেসা বিবি, পিতা: মৃত ইয়াজ উদ্দিন, মাতা: মৃত.ছমিরন বিবি। তার তিন কণ্যা আম্বিয়া বেগম, রিজিয়া বেগম ও রাজিয়া বেগম কে ওয়ারিশ করে এ সনদ দেওয়া হয়। উক্ত সনদে অনুমোদনকারীর সীলমোহর ও স্বাক্ষর ব্যাবহার করা হয়েছে চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ এর।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুলের মৃত্যুর পরের দিন ২৭ জুন থেকে বাউসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ তুফান অনুপস্থিত। তিনি দীর্ঘ ১৩ দিন যাবৎ পরিষদে অনুপস্থিত থাকায় ভোগান্তিতে পড়ছে সেবা নিতে আসা সাধারণ জনগন। বিশেষ করে বিভিন্ন সনদে চেয়ারম্যানের স্বাক্ষর না পাওয়ায় ব্যাপক ভোগান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে হঠাৎ করে চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে হাতে লেখা ওয়ারিশন সনদে তার স্বাক্ষর জন মনে অনেক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

এ বিষয়ে আম্বিয়া বেগমের ছেলে নাসির উদ্দিন জানান, বাউসা ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুর রহমান হাতে লিখে ওয়ারিশান সনদ দিয়েছে। তাতে অগ্রীম ৯ তারিখের স্থলে ১০ তারিখ ব্যাবহার করা হয়েছে।

৯ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুর রহমান জানান, চেয়ারম্যান না থাকায় জনগন অসুবিধায় পড়েছে। আগে থেকেই চেয়ারম্যান সাক্ষরিত সনদের কপি আমার কাছে ছিলো। তাই আমার ওয়ার্ডের জনগনের সুবিধার্থে আমি এ সনদ প্রদান করেছি।

পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মহাসিন আলী বলেন, চেয়ারম্যান না থাকায় বিশেষ করে জনগন স্বাক্ষর জনিত সমস্যায় পড়েছে। তবে আমি শুধুমাত্র প্রত্যয়ন পত্রে সাক্ষর করছি।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে বাউসা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব রফি আহমেদ বলেন, এই ওয়ারিশান সনদ প্রদান সম্পর্কে আমার কিছুই জানা নেই।

চেয়ারম্যানের অনুপস্থিত থাকা সহ সকল বিষয়ে জানতে মুঠোফোনে একাধিকবার নূর মোহাম্মদ তুফান কে কল দিলে তিনি রিসিভ করেননি।

উল্লেখ্য, চেয়ারম্যান থাকায় একদিকে ভোগান্তিতে পড়ছে সাধারণ জনগন, অন্যদিকে পরিষদের আঙ্গিনা অরক্ষিত অবস্থায় ব্যাবহার হচ্ছে কৃষি কাজে।